সালেম বিমানবন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সালেম বিমানবন্দর
Salem Airport, Tamilnadu.jpg
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরনজনসাধারন
মালিকভারত সরকার
পরিচালকভারতীয় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ
সেবা দেয়সালেম,নামাক্কাল,কারুর
এরোডে,কৃষ্ণাগিরি,ধর্মপুর.
অবস্থানকমলপুরাম
এএমএসএল উচ্চতা৩০৭ মিটার / ১,০০৮ ফুট
স্থানাঙ্ক১১°৪৬′৫৫″ উত্তর ০৭৮°০৩′৫২″ পূর্ব / ১১.৭৮১৯৪° উত্তর ৭৮.০৬৪৪৪° পূর্ব / 11.78194; 78.06444স্থানাঙ্ক: ১১°৪৬′৫৫″ উত্তর ০৭৮°০৩′৫২″ পূর্ব / ১১.৭৮১৯৪° উত্তর ৭৮.০৬৪৪৪° পূর্ব / 11.78194; 78.06444
মানচিত্র
এসএক্সভি ভারত-এ অবস্থিত
এসএক্সভি
এসএক্সভি
সালামের অবস্থান
রানওয়েসমূহ
দিকনির্দেশনা দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
মি ফুট
০৪/২২ ১,৮০৬ ৫,৯২৫ আস্ফাল্ট
সূত্র: ডিএএফআইএফ[১][২]

সালেম বিমানবন্দর (আইএটিএ: এসএক্সভি, আইসিএও: ভিওএসএম) ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের সালেম শহর থেকে ১৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে কামালপুরম এলাকাতে অবস্থিত। সালেম বিমানবন্দরটি চেন্নাই, কোয়েম্বাটুর, তিরুচিরাপল্লী, মাদুরাই, তুতিকোরিন বিমানবন্দরের পরে তামিলনাড়ুর ষষ্ঠ ব্যস্ততম বিমানবন্দর।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সালেম বিমানবন্দরটি ১৯৯৩ সালের এপ্রিল মাসে নির্মিত হয়েছিল ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের দ্বারা ১৩৬ একর জমি দানের মাধ্যমে। করে মোট ₹৪৯ লাখ টাকার মধ্যে ৩০ লাখ টাকা সেলিম ইস্পাত কারখানা কর্তৃক প্রদান করা হয়। মূলত ছোট বিমান ব্যবহার করে বায়ুদূত নামে একটি বিমানসংস্থার দ্বারা উড়ান পরিচালনার জন্য পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং ১,৩৫০-মিটারের রানওয়ে নিয়ে বিমানবন্দর নির্মানের কথা ভাবা হয়েছিল। এটি আরও বড় আকারের বিমানের ওঠা-নামার জন্য ৬০০ মিটারের বেশি প্রসারিত করা হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে, এনইপিসি এয়ারলাইন্স ফকার এফ-২৭ বিমান ব্যবহার করে চেন্নাই-সালেম-কোয়েম্বাটুর-চেন্নাই রুটে উড়ান পরিচালনা করে। তবে, এটি 'অ লাভযোগ্যতা'র কথা উল্লেখ করে তিন মাস পর এয়ারলাইন্সটি উড়ান পরিষেবা প্রত্যাহার করে নেয়।[৩] এই রুটে বিনিয়োগের জন্য কোনও উড়োজাহাজ সংস্থা প্রস্তুত ছিল না বলে সালেম বিমানবন্দরটি অবহেলায় পরে থাকে। যদিও ভারতীয় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ (এএআই) বিমানবন্দরকে উড়ান পরিচালনা করার জন্য প্রস্তুত করে, বিমানরের কম পৃষ্ঠপোষকতা হওয়ার জন্য ফিমান সংস্থাগুলি আগ্রহ দেখায় নি। ২০০৬ সালে, এয়ার ডেকান সালেম বিমানবন্দর থেকে উড়ান চালুর জন্য সম্মত হবার শর্ত রাখে যদি কেবলমাত্র স্থানীয় কারখানা অন্তত ৯০ লাখ টাকা জমা দেয় অথবা ৫০% বুকিংয়ের জন্য প্রতিশ্রুতি দেয়। এদিকে, এয়ার ডেকন ওই সময়ে কিংফিশার এয়ারলাইন্সের সাথে চুক্তি বদ্ধ হয়ে মিশে গিয়েছিলেন।[৪] কিংফিশার এয়ারলাইন্স চেন্নাই থেকে একটি উড়ান সালেম রুটে পরিচালনা করত , কিন্তু ২০১২ সালে আর্থিক সমস্যাগুলির কারণে উড়ানটি বাতিল করে দেয়।

৩-বছর অপেক্ষা এবং দীর্ঘস্থায়ী আলোচনার পর, ১৫ নভেম্বর ২০০৯ সালে, এটিআর ৭২ বিমানটি ব্যবহার করে কিংফিশার এয়ারলাইন্স চেন্নাইয়ের থেকে সালেম রুটে দৈনিক উড়ান শুরু করে। ২৮ শে অক্টোবর ২০১১ সালে পরিষেবাটি যাত্রী সংখ্যার অভাবের কথা উল্লেখ করে।[৫].

বেসামরিক বিমান মন্ত্রণালয়ের আঞ্চলিক যোগাযোগ প্রকল্পের (আরসিসি) -এর অধীনে সালাম বিমানবন্দর থেকে সম্ভাব্য সব উড়ান পরিষেবা ২০১৭ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই শুরু হওয়ার কথা ছিল।

গঠন[সম্পাদনা]

সালেম বিমানবন্দরটির একটি রানওয়ে রয়েছে। রানওয়েটি ০৪০/২২০ ভিত্তিক, ৬০০০ ফুট দীর্ঘ। ১০০ মিটার লম্বা ও ৭৫ মিটার চওড়া অ্যাপ্রনের মধ্যে দুটি এটিআর বিমান একই সময়ে অবস্থান করতে পারবে। বিমানবন্দরটির টার্মিনাল ভবনটি ব্যস্ত সময়ে ১০০ জন যাত্রীকে পরিচালনা করতে পারে। সালেম বিমানবন্দরে উড়ান পরিচালনার সুবিধার জন্য "ভিএইচএফ রেডিও", পিএপিআই এবং এনডিবি রয়েছে।[৬]

বিমানসংস্থা এবং গন্তব্য[সম্পাদনা]

বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
ট্রুজেট চেন্নাই, কাডাপা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. VOMM সম্পর্কিত বিমানবন্দর তথ্যাদি - ওয়ার্ল্ড এ্যারো ডাটাSource: DAFIF.
  2. গ্রেট সার্কেল ম্যাপার-এ MAA সম্পর্কিত বিমানবন্দর তথ্যাদি। Source: DAFIF (effective October 2006).
  3. "Salem airport is all set to get a new lease of life"The Hindu। ১৯ আগস্ট ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৮ 
  4. "Salem airport back in operation after Kingfisher starts Chennai-Salem service"The Times of India। ১৬ নভেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৮ 
  5. "More flying schools land in Salem airport as commercial flights shut"The Times of India। ২৮ ডিসেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৮ 
  6. "AAI website"। ১০ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]