দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়

স্থানাঙ্ক: ২৩°৪৪′৪৯″ উত্তর ৯০°২২′৩২″ পূর্ব / ২৩.৭৪৬৯° উত্তর ৯০.৩৭৫৬° পূর্ব / 23.7469; 90.3756
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়
দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়.jpeg
দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো
ধরনবেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
সক্রিয়১৯৯৩ (1993)–২০১৬ (2016)
ঠিকানা
হাউজ নং. ২১, রোড নং. ৯/এ, ধানমন্ডি আর/এ
, ,
১২০৯
,
বাংলাদেশ

২৩°৪৪′৪৯″ উত্তর ৯০°২২′৩২″ পূর্ব / ২৩.৭৪৬৯° উত্তর ৯০.৩৭৫৬° পূর্ব / 23.7469; 90.3756
শিক্ষাঙ্গনশহুর
ওয়েবসাইটweb.archive.org/web/20180413043057/http://www.diu.ac.bd/

দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় ছিল ঢাকার ধানমন্ডিতে অবস্থিত একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৮৯ সালে এটি প্রতিষ্ঠা লাভ করে। এটি প্রতিষ্ঠা করেন সৈয়দ আলী আশরাফ। বিশ্ববিদ্যালয়টি বহি ক্যাম্পাস বিহীন। ১৯৯৩ সালে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন থেকে এটি অনুমোদন লাভ করে। ২০১৬ সালে অবৈধভাবে ক্যাম্পাস শাখা বাড়ানো এবং সনদ বাণিজ্যের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় এটি বন্ধ করে দেয়।[১][২][৩]

অনুষদ[সম্পাদনা]

এখানে বিবিএ, এমবিএ, এলএলবি, ইংরেজিতে বিএ অনার্স সহ বিভিন্ন বিষয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে শিক্ষা দান করা হত। এখানে নিন্মলিখিত অনুষদ ছিল:

  1. ধর্মীয় বিজ্ঞান অনুষদ
  2. মানব বিজ্ঞান অনুষদ
  3. প্রাকৃতিক বিজ্ঞান অনুষদ

শিক্ষক ও শিক্ষার্থী সংখ্যা[সম্পাদনা]

ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ছিল প্রায় ৩১৫৪। প্রতি বিভাগে প্রায় ১০ জন শিক্ষক ছিল। স্থায়ী শিক্ষক ৭২ জন, অস্থায়ী শিক্ষক ছিল ৫০ জন।

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

গ্রন্থাগার খোলা হত সকাল ১০.০০ মিনিটে এবং বন্ধ হত রাত ৮.০০টায়। গ্রন্থাগারের কার্ডধারীরা বই সংগ্রহ করতে পারত এবং বাসায় নিতে পারত। পাঠ্য বই ছাড়াও পত্রিকা, অভিসন্দর্ভ, রেফারেন্স বই, মানচিত্র এবং দুর্লভ বই এর সংগ্রহ ছিল এতে। এখানে একসাথে ২৫ জন থেকে ৩০ জন ছাত্র-ছাত্রী বসে পড়তে পারত। গ্রন্থাগার ভবন এডমিন ভবনের তৃতীয় তলায় অবস্থিত ছিল। প্রায় ২০,০০০ বইয়ের সংগ্রহ ছিল এই গ্রন্থাগারে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Govt orders closure of Darul Ihsan University, outer campuses of private varsities told to shut down"bdnes24.com। ২৬ জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৬ 
  2. "Govt shuts Darul Ihsan University"New Age। Dhaka। ২৭ জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৬ 
  3. "দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ বহাল"এনটিভি অনলাইন। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১৯ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]