অ্যাঞ্জেলা বাসেট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অ্যাঞ্জেলা বাসেট
Angela Bassett
Angela Bassett by Gage Skidmoe.jpg
২০১৫ সালে বাসেট
জন্ম
অ্যাঞ্জেলা ইভলিন বাসেট

(1958-08-16) আগস্ট ১৬, ১৯৫৮ (বয়স ৬২)
মাতৃশিক্ষায়তনইয়েল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএ, এমএফএ)
পেশাঅভিনেত্রী, পরিচালক, প্রযোজক, সক্রিয়কর্মী
কর্মজীবন১৯৮৫-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীকোর্টনি বি. ভেন্স (বি. ১৯৯৭)
সন্তান

অ্যাঞ্জেলা ইভলিন বাসেট ভেন্স (জন্ম ১৬ আগস্ট ১৯৫৮) একজন মার্কিন অভিনেত্রী, পরিচালক, প্রযোজক ও সক্রিয়কর্মী। তিনি জীবনীনির্ভর চলচ্চিত্রে কাজের জন্য সুপরিচিত। তিনি হোয়াট্‌স লাভ গট টু ডু উইথ ইট (১৯৯৩) চলচ্চিত্রে টিনা টার্নার চরিত্রে অভিনয়ের জন্য সেরা সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এছাড়া বাসেট ম্যালকম এক্স (১৯৯২) ও প্যান্থার (১৯৯৫) চলচ্চিত্রে বেটি শাবাজ চরিত্রে, দ্য জ্যাকসন্স: অ্যান আমেরিকান ড্রিম (১৯৯২) চলচ্চিত্রে ক্যাথরিন জ্যাকসন, নটরিয়াস (২০০৯) চলচ্চিত্রে ভোলেটা ওয়ালেস এবং বেটি অ্যান্ড করেটা (২০১৩) চলচ্চিত্রে করেটা স্কট কিং চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র ভূমিকা হল বয়েজ এন দ্য হুড (১৯৯১)-এ রেভা স্টাইলস, ওয়েটিং টু এক্সহেল (১৯৯৫)-এ বার্নি হ্যারিস, কনট্যাক্ট (১৯৯৭)-এ রেচেল কনস্ট্যানটাইন, অলিম্পাস হ্যাজ ফলেন (২০১৩) ও লন্ডন হ্যাজ ফলেন (২০১৬)-এ লিন জ্যাকবস, ব্ল্যাক প্যান্থার (২০১৮) ও অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম (২০১৯)-এ রানি রামোন্ডা।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

