একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের রেকর্ড তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দলগুলো একে-অপরের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লিপ্ত হয়। দলগুলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের পূর্ণাঙ্গ সদস্য, শীর্ষ ছয় সহযোগী সদস্য ও অনুমোদিত সদস্য।[১] একদিনের ক্রিকেটে প্রতিটি দল নির্দিষ্টসংখ্যক ওভার নিয়ে গড়া এক ইনিংস খেলে। সীমিত ওভারের খেলায় অতীতে ৫৫ কিংবা ৬০ ওভার নির্ধারণ করা ছিল যা বর্তমানে ৫০ ওভারের মানদণ্ডে উপনীত হয়েছে।[২] ওডিআই ক্রিকেট হচ্ছে লিস্ট-এ ক্রিকেট। তাই, ওডিআই পরিসংখ্যান ও রেকর্ড লিস্ট-এ রেকর্ডের পাশাপাশি গণনা করা হয়ে থাকে। প্রারম্ভিক খেলা হিসেবে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার জানুয়ারি, ১৯৭১ সালে অনুষ্ঠিত একদিনের খেলাটি স্বীকৃত হয়ে আসছে।[৩] এরপর থেকে ২৫ দলের মধ্যে চার সহস্রাধিক ওডিআই অনুষ্ঠিত হয়েছে। দল সংখ্যা বৃদ্ধি পাবার ফলে খেলার সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর ক্রিকেট বোর্ডগুলো সর্বাধিক রাজস্ব আহরণ করছে।[৪]

দলীয় রেকর্ড[সম্পাদনা]

জয়-পরাজয়ের পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

দল ১ম ওডিআই খেলা জয় পরাজয় টাই ফলাফলবিহীন % জয়
আফ্রিকা একাদশ ১৭ আগস্ট ২০০৫ ২০.০০
এশিয়া একাদশ ১০ জানুয়ারি ২০০৫ ৬৬.৬৬
পূর্ব আফ্রিকা ৭ জুন ১৯৭৫ ০.০০
আইসিসি বিশ্ব একাদশ ১০ জানুয়ারি ২০০৫ ২৫.০০
 আফগানিস্তান ১৯ এপ্রিল ২০০৯ ১২৯ ৬২ ৬৩ ৪৯.৬০
 অস্ট্রেলিয়া ৫ জানুয়ারি ১৯৭১ ৯৫৮ ৫৮১ ৩৩৪ ৩৪ ৬৩.৩৬
 বাংলাদেশ ৩১ মার্চ ১৯৮৬ ৩৮৮ ১৩৬ ২৪৫ ৩৫.৬৯
 বারমুডা ১৭ মে ২০০৬ ৩৫ ২৮ ২০.০০
 কানাডা ৯ জুন ১৯৭৯ ৭৭ ১৭ ৫৮ ২২.৬৬
 ইংল্যান্ড ৫ জানুয়ারি ১৯৭১ ৭৬১ ৩৮৪ ৩৩৯ ২৯ ৫৩.০৭
 হংকং ১৬ জুলাই ২০০৪ ২৬ ১৬ ৩৬.০০
 ভারত ১৩ জুলাই ১৯৭৪ ৯৯৬ ৫১৮ ৪২৮ ৪১ ৫৪.৭১
 আয়ারল্যান্ড ১৩ জুন ২০০৬ ১৭৩ ৭২ ৮৮ ১০ ৪৫.০৯
 কেনিয়া ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ ১৫৪ ৪২ ১০৭ ২৮.১৮
 নামিবিয়া ১০ ফেব্রুয়ারি ২০০৩ ১৬ ১০ ৩৭.৫০
   নেপাল ১ আগস্ট ২০১৮ ১৬ ৫৬.২৫
 নেদারল্যান্ডস ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ ৮৬ ৩৪ ৪৭ ৪২.০৭
 নিউজিল্যান্ড ১১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৩ ৭৭৫ ৩৫৪ ৩৭৪ ৪০ ৪৮.৬৩
 ওমান ২৭ এপ্রিল ২০১৯ ২১ ১৪ ৭০.০০
 পাকিস্তান ১১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৩ ৯৩৬ ৪৯০ ৪১৭ ২০ ৫৩.৯৮
 পাপুয়া নিউগিনি ৮ নভেম্বর ২০১৪ ৩৫ ২৮ ২০.০০
 স্কটল্যান্ড ১৬ মে ১৯৯৯ ১২১ ৪৬ ৬৭ ৪০.৭৮
 দক্ষিণ আফ্রিকা ১০ নভেম্বর ১৯৯১ ৬৩৫ ৩৮৮ ২২১ ২০ ৬৩.৫৭
 শ্রীলঙ্কা ৭ জুন ১৯৭৫ ৮৬৭ ৩৯৩ ৪৩১ ৩৮ ৪৭.৭০
 সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৩ এপ্রিল ১৯৯৪ ৬১ ১৮ ৪৩ ২৯.৫০
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১০ সেপ্টেম্বর ২০০৪ ২১ ১২ ৪২.৮৫
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩ ৮৩১ ৪০৫ ৩৮৬ ১০ ৩০ ৫১.১৮
 জিম্বাবুয়ে ৯ জুন ১৯৮৩ ৫৩৮ ১৩৯ ৩৭৯ ১২ ২৭.১৮

