চার্লস কভেন্ট্রি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চার্লস কভেন্ট্রি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামচার্লস কেভিন কভেন্ট্রি
জন্ম (1983-03-08) ৮ মার্চ ১৯৮৩ (বয়স ৩৬)
কুইকুই, জিম্বাবুয়ে
ডাকনামচাপ্পা[১]
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি লেগ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান, মাঝে-মধ্যে উইকেট-রক্ষক
সম্পর্কসিকে কভেন্ট্রি (বাবা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৭২)
১৩ সেপ্টেম্বর ২০০৫ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট২০ সেপ্টেম্বর ২০০৫ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৭৪)
৬ জুলাই ২০০৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৪ মার্চ ২০১১ বনাম শ্রীলঙ্কা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৮-২০০৫মাতাবেলেল্যান্ড
২০০৬-২০০৯ওয়েস্টার্নস
২০০৯-মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স
২০১৩–দূরন্ত রাজশাহী
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৭ ৬৪ ১১১
রানের সংখ্যা ৮৮ ৮২১ ৩,০১৮ ২,৫৯১
ব্যাটিং গড় ২২.০০ ২৪.৮৭ ২৭.৪৩ ২৮.১৬
১০০/৫০ ০/০ ১/৩ ৫/১৪ ২/১৩
সর্বোচ্চ রান ৩৭ ১৯৪* ১১৬ ১৯৪*
বল করেছে ২১০ ২৪
উইকেট
বোলিং গড় ৭৭.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/২৬ ০/১০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩/– ১৮/১ ৯৯/৩ ৫৯/৩
উৎস: CricketArchive, ৪ মার্চ ২০১৪

চার্লস কেভিন কভেন্ট্রি (জন্ম: ৮ মার্চ, ১৯৮৩) মিডল্যান্ডসের কুইকুই এলাকায় জন্মগ্রহণকারী জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটার। ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের পক্ষে খেলেছেন। এছাড়াও মাঝে-মধ্যে উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। চার্লস কভেন্ট্রি একদিনের আন্তর্জাতিকে তৎকালীন ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন। বর্তমানে তিনি দুবাইয়ের ক্লাব ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

মাত্র ১৫ বছর বয়সে লোগান কাপে অভিষিক্ত হন। জিম্বাবুয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ের ক্রিকেট দলে খেলাসহ ২০০১-০২ মৌসুমে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে দলের সদস্য ছিলেন। জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স দলে খেলেছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে দূর্দান্ত ফলাফল অর্জন করায় ২০০৩ সালে ইংল্যান্ড সফরে জাতীয় দলের সদস্য মনোনীত হন। ব্রিস্টলে অনুষ্ঠিত একদিনের আন্তর্জাতিকে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন। কিন্তু ১০ বল মোকাবেলা করে তিনি মাত্র ৩ রান সংগ্রহ করেছিলেন। ফলে অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য মনোনীত হননি। ২০০৫ সালে পুণরায় দলে অন্তর্ভুক্ত হন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের করুণ পরাজয়ে দলে তিনি ২৫ রান তোলেন। পরের তিনটি ওডিআইয়ে যথাক্রমে ০, ৩৫ ও ৭৪ রান তোলেন।

কীর্তিগাথা[সম্পাদনা]

একদিনের আন্তর্জাতিকে অপরাজিত ১৯৪* রান করে যৌথভাবে সাঈদ আনোয়ারের সাথে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করেন। পরবর্তীকালে ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ তারিখে ভারতের ব্যাটিং প্রতিভা শচীন তেন্ডুলকর ২০০ রান তুলে ঐ রেকর্ড ভঙ্গ করেন। কিন্তু তার ঐ ইনিংস স্বত্ত্বেও জিম্বাবুয়ে দল পরাজিত হয়। এ ক্ষেত্রে তিনি অস্ট্রেলীয় ম্যাথু হেইডেনের ১৮১ রানের রেকর্ড ভঙ্গ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Profile: Charles Coventry"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০০৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]