বাসেট ১৯৫৮ সালের ১৬ই আগস্ট নিউ ইয়র্ক সিটিতে জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতা বেটি জেন (বিবাহপূর্ব গিলবার্ট; ১৯৩৫-২০১৪)[১] এবং পিতা ড্যানিয়েল বেঞ্জামিন বাসেট (১৯২৪-১৯৮১)।[২] অ্যাঞ্জেলা হারলেমে বেড়ে ওঠেন।[৩][৪][১] তার নামের মধ্যাংশ তার ফুফু ইভলিনের নামানুসারে রাখা হয়েছিল।[৪] বাসেট বংশনামটির উৎপত্তি হয় তার প্র-পিতামহ উইলিয়াম হেনরি বাসেটের নিকট থেকে। তিনি তার সাবেক ক্রীতদাস মালিকের বংশনাম থেকে এই নামটি গ্রহণ করেন।[৫] বাসেটের জন্মের ১০ মাস পর তার মাতা পুনরায় অন্তঃসত্ত্বা হন এবং দ্বিতীয় সন্তান ডিনেটের জন্ম দেন। বাসেটের ভাষ্যমতে এই গর্ভধারণের ফলে বিষয়গুলো কঠিনতর হতে থাকে। বাসেটের পিতামাতা তাকে তার ফুফু গোল্ডেনের কাছে রেখে আসেন। তার ফুফুর কোন সন্তান না থাকায় তিনি বাচ্চাদের পছন্দ করতেন এবং তাদের যত্ন করতেন।[৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৫ সালে বাসেট টিভি চলচ্চিত্র ডাবলটেক-এ যৌনকর্মী চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে টেলিভিশনে কাজ শুরু করেন। তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে এফ/এক্স (১৯৮৬) চলচ্চিত্রে সংবাদ প্রতিবেদক চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে, যার জন্য তাকে স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ডে যোগ দেওয়ার দরকার ছিল।[৭] বাসেট আরও কাজ পাওয়ার জন্য ১৯৮৮ সালে লস অ্যাঞ্জেলেসে আসেন এবং বয়েজ এন দ্য হুড (১৯৯১) ও ম্যালকম এক্স (১৯৯২) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন। ম্যালকম এক্স চলচ্চিত্রে বেটি শাবাজ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি ইমেজ পুরস্কার অর্জন করেন। পুরস্কার পেলেও চলচ্চিত্রটি ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া অর্জন করতে পারেনি। সমালোচকগণ উল্লেখ করেন যে চলচ্চিত্রটি ম্যালকম এক্সের আত্মজীবনীর উন্মত্ততা ধরতে ব্যর্থ হয়।[৮] ম্যালকম এক্স নির্মাণকালে পরিচালক স্পাইক লি বাসেটকে ম্যালকম এক্সকে গুলি করার সময়ের একটি টেপ দেখান, কারণ তারা এই দৃশ্যটি ধারণ করবেন। বাসেট এই রেকর্ডিংটিকে "ভীতিপ্রদ" বলে উল্লেখ করেন; কিন্তু সম্পূর্ণ দৃশ্যের বিবরণ শোনার পর তিনি সেই যন্ত্রণা ধারণ করতে এবং এই দৃশ্যটি পুনঃসৃজনে সমর্থ হন। বাসেট অনুভব করেন যে এই গুপ্তহত্যার দৃশ্যটি সঠিকভাবে ধারণ করা গুরুত্বপূর্ণ এবং অবাক হন বেটি কীভাবে সবকিছু সঠিকভাবে চলার, পরিবারের লালনপালন, তাদের শিক্ষিত করে তোলা ও তাদের নিয়ে বেঁচে থাকার মনোবল অর্জন করেছিলেন।[৯] ম্যালকম এক্স চলচ্চিত্রটি ১৯৯২ সালের ১৮ই নভেম্বর মুক্তি পায়। তিনি প্যান্থার (১৯৯৫) চলচ্চিত্রে পুনরায় বেটি শাবাজ চরিত্রে অভিনয় করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Betty Jane BASSETT"। লিগ্যাসি। নভেম্বর ২৯, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০২০ 
  2. "Daniel Benjamin Bassett, Jr."ফাইন্ড এ গ্রেইভ। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০২০ 
  3. বাসেট, অ্যাঞ্জেলা (২০০৯), পৃষ্ঠা ১১।
  4. বাসেট, অ্যাঞ্জেলা; ভেন্স, কোর্টনি বি.; বেয়ার্ড, হিলারি (২০০৭)। Friends: A Love Storyবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন। কিমানি প্রেস। আইএসবিএন 9780373830589 
  5. "Nas, Angela Bassett, and Valerie Jarrett on 'Finding Your Roots'"। জিনিয়ালজি ম্যাগাজিন 
  6. বাসেট, অ্যাঞ্জেলা (২০০৯), পৃষ্ঠা ১২-১৩।
  7. "How Did You Get Your SAG-AFTRA Card?" TV Guide. January 13, 2014. p. 10.
  8. বোয়ার, জে (জুলাই ২৩, ১৯৯৩)। "'X' Fails To Capture Rage Of Autobiography"অরল্যান্ডো সেন্টিনেল। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০২০ 
  9. বাসেট, অ্যাঞ্জেলা (২০০৯), পৃষ্ঠা ১৫৪-১৫৫।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]