দিল্লির পরিবহন ব্যবস্থা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডিটিসি নতুন টাটা এসি বিহীন বাস
ডিটিসি টাটা এসি বাস

দিল্লি তার পরিবহন অবকাঠামো উপর উল্লেখযোগ্য ভাবে নির্ভর। দিল্লি মেট্রোর প্রবর্তনের সাথে নগরটি একটি অত্যন্ত কার্যকর পাবলিক ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম বিকাশ করেছে,[১] যা ২০০৬ সালের থেকে দ্রুত আধুনিকীকরণ এবং সম্প্রসারণের মধ্য দিয়ে চলছে।[২] ৩০ জুন ২০১৪ সালের মধ্যে শহরটিতে ১৬.৬ মিলিয়ন নিবন্ধিত যানবাহন রয়েছে, যা বিশ্বের সমস্ত শহরগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ হিসাবে বিবেচিত হয়। এই যানবাহনগুলির মধ্যে অধিকাংশই দূষণ নির্গমনের মান (পৌরসংস্থা দ্বারা ঘোষিত সীমাগুলির মধ্যে) অনুসরণ করে না, যখন দিল্লি মহানগর অঞ্চলে (এনসিআর দিল্লি) ১১.২ মিলিয়ন যানবাহন আছে। যানজটের কারণে দিল্লি ও এনসিআর এলাকার প্রতি মাসে প্রায় ৪২ কোটি (৪২০ মিলিয়ন) কর্মদিবস নষ্ট হয়।[৩] অতএব, নগরীর জনসাধারণকে গণপরিবহন ব্যবস্থা ব্যবহার করার জন্য উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি পরিবহন অবকাঠামো নির্মানের প্রচেষ্টা চলছে।[৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৪০-এর দশকে স্বাধীনতার পূর্বে শহরটিতে জনসাধারণের পরিবহন ব্যক্তিগত ভাবে নিয়ন্ত্রিত ছিল। প্রধানত টোঙ্গি এবং 'গোয়ালিয়র ট্রান্সপোর্ট কোম্পানি' ও 'উত্তর ভারত ট্রান্সপোর্ট কোম্পানি' এর বাস পরিষেবার উপর নির্ভর ছিল দিল্লির পরিবহন ব্যবস্থা।[৫] কিন্তু ক্রমবর্ধমান শহরে এটি শীঘ্রই অপর্যাপ্ত প্রমাণিত হয়। এইভাবে ১৯৪৮ সালের মে মাসে দিল্লী পরিবহন কর্পোরেশন (ডিটিসি) দ্বারা বাস ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়। শহর পরিবহণে পরবর্তী বড় উদ্দোগ ছিল ২০০ সালে একটি দ্রুত গণপরিবহন ব্যবস্থা হিসাবে দিল্লি মেট্রো রেল চালু করা।

সংক্ষিপ্ত বিবরণ[সম্পাদনা]

মহানগরীর গণপরিবহন ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে দিল্লি মেট্রো, দিল্লি পরিবহন কর্পোরেশন (ডিটিসি)-এর বাস পরিষেবা, অটোরিকশা, রিক্সা, ই-রিক্সা, গ্রামীণ সেবা এবং ট্যাক্সি। দিল্লি মেট্রোর প্রবর্তনের মাধ্যমে একটি রেল-ভিত্তিক দ্রুত গণপরিবহন ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে দিল্লি মহানগর এলাকায়। পরিবহনের অন্য মাধ্যগুলি হল শহরতলি রেল, অন্ত-রাজ্য বাস পরিষেবা এবং ব্যক্তিগত ট্যাক্সি, যা বিভিন্ন উদ্দেশ্যে ভাড়া নেওয়া যায়। যাইহোক, বাসগুলি আন্তঃ-শহর ভ্রমণের জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় পরিবহণ মাধ্যম হিসাবে পরিচিত, যা মোট প্রচলিত পরিবহন পরিষেবার প্রয়োজনীয়তার প্রায় ৬০% সরবরাহ করে।[৬]

আন্তঃ-শহর পরিবহন[সম্পাদনা]

সড়ক পরিবহন[সম্পাদনা]

রেল পরিবহন[সম্পাদনা]

