আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ
AIUB logo.png
এআইইউবি লোগো
নীতিবাক্য Where leaders are created
ধরন বেসরকারি, সহশিক্ষা
স্থাপিত ১৯৯৪
আচার্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্য ডঃ কারমেন জেড লাগামাগণা(Awarded “The Pamana ng Pilipino Award”)[১][২][৩]
অ্যাকাডেমিক কর্মকর্তা
২৭৭ জন (পূর্ণকালীন শিক্ষক)
স্প্রিং সেমিস্টার, ২০১১-২০১২ পর্যন্ত
শিক্ষার্থী ১০৭২৫ জন, স্প্রিং সেমিস্টার, ২০১১-২০১২ পর্যন্ত
ঠিকানা কুরিল, ঢাকা, বাংলাদেশ
শিক্ষাঙ্গন পৌর
রঙসমূহ গাঢ় নীল
 
সংক্ষিপ্ত নাম এআইইউবি
অধিভুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
ওয়েবসাইট www.aiub.edu

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ (এআইইউবি) (ইংরেজি: American International University-Bangladesh), বাংলাদেশের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়[৪] এটি রাজধানী ঢাকার কুরিল এলাকায় অবস্থিত। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৯৪ সালে।[৫] স্প্রিং সেমিস্টার ২০১১-২০১২ এর হিসাব অণুযায়ী এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০০০০ এর বেশি ছাত্র/ছাত্রী পড়াশোনা করছেন। প্রধানত প্রকৌশল ও ব্যাবসায় শিক্ষা শাখায় মোট ৪টি অনুষদ থেকে স্নাতক এবং ষনাতকোত্তর ডিগ্রি দেয়া হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৯৯৪ সালে ড. আনোয়ারুল আবেদীন এবং ফিলিপাইনের আমা গ্রুপ অফ কোম্পানিজ যৌথ বিনিয়োগে 'প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি অ্যাক্ট, ১৯৯২' এর অধীনে প্রতিষ্ঠিত করেন। পরবর্তিতে 'আমা গ্রুপ' (AMA Group of Companies) অংশিদারিত্ব ছেড়ে দিলে বিশ্ববিদ্যালয়টির নাম আমা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ থেকে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ (এআইইউবি) হয়।[৬][৭]

ক্যম্পাসসমূহ[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টি ঢাকার কুরিলে (কুরাতলী রোড) অবস্থিত। মোট ৭.৩৩ একর জমির উপরে বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাস অবস্থিত। প্রায় ১,৩০০,০০০ বর্গফুট এলাকা জুড়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ভবন রয়েছে। বিভিন্ন ভবনে বিভিন্ন অণুষদ ও বিভিন্ন বিভাগ অবস্থিত।

  • প্রশাসনিক ভবন
  • বাণিজ্য অণুষদ
  • প্রকৌশল অণুষদ
  • সমাজ বিজ্ঞান অণুষদ
  • বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি অণুষদ
  • বাণিজ্য অণুষদ
  • ডিন অফিস
  • গণিত ও স্থাপত্য বিভাগ

বিভিন্ন অণুষদের প্রাতিষ্ঠানিক রঙ[সম্পাদনা]

গাড় নীল বিশ্ববিদ্যালয়
উজ্জল নীল বিজ্ঞান অণুষদ
কমলা প্রকৌশল অণুষদ
সবুজ বাণিজ্য অণুষদ
বাদামী আর্টস ও সমাজ বিজ্ঞান অণুষদ

অণুষদ এবং বিভাগ সমূহ[সম্পাদনা]

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪ টি অণুষদের অধিনে ১৫ টি বিভাগ রয়েছে। এগুলো হল -

প্রকৌশল অণুষদ
  • ইলেকট্রিকাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং(EEE)
  • কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং(COE)
  • স্থাপত্য বিভাগ
বিজ্ঞান অণুষদ
  • কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং(CSE)
  • কম্পিউটার সায়েন্স (CS)
  • সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং(SE)
  • কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং(CSSE)
  • কম্পিউটার ইনফরমেশন সিস্টেম(CIS)
বাণিজ্য অণুষদ
  • বিবিএ(BBA)
  • এমবিএ(MBA)
সমাজ বিজ্ঞান অণুষদ
  • ইংরেজি বিভাগ
  • গনসংযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ
  • জনসাস্থ্য বিভাগ
  • অর্থনীতি বিভাগ
  • বিজ্ঞাপন বিভাগ
অন্যান্য
  • সিসকো নেটওয়াকিং এ্যাসোসিয়েট কোর্স (cisco)

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

এআইইউবি কম্পিউটার ল্যাব ২
মেশিন ল্যাব ১ এর একাংশ

ল্যাবরেটরী[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টি ইঞ্জিনিয়ারিং এর জন্য একটি আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয়। উক্ত বিশ্ববিদ্যালয় তে নিম্নে উল্লেখিত ল্যাবসমূহ রয়েছে।

