ফের্নান্ডা মন্টেনেগ্রো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফের্নান্ডা মন্টেনেগ্রো

Fernanda Montenegro em 2015 cropped.jpg
২০১৬ সালে মন্টেনেগ্রো
জন্ম
আর্লেত পিনহিরো এস্তেভেস তোরেস

(1929-10-16) ১৬ অক্টোবর ১৯২৯ (বয়স ৯১)
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৪০-এর দশক-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীফের্নান্দো তোরেস
(বি. ১৯৫৪; মৃ. ২০০৮)
সন্তানক্লাউদিয়া তোরেস
ফের্নান্দা তোরেস
ওয়েবসাইটwww2.uol.com.br/fernandamontenegro/

ফের্নান্ডা মন্টেনেগ্রো নামে সুপরিচিত আর্লেত পিনহিরো এস্তেভেস তোরেস ওএনএম (জন্ম ১৬ অক্টোবর ১৯২৯) হলেন একজন ব্রাজিলীয় অভিনেত্রী। তাকে সর্বকালের সেরা ব্রাজিলীয় অভিনেত্রী হিসেবে গণ্য করা হয়, এবং তাকে ব্রাজিলীয় মঞ্চ, চলচ্চিত্র ও পরিবেশন কলার সেরা নারী তারকা হিসেবে অভিহিত করা হয়।[১][২] তিনি সেন্ট্রাল স্টেশন (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেছেন।[৩][৪][৫][৬] তিনি একমাত্র ব্রাজিলীয় অভিনেত্রী হিসেবে এবং পর্তুগিজ ভাষার চলচ্চিত্রে কাজ করে একমাত্র অভিনেত্রী হিসেবে অস্কারের মনোনয়ন পেয়েছেন।[৭][৮] এছাড়া তিনি দোস দে মে (২০১৩)-এ অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে প্রথম ব্রাজিলীয় হিসেবে আন্তর্জাতিক এমি পুরস্কার অর্জন করেছেন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Dama do teatro, Fernanda Montenegro comemora 80 anos."noticias.terra.com.br। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  2. "Fernanda Montenegro, a dama do teatro brasileiro comemora 80 anos"canalteatro.com.br (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৩-১২-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  3. "Fernanda Montenegro: uma diva entre estrelas"। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৪ 
  4. "Fernanda Montenegro no Espelho"G1। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  5. "Fernanda Montenegro: uma diva entre estrelas"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  6. "Fernanda Montenegro e Walter Salles desfrutam a felicidade, depois de Central do Brasil ser indicado aos Oscar de melhor atriz e melhor filme em língua estrangeira"ISTOÉ। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  7. "Latinos In The Oscars: Almost 60 Winners And Nominees Along The History Of The Academy Awards! [PHOTOS]" (English ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  8. "History of Latino Academy Award Nominees & Winners" (english ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 
  9. "Fernanda Montenegro leva Emmy e agradece diretores de 'Doce de mãe'"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]