জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
জিম্বাবুয়ে
জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের লোগো
জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের লোগো
টেস্ট মর্যাদা ১৯৯২
প্রথম টেস্ট বনাম ভারত ভারত, হারারে স্পোর্টস ক্লাব, হারারে, ১৮-২২ অক্টোবর, ১৯৯২
অধিনায়ক গ্রেইম ক্রিমার (অন্তর্বর্তীকালীন)[১]
কোচ মাখায়া এনটিনি (অন্তর্বর্তীকালীন)[১]
আইসিসি টেস্ট, ওডিআই এবং টি২০আই র‌্যাঙ্কিং ১০ম (টেস্ট)
১১শ (ওডিআই)
১২শ (টি২০আই)[২] [১]
টেস্ট ম্যাচ
– বর্তমান বছর
৯৯
সর্বশেষ টেস্ট  নিউজিল্যান্ড, কুইন্স স্পোর্টস ক্লাব, বুলাওয়ে, ৬-১০ আগস্ট, ২০১৬
জয়/পরাজয়
– বর্তমান বছর
১১/৬২
০/২
১৫ আগস্ট, ২০১৬ পর্যন্ত

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল (ইংরেজি: Zimbabwe national cricket team) জিম্বাবুয়ের জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রতিনিধিত্বকারী দল। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট কর্তৃক দলটি পরিচালিত হচ্ছে। পূর্বেকার জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট ইউনিয়ন বর্তমানে 'জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট' নামে পরিচিত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসি'র পূর্ণ সদস্যরূপে দলটি টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এবং টি২০আই খেলায় অংশগ্রহণ করছে।

১৫ আগস্ট, ২০১৬ তারিখে জিম্বাবুয়ে দল আইসিসি প্রণীত টেস্ট, ওডিআই ও টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে যথাক্রমে ১০ম, ১১শ ও ১২শ স্থানে অবস্থান করেছিল।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আইসিসি'র অন্যান্য পূর্ণ সদস্যভূক্ত দেশের ন্যায় জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলকে টেস্ট ক্রিকেটে মর্যাদা প্রাপ্তির লক্ষ্যে যোগ্যতা অর্জন করতে হয়েছে। লক্ষ্যণীয় যে, ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়াকে টেস্ট ক্রিকেট খেলার জন্যে যোগ্যতা অর্জনের প্রয়োজন পড়েনি। কেননা, দেশ দু'টো ১৫ মার্চ, ১৮৭৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম টেস্ট খেলাটিতে অংশগ্রহণ করেছিল।

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের সংক্ষিপ্ত ঘটনাবহুল মুহুর্তগুলো নিম্নরূপ :-

রোডেশিয়া যুদ্ধকালীন সময়ে এবং ১৯৪৬ সাল থেকে পুণরায় দক্ষিণ আফ্রিকান টুর্নামেন্ট, কারি কাপে অংশ নেয়। স্বাধীনতা অর্জনের পর ১৯৮০ সালে দেশটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় অংশ নিতে শুরু করে। ২১ জুলাই, ১৯৮১ সালে জিম্বাবুয়ে আইসিসি'র সহযোগী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়। ১৯৮৩, ১৯৮৭ এবং ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অংশ নেয়।[৩]

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

৯ম টেস্টখেলুড়ে দেশ হিসেবে জিম্বাবুয়ে ১৯৯২ সালে প্রথম টেস্ট খেলে। হারারেতে অনুষ্ঠিত ভারতের বিরুদ্ধে এ খেলাটি ড্র হয়েছিল।[৪]

শুরু থেকেই জিম্বাবুয়ে দলটি টেস্ট খেলায় বেশ দূর্বল ছিল। অভিজ্ঞজনদের ধারণা, তাদেরকে অপরিপক্ক অবস্থায় টেস্টের মর্যাদা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু একদিনের ক্রিকেট খেলায় দলটি বেশ প্রতিযোগিতামূখী ভাব বজায় রাখে; যদিও সর্বদিক দিয়ে শক্তিশালী ছিল না। কিন্তু বিশ্ব ক্রিকেটাঙ্গনে তাদের ফিল্ডিংয়ের দক্ষতা বেশ নজর কেড়েছিল। বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ খেলোয়াড়দের পদত্যাগজনিত কারণে কয়েকটি টেস্ট সিরিজে বেশ দূর্বল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় ২০০৫ সালের শেষ দিকে আইসিসি'র সমর্থনে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড স্বেচ্ছায় টেস্ট ক্রিকেট থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়।[৫]

আগস্ট, ২০১১ সালে প্রায় ছয় বছর স্বেচ্ছা নির্বাসন থেকে ফিরে এসে টেস্টভূক্ত দেশ হিসেবে বাংলাদেশের বিপক্ষে অবতীর্ণ হয় ও ১৩০ রানের ব্যবধানে পরাজিত করে।[৬]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

