গোয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গোয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
Goa-Vasco 03-2016 12 Dabolim Airport.jpg
Passenger terminal
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরনPublic/Military
মালিকগোয়া সরকার & Indian Navy[১]
পরিচালকAirports Authority of India
সেবা দেয়গোয়া
অবস্থানDabolim, Mormugão, গোয়া, ভারত
এএমএসএল উচ্চতা৫৬ মিটার / ১৮৪ ফুট
স্থানাঙ্ক১৫°২২′৫১″ উত্তর ০৭৩°৪৯′৫৩″ পূর্ব / ১৫.৩৮০৮৩° উত্তর ৭৩.৮৩১৩৯° পূর্ব / 15.38083; 73.83139স্থানাঙ্ক: ১৫°২২′৫১″ উত্তর ০৭৩°৪৯′৫৩″ পূর্ব / ১৫.৩৮০৮৩° উত্তর ৭৩.৮৩১৩৯° পূর্ব / 15.38083; 73.83139
মানচিত্র
Map of Dabolim Airport
Map of Dabolim Airport
GOI ভারত-এ অবস্থিত
GOI
GOI
রানওয়েসমূহ
দিকনির্দেশনা দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
মি ফুট
08/26 ১১ Asphalt
পরিসংখ্যান (2016)
Passengers6434790
Aircraft movements45661
Freight in tonnes4312
তথ্য: AAI[২]

[৩]

[৪]

গোয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হল ভারতের গোয়া রাজ্যের প্রধান ও এক মাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এই বিমানবন্দরটি ডাবোলিম বিমানবন্দর হিসাবেও পরিচিত। এটি ভাস্কো দা গামা শহর থেকে ৪ কিমি দূরে, মাজাগাও থেকে ২৩ কিমি দূরে এবং রাজ্যের রাজধানী পানাজি থেকে ৩০ কিমি দূরে অবস্থিত।[৫]

এই বিমানবন্দরে ২০১৩ সালে নতুন টার্মিনাল চালু হয়েছে। ২০১৬ সালে বিমানবন্দরটি ৬.৪ মিলিয়ন যাত্রী পরিবহন করেছে। দিনে ১২৫ টি বিমান এই বিমানবন্দরে ওঠা নামা করে। বর্তমানে বিমানবন্দরটি ধারনক্ষমতার অতিক্রমের সম্মুখিন। সেই কারণে মোপাতে একটি নতুন বিমান বন্দর নির্মাণের কথা শুরু হয়। এটি মোপা বিমানবন্দর নামে পরিচিত।[৬][৭] ২০২০ সালের মধ্যে বিমানবন্দরটির নির্মাণ শেষ হবে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিমানবন্দরটি ২৪৯ একর (১০১ হেক্টর) জমির উপর এয়ারপোর্টো ডি ডাবোলিম নামে নির্মিত হয়েছিল, যা পরে আনুষ্ঠানিকভাবে এয়ারপোর্টো জেনারেল বেনারড গিদেসের নামে নামকরণ করা হয়। [৮] ১৯৬১ সাল পর্যন্ত, বিমানবন্দরটি পর্তুগিজ ভারত- এর এয়ারলাইন টাওপ (ট্রান্সপোর্টস এরেস দ্য ভারতিয়া পোর্টগুয়েস) এর প্রধান ঘাঁটি হিসেবে কাজ করত, যা নিয়মানুবর্তী সময়ে দমন, দিউ, করাচি, মোজাম্বিক, পর্তুগিজ টিমর এবং অন্যান্য গন্তব্যস্থলে উড়ান পরিচালনা করত।

১৯৬১ সালের ডিসেম্বরে ভারত দ্বারা গোয়া অধিগ্রহণের সময় ভারতীয় বিমানবাহিনীর দ্বারা বিমানবন্দরে বোমা বিস্ফোরণ ঘটান হয় এবং বিমানবন্দরের সমস্ত অবকাঠামো ধ্বংস হয়ে যায়। বিমানবন্দরে থাকা দুটি বেসামরিক বিমান - ট্যাপ (পর্তুগিজ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স) থেকে একটি লকহেদ কনস্ট্রেলেশন এবং টিএইচ থেকে ডগলাস ডিসি -৪ - রাতে শরণার্থীদের সাথে করাচিতে পালিয়ে যায়। [৯] ১৯৬২ সালের এপ্রিল মাসে, এটি ভারতীয় নৌবাহিনী দখল করে নিয়েছিল। মেজর জেনারেল কে.পি. কান্দেথ, গোয়াতে সফল সামরিক অভিযান পরিচালনার পর, ১৯৬২ সালের জুন মাসে গোয়া, দমন ও দিউ এর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সামরিক গভর্নর থেকে লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার আগে ভারতীয় নৌবাহিনীকে বিমানবন্দর হস্তান্তর করেন।