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১[৫]
ফলাফলবিহীন খেলাগুলোকে জয়ের শতাংশে ধরা হয়নি; টাইকে অর্ধেক জয়রূপে গণ্য করা হয়েছে

ফলাফল রেকর্ড[সম্পাদনা]

রানের ব্যবধানে সর্ববৃহৎ জয়[সম্পাদনা]

ব্যবধান জয়ী দল প্রতিপক্ষ স্থান মৌসুম
২৯০ রান  নিউজিল্যান্ড (৪০২/২)  আয়ারল্যান্ড (১১২) ম্যানোফিল্ড পার্ক, অ্যাবরদিন ২০০৮
২৭৫ রান  অস্ট্রেলিয়া (৪১৭/৬)  আফগানিস্তান (১৪২) Western Australia Cricket Association Ground, পার্থ ২০১৫
২৭২ রান  দক্ষিণ আফ্রিকা (৩৯৯/৬)  ইংল্যান্ড (১২৭) উইলমোর পার্ক, বেনোনি ২০১০-১১
২৫৮ রান  দক্ষিণ আফ্রিকা (৩০১/৮)  শ্রীলঙ্কা (৪৩) বোল্যান্ড পার্ক, পার্ল ২০১১-১২
২৫৭ রান  ভারত (৪১৩/৫)  বারমুডা (১৫৬) কুইন্স পার্ক ওভাল, পোর্ট অব স্পেন, ত্রিনিদাদ ২০০৬-০৭
 দক্ষিণ আফ্রিকা (৪০৮/৫)  ওয়েস্ট ইন্ডিজ (১৫১) সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড, সিডনি ২০১৫

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১[৬]

বলের ব্যবধানে সর্ববৃহৎ জয়[সম্পাদনা]

ব্যবধান জয়ী দল প্রতিপ‌ক্ষ স্থান মৌসুম
২৭৭ বল†  ইংল্যান্ড (৪৬/২)  কানাডা (৪৫) ওল্ড ট্রাফোর্ড, ম্যানচেস্টার ১৯৭৯
২৭৪ বল  শ্রীলঙ্কা (৪০/১)  জিম্বাবুয়ে (৩৮) সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ড, কলম্বো ২০০১-০২
২৭২ বল  শ্রীলঙ্কা (৩৭/১)  কানাডা (৩৬) বোল্যান্ড পার্ক, পার্ল ২০০২-০৩
২৬৮ বল    নেপাল (৩৬/২)  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (৩৫) ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট গ্রাউন্ড, কীর্তিপুর ২০২০
২৬৪ বল  নিউজিল্যান্ড (৯৫/০)  বাংলাদেশ (৯৩) কুইন্সটাউন ইভেন্ট সেন্টার, কুইন্সটাউন, নিউজিল্যান্ড ২০০৭-০৮

সর্বশেষ হালনাগাদ: ৫ ডিসেম্বর, ২০২১[৭]
†খেলাটির ইনিংস ৬০ ওভারের ছিল

ধারাবাহিকভাবে সর্বাধিক জয়[সম্পাদনা]

জয় দল প্রথম জয় শেষ জয়
২১  অস্ট্রেলিয়া  ইংল্যান্ড, হোবার্ট, ১১ জানুয়ারি, ২০০৩  ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পোর্ট অব স্পেন, ২৪ মে, ২০০৩
১২  দক্ষিণ আফ্রিকা[a]  ইংল্যান্ড, সেঞ্চুরিয়ন, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০০৫  নিউজিল্যান্ড, পোর্ট এলিজাবেথ, ৩০ অক্টোবর, ২০০৫
 পাকিস্তান  ভারত, জয়পুর, ১৮ নভেম্বর, ২০০৭  বাংলাদেশ, ঢাকা, ৮ জুন, ২০০৮
 দক্ষিণ আফ্রিকা  আয়ারল্যান্ড, বেনোনি, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬  নিউজিল্যান্ড, হ্যামিল্টন, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
১১  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  ইংল্যান্ড, লর্ডস, ৪ জুন, ১৯৮৪  শ্রীলঙ্কা, পার্থ, ২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৫
 অস্ট্রেলিয়া[b]  স্কটল্যান্ড, বাসেতেরে, ১৪ মার্চ, ২০০৭  শ্রীলঙ্কা, ব্রিজটাউন, ২৮ এপ্রিল, ২০০৭

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১[৮]

ধারাবাহিকভাবে সর্বাধিক পরাজয়[সম্পাদনা]

পরাজয় দল প্রথম পরাজয় শেষ পরাজয়
২৩  বাংলাদেশ[a]  ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ঢাকা, ৮ অক্টোবর, ১৯৯৯  দক্ষিণ আফ্রিকা, কিংবার্লি, ৯ অক্টোবর, ২০০২
২২  বাংলাদেশ  পাকিস্তান, মোরাতুয়া, ৩১ মার্চ, ১৯৮৬  ভারত, মোহালি, ১৪ মে, ১৯৯৮
১৮  জিম্বাবুয়ে  ভারত, লিচেস্টার, ১১ জুন, ১৯৮৩  অস্ট্রেলিয়া, হোবার্ট, ১৪ মার্চ, ১৯৯২
 বাংলাদেশ[a]  দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্লুমফন্টেইন, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০০৩  ইংল্যান্ড, ঢাকা, ১২ নভেম্বর, ২০০৩
১৭  জিম্বাবুয়ে  শ্রীলঙ্কা, বুলাওয়ে, ২০ এপ্রিল, ২০০৪  ইংল্যান্ড, বুলাওয়ে, ৫ ডিসেম্বর, ২০০৪

