সিসেলি টাইসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সিসেলি টাইসন
Cicely Tyson
Cicely Tyson.jpg
১৯৯৭ সালে টাইসন
জন্ম
সিসেলি এল. টাইসন

(1924-12-19) ডিসেম্বর ১৯, ১৯২৪ (বয়স ৯৫)
পেশাঅভিনেত্রী, মডেল
কর্মজীবন১৯৪৮-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীকেনেথ ফ্র্যাঙ্কলিন (বি. ১৯৪২)[১] (বিচ্ছেদের তারিখ অজানা)
মাইলস ডেভিস (বি. ১৯৮১; বিচ্ছেদ. ১৯৮৯)

সিসেলি এল. টাইসন (জন্ম ১৯ নভেম্বর ১৯২৪) হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী ও সাবেক ফ্যাশন মডেল। সাত দশকের অধিক সময়ের কর্মজীবনে তিনি পর্দা ও মঞ্চে বলিষ্ঠ আফ্রিকান-মার্কিন নারী চরিত্রে কাজের জন্য সুপরিচিত।[২][৩] তিনি তিনটি প্রাইমটাইম এমি পুরস্কার, চারটি ব্ল্যাক রিল পুরস্কার, একটি স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কার, একটি টনি পুরস্কার, একটি একাডেমি সম্মানসূচক পুরস্কার ও একটি পিবডি পুরস্কার অর্জন করেছেন।

কর্মজীবনের শুরুতে চলচ্চিত্রে ও টেলিভিশনে ছোট চরিত্রে অভিনয়ের পর টাইসন সাউন্ডার (১৯৭২) চলচ্চিত্রে রেবেকা মরগান চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকের নজর কাড়েন এবং সমালোচকদের প্রশংসা লাভ করেন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারসেরা নাট্য চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ১৯৭৪ সালের টেলিভিশন চলচ্চিত্র দি অটোবায়োগ্রাফি অব মিস জেন পিটম্যান-এ নাম ভূমিকায় অভিনয় করে তিনি আরও সমাদৃত হন, এবং দুইটি এমি পুরস্কার অর্জন করেন ও একটি বাফটা পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

টাইসন ১৯২৪ সালের ১৯শে ডিসেম্বর নিউ ইয়র্ক সিটির হারলেমে জন্মগ্রহণ করেন।[৪][৫] তার মাতা ফ্রেডেরিকা টাইসন একজন গৃহকর্মী ছিলেন এবং পিতা উইলিয়াম অগাস্টিন টাইসন কাঠমিস্ত্রী, রঙমিস্ত্রী ও অন্য যেসব কাজ পেতেন তাই করতেন। তার পিতামাতা ওয়েস্ট ইন্ডিজের নেভিস থেকে অভিবাসিত হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন।[৬][৭][৮] তার পিতা ২১ বছর বয়সে নিউ ইয়র্ক সিটিতে পৌঁছান এবং ১৯১৯ সালের ৪ঠা আগস্ট এলিস দ্বীপপুঞ্জে আসেন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Join Ancestry"www.ancestry.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  2. "Cicely Tyson"এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  3. মেলটন, লরি (ডিসেম্বর ৭, ২০১৫)। "Cicely Tyson: Legendary Portrait Of Beauty, Courage And Strength"সিবিএস স্যাক্রেমান্টো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  4. "New York, Naturalization Records, 1882-1944 (database online)"। Ancestry.com. Original source: The National Archives and Records Administration (NARA), Washington, D.C.; Petitions for Naturalization from the U.S. District Court for the Southern District of New York, 1897-1944; Series M1972, Roll 956। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  5. "Cicely Tyson Biography"। biography.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  6. "Cicely Tyson profile"। Filmreference.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  7. CICELY TYSON: BAH, HUMBUG? ACTRESS STARS AS MS. SCROOGE.(LIVING). The Cincinnati Post, November 28, 1997.
  8. ক্লেমসরুড, জুডি (১৯৭২-১০-০১)। "Cicely, the Looker From 'Sounder'; Cicely, the Looker"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 
  9. "The Staue of Liberty"Ellisisland.org। Ellis Island Foundation, Inc। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]