ভাস্কো দ্য গামা ও গোয়া থেকে বেসামরিক বিমান চলাচলের জন্য ভারতীয় নৌবাহিনী এবং ভারত সরকার রানওয়ে মেরামত করে। এছাড়াও এদের জেট বিমান পরিচালনার জন্য সক্ষম করা হয়। পরে ১৯৬৬ সাল থেকে ডাবোলিম বিমানবন্দর পরিচালনার জন্য ভারত সরকার বেসরকারি বিমান সংস্থাকে (ভারতীয় হিসাবে পরিচিত) আহ্বান করে। একটি নতুন গার্হস্থ্য টার্মিনাল ভবন একসঙ্গে ৩৫০ জন আগমন এবং প্রবর্তনকারী বিমান যাত্রীর জন্য পরিকল্পিত। এটি ১৯৮৩ সালে নির্মিত হয়েছিল। এর পর ১৯৯৬ সালে নির্মিত হয় আন্তর্জাতিক টার্মিনাল, ২৫০ জন্য যাত্রী ধারণ ক্ষমতার সঙ্গে।

২০০৬ সালে, ভারতীয় বেসামরিক বিমান মন্ত্রণালয় ডাবোলিম বিমানবন্দর সম্প্রসারণ করার একটি পরিকল্পনা ঘোষণা করে। একটি নতুন আন্তর্জাতিক যাত্রী টার্মিনাল (বিদ্যমান এক থেকে গার্হস্থ্য রূপান্তরিত করার পরে) নির্মাণ করা হবে এবং প্রায় আরও ৪ হেক্টর (৯.৯ একর) এলাকার উপর আরো অনেক বিমান দাঁড়িয়ে থাকতে পারবে। ২০০৭ সালের শেষ নাগাদ নির্মাণ শেষ হবে। [১০] তবে নৌবাহিনীর প্রয়োজনীয় জমির স্থানান্তরে বিলম্ব হয় মামলা চলার কারণে।

গঠন[সম্পাদনা]

উপর প্রদর্শিত হচ্ছে নতুন সমন্বিত টার্মিনাল ভবনের মডেল

বিমানবন্দরটি ৬৮৮ হেক্টর (১,৭০০ একর) (এবং সম্ভবত ৭৪৫ হেক্টর বা ১,৮৪০ একর) এর মধ্যে ছড়িয়ে রয়েছে এবং প্রায় ১৪ হেক্টর (৩৫ একর) এর একটি বেসামরিক ছিটমহল আছে, যা তার মূল আকার ৬ হেক্টর (১৫ একর) থেকে বৃদ্ধি পেয়েছে। বেসামরিক ছিটমহল পরিচালিত হয় এএআই কর্তৃক। নৌবাহিনীর প্রাঙ্গণটি ডাবোলিমের রানওয়ের কাছেই রয়েছে এবং ফলস্বরূপ বিমানবন্দরের কর্মচারীদের বিমানের মধ্যে এক বিন্দু (পদব্রজে বা বাইসাইকেলে বা অন্য যানবাহনগুলিতে) অতিক্রম করতে নৌবাহিনীর কাছে আনুমতি নিতে হয় । টার্মিনালের কাছাকাছি একটি স্থানেই বিমানের দাঁড়ানোর স্থান সীমাবদ্ধ।

দৈনিক ১২০-১৪০ উড়ানের মধ্যে, দিনের মাঝামাঝি সময়ে অপরাহ্ন ১ টা এবং রাত ৯ টার মধ্যে বেসামরিক উড়ানের এক বিশাল ঘনত্ব, সকালের সময়ের সঙ্গে ভারসাম্যে থাকে। সারা বছর নৌবাহিনীর সামরিক উড়ান প্রশিক্ষণের জন্য এই বিমানবন্দরের কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। ক্রিসমাস / নিউ ইয়ার -এর মত ক্রমবর্ধমান পর্যটন মরশুমের বিপুল চাহিদায় এই সময়ে উড়ান চলাচল ঝুঁকির মধ্যে থাকে। [১১] এখানে আনুষ্ঠানিকভাবে রাতে উড়ান পরিচালনা অক্টোবর ২০০৭ সাল থেকে অনুমোদিত এবং সক্রিয় করা হয়েছে, কিন্তু তারা কেবল একটি অ্যাড-হক ভিত্তিতে স্থান গ্রহণ করেছে নৌবাহিনীর এটিসি- এর বাধ্যতামূলক ক্লিয়ারেন্সে।