সর্বশেষ হালনাগাদ: ১৩ অক্টোবর, ২০১৪[৯]

দলীয় রানের রেকর্ড[সম্পাদনা]

সর্বোচ্চ ইনিংস[সম্পাদনা]

রান দলসমূহ' স্থান মৌসুম
৪৮১-৬ (৫০ ওভার)  ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়া নটিংহ্যাম ২০১৮
৪৪৪-৩ (৫০ ওভার)  ইংল্যান্ড পাকিস্তান নটিংহ্যাম ২০১৬
৪৪৩-৯ (৫০ ওভার)  শ্রীলঙ্কা নেদারল্যান্ডস আমস্টেলভেন ২০০৬
৪৩৯-২ (৫০ ওভার)  দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ জোহানেসবার্গ ২০১৫
৪৩৮-৯ (৪৯.৫ ওভার)  দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়া জোহানেসবার্গ ২০০৬
৪৩৮/৪ (৫০ ওভার)  দক্ষিণ আফ্রিকা ভারত মুম্বাই ২০১৫
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১[১০]

সর্বোচ্চ মোট রান[সম্পাদনা]

রান দলসমূহ স্থান মৌসুম
৮৭২-১৩ (৯৯.৫ ওভার)†  অস্ট্রেলিয়া (৪৩৪-৪) ব  দক্ষিণ আফ্রিকা (৪৩৮-৯) জোহানেসবার্গ ২০০৫-০৬
৮২৫-১৫ (১০০ ওভার)  ভারত (৪১৪-৭) ব  শ্রীলঙ্কা (৪১১-৮) রাজকোট ২০০৯-১০
৮০৭-১৬ (৯৮.০ ওভার)  ইংল্যান্ড (৪১৮-৬) ব  ওয়েস্ট ইন্ডিজ (৩৮৯) সেন্ট জর্জেস ২০১৮-১৯
৭৬৩-১৪ (৯৬ ওভার)  নিউজিল্যান্ড (৩৯৮-৫) ব  ইংল্যান্ড (৩৬৫-৯) লন্ডন ২০১৫
৭৪৭-১৪ (১০০.০ ওভার)  ভারত (৩৮১-৬) ব  ইংল্যান্ড (৩৬৬-৮) কাটাক ২০১৬-১৭

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১১]
খেলার প্রতিবেদনে অনেকগুলো রেকর্ড দেখা যাবে।

সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়[সম্পাদনা]

রান দল স্থান মৌসুম
৪৩৮-৯ (৪৯.৫ ওভার)†  দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়া জোহানেসবার্গ ২০০৫-০৬
৩৭২-৬ (৪৯.২ ওভার)  দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়া ডারবান ২০১৬-১৭
৩৬৪-৪ (৪৮.৪ ওভার)  ইংল্যান্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ কেনসিংটন ওভাল, বার্বাডোজ ২০১৮-১৯
৩৬২-১ (৪৩.৩ ওভার)  ভারত অস্ট্রেলিয়া জয়পুর ২০১৩-১৪
৩৫৯-৪ (৪৪.৫ ওভার)  ইংল্যান্ড পাকিস্তান ব্রিস্টল ২০১৯
৩৫৯-৬ (৪৭.৫ ওভার)  অস্ট্রেলিয়া ভারত পাঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়াম, চণ্ডিগড় ২০১৮-১৯

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১২]
খেলার প্রতিবেদনে অনেকগুলো রেকর্ড দেখা যাবে।

সর্বনিম্ন ইনিংস[সম্পাদনা]

স্কোর দলসমূহ স্থান মৌসুম
৩৫ (১৮ ওভার)  জিম্বাবুয়ে শ্রীলঙ্কা হারারে ২০০৪
৩৫ (১২ ওভার)  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র   নেপাল নেপাল ২০২০
৩৬ (১৮.৪ ওভার)  কানাডা শ্রীলঙ্কা পার্ল ২০০৩
৩৮ (১৫.৫ ওভার)  জিম্বাবুয়ে শ্রীলঙ্কা কলম্বো ২০০১
৪৩ (১৯.৫ ওভার)  পাকিস্তান ওয়েস্ট ইন্ডিজ কেপ টাউন ১৯৯৩
৪৩ (২০.১ ওভার)  শ্রীলঙ্কা দক্ষিণ আফ্রিকা পার্ল ২০১২
৪৪ (২৪.৫ ওভার)  জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশ চট্টগ্রাম ২০০৯
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৩]

ব্যক্তিগত রেকর্ড[সম্পাদনা]

সর্বাধিক রান সংগ্রহকারী[সম্পাদনা]

রান ইনিংস খেলোয়াড় গড় অর্ধশতক শতক সর্বোচ্চ সময়কাল
১৮,৪২৬ ৪৫২ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ৪৪.৮৩ ৯৬ ৪৯ ২০০* ১৯৮৯-২০১২
১৪,২৩৪ ৩৮০ শ্রীলঙ্কা কুমার সাঙ্গাকারা ৪১.৯৮ ৯৩ ২৫ ১৬৯ ২০০০-২০১৫
১৩,৭০৪ ৩৬৫ অস্ট্রেলিয়া রিকি পন্টিং ৪২.০৩ ৮২ ৩০ ১৬৪ ১৯৯৫-২০১২
১৩,৪৩০ ৪৩৩ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া ৩২.৩৬ ৬৮ ২৮ ১৮৯ ১৯৮৯-২০১১
১২,৬৫০ ৪১৮ শ্রীলঙ্কা মাহেলা জয়াবর্ধনে ৩৩.৩৭ ৭৭ ১৯ ১৪৪ ১৯৯৮-২০১৫
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৪]

ইনিংসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান[সম্পাদনা]

রান খেলোয়াড় খেলা স্থান মৌসুম
২৬৪ ভারত রোহিত শর্মা  ভারত শ্রীলঙ্কা কলকাতা ২০১৪-১৫
২৩৭* নিউজিল্যান্ড মার্টিন গাপটিল  নিউজিল্যান্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়েলিংটন ২০১৪-১৫
২১৯ ভারত বীরেন্দ্র শেওয়াগ  ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইন্দোর ২০১১-১২
২১৫ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিম্বাবুয়ে ক্যানবেরা ২০১৪-১৫
২১০* পাকিস্তান ফখর জামান  পাকিস্তান জিম্বাবুয়ে বুলাওয়ে ২০১৮
২০৯ ভারত রোহিত শর্মা  ভারত অস্ট্রেলিয়া ব্যাঙ্গালোর ২০১৩-১৪
২০৮* ভারত রোহিত শর্মা  ভারত শ্রীলঙ্কা চন্ডিগড় ২০১৭-১৮
২০০* ভারত শচীন টেন্ডুলকার  ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা গোয়ালিয়র ২০০৯-১০
১৯৪* জিম্বাবুয়ে চার্লস কভেন্ট্রি  জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশ বুলাওয়ে ২০০৯
১৯৪ পাকিস্তান সাঈদ আনোয়ার  পাকিস্তান ভারত চেন্নাই ১৯৯৭
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৫]

সর্বাধিক ব্যাটিং গড়[সম্পাদনা]

গড় রান ইনিংস খেলোয়াড় সময়কাল
৫৯.০৭ ১২,১৬৯ ২৪৫ ভারত বিরাট কোহলি ২০০৮-বর্তমান
৫৬.৯২ ৩,৯৮৫ ৮১ পাকিস্তান বাবর আজম ২০১৫-বর্তমান
৫৩.৫৮ ৬,৯১২ ১৯৬ অস্ট্রেলিয়া মাইকেল বেভান ১৯৯৪-২০০৪
৫৩.৫০ ৯,৫৭৭ ২১৮ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স ২০০৫-২০১৮
৫২.৯২ ৩,৫৯৯ ৭৮ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ শাই হোপ ২০১৬-বর্তমান
যোগ্যতা: কমপক্ষে ৫০ ইনিংস

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৬]

সেরা স্ট্রাইক রেট[সম্পাদনা]

স্ট্রাইক রেট রান ইনিংস খেলোয়াড় সময়কাল
১৩০.২২ ১,০৩৪ ৪৭ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ আন্দ্রে রাসেল ২০১১–বর্তমান
১২৫.৪৩ ৩,২৩০ ১০৬ অস্ট্রেলিয়া গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ২০১২–বর্তমান
১১৮.৬৬ ৩,৮৭২ ১২৩ ইংল্যান্ড জশ বাটলার ২০১২-বর্তমান
১১৭.০৬ ৫৯০ ২৫ বারমুডা লিওনেল কান ২০০৬-২০০৯
১১৭.০০ ৮,০৬৪ ৩৬৯ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি ১৯৯৬–২০১৫
যোগ্যতা: কমপক্ষে ৫০০ বল মোকাবেলা

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৭]

সর্বাধিক শতক[সম্পাদনা]

সেঞ্চুরি ইনিংস খেলোয়াড় সময়কাল
৪৯ ৪৫২ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ১৯৮৯–২০১২
৪৩ ২৪৫ ভারত বিরাট কোহলি ২০০৮-বর্তমান
৩০ ৩৬৫ অস্ট্রেলিয়া রিকি পন্টিং ১৯৯৫–২০১২
২৯ ২২০ ভারত রোহিত শর্মা ২০০৭-বর্তমান
২৮ ৪৩৩ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া ১৯৮৯–২০১১
২৭ ১৭৮ দক্ষিণ আফ্রিকা হাসিম আমলা ২০০৮-২০১৯
২৫ ২১৮ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স ২০০৫-২০১৮
২৯৪ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল ১৯৯৯-বর্তমান
৩৮০ শ্রীলঙ্কা কুমার সাঙ্গাকারা ২০০০–২০১৫
২২ ৩০০ ভারত সৌরভ গাঙ্গুলী ১৯৯২-২০০৭
৩০৩ শ্রীলঙ্কা তিলকরত্নে দিলশান ১৯৯৯-২০১৬

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৮]

সর্বাধিক অর্ধ-শতক[সম্পাদনা]

অর্ধ-শতক ইনিংস খেলোয়াড় সময়কাল
৯৬ ৪৫২ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ১৯৮৯–২০১২
৯৩ ৩৮০ শ্রীলঙ্কা কুমার সাঙ্গাকারা ২০০০-২০১৫
৮৬ ৩১৪ দক্ষিণ আফ্রিকা জ্যাক ক্যালিস ১৯৯৬–২০১৪
৮৩ ৩১৮ ভারত রাহুল দ্রাবিড় ১৯৯৬–২০১১
৩৫০ পাকিস্তান ইনজামাম-উল-হক ১৯৯১–২০০৭
৮২ ৩৬৫ অস্ট্রেলিয়া রিকি পন্টিং ১৯৯৫-২০১২

