সিয়াচেন হিমবাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সিয়াচেন হিমবাহ (Hindi: सियाचिन ) (Urdu:سیاچین)
SiachenGlacier satellite.jpg
সিয়াচেন হিমবাহের উপগ্রহ চিত্র
ধরনহিমবাহ
অবস্থানকারাকোরাম রেঞ্জ ভারত দ্বারা নিয়ন্ত্রিত
স্থানাঙ্ক৩৫°২৫′১৬″ উত্তর ৭৭°০৬′৩৪″ পূর্ব / ৩৫.৪২১২২৬° উত্তর ৭৭.১০৯৫৪° পূর্ব / 35.421226; 77.10954স্থানাঙ্ক: ৩৫°২৫′১৬″ উত্তর ৭৭°০৬′৩৪″ পূর্ব / ৩৫.৪২১২২৬° উত্তর ৭৭.১০৯৫৪° পূর্ব / 35.421226; 77.10954
দৈর্ঘ্য৭৬ কিমি (৪৭ মা) using the longest route as is done when determining river lengths or ৭০ কিমি (৪৩ মা) if measuring from Indira Col[১]

সিয়াচেন হিমবাহ হিমালয়ের পূর্ব কারাকোরাম পর্বতমালার ৩৫°৩০′ উত্তর ৭৭°০০′ পূর্ব / ৩৫.৫° উত্তর ৭৭.০° পূর্ব / 35.5; 77.0 অবস্থান অক্ষাংশে ভারত-পাকিস্তান নিয়ন্ত্রণ রেখার ঠিক পূর্বদিকে অবস্থিত। ৭০ কিমি দীর্ঘ কারাকোরামের বৃহত্তম ও পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম অমেরুপ্রদেশীয় এই হিমবাহটি ভারতের নিয়ন্ত্রণাধীন।[২][৩][৪][৫] ভারত এখানে পৃথিবীর উচ্চতম হেলিপ্যাডটি নির্মাণ করেছে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২১,০০০ ফুট উঁচুতে এই হিমবাহেই পৃথিবীর উচ্চতম যুদ্ধক্ষেত্রটি অবস্থিত।

উদ্ভিদ ও প্রাণীকূল[সম্পাদনা]

সিয়াচেন অঞ্চলের উদ্ভিদ ও প্রাণীকূল এখানকার বিপুল সেনাবাহিনী দ্বারা প্রভাবিত হয়। এখানে কিছু বিরল প্রজাতি, যেমন বাদামি ভাল্লুক হুমকির মুখে আছে এখানকার বিপুল সেনাবাহিনীর কারণে।[৬][৭]

  1. Dinesh Kumar (১৩ এপ্রিল ২০১৪)। "30 Years of the World's Coldest War"Chandigarh, India: The Tribune। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০১৪ 
  2. Gauhar, Feryal Ali; Yusuf, Ahmed (২ নভেম্বর ২০১৪)। "Siachen: The place of wild roses"। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৭ 
  3. North, Andrew (১২ এপ্রিল ২০১৪)। "Siachen dispute: India and Pakistan's glacial fight"। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৭ – www.bbc.com-এর মাধ্যমে। 
  4. "India gained control over Siachen in 1984 - Times of India"। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৭ 
  5. "The Siachen Story, then and Now" 
  6. Supriya Bezbaruah (১ নভেম্বর ২০০৪)। "Siachen Snow Under Fire"India Today। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১২ 
  7. Emmanuel Duparcq (১১ এপ্রিল ২০১২)। "Siachen tragedy – day 5: Bad weather dogs avalanche search efforts"The Express Tribune। Agence France-Presse। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১২