অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুর বিমানবন্দর একটি অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দর।
টঙ্গা বিমানবন্দর তানজানিয়াতে
মুম্বাই বিমানবন্দরে অন্তর্দেশীয় প্রস্থানের প্রান্তিক ১সি (৪)
মুবারবিন বিমানবন্দর, মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া

একটি অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দর এমন একটি বিমানবন্দর যা শুধুমাত্র দেশীয় উড়ান পরিচালনা করে- একই দেশের মধ্যে উড়ান। অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দরে শুল্ক বিভাগ ও অভিবাসন সুবিধা নেই এবং সেই কারণে একটি বিদেশী বিমানবন্দর থেকে আগত  উড়ান পরিচালনা করতে পারে না।

এই বিমানবন্দরগুলিতে প্রায়ই ছোট বা মাঝারি উড়োজাহাজ এবং আঞ্চলিক এয়ার ট্রাফিক পরিচালনা করতে যথেষ্ট ছোট রানওয়েতে থাকে। বেশিরভাগ দেশে নিরাপত্তা পরীক্ষণ/মেটাল ডিটেক্টর ব্যবহার করা হয়, তবে আন্তর্জাতিক উড়ানে নিরাপত্তা পরীক্ষণ ব্যবস্থার ব্যবহারের কয়েক দশক পরে এই ধরনের নিরাপত্তা পরীক্ষণ ব্যবস্থা অন্তর্দেশীয় উড়ানগুলির জন্য স্থাপন করা হয়েছিল।

কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অধিকাংশ পৌরসভা বিমানবন্দর এই শ্রেণীবিভাগের হয়। কানাডায় আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে, কানাডার মধ্যে ফ্লাইটগুলি পরিচালনা করে এমন অন্তর্দেশীয় প্রান্তিক রয়েছে (কানাডীয় শহর থেকে অন্য একটি শহরে উড়ান রয়েছে)।

উপরন্তু, কিছু "আন্তর্জাতিক" নামক বিমানবন্দর মূলত অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দর যা নিয়মিতভাবে আন্তর্জাতিক উড়ান পরিচালনা করে না। এই বিমানবন্দরগুলির মধ্যে অনেকগুলি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মাধ্যমে অবস্থিত।

যুক্তরাজ্যে একটি গার্হস্থ্য বিমানবন্দরে একটি উদাহরণ ওয়িক বিমানবন্দর, যেখান থেকে অন্যান্য স্কটস বিমানবন্দরের মধ্যে উড়ান পরিচালিত হয়।

কিছু ছোটো দেশ বা অঞ্চলে কোনও সার্বজনীন অন্তর্দেশীয় বিমানবন্দর বা এমনকি সরকারী গন্তব্যের ফ্লাইট নেই, এর আকার বা রাজনৈতিক কারণে, উদাহরণস্বরূপ বেলজিয়াম, হংকং, কুয়েত, ম্যাকাও, সিঙ্গাপুর এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আঞ্চলিক বিমানবন্দর[সম্পাদনা]

একটি আঞ্চলিক বিমানবন্দর অপেক্ষাকৃত ছোট বা আংশিকভাবে জনবহুল ভৌগোলিক এলাকার মধ্যে বিমান যাত্রীদের একটি বিমানবন্দর। একটি আঞ্চলিক বিমানবন্দরে সাধারণত দেশের মধ্যে যাত্রী পরিবহন করার জন্য শুল্ক বিভাগ ও অভিবাসন সুবিধা নেই। কানাডায় আঞ্চলিক বিমানবন্দর সাধারণত কানাডা মধ্যে উড়ান সংযোগ ঘটায় এবং যুক্তরাষ্ট্রে কিছু উড়ান পরিষেবা প্রদান করে। কয়েকটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আঞ্চলিক বিমানবন্দর, যাদের মধ্যে বেশিরভাগই নিজেদেরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বলে মনে করে, তাদের শুল্ক বিভাগ ও অভিবাসন সুবিধাগুলি একটি প্রয়োজনীয় ভিত্তিতে সক্রিয় করে তুলতে পারে, কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কেবলমাত্র অন্তর্দেশীয় যাত্রী পরিষেবা দেয়।

এই বিমানবন্দরগুলি ব্যবহার করে বিমান ছোট ব্যবসায়ীক জেট, বেসরকারী বিমান এবং টাবারপ্পপ চালিত বা আঞ্চলিক জেটলিনার উভয় ধরনের বিমান পরিচালনা করে সাধারণত আঞ্চলিক বিমান সংস্থা। এই উড়ান সাধারণত একটি বৃহত্তর আঞ্চলিক কেন্দ্র থেকে ছোট দূরত্বের মধ্যে চলাচল করে। এই বিমানবন্দর সাধারণত ছোট রানওয়ে যুক্ত হয়, যা অনেক জ্বালানী সঙ্গে ভারী বিমান পরিচালনা করতে পাড়েনা।

ইউরোপ[সম্পাদনা]

ইউরোপীয় দেশে, আঞ্চলিক বিমানবন্দর প্রায়ই বিমানবন্দর হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয় যা দেশের রাজধানী/সবচেয়ে বড় শহরে বিমান পরিষেবা পরিবেশন করে না। বৃহত্তর আঞ্চলিক বিমানবন্দরের উদাহরণ হিসাবে রয়েছে স্পেনের বার্সেলোনা এল প্র্যাট বিমানবন্দর এবং ম্যানচেস্টার বিমানবন্দর, যা ইউরোপের সবচেয়ে দামী বিমানবন্দরগুলির মধ্যে ধরা হয় এবং বিমানবন্দরগুলি বড় ও ছোট বিমান উভয় দ্বারা ব্যবহৃত হয়।ফ্রান্স, জার্মানি এবং সুইডেনের মত দেশে, একটি আঞ্চলিক বিমানবন্দর হল ছোট বিমানের জন্য একটি বিমানবন্দর, যদিও বর্তমানে আঞ্চলিক বিমানবন্দরগুলি বড় বিমানবন্দরের মত জাতীয় বিমান হাবের দিকে আগ্রসর হচ্ছে।  ছোট আঞ্চলিক বিমানবন্দরের উদাহরণ কভেন্ট্রি বিমানবন্দর এবং ওয়রশিপ বিমানবন্দর। উত্তর নরওয়েতে, দীর্ঘ দূরত্ব এবং অনেক স্বল্প রানওয়ে বিমানবন্দর থেকে দেশের একটি আঞ্চলিক হাবে যাওয়ার উড়ান পাওয়া যায়, তবে রাজধানীর জন্য উড়ান পাওয়া যায় না।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

নোট[সম্পাদনা]