বালুরঘাট বিমানবন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বালুরঘাট বিমানবন্দর
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরনজনসাধারন
মালিকভারত সরকার
পরিচালকভারতের বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ
অবস্থানবালুরঘাট, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
এএমএসএল উচ্চতা৭৮ ফুট / ২৪ মিটার
স্থানাঙ্ক২৫°১৫′৪২″ উত্তর ৮৮°৪৭′৪৪″ পূর্ব / ২৫.২৬১৬৭° উত্তর ৮৮.৭৯৫৫৬° পূর্ব / 25.26167; 88.79556
রানওয়েসমূহ
দিকনির্দেশনা দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
ফুট মি
০৯/২৭ ৪,৯০৬ ১,৪৯৫ অ্যাসফল্ট
Sources:[১][২]

বালুরঘাট বিমানবন্দর (আইএটিএ: RGHআইসিএও: VEBG) পশ্চিমবঙ্গের বালুরঘাট শহর থেকে ৬ কিলোমিটার (৪ মাইল) দূরে অবস্থিত।[১] বর্তমানে এই বিমানবন্দরটি বন্ধ।[৩]

এই বিমানবন্দরটি মোট ১৩২.৬৬ একর (৩২ হেক্টর) জমির উপর অবস্থিত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে উচ্চতা ৭৮ ফুট (২৪ মিটার)। ৪,৯০৬ X ১০০ ফুট (১,৪৯৫ X ৩০ মিটার) আয়তনের একটি পাকা রানওয়েও রয়েছে।[১][৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কালে সামরিক প্রয়োজনে ব্রিটিশরা এখানে তৈরি করেছিল একটি অস্থায়ী বিমানবন্দর। পরবর্তী ৫০ এর দশকে সেখান থেকে সুরেখা এয়ার সার্ভিস তাদের বিমান চালু করে স্থায়ী ভাবে। কিন্তু ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় সেটি বন্ধ হয়ে যায়। অবশেষে ১৯৮৪ সালে বায়ুদূত (এয়ার সার্ভিস) ডোর্নিয়ার গোত্রের বিমান চালায় এই এয়ারপোর্ট থেকে। কিন্তু ফের তা বন্ধ হয়ে পরে বেশ কয়েকটি কারনে। প্রথমত ম্যানুয়াল নেভিগেশান সিস্টেমের জন্য নির্ধারিত জায়গার বদলে অন্য অঞ্চলে ভুল করে নেমে পরে বিমানগুলি। দ্বিতীয়ত, তৎকালীন আর্থিক অসঙ্গতির কারণে যাত্রী কম হতে থাকা সহ অন্যান্য অনেক কারণ ছিল এই পরিষেবা বন্ধের পেছনে।[৫]

মাহিনগর এলাকায় অবস্থিত প্রায় ৫০ একর আয়তন বিশিষ্ট উত্তরবঙ্গের ভারতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বালুরঘাট বিমানবন্দরটি দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়েছিল। যার রানওয়ের দৈর্ঘ্য ছিল ১ কিলোমিটার। ফলে বড় কোনও বিমান এখান থেকে না চললেও প্রপেলার চালিত সব ধরনের বিমান এখান থেকে ওঠানামা করত।

সম্প্রসারন[সম্পাদনা]

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গ সরকার বালুরঘাট বিমানবন্দরের থেকে বিমান পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনা নিয়েছে। এই পরিষেবা চালুতে টাকা বরাদ্দ হবার সঙ্গে সঙ্গে টেন্ডার প্রক্রিয়া সমাপ্ত করে ২০১৬ প্রথম দিকে কাজ শুরু করছিল পূর্ত দফতর। এই কাজের জন্য সরকার প্রায় ১১ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করে। বরাদ্দ টাকায় বিমানবন্দরের ভেঙ্গে যাওয়া রানওয়ে থেকে শুরু করে এয়ার স্ট্রিপ, প্যাসেঞ্জার লাউঞ্জ, এয়ার ট্র্যাফিক, স্ক্রু এবং পাইলটদের রেস্ট রুম, প্রয়োজন মত রেস্তরা, রিফ্রেশমেন্ট কাউন্টার এবং অন্যান্য সমস্ত কিছু একেবারে নুতন ভাবে তৈরি করছে পূর্ত দফতর। সেই কাজও প্রায় ৭০ শতাংশ শেষ হয়েছে। তবে আগেই এখানে সীমানা পাঁচিলের কাজ সমাপ্ত করা হয়েছিল। এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার প্রতিনিধিরা পরিদর্শন করে গিয়েছেন বন্দর। প্রাথমিক ভাবে এখন ৪২ আসনের বিমানগুলি চলাচল করবে বলে জানা যায়।[৬]

নির্ধারিত গন্তব্যসূচী[সম্পাদনা]

কোনো যাত্রিবাহী বিমান চলাচল করে না। পশ্চিমবঙ্গ সরকার ঘোষনা করেছে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে বালুরঘাট-কলকাতা রুটে যাত্রীবাহি বিমান চলাচল করবে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Balurghat Airport"। Airports Authority of India। ৫ মে ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১০ 
  2. গ্রেট সার্কেল ম্যাপার-এ Balurghat, India (VEBG / RGH) সম্পর্কিত বিমানবন্দর তথ্যাদি।
  3. "Deal with Changi on Durgapur airport"The Telegraph। ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০০৮। However, there are over 40 non-operational airports under the authority (Airports Authority of India). In Bengal, there are two of them — in Malda and Balurghat. 
  4. "Full-fledged air services from Balurghat to kick off from April"। Millenniumpost। ১৬ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৮ 
  5. "বালুরঘাট বিমানবন্দরে উড়ান শুরু হতে আর বেশি দেরি নেই"। ২৮ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৭ 
  6. "মার্চ থেকে চালু হচ্ছে বালুরঘাট-কলকাতা বিমান পরিষেবা" 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]