আফিফ হোসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আফিফ হোসেন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামআফিফ হোসেন
জন্ম (1999-09-22) ২২ সেপ্টেম্বর ১৯৯৯ (বয়স ১৯)
খুলনা, বাংলাদেশ
ডাকনামধ্রুব
ব্যাটিংয়ের ধরনবাঁহাতি
বোলিংয়ের ধরনডান হাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটিং অল-রাউন্ডার
উৎস: Cricinfo

আফিফ হোসেন (জন্ম ২২ সেপ্টেম্বর ১৯৯৯) হলেন একজন বাংলাদেশী ক্রিকেটার[১] ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তাকে শ্রীলঙ্কা দলের বিপক্ষে বাংলাদেশে টি২০ আন্তর্জাতিক দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[২] ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার টি২০ অভিশেক হয়।[৩]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান-এর একজন ছাত্র ছিলেন, যেটি মূলত বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, যে প্রতিষ্ঠানটি সাকিব আল হাসান এবং মুশফিকুর রহিম-এর মত খেলোয়াড়দের উদ্ভূত করেছে। তিনি অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ে একজন "বিগ হিটার" হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন, এবং কোচরা তাকে জনপ্রিয় বাংলাদেশি ওপেনার ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল-এর অনুরুপে আবিষ্কার করেন।[৪]

ঘরোয়া কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৭ বছর ৭২ দিন বয়সে, ২০১৬ সালের ৩রা ডিসেম্বর, তিনি সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে টি২০ ক্রিকেটের প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-এর ২০১৬-১৭ মৌসুমে তার দল রাজশাহী কিংস-এর হয়ে অভিষেকেই ৫ উইকেট শিকার করেন।[৫][৬] তিনি লিগ পর্বের শেষার্ধে দিকে খেলেন, ও অভিষেকেই চিটাগাং ভাইকিংস-এর বিপক্ষে মাত্র ২১ রান দিয়ে ৫ উইকেট শিকার করেন, উল্লেখ্যঃ তার শিকার করা উইকেট সমূহের মধ্যে একটি ছিল ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল-এর উইকেট।[৭]

২০১৭ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারী, পূর্ব অঞ্চলের হয়ে তিনি ২০১৬–১৭ বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগ-এ প্রথম-শ্রেনীর ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন। ওপেনিং এ ব্যাটিং করে তিনি প্রথম ইনিংসে ১০৫ রান করেন, এবং ম্যাচটির সেরা খেলোয়াড় হিসেবে নির্বাচিত হন।[৮]

২০১৭ সালের ৫ই জুন, ২০১৬–১৭ ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগ-এ তিনি তার দল আবাহনী লিমিটেডের হয়ে হ্যাট-ট্রিক করেন।[৯]

অনূর্ধ্ব-১৯ কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১৬ এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টে তিনি বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সহ-অধিনায়ক ছিলেন।[১০] ২০১৭ সালে ডিসেম্বরে, নিউজিল্যান্ড-এ অনুষ্ঠিত হওয়া ২০১৮ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ-এর জন্য ঘোষিত বাংলাদেশ দলে তার নামও ষোষণা করা হয়েছিল।[১১] প্রতিযোগিতাটিতে তিনি ২৭৬ রান করে, তিনি বাংলাদেশের দলের মধ্যে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ছিলেন।[১২] টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হওয়ার পরবর্তীতে, ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল বা (আইসিসি) তাকে বাংলাদেশ দলের উদীয়মান তারকা হিসেবে আখ্যা দেয়।[১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Afif Hossain"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  2. "Bangladesh pick five uncapped players for Sri Lanka T20I"ESPN Cricinfo। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  3. "1st T20I (N), Sri Lanka Tour of Bangladesh at Dhaka, Feb 15 2018"ESPN Cricinfo। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. "Who is Afif Hossain?"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  5. "Bangladesh Premier League, 40th Match: Chittagong Vikings v Rajshahi Kings at Dhaka, Dec 3, 2016"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  6. "Preview: Bangladesh U19 v Namibia U19"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০১৮ 
  7. "Debutant Afif's 5 for 21 stuns Chittagong"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  8. "Bangladesh Cricket League, East Zone (Bangladesh) v North Zone (Bangladesh) at Fatullah, Feb 11-14, 2017"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  9. "Afif's hat-trick sets up mouthwatering finish to DPL"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০১৭ 
  10. "Bangladesh squad named for U-19 Asia Cup"Dhaka Tribune। সংগ্রহের তারিখ ১৩ নভেম্বর ২০১৬ 
  11. "Saif Hassan likely to lead Bangladesh U-19 at World Cup"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  12. "ICC Under-19 World Cup, 2017/18 - Bangladesh Under-19s: Batting and bowling averages"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  13. "U19CWC Report Card: Bangladesh"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