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[১৯]

দ্রুততম অর্ধ-শতক[সম্পাদনা]

বল মোকাবেলা খেলোয়াড় খেলা স্থান মৌসুম
১৬ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স  দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ জোহানেসবার্গ ২০১৫
১৭ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া  শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান সিঙ্গাপুর ১৯৯৬
শ্রীলঙ্কা কুশল পেরেরা  শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান পাল্লেকেলে ২০১৫
নিউজিল্যান্ড মার্টিন গাপটিল  নিউজিল্যান্ড শ্রীলঙ্কা ক্রাইস্টচার্চ ২০১৫
১৮ অস্ট্রেলিয়া সাইমন ও’ডনেল  অস্ট্রেলিয়া শ্রীলঙ্কা শারজাহ ১৯৯০
পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান শ্রীলঙ্কা নাইরোবি ১৯৯৬
পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান নেদারল্যান্ডস কলম্বো ২০০২
অস্ট্রেলিয়া গ্লেন ম্যাক্সওয়েল  অস্ট্রেলিয়া ভারত ব্যাঙ্গালোর ২০১৩
পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান বাংলাদেশ মিরপুর ২০১৪
নিউজিল্যান্ড ব্রেন্ডন ম্যাককালাম  নিউজিল্যান্ড ইংল্যান্ড ওয়েলিংটন ২০১৫
অস্ট্রেলিয়া অ্যারন ফিঞ্চ  অস্ট্রেলিয়া শ্রীলঙ্কা ডাম্বুলা ২০১৬
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২০]

দ্রুততম শতক[সম্পাদনা]

বল মোকাবেলা খেলোয়াড় খেলা স্থান মৌসুম
৩১ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স  দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ জোহানেসবার্গ ২০১৫
৩৬ নিউজিল্যান্ড কোরে অ্যান্ডারসন  নিউজিল্যান্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ কুইন্সটাউন ইভেন্টস সেন্টার ২০১৩-১৪
৩৭ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান শ্রীলঙ্কা নাইরোবি ১৯৯৬
৪৪ দক্ষিণ আফ্রিকা মার্ক বাউচার  দক্ষিণ আফ্রিকা জিম্বাবুয়ে সেনোয়েস পার্ক ২০০৬
৪৫ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্রায়ান লারা  ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশ ঢাকা ২০০৬
পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান ভারত কানপুর ২০০৫
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২১]

সর্বাধিক ছক্কা[সম্পাদনা]

ছয় খেলোয়াড় ইনিংস
৩৫১ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি ৩৬৯
৩৩১ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল ২৯৪
২৭০ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া ৪৩৩
২৪৪ ভারত রোহিত শর্মা ২২০
২২৯ ভারত মহেন্দ্র সিং ধোনি ২৯৭
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২২]

সর্বাধিক চার[সম্পাদনা]

চার খেলোয়াড় ইনিংস
২০১৬ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ৪৫২
১৫০০ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া ৪৩৩
১৩৮৫ শ্রীলঙ্কা কুমার সাঙ্গাকারা ৩৮০
১২৩১ অস্ট্রেলিয়া রিকি পন্টিং ৩৬৫
১১৬২ অস্ট্রেলিয়া অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ২৭৯
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৩]

ইনিংসে সর্বাধিক ছক্কা[সম্পাদনা]

ছয় রান খেলোয়াড় প্রতিপক্ষ স্থান
১৭ ১৪৮ ইংল্যান্ড ইয়ন মর্গ্যান  আফগানিস্তান ম্যানচেস্টার
১৬ ২০৯ ভারত রোহিত শর্মা  অস্ট্রেলিয়া ব্যাঙ্গালোর
১৪৯ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স  ওয়েস্ট ইন্ডিজ জোহানেসবার্গ
২১৫ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল  জিম্বাবুয়ে ক্যানবেরা
১৭৩* মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাস্করন মালহোত্রা  পাপুয়া নিউগিনি আল আমেরাত
১৫ ১৮৫* অস্ট্রেলিয়া শেন ওয়াটসন  বাংলাদেশ ঢাকা
১৪ ১৩১* নিউজিল্যান্ড কোরে অ্যান্ডারসন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ কুইন্সটাউন
১৬২ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল  ইংল্যান্ড সেন্ট জর্জেস
১৩ ১৪০ শ্রীলঙ্কা থিসারা পেরেরা  নিউজিল্যান্ড মাউন্ট মঙ্গানুই
১২ ১৫৭* ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ জেভিয়ের মার্শাল  কানাডা কিং সিটি
২০৮* ভারত রোহিত শর্মা  শ্রীলঙ্কা মোহালি
১৩৫ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিস গেইল  ইংল্যান্ড ব্রিজটাউন
১৫০ ইংল্যান্ড জস বাটলার  ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেন্ট জর্জেস
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৪]

ইনিংসে সর্বাধিক চার[সম্পাদনা]

