বাগডোগরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাগডোগরা
জনগণনা নগর
বাগডোগরা চা বাগান
বাগডোগরা চা বাগান
বাগডোগরা পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
বাগডোগরা
বাগডোগরা
বাগডোগরার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°৪২′ উত্তর ৮৮°১৯′ পূর্ব / ২৬.৭০০° উত্তর ৮৮.৩১৭° পূর্ব / 26.700; 88.317স্থানাঙ্ক: ২৬°৪২′ উত্তর ৮৮°১৯′ পূর্ব / ২৬.৭০০° উত্তর ৮৮.৩১৭° পূর্ব / 26.700; 88.317
রাষ্ট্র ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাদার্জিলাং
মহকুমাশিলিগুড়ি মহকুমা
নামকরণের কারণবন্য বাঘ ও সিংহ
আয়তন
 • মোট১৫ বর্গকিমি (৬ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,৫৩,৫৮০
 • জনঘনত্ব১০,০০০/বর্গকিমি (২৭,০০০/বর্গমাইল)
ভাষা
 • দাপ্তরিকবাংলা[১][২]
 • সহদাপ্তরিকইংরাজী[১]
সময় অঞ্চলভারতীয় প্রমান সময় (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন৭৩৪০১৪ ও ৭৩৪৪২১
এলাকা কোড০৩৫৩

বাগডোগরা ভারতের পূর্বপ্রান্তে অবস্থিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দার্জিলিং জেলার একটি জনগণনা নগর৷ শহরটি চা বাগান দ্বারা পরিবেষ্ঠিত৷ বাগডোগরা বৃৃৃহত্তর শিলিগুড়ি শহরের একটি অংশ৷ শহরটি জেলাসদর দার্জিলিং ছাড়াও কলকাতার সাথে সড়কপথে যুক্ত৷ বাগডোগরা বিমানবন্দরের মাধ্যমে শহরটি কলকাতা, দিল্লি, মুম্বাইচেন্নাইয়ের সাথে আকাশপথে যুক্ত৷ এছাড়া কাটিহার রেলবিভাগের অন্তর্গত বাগডোগরা রেলওয়ে স্টেশনটি এখানে অবস্থিত৷ বাগডোগরা বিমানবন্দরটি বর্তমানে একটি কাস্টম বিমানবন্দর৷[৩]

ভুগোল[সম্পাদনা]

বাগডোগরা শহরের অবস্থান ২৬॰ ২৫' উত্তর ও ৮৮॰ ১২' পূর্ব গোলার্ধে৷ এটি পশ্চিমবঙ্গের দ্বিতীয় বৃৃহত্তম ও গুরুত্বপূর্ণ নগর শিলিগুড়ি থেকে ১১ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত৷ এটি বৃৃহত্তর শিলিগুড়ি শহরের একটি অংশ৷ এটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তরবঙ্গ অঞ্চলের জলপাইগুড়ি বিভাগের দার্জিলিং জেলার শিলিগুড়ি মহকুমার অন্তর্গত নকশালবাড়ি ব্লকে অবস্থিত একটি জনগণনা নগর৷ এটি নেপালবাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত ও উভয় আন্তর্জাতিক সীমান্তের সাথে সুপরিবহন ব্যবস্থার মাধ্যমে যুক্ত৷

পরিবহন ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

শহরটির পরিবহন ব্যবস্থার তিনটি পর্যায় রয়েছে যথা, আকাশপথ, রেলপথ ও সড়কপথ৷

আকাশপথ[সম্পাদনা]

বাগডোগরা বিমানবন্দরটি (IATA: IXB, ICAO: VEBD) পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাংশে শিলিগুড়ি শহরের ১৬ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত৷ বিমানবন্দরটি আইএএফ নং ২০ উইং এবং মিকোয়াইন-গুরেভিচ মিগ -২১ (মিগ -২১) ফ্লাইটের যোদ্ধা বিমানের সংখ্যা ৮ স্কোয়াড্রন এবং হেলিকপ্টার ইউনিট এর ঘাটি। আলিপুরদুয়ার জেলার হাসিমারায় বায়ু সেনা ঘাঁটির পাশাপাশি; এটি উত্তরবঙ্গ, সিকিমসহ বৃহত্তর এলাকা জুড়ে যুদ্ধ বিমানের পরিচালনা করে থাকে এবং প্রয়োজন হলে ভুটানে পরিষেবা প্রদান করে। ভারতীয় সেনাবাহিনী XXXIII কর্প জন্য সুকনার কাছাকাছি অবস্থিত সব সামরিক বিমান ট্রাফিক বেস পূরণ করে। এটি দার্জিলিং, কার্শিয়াং, মিরিক, কালিম্পংসিক্কিম রাজ্যের মতো পর্বতসংকুল অঞ্চলগুলিতে ভ্রমণের প্রবেশদ্বার৷ বিমানবন্দরটি থেকে কলকাতা, মুম্বাই, দিল্লি, ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, গুয়াহাটি, প্রভৃতি শহরে বিমানযোগাযোগ রয়েছে। এছাড়া এই বিমানবন্দর থেকে কাঠমান্ডু, থিম্পু(পারো) ও ব্যাংককের সঙ্গে আন্তর্জাতিক পথে বিমান যোগাযোগ রয়েছে৷ ২০১৪-২০১৫ সালে বিমানবন্দরটি ১ মিলিয়নের বেশি যাত্রী পরিবহন করেছে, যা পুর্ববর্তী বছর থেকে ৪৩.৬% বৃৃদ্ধিকে সূচিত করে৷

রেলপথ[সম্পাদনা]

শহরটিতে বাগডোগরা রেলওয়ে স্টেশন রয়েছে, যা উত্তরপূর্ব রেলের শিলিগুড়ি কাটিহার শাখার অন্তর্গত৷ এটি রেলপথে শিলিগুড়ি, নকশালবাড়ি, ঠাকুরগঞ্জ, ইসলামপুর, কিশানগঞ্জকাটিহার-এর সাথে যুক্ত৷

সড়কপথ[সম্পাদনা]

এটি ২৭ নং জাতীয় সড়ক৩২৭ নং জাতীয় সড়কের ওপর অবস্থিত৷ এছাড়া এশীয় মহাসড়ক ২ এই শহরের ওপর দিয়ে পরিবাহিত৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Fact and Figures"www.wb.gov.in। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "52nd REPORT OF THE COMMISSIONER FOR LINGUISTIC MINORITIES IN INDIA" (PDF)nclm.nic.inMinistry of Minority Affairs। পৃষ্ঠা 85। ২৫ মে ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. Kumar, Brajesh (২০০৩)। Pilgrimage Centers of India। New York: Diamond Pocket Books। পৃষ্ঠা 170। আইএসবিএন 81-7182-185-5। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০০৯