ক্যালাম ম্যাকলিওড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্যালাম ম্যাকলিওড
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্যালাম স্কট ম্যাকলিওড
জন্ম (1988-11-15) ১৫ নভেম্বর ১৯৮৮ (বয়স ৩০)
গ্লাসগো, ল্যানার্কশায়ার, স্কটল্যান্ড
ডাকনামক্লাউডি, স্কট
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাউদ্বোধনী ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৪)
১৮ আগস্ট ২০০৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই১২ সেপ্টেম্বর ২০১৪ বনাম আয়ারল্যান্ড
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ১৭)
৬ জুন ২০০৯ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টি২০আই২৮ নভেম্বর ২০১৩ বনাম নেদারল্যান্ডস
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৮-বর্তমানস্কটল্যান্ড
২০০৮-০৯ওয়ারউইকশায়ার
২০১৪-বর্তমানডারহাম
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৩ ১৫ ১৩ ৭৯
রানের সংখ্যা ৬৩১ ২৮৯ ২৮৩ ১,৬৩১
ব্যাটিং গড় ৩৩.২১ ২২.২৩ ২৩.৯৩ ২৪.৩৪
১০০/৫০ ২/১ ০/২ ০/৩ ৩/৫
সর্বোচ্চ রান ১৭৫ ৫৭ ৮৪ ১৭৫
বল করেছে ৩৭২ ৬৬ ৬১১ ৮৭৮
উইকেট ১৫ ২০
বোলিং গড় ৪০.৫০ ৪১.৫০ ২২.৮৬ ৪০.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ২/২৬ ২/১৭ ৪/৬৬ ৩/৩৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮/– ৫/– ৯/– ৩৪/–
উৎস: ESPNcricinfo, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৪

ক্যালাম স্কট ম্যাকলিওড (জন্ম: ১৫ নভেম্বর, ১৯৮৮) ল্যানার্কশায়ারের গ্লাসগো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী পেশাদার স্কটিশ ক্রিকেটার। স্কটল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ক্যালাম ম্যাকলিওড দলে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

শুরুতে ড্রাম্পেলিয়ার ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন ম্যাকলিওড। এরপর স্কটিশ জাতীয় ক্রিকেট লীগের প্রিমিয়ার বিভাগে আডিংসটন ক্রিকেট ক্লাবে যোগ দেন। ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেন। বয়সভিত্তিক দলে প্রায় ৭০ খেলায় অংশগ্রহণ করেন। এরপর ২০০৬ মৌসুমে ওয়ারউইকশায়ার দলের পক্ষে অনূর্ধ্ব-১৭, অনূর্ধ্ব-১৯ ও দ্বিতীয় একাদশে প্রতিনিধিত্ব করেন। ২০০৭ সালে চুক্তি নবায়ণের পর দ্বিতীয় একাদশের পক্ষে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহকারী ছিলেন[১] ও কাউন্টি দলের ভোটে বর্ষসেরা দ্বিতীয় একাদশ খেলোয়াড় মনোনীত হন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৭ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত আন্তর্মহাদেশীয় কাপে স্কটল্যান্ডের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্যাপ পড়ার গৌরব অর্জন করেন। এরফলে তিনি সর্বকনিষ্ঠ স্কটিশ খেলোয়াড়ের মর্যাদা পান। ১৮ আগস্ট, ২০০৮ তারিখে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। খেলায় তিনি ১১ বল মোকাবেলা করে অপরাজিত ১০* রান সংগ্রহ করেন। কিন্তু বৃষ্টির কারণে খেলা পরিত্যক্ত ঘোষিত হয়।

বিতর্ক[সম্পাদনা]

জুন, ২০০৯ সালের প্রথমদিকে আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ ক্রিকেট প্রতিযোগিতাকালীন ওয়ারউইকশায়ারের কোচিং কর্মকর্তা ম্যাকলিওডের বোলিংয়ের ধরনে ত্রুটি সনাক্ত করেন। জুলাই, ২০১০ সালে আন্তঃমহাদেশীয় কাপে কানাডার বিপক্ষে ৬ উইকেট প্রাপ্তির পর আম্পায়ারগণ আইসিসি বরাবরে তার বোলিং পর্যবেক্ষণ সংক্রান্ত বিষয়ে প্রতিবেদন প্রেরণ করেন।[২]

ওয়ারউইকশায়ারক্রিকেট স্কটল্যান্ড কর্তৃপক্ষ তার বোলিং সংশোধনে সহায়তা করে। তারপর আইসিসি কর্তৃপক্ষ বোলিং বিশ্লেষণ করে ঘরোয়া, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বোলিংয়ে উপযোগী হিসেবে গণ্য করে। এ সময় তিনি ব্যাটিংয়ে মনোযোগী হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. MacLeod offered two-year deal by Warwickshire, ESPNcricinfo, ১৮ নভেম্বর ২০০৭, সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০১২ 
  2. MacLeod bowling action reported, BBC Sport, ৭ জুলাই ২০০৯, সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]