চার রান খেলোয়াড় প্রতিপক্ষ স্থান
৩৩ ২৬৪ ভারত রোহিত শর্মা  শ্রীলঙ্কা কলকাতা
২৫ ২০০* ভারত শচীন টেন্ডুলকার  দক্ষিণ আফ্রিকা গোয়ালিয়র
২১৯ ভারত বীরেন্দ্র শেওয়াগ  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইন্দোর
২৪ ১৫৭ শ্রীলঙ্কা সনাথ জয়াসুরিয়া  নেদারল্যান্ডস আমস্টেলভেন
২৩৭* নিউজিল্যান্ড মার্টিন গাপটিল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়েলিংটন
১৭৩ অস্ট্রেলিয়া ডেভিড ওয়ার্নার  দক্ষিণ আফ্রিকা কেপ টাউন
২১০* পাকিস্তান ফখর জামান  জিম্বাবুয়ে বুলাওয়ে
২৩ ১৫৭* স্কটল্যান্ড ক্যালাম ম্যাকলিওড  আফগানিস্তান বুলাওয়ে
২২ ১৯৪ পাকিস্তান সাঈদ আনোয়ার  ভারত চেন্নাই
১৮৩ ভারত বিরাট কোহলি  পাকিস্তান ঢাকা
১৬১* শ্রীলঙ্কা তিলকরত্নে দিলশান  বাংলাদেশ মেলবোর্ন
১৭১ ইংল্যান্ড অ্যালেক্স হেলস  পাকিস্তান নটিংহ্যাম
১৭০ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ শাই হোপ  আয়ারল্যান্ড ডাবলিন
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৫]

পঞ্জিকাবর্ষে সর্বাধিক রান[সম্পাদনা]

রান ইনিংস খেলোয়াড় সাল
১৮৯৪ ৩৩ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ১৯৯৭
১৭৬৭ ৪১ ভারত সৌরভ গাঙ্গুলী ১৯৯৯
১৭৬১ ৪৩ ভারত রাহুল দ্রাবিড় ১৯৯৯
১৬১১ ৩২ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ১৯৯৬
১৬০১ ৩০ অস্ট্রেলিয়া ম্যাথু হেইডেন ২০০৭
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৬]

ওভারে সর্বাধিক রান[সম্পাদনা]

রান পর্যায়ক্রমিক ব্যাটসম্যান বোলার স্থান মৌসুম
৩৬ ৬-৬-৬-৬-৬-৬ দক্ষিণ আফ্রিকা হার্শেল গিবস নেদারল্যান্ডস ডান ফন বাঙ্গে সেন্ট কিটস ২০০৬-০৭
৬-৬-৬-৬-৬-৬ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাস্করন মালহোত্রা পাপুয়া নিউগিনি গৌদি টোকা আল আমেরাত ২০২১
৩৫ ৬-ও-৬-৬-৬-৪-৬ শ্রীলঙ্কা থিসারা পেরেরা দক্ষিণ আফ্রিকা রবিন পিটারসন পাল্লেকেলে ২০১৩
৩৪ ৪নো-বল–৬–২নো-বল–৪–৪–৪–২–৬ দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ জেসন হোল্ডার সিডনি ২০১৪-১৫
৬–৬–৬–৬নো-বল–২–৬–১ নিউজিল্যান্ড জেমস নিশাম শ্রীলঙ্কা থিসারা পেরেরা মাউন্ট মঙ্গানুই ২০১৮-১৯
৩২ ৪-৪-৬-৬-৬-৬ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি শ্রীলঙ্কা মালিঙ্গা বান্দারা আবুধাবি ২০০৭

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৭]

ব্যক্তিগত রেকর্ড (বোলিং)[সম্পাদনা]

সর্বাধিক উইকেট[সম্পাদনা]

উইকেট ম্যাচ খেলোয়াড় মেয়াদকাল
৫৩৪ ৩৫০ শ্রীলঙ্কা মুত্তিয়া মুরালিধরন ১৯৯৩-২০১১
৫০২ ৩৫৬ পাকিস্তান ওয়াসিম আকরাম ১৯৮৪-২০০৩
৪১৬ ২৬২ পাকিস্তান ওয়াকার ইউনুস ১৯৮৯-২০০৩
৪০০ ৩২২ শ্রীলঙ্কা চামিন্দা ভাস ১৯৯৪-২০০৮
৩৯৫ ৩৯৮ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি ১৯৯৬-২০১৫
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৮]

সেরা ইনিংস পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

বোলিং পরিসংখ্যান খেলোয়াড় খেলা স্থান তারিখ
৮/১৯ শ্রীলঙ্কা চামিন্দা ভাস  শ্রীলঙ্কা জিম্বাবুয়ে কলম্বো ৮ ডিসেম্বর, ২০০১
৭/১২ পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান ওয়েস্ট ইন্ডিজ গায়ানা ১৪ জুলাই, ২০১৩
৭/১৫ অস্ট্রেলিয়া গ্লেন ম্যাকগ্রা  অস্ট্রেলিয়া নামিবিয়া পচেফস্ট্রুম ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০০৩
৭/১৮ আফগানিস্তান রশিদ খান  আফগানিস্তান ওয়েস্ট ইন্ডিজ গ্ৰস আইলেট ৯ জুন, ২০১৭
৭/২০ অস্ট্রেলিয়া অ্যান্ডি বিকেল  অস্ট্রেলিয়া ইংল্যান্ড পোর্ট এলিজাবেথ ২ মার্চ, ২০১৩
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২১[২৯]

ইনিংসে সর্বাধিক রান প্রদানকারী[সম্পাদনা]