প্রান্তিক[সম্পাদনা]

বিমানবন্দরের সমন্বিত টার্মিনাল ভবন আন্তর্জাতিক এবং গার্হস্থ্য যাত্রী উভয়কেই পরিচালনা করে। এটি ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে খোলা হয়েছিল। ভবনের নকশাটি নান্দনিক কাজ, বড় ইস্পাত স্প্যান গঠন এবং কাঁচের ব্যবহারের বৈশিষ্ট্য যুক্ত। ৬২,০০০ বর্গমিটার টার্মিনালটি প্রতিবছর পাঁচ লাখ যাত্রীকে পরিবহন করার জন্য পরিকল্পিত। টার্মিনালটি ৮ টি অ্যারোব্রিজ দিয়ে সজ্জিত। টার্মিনালে একটি জিনিসপত্র স্ক্যানিং ব্যবস্থা এবং একটি রাষ্ট্রীয় অত্যাধুনিক নিকাশী শোধনাগার রয়েছে। [১২]

গোয়া বিমানবন্দর এ বিভাগের লাউঞ্জ

বিমানবন্দরে ৭৫ টি চেক-ইন কাউন্টার, প্রস্থান করার জন্য ২২ টি অভিবাসন কাউন্টার, আগমনের জন্য ১৮ টি অভিবাসন কাউন্টার, ১৪ টি নিরাপত্তা চেক বুথ এবং ৮ টি কাস্টমস কাউন্টার রয়েছে।

বিমানসংস্থা ও গন্তব্য[সম্পাদনা]

যাত্রী[সম্পাদনা]

Jet Airways vehicles at Dabolim
বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
এয়ার আরব শারজা
এয়ারএশিয়া ইন্ডিয়া বেঙ্গালুরু, দিল্লি, হায়দ্রাবাদ, দেবী অহল্যা বাই হোলকার বিমানবন্দর, মুম্বাই
এয়ার ইন্ডিয়া বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, দিল্লি, দুবাই – আন্তর্জাতিক, কুয়েত, মুম্বাই, মাস্কাট, শারজাহ
অ্যালায়েন্স এয়ার চেন্নাই, হায়দরাবাদ, মহীশূর, পুনে
আরকিয়া তেল আবিব[১৩]
আজুর এয়ারঋতু-অনুযায়ী চার্টার: কাজান, মস্কো – ভানুকোভো, পারম, সেন্ট পিটার্সবার্গ, সমারা, ইয়েকাটারিনবুর্গ[১৪]
আজুর এয়ার ইউক্রেনঋতু-অনুযায়ী চার্টার: কিয়েভ–বোরিস্পিল[১৫]
গোএয়ার দিল্লি, হায়দরাবাদ, মুম্বাই
ইন্ডিগো আহমেদাবাদ, অমৃতসর, ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, কোয়েম্বাটোর, দিল্লি, গুয়াহাটি, হুবলি, হায়দরাবাদ, ইন্দোর, কান্নুর, কোচি, কলকাতা, লখনউ, মুম্বই, নাগপুর (শুরু ২২ শে ফেব্রুয়ারি ২০২০)[১৬], পুনে, রায়পুর, শ্রীনগর, সুরাত, বারাণসী
এলওটি পোলিশ এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী চার্টার: ওয়ারশো–চপিন[১৭]
নর্ডউইন্ড এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী চার্টার: মস্কো–শেরেমেতিয়েভো[১৮]
ওমান এয়ার মাসকট
কাতার এয়ারওয়েজ দোহার
রসিয়া এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী চার্টার: মস্কো–ভনুকোভো[১৯]
রয়েল ফ্লাইটঋতু-অনুযায়ী চার্টার: চাল্যাবিনস্ক, কাজান, কেমেরোভো, ক্র্যাসনোদার, ক্রাসনোয়ারস্ক, মস্কো-ডোমোদেভোভো, মস্কো-শেরেমেতিয়েভো[২০], নিঝনি নভগোড়োদ, নোভোসিবিরস্ক, ওমস্ক, ওরেনবুর্গ, পারম, রোস্তভ-অন ডন, সমারা, উফা, ইয়েকাটেরিনবুর্গ[২১]
এসসিএটি এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী: আলমাটি[২২]
স্পাইসজেট আহমেদাবাদ, ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, দিল্লি, কলকাতা, মাদুরাই, মুম্বই, নাশিক, পুনে , সুরাট[২৩]
সানডে এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী চার্টার: আলমাটি[২২]
ট্রুজেট হায়দরাবাদ
টিইউআই এয়ারওয়েজঋতু-অনুযায়ী: লন্ডন–গ্যাটউইক, ম্যানচেস্টার
ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সঋতু-অনুযায়ী চার্টার: কিয়েভ-বোরিস্পিল[২৪]
ভিস্তারা দিল্লি, মুম্বাই

