বাগডোগরা বিমানবন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
বাগডোগরা বিমানবন্দর
Bagdogra International Airport.jpg
বাগডোগরা বিমানবন্দরের বিমান উঠা/নামার স্থান
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরন সামরিক/পাবলিক
মালিক ভারতীয় বায়ুসেনা
পরিচালক ভারতের বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ
সেবা দেয় শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং
অবস্থান বাগডোগরা, দার্জিলিং জেলা ,পশ্চিমবঙ্গ
এএমএসএল উচ্চতা ৪১২ ফুট / ১২৬ মিটার
স্থানাঙ্ক ২৬°৪০′৫২″ উত্তর ০৮৮°১৯′৪৩″ পূর্ব / ২৬.৬৮১১১° উত্তর ৮৮.৩২৮৬১° পূর্ব / 26.68111; 88.32861স্থানাঙ্ক: ২৬°৪০′৫২″ উত্তর ০৮৮°১৯′৪৩″ পূর্ব / ২৬.৬৮১১১° উত্তর ৮৮.৩২৮৬১° পূর্ব / 26.68111; 88.32861
মানচিত্র
IXB পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
IXB
IXB
IXB ভারত-এ অবস্থিত
IXB
IXB
রানওয়েসমূহ
দিকনির্দেশনা দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
ফুট মি
১৮/৩৬ কংক্রিট/আস্ফাল্ট
পরিসংখ্যান (২০১৪-১৫)
যাত্রী উঠা/নামা 2,255,768 (বৃদ্ধি48.0%)
বিমান উঠা/নামা 15,954 (বৃদ্ধি37.5%)
কার্গো টন 4,986 (বৃদ্ধি15.6%)

বাগডোগরা বিমানবন্দর হল শিলিগুড়ি থেকে ১৬ কিমি দূরে অবস্থিত একটি বিমানবন্দর। এটি পশ্চিমবঙ্গের উত্তর অংশের যাত্রী পরিবহন করে। বিমানবন্দরটি জলপাইগুরি শহর থেকে ৫০ কিমি ও দার্জিলিং শহর থেকে ৫৮ কিমি দূরে অবস্থিত। বিমানবন্দরটি থেকে কলকাতা, মুম্বাই, দিল্লি, ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, গুয়াহাটি, প্রভৃতি শহরে বিমানযোগাযোগ রয়েছে। এছাড়া এই বিমানবন্দর থেকে থিম্পু(পার) ও ব্যাংককের সঙ্গে আন্তর্যাতিক রুটে বিমানযোগাযোগ রয়েছে। বিমানবন্দরটি থেকে সিকিম এর রাজধানী গ্যাংটক এ হেলিকপ্টর পরিসেবা প্রদান করা হয়। ২০১৪-২০১৫ সালে বিমানবন্দলটি ১ মিলিয়নের বেশি যাত্রী পরিবহন করেছে।

এয়ার ফোর্স স্টেশন[সম্পাদনা]

বিমানবন্দরটি আইএএফ নং ২০ উইং এবং মিকোয়াইন-গুরেভিচ মিগ -২১ (মিগ -২১) ফ্লাইটের যোদ্ধা বিমানের সংখ্যা ৮ স্কোয়াড্রন এবং হেলিকপ্টার ইউনিট এর ঘাটি। আলিপুরদুয়ার জেলার হাসিমারায় বায়ু সেনা ঘাঁটির পাশাপাশি; এটি উত্তরবঙ্গ, সিকিমসহ বৃহত্তর এলাকা জুড়ে যুদ্ধ বিমানের পরিচালনা করে থাকে এবং প্রয়োজন হলে ভুটানে পরিসেবা প্রদান করে। ভারতীয় সেনাবাহিনী XXXIII কর্প জন্য সুকণা কাছাকাছি অবস্থিত সব সামরিক বিমান ট্রাফিক বেস পূরণ করে।

সম্প্রসারন[সম্পাদনা]

বর্তমানে বিমানবন্দরটির সম্প্রসারনের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার ১৪ একর জমি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দিয়েছে। বিমানবন্দরটির সম্প্রসারন সম্পূর্ন হলে বিমানবন্দরটির যাত্রী পরিবহন ক্ষমতা বাড়বে।

বিমান সংস্থা ও গন্তব্য[সম্পাদনা]

বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
এয়ারএশিয়া ইন্ডিয়া দিল্লি,[৫] কলকাতা
এয়ার ডেকান দুর্গাপুর (শুরু ২০১৮)[৬]


এয়ার ইন্ডিয়া দিল্লি, কলকাতা
ড্রুক এয়ার ব্যাংকক-সুবর্নভূমি, পারো
গো এয়ার চেন্নাই, দিল্লি, গৌহাটি, হায়দ্রাবাদ , কলকাতা
ইন্ডিগো ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, দিল্লি, গৌহাটি, কলকাতা, মুম্বই
জেট এয়ারওয়েজ দিল্লি, কলকাতা, মুম্বই
স্পাইসজেট চেন্নাই, দিল্লি, কলকাতা, বেঙ্গালোর, মুম্বই
ভিস্তারা দিল্লি, গোহাটি

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Traffic News for the month of March 2018: Annexure-III" (PDF)Airports Authority of India। ১ মে ২০১৮। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৮ 
  2. "Traffic News for the month of March 2018: Annexure-II" (PDF)Airports Authority of India। ১ মে ২০১৮। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৮ 
  3. "Traffic News for the month of March 2018: Annexure-IV" (PDF)Airports Authority of India। ১ মে ২০১৮। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৮ 
  4. "TRAFFIC STATISTICS - DOMESTIC & INTERNATIONAL PASSENGERS" (jsp)। Aai.aero। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  5. https://twitter.com/airasiain/status/821613863393259520
  6. "Regional connectivity gets wings; five airlines get to fly 128 routes" 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]