রান বোলিং পরিসংখ্যান খেলোয়াড় ম্যাচ স্থান মৌসুম
১১৩ ১০-০-১১৩-০ অস্ট্রেলিয়া মিক লুইস  অস্ট্রেলিয়া দক্ষিণ আফ্রিকা জোহানেসবার্গ ২০০৬
১১০ ১০-০-১১০-০ পাকিস্তান ওয়াহাব রিয়াজ  পাকিস্তান ইংল্যান্ড নটিংহ্যাম ২০১৬
৯-০-১১০-০ আফগানিস্তান রশিদ খান  আফগানিস্তান ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার ২০১৯
১০৬ ১০-০-১০৬-১ ভারত ভুবনেশ্বর কুমার  ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা মুম্বাই ২০১৫
১০-০-১০৬-০ শ্রীলঙ্কা নুয়ান প্রদীপ  শ্রীলঙ্কা ভারত মোহালি ২০১৭
১০৫ ১২-১-১০৫-২ নিউজিল্যান্ড মার্টিন স্নেডেন  নিউজিল্যান্ড ইংল্যান্ড দি ওভাল ১৯৮৩
১০-০-১০৫-০ নিউজিল্যান্ড টিম সাউদি  নিউজিল্যান্ড ভারত ক্রাইস্টচার্চ ২০০৯
৯-০-১০৫-১ জিম্বাবুয়ে ব্রায়ান ভিটোরি  জিম্বাবুয়ে নিউজিল্যান্ড নেপিয়ার ২০১২
১০৪ ১০-২-১০৪-১ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ জেসন হোল্ডার  ওয়েস্ট ইন্ডিজ দক্ষিণ আফ্রিকা সিডনি ২০১৫
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১[৩০]

সেরা ইকোনমি রেট[সম্পাদনা]

ইকোনমি রেট খেলোয়াড় বল রান
৩.০৯ ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ জোয়েল গার্নার ৫৩৩০ ২৭৫২
৩.২৫ অস্ট্রেলিয়া ম্যাক্স ওয়াকার ১০০৬ ৫৪৬
৩.২৭ ইংল্যান্ড মাইক হেনড্রিক ১২৪৮ ৬৮১
৩.২৮ ইংল্যান্ড বব উইলিস ৩৫৯৫ ১৯৬৮
৩.৩০ নিউজিল্যান্ড রিচার্ড হ্যাডলি ৬১৮২ ৩৪০৭
যোগ্যতা: ১০০০ বল
সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১[৩১]

ইনিংসে সর্বাধিক পাঁচ উইকেট[সম্পাদনা]

ইনিংসে ৫-উইকেট বোলার খেলার সংখ্যা
১৩ পাকিস্তান ওয়াকার ইউনুস ২৬২
১০ শ্রীলঙ্কা মুত্তিয়া মুরালিধরন ৩৫০
অস্ট্রেলিয়া ব্রেট লি ২২১
পাকিস্তান শহীদ আফ্রিদি ৩৮৪
অস্ট্রেলিয়া মিচেল স্টার্ক ৯৯
শ্রীলঙ্কা লাসিথ মালিঙ্গা ২২৬
অস্ট্রেলিয়া গ্লেন ম্যাকগ্রা ২৫০

সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১[৩২]

ব্যক্তিগত রেকর্ড (ফিল্ডিং)[সম্পাদনা]

সর্বাধিক ক্যাচ[সম্পাদনা]

ক্যাচ খেলোয়াড় খেলা
২১৮ শ্রীলঙ্কা মাহেলা জয়াবর্ধনে ৪৪৮
১৬০ অস্ট্রেলিয়া রিকি পন্টিং ৩৭৫
১৫৬ ভারত মোহাম্মদ আজহারউদ্দীন ৩৩৪
১৪০ ভারত শচীন টেন্ডুলকার ৪৬৩
১৩৯ নিউজিল্যান্ড রস টেলর ২৩৩
টীকা:উইকেট-কিপার বাদে তালিকায় ক্যাচ লাভকারী[৩৩] সর্বশেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১

জুটির রেকর্ড[সম্পাদনা]

সর্বোচ্চ জুটি[সম্পাদনা]

রান খেলোয়াড় প্রতিপক্ষ মাঠ মৌসুম
৩৭২ (২য় উইকেট) ক্রিস গেইল ‡ (২১৫) ও মারলন স্যামুয়েলস (১৩৩*)  জিম্বাবুয়ে ক্যানবেরা ২০১৫ ক্রিকেট বিশ্বকাপ
৩৬৫ (১ম উইকেট) জন ক্যাম্পবেল ‡ (১৭৯) ও শাই হোপ ‡ (১৭০)  আয়ারল্যান্ড ক্যাসল এভিনিউ, ডাবলিন ২০১৯
৩৩১ (২য় উইকেট) শচীন টেন্ডুলকার (১৮৬*) ও রাহুল দ্রাবিড় (১৫৩)  নিউজিল্যান্ড লাল বাহাদুর শাস্ত্রী স্টেডিয়াম ১৯৯৯–০০
৩১৮ (২য় উইকেট) সৌরভ গাঙ্গুলি (১৮৩) ও রাহুল দ্রাবিড় (১৪৫)  শ্রীলঙ্কা ট্যান্টন ১৯৯৯
৩০৪ (১ম উইকেট) ফখর জামান ‡ (২১০*) ও ইমাম-উল-হক ‡ (১১৩)  জিম্বাবুয়ে কুইন্স স্পোর্টস ক্লাব ২০১৮
টীকা:প্রতীকটি ক্রিকেট বিশ্বকাপ এ সংঘটিত জুটির ক্ষেত্রে ব্যবহৃত।

শেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১[৩৪]

উইকেট অনুযায়ী সর্বোচ্চ জুটি[সম্পাদনা]

উইকেট রান খেলোয়াড় প্রতিপক্ষ মাঠ মৌসুম
১ম ৩৬৫ জন ক্যাম্পবেল ‡ ও শাই হোপ  আয়ারল্যান্ড ক্যাসল এভিনিউ, ডাবলিন ২০১৯
২য় ৩৭২ ক্রিস গেইল ‡ ও মারলন স্যামুয়েলস  জিম্বাবুয়ে ক্যানবেরা ২০১৫ ক্রিকেট বিশ্বকাপ
৩য় ২৫৮ ড্যারেন ব্র্যাভো ‡ ও দিনেশ রামদিন  বাংলাদেশ ওয়ার্নার পার্ক স্পোর্টিং কমপ্লেক্স ২০১৪
৪র্থ ২৭৫* মোহাম্মদ আজহারউদ্দীন অজয় জাদেজা  জিম্বাবুয়ে বড়বাটি স্টেডিয়াম ১৯৯৮
৫ম ২৫৬ ডেভিড মিলার ‡ ও জেপি ডুমিনি  জিম্বাবুয়ে সেডন পার্ক ২০১৫ ক্রিকেট বিশ্বকাপ
৬ষ্ঠ ২৬৭* গ্রান্ট এলিয়ট ‡ ও লুক রঙ্কি  শ্রীলঙ্কা ইউনিভার্সিটি ওভাল, ডুনেডিন ২০১৫
৭ম ১৭৭ জস বাটলার আদিল রশিদ  নিউজিল্যান্ড এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ড ২০১৫
৮ম ১৩৮* জাস্টিন ক্যাম্প অ্যান্ড্রু হল  ভারত নিউল্যান্ডস স্টেডিয়াম ২০০৬
৯ম ১৩২ অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ‡ ও লাসিথ মালিঙ্গা  অস্ট্রেলিয়া মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড ২০১০
১০ম ১০৬* ভিভ রিচার্ডস মাইকেল হোল্ডিং  ইংল্যান্ড ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ড ১৯৮৪
শেষ হালনাগাদ: ০৭ ডিসেম্বর ২০২১ [৩৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Classification of Official Cricket" (PDF)। International Cricket Council। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০০৯ 
  2. "The difference between Test and one-day cricket"। BBC Sport। ৬ সেপ্টেম্বর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০০৯ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "Only ODI: Australia v England"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১২ 
  4. Martin-Jenkins, Christopher (২০০৩)। "Crying out for less"Wisden Cricketers' Almanack – online archive। John Wisden & Co। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০০৯ 
  5. "One-Day Internationals–Team records–Results summary"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৩ 
  6. "Records–One Day Internationals–Team records–Largest margin of victory (by runs)"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  7. "Records–One Day Internationals–Team records–Largest margin of victory (by balls remaining)"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  8. "Records–One-Day Internationals–Team records–Most consecutive wins"। ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  9. "Records–One-Day Internationals–Team records–Most consecutive defeats"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  10. https://stats.espncricinfo.com/ci/content/records/211599.html
  11. "Records–One-Day Internationals–Team records–Highest Match Aggregates"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  12. "Records–One-Day Internationals–Team records–Highest Innings Totals Batting Second"Cricinfo। ESPN। ১ এপ্রিল ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  13. "Records–One-Day Internationals–Team records–Lowest Innings Totals"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  14. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most runs in career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ 01 December 2018  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  15. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most runs in an innings"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ 06 December 202@  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  16. "Statistics–Statsguru–One-Day Internationals–Batting Records"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ 01 December 2018  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  17. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Highest career strike rate"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  18. "Records–One-Day Internationals–Team records–Most hundreds in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  19. "Records–One-Day Internationals–Team records–Most fifties in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৩ অক্টোবর ২০১৪ 
  20. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Fastest fifties"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  21. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Fastest Hundreds"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  22. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most sixes in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৩ 
  23. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most fours in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৩ 
  24. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most sixes in an innigs"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৩ 
  25. "Records–One-Day Internationals–Batting records–Most fours in an innigs"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১৪ 
  26. "Records–One-Day Internationals–Team records–Most runs in a calendar year"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১৩ 
  27. "One-Day Internationals–Batting records–Most runs off one over"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০১৪ 
  28. "Records–One-Day Internationals–Bowling records–Most wickets in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৩ 
  29. "Records–One-Day Internationals–Bowling records–Best figures in an innings"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৩ 
  30. "Records–One-Day Internationals–Bowling records–Most runs condeded in an innings"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৩ 
  31. "Records–One-Day Internationals–Bowling records–Best career economy rate"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৩ 
  32. "Records–One-Day Internationals–Bowling records–Most five-wickets-in-an-innings in a career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০১৩ 
  33. "Records–One-Day Internationals–Fielding records–Most catches in career"Cricinfo। ESPN। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৩ 
  34. "Records–One-Day Internationals–Partnership records–Highest partnerships for any wicket"Cricinfo। ESPN। ৯ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৯ 
  35. "Records–One-Day Internationals–Partnership records–Highest partnerships by wicket"Cricinfo। ESPN। ৬ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ মার্চ ২০২০