জন ক্যাম্পবেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জন ক্যাম্পবেল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন ডিলন ক্যাম্পবেল
জন্ম (1993-09-21) ২১ সেপ্টেম্বর ১৯৯৩ (বয়স ২৬)
কিংস্টন, জ্যামাইকা
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ স্পিন
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩১৭)
২৩ জানুয়ারি ২০১৯ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৮৯)
২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৫ মে ২০১৯ বনাম আয়ারল্যান্ড
একমাত্র টি২০আই
(ক্যাপ ৮০)
১০ মার্চ ২০১৯ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১২/১৩–বর্তমানজ্যামাইকা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ৫৭ ৩৩
রানের সংখ্যা ১৩৫ ৩,১৭২ ৮৪৮ ৩৯
ব্যাটিং গড় ৪৫.০০ ৩০.৫০ ২৮.২৬ ৯.৭৫
১০০/৫০ ০/০ ৩/১৮ ০/৮ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৪৭ ১৫৬ ৮২ ১৭
বল করেছে ২০ ৩,৩৩৯ ৭০৫
উইকেট ৫৬ ২৫
বোলিং গড় ২৯.৮২ ২১.২০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৭/৭৩ ৪/৪৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩/– ৬০/– ১৯/– ২/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৫ মে, ২০১৯

জন ডিলন ক্যাম্পবেল (ইংরেজি: John Campbell; জন্ম: ২১ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৩) জ্যামাইকার কিংস্টনের সেন্ট মেরি পারিশ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ও পেশাদার ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে জ্যামাইকা দলের প্রতিনিধিত্ব করছেন। আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়নশীপের প্রতিযোগিতায় জ্যামাইকার উত্থানে অসাধারণ ভূমিকা রেখেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলে থাকেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ স্পিন বোলিংয়ে পারদর্শীতা প্রদর্শন করে ছলেছেন জন ক্যাম্পবেল

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রথম অংশগ্রহণ করেন। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০১২ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সদস্যরূপে অংশগ্রহণ করেন।[১] ২৪ আগস্ট, ২০১২ তারিখে টাউন্সভিলেতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পঞ্চম স্থান নির্ধারণী খেলায় চমৎকার ক্রীড়াশৈলী উপহার দেন। ১৩৩ বলে সংগৃহীত ১০৫ রানের ইনিংসটি ঐ প্রতিযোগিতায় দলের একমাত্র শতরানের ঘটনা ছিল।[২] ২০১২-১৩ মৌসুমের ক্যারিবীয় টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় জ্যামাইকার জ্যেষ্ঠদের দলে অভিষেক ঘটে তার।[৩]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১২-১৩ মৌসুম থেকে জ্যামাইকার পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটলিস্ট এ ক্রিকেটে প্রথম খেলেন। এরপর থেকেই দলের নিয়মিত সদস্য হিসেবে খেলছেন তিনি।[৪][৫] জানুয়ারি, ২০১৩ সালে জ্যামাইকার পক্ষে অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয় জন ক্যাম্পবেলের। ২০১৩-১৪ মৌসুমের রিজিওনাল ফোর ডে কম্পিটিশনে লিওয়ার্ড আইল্যান্ডসের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো শতরানের ইনিংস খেলেন। ১৮০ বলে ১১০ রান তুলেন তিনি।[৬] ২০১৫-১৬ মৌসুমের রিজিওনাল ফোর ডে কম্পিটিশনের খেলায় প্রথমবারের মতো প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে পাঁচ-উইকেট লাভের কৃতিত্ব প্রদর্শন করেন। ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর বিপক্ষে ৭/৭৩ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান।[৭]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

জানুয়ারি, ২০১৯ সালে সফরকারী ইংরেজ দলের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলার জন্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সদস্যরূপে মনোনীত হন জন ক্যাম্পবেল।[৮] ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯ তারিখে ব্রিজটাউনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয় তার।[৯] ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সালে একই দলের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজ খেলার উদ্দেশ্যে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ কর্তৃক দলের সদস্য হন।[১০] ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ তারিখে ব্রিজটাউনে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম দিবা-রাত্রির ওডিআই খেলায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষিক্ত হন।[১১] পরবর্তী মাসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক খেলার উদ্দেশ্যে তাকে দলে রাখা হয়।[১২] ১০ মার্চ, ২০১৯ তারিখে বাসেতেরেতে সিরিজের তৃতীয় টি২০আইয়ে ইংল্যান্ডেরই বিপক্ষে অভিষেক ঘটে জন ক্যাম্পবেলের।[১৩]

ত্রি-দেশীয় সিরিজ, ২০১৯[সম্পাদনা]

আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনের ক্যাসল এভিনিউতে অনুষ্ঠিত ২০১৯ সালের ত্রি-দেশীয় সিরিজ খেলার জন্যে মনোনীত হন। সিরিজের প্রথম খেলায় স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো ওডিআইয়ে মনোজ্ঞ শতরানের ইনিংস খেলেন।[১৪] তিনি ও শাই হোপ ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমে ৪৭.২ ওভার মোকাবেলান্তে ৩৬৫ রান তুলেন। এরফলে ওডিআইয়ের ইতিহাসে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ রানের নতুন রেকর্ড হয়।[১৫] এছাড়াও, প্রথমবারের মতো ওডিআইয়ে উভয় উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের দেড় শতাধিক রানের ইনিংস খেলার ঘটনা এটি।[১৬]

আক্রমণাত্মক ধাঁচে বামহাতে ব্যাটিংয়ে অগ্রসর হন। তার ব্যাটিংয়ের ধরন অনেকাংশেই বিখ্যাত ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা ক্রিস গেইলের অনুরূপ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Under-19 ODI matches played by John Campbell – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  2. ICC Under-19 World Cup, 5th Place Play-off: England Under-19s v West Indies Under-19s at Townsville, Aug 24, 2012 – ESPNcricinfo. Retrieved 28 December 2015.
  3. Twenty20 matches played by John Campbell – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  4. First-class matches played by John Campbell – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  5. List A matches played by John Campbell – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  6. Leeward Islands v Jamaica, Regional Four Day Competition 2013/14 – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  7. Trinidad and Tobago v Jamaica, WICB Professional Cricket League Regional 4 Day Tournament 2015/16 – CricketArchive. Retrieved 28 December 2015.
  8. "Darren Bravo returns to West Indies Test squad to face England"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ 
  9. "1st Test, England tour of West Indies at Bridgetown, Jan 23-27 2019"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৯ 
  10. "West Indies call up John Campbell, Carlos Brathwaite, Sheldon Cottrell"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  11. "1st ODI (D/N), England tour of West Indies at Bridgetown, Feb 20 2019"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  12. "Jason Holder to lead Windies in Sandals T20Is against England"West Indies Cricket। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৯ 
  13. "3rd T20I (D/N), England tour of West Indies at Basseterre, Mar 10 2019"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১৯ 
  14. "John Campbell & Shai Hope Soar into Record Books With Highest-ever Opening Stand in ODIs"Network18 Media and Investments Ltd। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১৯ 
  15. "John Campbell, Shai Hope create new opening-wicket world record in ODI cricket in WI vs IRE match"Times Now News। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১৯ 
  16. "Ireland vs West Indies, 1st ODI: John Campbell, Shai Hope record highest opening partnership in ODIs"Cricket Country। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]