বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির লোগো.png
নীতিবাক্যWe strive for maritime excellence.
ধরনপাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত২০১৩
আচার্যরাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্যরিয়ার এডমিরাল এম খালেদ ইকবাল
অবস্থান,
শিক্ষাঙ্গনঢাকা এবং চট্টগ্রাম (১০৬.৬ একর)
সংক্ষিপ্ত নামবশেমুরমেইউ
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন, বাংলাদেশ নৌবাহিনী
ওয়েবসাইটbsmrmu.edu.bd

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশে বাংলাদেশের ৩৭তম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়[১] এটি দক্ষিণ এশিয়ার দ্বিতীয় এবং বিশ্বের ১২ তম মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়। ব্লু ইকোনমি অর্জনের লক্ষ্যে মেরিটাইম বিষয়ক উচ্চতর পড়াশুনার জন্য প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের প্রথম 'বিশেষায়িত' বিশ্ববিদ্যালয় এটি। পাশাপাশি এখান থেকে মেরিন ক্যাডেটদের আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন 'ব্যাচেলর অব মেরিটাইম সায়েন্স' ডিগ্রি দেয়া হয়।[২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০১৩ সালে মেরিন ও মেরিটাইম সংশ্লিষ্ট উচ্চ শিক্ষার জন্য প্রথম এবং একমাত্র বিশেষায়িত সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়। [৪] বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মতো স্নাতক (সম্মান) শ্রেণী চালুর অংশ হিসেবে ৩ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিরপুর পল্লবীস্থ অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ধরিত্রী ও সমুদ্রবিজ্ঞান অনুষদ এর অধীনে বিএসসি (অনার্স) ইন ওশানোগ্রাফি এর ১ম ব্যাচের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়।


২০১৯ সালের জুলাই মাসে থেকে চট্টগ্রামে ১০৬.৬ একর জমির উপর স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। ২০২১ সালে প্রথম ধাপে এবং ২০২৫ সালে দ্বিতীয় ধাপে পূর্ণাঙ্গ ক্যাম্পাস নির্মাণ সম্পন্ন হবে। এক্ষেত্রে প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করা হচ্ছে।[৫]


উপাচার্য[সম্পাদনা]

  • রিয়ার অ্যাডমিরাল এম খালেদ ইকবাল

অনুষদসমূহ[সম্পাদনা]

ভবন-১ (ঢাকা ক্যাম্পাস)

নিরাপদ জাহাজ চলাচল ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসন, নৌ-প্রকৌশল ও প্রযুক্তি, সমুদ্রবিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক মেরিটাইম আইন ইত্যাদি বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে শিক্ষাদান ও গবেষণার লক্ষ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ৭টির মধ্যে নিম্ন বর্ণিত ৪টি অনুষদ (ফ্যাকাল্টি) স্নাতক পর্যায়ের জন্য চালু রয়েছে। এই ৭টি অনুষদে মোট ১৩টি ডিপার্টমেন্ট রয়েছে। তবে শুধুমাত্র ৫টি ডিপার্টমেন্ট স্নাতক পর্যায়ের জন্য চালু রয়েছে। এছাড়াও পাশাপাশি ব্যাচেলর অব মেরিন সায়েন্সও চালু রয়েছে মেরিন ক্যাডেটদের জন্য। এর বাইরে কিছু অতিরিক্ত বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিও দেয়া হচ্ছে। ভবিষ্যতে এসব অনুষদ থেকে স্নাতক ডিগ্রিও দেয়া হবে। [৬]

প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ[সম্পাদনা]

  • নেভাল আরকিটেকচার অ্যান্ড অফশোর ইঞ্জিনিয়ারিং

ধরিত্রী ও সমুদ্রবিজ্ঞান অনুষদ[সম্পাদনা]

  • ওশানোগ্রাফি এন্ড হাইড্রোগ্রাফি
  • মেরিন ফিশারিজ

জাহাজ ব্যবস্থাপনা অনুষদ[সম্পাদনা]

  • পোর্ট ম্যানেজমেন্ট এন্ড লজিস্টিকস

মেরিটাইম গভর্নেন্স অ্যান্ড পলিসি অনুষদ[সম্পাদনা]

  • মেরিটাইম আইন

মেরিটাইম বিজ্ঞান[সম্পাদনা]

  • মেরিটাইম বিজ্ঞান

স্নাতকোত্তর শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

উল্লিখিত কোর্সের বাইরে অন্যান্য কিছু বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রিও প্রদান করা হয়:

  • জাহাজ ব্যবস্থাপনা অনুষদ
    • মাস্টার্স ইন পোর্ট অ্যান্ড শিপিং ম্যানেজমেন্ট
  • ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ
    • এমবিএ ইন মেরিটাইম বিজনেস
    • এমবিএ ইন ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট
  • মেরিটাইম বিজ্ঞান
    • মাস্টার্স অব মেরিটাইম বিজ্ঞান

