অজয় জাদেজা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অজয় জাদেজা
Ajay jadega.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅজয়সিংজি দৌলতসিংজি জাদেজা
জন্ম (1971-02-01) ১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭১ (বয়স ৪৮)
যমনগর, গুজরাট, ভারত
উচ্চতা৫ ফুট ১০ ইঞ্চি (১.৭৮ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্করিভাবা জাদেজা (স্ত্রী)
ছত্রপালসিংজি (কাকা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৯৬)
১৩ নভেম্বর ১৯৯২ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ টেস্ট২৬ ফেব্রুয়ারি ২০০০ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৮৫)
২৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ ওডিআই৩ জুন ২০০০ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮৮/৮৯–১৯৯৮/৯৯, ২০১৩হরিয়ানা
১৯৯৯/০০, ২০০৩/০৪-২০০৪/০৫জম্মু ও কাশ্মীর
২০০৫/০৬-২০০৬/০৭রাজস্থান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৫ ১৯৬ ১০৯ ২৯১
রানের সংখ্যা ৫৭৬ ৫৩৫৯ ৮০৪৬ ৮৩০৪
ব্যাটিং গড় ২৬.১৮ ৩৭.৪৭ ৫৫.১০ ৩৭.৯১
১০০/৫০ ০/৪ ৬/৩০ ২০/৪০ ১১/৪৮
সর্বোচ্চ রান ৯৬ ১১৯ ২৬৪ ১১৯
বল করেছে ১২৪৮ ৪৭০৩ ২৬৮১
উইকেট  – ২০ ৫৪ ৪৯
বোলিং গড়  – ৫৪.৭০ ৩৯.৬২ ৪৬.১০
ইনিংসে ৫ উইকেট  –
ম্যাচে ১০ উইকেট  – - -
সেরা বোলিং  – ৩/৩ ৪/৩৭ ৩/৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫/– ৫৯/– ৭৩/– ৯৩/১
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩ ডিসেম্বর ২০১৫

অজয়সিংজি দৌলতসিংজি জাদেজা (এই শব্দ সম্পর্কেpronunciation ; জন্ম: ১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭১) গুজরাটের যমনগর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতের সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১] ১৯৯২ থেকে ২০০০ মেয়াদে ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন অজয় জাদেজা। এছাড়াও, ভারত দলকে ১৩টি একদিনের খেলায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে হরিয়ানা, জম্মু ও কাশ্মীর এবং রাজস্থানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, দলের প্রয়োজনে মাঝেমধ্যে ডানহাতে মিডিয়াম বোলিং করতেন তিনি।

পাতানো খেলার অভিযোগে তাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হলেও ২৭ জানুয়ারি, ২০০৩ তারিখে দিল্লি হাইকোর্টের আদেশ বলে তার উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞাদেশ বাতিল করা হয়।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে জাদেজা ১৫ টেস্ট ও ১৯৬টি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৯০-এর দশকের শেষার্ধ্বে তার দ্রুতগতিতে রান তোলা বেশ স্মরণীয় হয়ে আছে। এছাড়াও তিনি দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছেন।

১৯৯৬ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে ২৫ বলে ৪৫ রান করে স্মরণীয় ভূমিকা রাখেন। তন্মধ্যে ওয়াকার ইউনুসের শেষ দুই ওভারে ৪০ রান সংগ্রহ করেছিলেন। একদিনের আন্তর্জাতিকে ৪র্থ ও ৫ম উইকেট জুটিতে মোহাম্মদ আজহারউদ্দীনের সাথে যথাক্রমে জিম্বাবুয়েশ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েন। এছাড়াও শারজায় অনুষ্ঠিত খেলায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১ ওভারে ৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট পেয়ে দলকে বিজয়ী করতে সহায়তা করেন। ৩ জুন, ২০০০ তারিখে পাকিস্তানের বিপক্ষে পেপসি এশিয়া কাপে সর্বশেষ একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছিলেন। ঐ খেলায় ৪ ছক্কা ও ৮ চারে ৯৩ রান করলেও তার দল হেরে যায়।

পাতানো খেলায় অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

কিন্তু ক্রিকেটের যাবতীয় অর্জনসমূহ পাতানো খেলায় অংশগ্রহণের অভিযোগে কলুষিত হয় ও ৫-বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়।[১] তবে, ২৭ জানুয়ারি, ২০০৩ তারিখে দিল্লি হাইকোর্ট তার উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে এবং তাকে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়। ২০১৩ সালে রঞ্জি ট্রফিতে তিনি অংশগ্রহণ করেন।

ধারাভাষ্যকার[সম্পাদনা]

বর্তমানে তিনি ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালনসহ হরিয়ানা ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব করছেন। সাবেক পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক জহির আব্বাসের সাথে ২০০৩ সালের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে ধারাভাষ্যের দায়িত্বে ছিলেন। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপেও একই দায়িত্বে ছিলেন। পরে এনডিটিভি ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি ২৪*৭ চ্যানেলে ক্রিকেট বিশ্লেষক হিসেবে ছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত তিনি। রিভাবা জাদেজা নাম্নী এক রমণীর পাণিগ্রহণ করেন। তাদের সংসারে এক সন্তান রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Ajay Jadeja, Cricket players"। ESPN Cricinfo। 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]