  • এনালগ ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব
  • কম্পিউটার হার্ডওয়্যার ল্যাব
  • কম্পিউটার নেটওয়ার্ক ল্যাব
  • কন্ট্রোল সিস্টেম ল্যাব
  • ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব
  • ডিজিটাল সিগণাল প্রসেসিং ল্যাব
  • ইলেক্ট্রিকাল সার্কিটস ল্যাব
  • ইলেক্ট্রিকাল মেশিন্স ল্যাব
  • মিজারমেন্ট এন্ড ইন্সট্রুমেন্টেশন ল্যাব
  • মাইক্রো কম্পিউটার ল্যাব
  • মাইক্রো প্রসেসর ল্যাব
  • মাইক্রোওয়েভ ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব
  • মটর রিপেয়ার শপ
  • পিসিবি ইচিং রুম
  • ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব
  • টেলিকমিউনিকেশন ল্যাব
  • ভিএলএসআই ল্যাব
  • ভিএইচডিএল এন্ড লজিক সিনথেসিস ল্যাব
  • সুইচ গিয়ার
  • প্রজেক্ট ল্যাব
  • সেলুলার কমিউনিকেশন ল্যাব
এআইইউবি লাইব্রেরী

লাইব্রেরী[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস ১ ও ৫ এর নিচতলাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি অবস্থিত। এখানে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে একসাথে ৫০০ জনেরও বেশি ছাত্রের পড়ার ব্যবস্থা আছে। এ আই ইউ বি লাইব্রেরিতে রেফারেন্স ও জার্নালের একটি বিশাল সংগ্রহ রয়েছে। বর্তমানে লাইব্রেরিতে প্রায় ২৯,২৩১টি বিভিন্ন বিষয় এর উপর বই এবং ১৩২ টি অনলাইন জার্নাল রয়েছে। এছাড়াও লাইব্রেরিতে বিভিন্ন বিষয়ের উপর ৯১২ টি ভিডিও সিডির সংগ্রহ রয়েছে। লাইব্রেরী পরিচালনার জন্য এবং ব্যবহারকারীদের সুবিধার জন্য একটি কেন্দ্রীয় সফটওয়্যার সিস্টেম রয়েছে।

মিলনায়তন[সম্পাদনা]

নানা অণুষ্ঠান আয়োজন এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গোছানো মিলনায়তন আছে। মিলনায়তনে ২১০ জনের জন্য আসন এর ব্যবস্থা আছে।এতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রক সহ আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা বিদ্যমান।

সমাবর্তন এবং স্নাতক[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এই পর্যন্ত ১২টি সমাবর্তনে ৪৮৯৮ জন স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাবসমূহ[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়তে সহ-শিক্ষা কার্যক্রম এর অংশ হিসেবে বেশ কিছু ক্লাব এবং সংগঠন রয়েছে। সেগুলো হল -

  • এআইউবি এলামনাই এসোসিয়েশন
  • এআইউবি এসিএম ক্লাব
  • এআইউবি ক্রিকেট টিম
  • এআইউবি ড্রামা ক্লাব
  • এআইউবি ফিল্ম ক্লাব
  • এআইউবি পারফরমিং আর্টস ক্লাব
  • এআইউবি ওরাটরি ক্লাব
  • এআইউবি ফটোগ্রাফি ক্লাব
  • এআইউবি সফটওয়্যার ডেভলপমেন্ট ক্লাব
  • আইজেক ইন এআইউবি
  • এআইউবি ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাব
  • এআইউবি বিজনেস ক্লাব
  • এআইউবি সময় ক্লাব
  • এআইউবি কম্পিউটার ক্লাব

এফিলিয়েশন[সম্পাদনা]

এআইউবি এর সাথে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয় এবং সংস্থা এর সাথে সম্পর্ক এবং এফিলিয়েশন রয়েছে।

এছাড়াও, এআইউবি নিম্নলিখিত সংগঠনসমূহের সদস্যপদ লাভ করেছে -

  • বাংলাদেশ প্রকৌশল ইনস্টিটিউট (IEB)
  • ইন্টারন্যাশনাল এসোসিয়েশন অফ ইউনিভার্সিটিস (আইএইউ)
  • ইন্টারন্যাশনাল এসোসিয়েশন অফ ইউনিভার্সিটিস প্রেসিডেন্টস (আইএইউপি)
  • এশিয়া প্যাসিফিক কোয়ালিটি নেটওয়ার্ক (এপিকিউএন)
  • আমেরিকান এসোসিয়েশন অফ ইউনিভার্সিটি এডমিনিস্ট্রেশন (এএইউএ)
  • আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ইন বাংলাদেশ (এমচ্যাম)
  • এসোসিয়েশন অফ ইউনিভার্সিটিস ইন দা এশিয়া এন্ড দা প্যাসিফিক (এইউএপি)
  • স্কোর রিসিপেন্টস অফ জিম্যাট এন্ড টোয়েফেল উইথ কোড ৭০৬৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]