শর্ট (সার্টিফিকেট) কোর্স[সম্পাদনা]

  • সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট
  • ফ্রেইট ফরোয়ার্ডিং
  • মেরিন ইন্সুরেন্স অ্যান্ড ক্লেইম
  • বিপদজনক পণ্য নিয়ন্ত্রণ ও পরিবহন

ইনস্টিটিউটসমূহ[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বর্তমানে ১টি ইনস্টিটিউট রয়েছে এবং শীঘ্রই আরো ৩টি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠিত হবে।

বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশ শিক্ষা ইনস্টিটিউট[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠা: ২০১৯
অবস্থান: ভবন-২
পরিচালক: ক্যাপ্টেন ওয়াহিদ হাসান কুতুব উদ্দিন[৭]

নবায়নযোগ্য শক্তি ও মেরিন সম্পদ ইনস্টিটিউট[সম্পাদনা]

প্রস্তাবিত

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউট[সম্পাদনা]

প্রস্তাবিত

আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট[সম্পাদনা]

প্রস্তাবিত

গবেষণা কেন্দ্র[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর গবেষণার জন্য বর্তমানে একটি গবেষণা কেন্দ্র আছে:

  • স্নাতকোত্তর গবেষণা ব্যবস্থাপনা ও প্রযুক্তি স্থানান্তর কেন্দ্র [৮]

অবস্থান[সম্পাদনা]

  • স্থায়ী ক্যাম্পাস

হামিদচর, বাকলিয়া, চট্টগ্রাম।

  • অস্থায়ী ক্যাম্পাস

পল্লবী, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬।

কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

শিক্ষার্থীদের পড়ার এবং বই নেয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নিজস্ব গ্রন্থাগার বা লাইব্রেরি আছে। এখানে শিক্ষার্থীরা চাইলে বই পড়তে পারে কিংবা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বাসায়ও নিয়ে যেতে পারে।

কেন্দ্রীয় মিলনায়তন[সম্পাদনা]

ভবন-১ এর পঞ্চম তলায় একটি বড় এবং অত্যাধুনিক সুবিধা সম্বলিত মিলনায়তন রয়েছে। এতে আধুনিক সাউন্ড সিস্টেম, মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টের এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল অনুষ্ঠান, লেকচার, সেশন ইত্যাদি এখানেই আয়োজন করা হয়।

আবাসিক হল[সম্পাদনা]

শিক্ষার্থীদের থাকার সুবিধার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের ঢাকা ক্যাম্পাসে ২টি আবাসিক হল রয়েছে। হলদ্বয় মিরপুর ডিওএইচএসে অবস্থিত। আবাসিক হলদ্বয়ে অত্যাধুনিক সকল প্রকারের সুযোগ-সুবিধা বিদ্যমান। হলদ্বয় হল:

  • হল-১ (মেল উইং)
  • হল-২ (ফিমেল উইং)

স্বাস্থ্য কেন্দ্র[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য রক্ষার মৌলিক সুবিধাদি সম্বলিত একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র রয়েছে। এটি ভবন-১ এর নিচতলায় অবস্থিত। পাশাপাশি জরুরি সেবার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি আধুনিক অ্যাম্বুলেন্সও রয়েছে।

ক্যাফেটেরিয়া[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবন-১ এর তৃতীয় তলায় ক্যাফেটেরিয়া অবস্থিত। এখানে উন্নতমানের খাবার সুলভমূল্যে পাওয়া যায়। এটি সকাল ০৮:৩০ থেকে বিকেল ০৫:০০ পর্যন্ত খোলা থাকে। এখানে একটি এলইডি টেলিভিশন এবং নিরাপদ পানির ব্যবস্থা আছে।

বঙ্গবন্ধু কর্ণার[সম্পাদনা]

ভবন-১ এ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে একটি কর্ণার তৈরি করা হয়েছে, যার নাম বঙ্গবন্ধু কর্ণার

সহযোগী বিশ্ববিদ্যালয়[সম্পাদনা]

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির সাথে দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পারস্পরিক সহযোগিতার চুক্তি রয়েছে। [৯]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

জাতীয়[সম্পাদনা]

ক্লাব ও সংগঠনসমূহ[সম্পাদনা]

বশেমুরমেইউতে বর্তমানে ৭টি সক্রিয় ক্লাব রয়েছে:

  • বশেমুরমেইউ সায়েন্স ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ রিসার্চ ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ কালচারাল ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যান্ড ডিবেট ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ হাইকিং ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ বিজনেস অ্যান্ড ক্যারিয়ার ক্লাব
  • বশেমুরমেইউ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি

অধিভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]