খেলোয়াড়ের নাম বয়স ব্যাটিংয়ের ধরন বোলিংয়ের ধরন ওডিআই সংখ্যা টেস্ট সংখ্যা শার্ট নং
অধিনায়ক ও লেগ ব্রেক বোলার
গ্রেইম ক্রিমার ৩১ বছর, ৩৬৪ দিন ডানহাতি এলবি মিড ওয়েস্ট রাইনোজ টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৩০
উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান
হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৩৫ বছর, ৪০ দিন ডানহাতি আরএম মাউন্টেইনিয়ার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই
চামু চিভাভা ৩৩ বছর, ১০০ দিন ডানহাতি আরএম ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস ওডিআই, টি২০আই ৩৩
ভাসিমুজি সিবান্দা ৩৪ বছর, ৩৪৩ দিন ডানহাতি আরএম মিড ওয়েস্ট রাইনোজ টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ১০
টিনোটেন্ডা ময়ুও ৩২ বছর, ৪৮ দিন ডানহাতি আরএমএফ মাউন্টেইনিয়ার্স টেস্ট, ওডিআই ২০
সিকান্দার রাজা ৩২ বছর, ১৪৭ দিন ডানহাতি আরএম ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ২৪
মাঝারি সারির ব্যাটসম্যান
চার্লস কভেন্ট্রি ৩৫ বছর, ৪৬ দিন ডানহাতি লেব্রে মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স ওডিআই, টি২০আই ৭৪
স্টুয়ার্ট ম্যাটসিকেনিয়েরি ৩৫ বছর, ১৯৯ দিন ডানহাতি অব্রে মাউন্টেইনিয়ার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৪৫
ক্রেগ আরভিন ৩২ বছর, ৭০ দিন বামহাতি অব্রে মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৭৭
মার্ক ভার্মুলেন ৩৯ বছর, ২০০ দিন ডানহাতি অব্রে ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট
অল-রাউন্ডার
শন উইলিয়ামস ৩১ বছর, −১৪৪ দিন ডানহাতি এসএলএ মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ১৪
এলটন চিগুম্বুরা ৩১ বছর, ২২৮ দিন ডানহাতি আরএম ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৪৭
ম্যালকম ওয়ালার ৩৩ বছর, −২০৫ দিন ডানহাতি অব্রে মিড ওয়েস্ট রাইনোজ টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই
সলোমন মিরে ২৯ বছর, ২৮ দিন ডানহাতি আরএমএফ মিড ওয়েস্ট রাইনোজ ওডিআই
নেভিল মাদজিভা ২৭ বছর, ৪৭ দিন ডানহাতি আরএমএফ মিড ওয়েস্ট রাইনোজ ওডিআই
উইকেট-রক্ষক
পিটার মুর ২৭ বছর, ২২৮ দিন ডানহাতি অব্রে মিড ওয়েস্ট রাইনোজ ওডিআই
রেজিস চাকাবোভা ৩০ বছর, ৩৯ দিন ডানহাতি অব্রে ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই
রিচমন্ড মুতুম্বামি ২৯ বছর, ৯৯ দিন ডানহাতি অব্রে মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স টেস্ট, ওডিআই ৮৯
পেস বোলার
ব্রায়ান ভিটোরি ২৭ বছর, −১৫ দিন বামহাতি এলএফএম ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৬০
টয়ান্ডা মুপারিয়া ৩২ বছর, ১৬৬ দিন ডানহাতি আরএফএম মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৫৩
ডোনাল্ড তিরিপানো ৩০ বছর, ১৮৫ দিন ডানহাতি আরএফএম মাউন্টেইনিয়ার্স টেস্ট, ওডিআই ২৫
টেন্ডাই চাতারা ২৭ বছর, ২০২ দিন ডানহাতি আরএফএম মাউন্টেইনিয়ার্স টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ১৩
তিনাশি প্যানিয়াঙ্গারা ৩২ বছর, ৩৩২ দিন ডানহাতি আরএফএম মিড ওয়েস্ট রাইনোজ টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৪৮
ক্রিস্টোফার এমপফু ৩২ বছর, ২৯৫ দিন ডানহাতি আরএফএম মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স ওডিআই, টি২০আই ২৮
লুক জংউই ২৩ বছর, ২২৪ দিন ডানহাতি আরএফএম মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স ওডিআই, টি২০আই ১২
তুরাই মুজারাবানি ৩১ বছর, ১৭৫ দিন ডানহাতি আরএফএম ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস ওডিআই, টি২০আই
স্পিন বোলার
প্রসপার উতসেয়া ৩২ বছর, −১৩৮ দিন ডানহাতি অব্রে ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস টেস্ট, ওডিআই, টি২০আই ৫২
ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ২৪ বছর, ৩৪৯ দিন বামহাতি অব্রে মাউন্টেইনিয়ার্স ওডিআই ১১
তাফাদজা কামুঙ্গোজি ৩১ বছর, ১০২ দিন ডানহাতি লেব্রে মাউন্টেইনিয়ার্স ওডিআই ৯৮
জন নিয়ুম্বু ৩৩ বছর, ১১০ দিন ডানহাতি অব্রে মাতাবেলেল্যান্ড তুস্কার্স টেস্ট, ওডিআই ১৬
টেন্ডাই চিসোরো ৩০ বামহাতি এসএলএ মিড ওয়েস্ট রাইনোজ ওডিআই, টি২০আই 88

কোচিং কর্মকর্তা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Zimbabwe sack Masakadza, Whatmore"ESPNcricinfo। ৩১ মে ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৬ 
  2. "ICC rankings – ICC Test, ODI and Twenty20 rankings"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১৫ 
  3. A brief history of Zimbabwe cricket Cricinfo. Retrieved 4 November 2011
  4. Zimbabwe vs India at Harare, 1992 Cricinfo. Retrieved 5 November 2011
  5. Zimbabwe Cricket Team SuperSport Profile SuperSport. Retrieved 6 November 2011
  6. http://www.espncricinfo.com/zimbabwe-v-bangladesh-2011/content/story/526504.html