দিল্লি মেট্রোর প্রবর্তনের সাথে শহরটিতে রেল ভিত্তিক পরিবহন জনপ্রিয়তা অর্জন শুরু করেছে। চক্ররেল, যা চক্রসড়ক ব্যবস্থা সমান্তরালভাবে চালিত হয়, এটি দিল্লির আরেকটি রেল-ভিত্তিক আন্তঃ-শহর পরিবহন সুবিধা।

মেট্রো[সম্পাদনা]

দিল্লি মেট্রো - দ্বিতীয় পর্যায় দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন ছবি গ্যালারি

দিল্লি মেট্রো বিভিন্ন পর্যায়ে নির্মিত হচ্ছে। উচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির কারণে বৃহৎ আকারের অভিবাসনের সাথে জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে দ্রুত গণপরিবহণের ক্রমবর্ধমান চাহিদার ফলে শহরটির বিদ্যমান পরিবহন অবকাঠামোর উপর অত্যধিক চাপ সৃষ্টি হচ্ছে। উন্নয়নশীল বিশ্বের অন্যান্য শহরগুলির মতো এই শহরটিতে তীব্র বায়ু দূষণ পরিবহন ব্যবস্থার সমস্যা ঘটায়। দিল্লিতে পরিবহন চাহিদা মেটানোর জন্য রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার ১৯৯৮ সালে দিল্লি মেট্রো নামে পরিচিত একটি দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থার নির্মাণ শুরু করে। প্রকল্পটি ২৪ ডিসেম্বর ২০০২ সালে বাণিজ্যিক পরিষেবা প্রদান শুরু করে। এটি কর্মক্ষমতা এবং দক্ষতা মান স্থির করা হয়েছে এবং ক্রমাগত বিস্তৃত হচ্ছে। ২০১৭ সালের জানুয়ারী মাসের হিসাব অনুসারে রেল ব্যবস্থাটিতে রঙ দ্বারা চিহ্নিত পাঁচটি নিয়মিত প্ররিষেবা প্রদানকারী লাইন এবং বিমানবন্দর এক্সপ্রেস লাইন চালু রয়েছে, যাদের মোট দৈর্ঘ্য ২১৩ কিলোমিটার (১৩২ মাইল)।[৭] এই ২১৩ কিলোমিটার মেট্রো রেলপথে ১৬০ টি স্টেশন (বিমানবন্দরে এক্সপ্রেস লাইনে ৬ টি) রয়েছে।[৭] মেট্রো রেল ব্যবস্থাটিতে ভূগর্ভস্থ, ভূতল এবং উত্তলিত স্টেশনগুলির মিশ্রণ রয়েছে, যেগুলি ব্রড-গেজ অথবা স্টান্ডার্ড-গেজ লাইন ব্যবহার করে।[৮] তৃতীয় পর্যায় (১১২ কিলোমিটার) এবং চতুর্থ পর্যায় (১০৮.৫ কিমি) যথাক্রমে ২০১৮ এবং ২০২২ সালের মধ্যে সমাপ্ত হবে। এই দুটি পর্যায়ের নির্মান শেষে মেট্রো ব্যবস্থাটি ৪১৩.৮ কিমি দীর্ঘ হবে। সেই সময়ে এটি লন্ডন ভূগর্ভস্থ রেল ব্যবস্থার চেয়ে দীর্ঘতর হবে। মেট্রো ব্যবস্থাটি বর্তমানে (ডিসেম্বর ২০১৮) ৩১৪ কিমি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Delhi Metro among world's top mass transit systems"। ২০১২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "Expansion to Gurgaon, Noida & Faridabad planned"International Railway Journal। ২০০৬-০২-০১। 
  3. "Traffic snarl snaps 42 Cr man-hour from Delhi, NCR workers"। ১০ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. http://timesofindia.indiatimes.com/city/delhi/Delhi-roads-Indias-most-dangerous/articleshow/37107932.cms
  5. "Capital story: Managing a New Delhi"Hindustan Times। ১ সেপ্টেম্বর ২০১১। ৮ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  6. "Delhi Transport" (PDF)। Delhi Govt.। ২০০৬-০৫-২৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৫-১৪ 
  7. "Delhi Metro About Us Introduction"DMRC। সংগ্রহের তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  8. Sadana, Rashmi। "Metrocity Journal: Delhi's Changing Landscape"The Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]