পণ্য[সম্পাদনা]

বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
ব্লু ডার্ট এভিয়েশন আহমেদাবাদ, দিল্লি, কলকাতা, মুম্বই, লখনউ
ফেডেক্স এক্সপ্রেসদুবাই-ইন্টারন্যাশনাল

ডাবোলিমের নৌ স্টেশন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Business Standard (১৬ মে ২০১০)। "Two airports likely for Goa"। Business-standard.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১২ 
  2. Traffic News for the month of January 2016: Annexure III (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৯ মার্চ ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬January 2016: 591,055 passengers; January 2015: 478,192 passengers 
    • Traffic News for the month of February 2016: Annexure III (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৮ এপ্রিল ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬February 2016: 537,042 passengers; February 2015: 440,770 passengers 
    • Traffic News for the month of March 2016: Annexure III (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ২২ মে ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬March 2016: 539,166 passengers; March 2015: 449,254 passengers 
    • Traffic News for the month of December 2016: Annexure III (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৩০ জানুয়ারি ২০১৭। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭April–December 2016: 4,767,527 passengers; April–December 2015: 3,708,292 passengers 
  3. Traffic News for the month of January 2016: Annexure II (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৯ মার্চ ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬January 2016: 4,031 aircraft movements; January 2015: 3,202 aircraft movements 
    • Traffic News for the month of February 2016: Annexure II (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৮ এপ্রিল ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬February 2016: 3,658 aircraft movements; February 2015: 2,859 aircraft movements 
    • Traffic News for the month of March 2016: Annexure II (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ২২ মে ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬March 2016: 3,737 aircraft movements; March 2015: 3,191 aircraft movements 
    • Traffic News for the month of December 2016: Annexure II (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৩০ জানুয়ারি ২০১৭। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭April–December 2016: 34,235 aircraft movements; April–December 2015: 27,604 aircraft movements 
  4. Traffic News for the month of January 2016: Annexure IV (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৯ মার্চ ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬January 2016: 422 tonnes 
    • Traffic News for the month of February 2016: Annexure IV (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৮ এপ্রিল ২০১৫। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬February 2016: 364 tonnes 
    • Traffic News for the month of March 2016: Annexure IV (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ২২ মে ২০১৫। পৃষ্ঠা 3। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬March 2016: 416 tonnes 
    • Traffic News for the month of December 2016: Annexure IV (PDF)Airports Authority of India (প্রতিবেদন)। ৩০ জানুয়ারি ২০১৭। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭April–December 2016: 3,110 tonnes 
  5. "Airports Authority of India"aai.aero। ২১ সেপ্টেম্বর ২০১১। ২১ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১২ 
  6. "GMR Infra to develop Mopa airport in Goa"The Economic Times 
  7. "Goa government notifies planning area at Mopa"The Times of India 
  8. "Os Transportes Aéreos da India Portuguesa"goancauses.com (Portuguese ভাষায়)। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১২ 
  9. Gabriel de Figueiredo। "A tale of a Goan Airport and Airline"। ১৫ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  10. Dabolim airport upgrading will be over by end of 2007. The Hindu. Retrieved on 18 February 2007
  11. [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ] Dev Roy, Atreyee and Sharma, Rouhan. New Year Goa flights on a high. Financial Express[অকার্যকর সংযোগ]
  12. "New Dabolim airport to be ready by year-end: Manickam"Navhind Times। ১৯ এপ্রিল ২০১২। ২১ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১২ 
  13. "Arkia to launch 2 Israel - India routes"Globes। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  14. "Flight map"azurair.ru 
  15. "Flights"anextour.com.ua 
  16. "New Flights Information, Status & Schedule | IndiGo" 
  17. "LOT Polish Airlines W19 Long-Haul charters as of 03JUL19"routesonline.com। ৪ জুলাই ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০১৯ 
  18. "Air tickets online worldwide"pegasys.pegast.ru 
  19. "Flight schedule"bgoperator.ru 
  20. "Coral Travel" 
  21. "Flight map" 
  22. "Astana Leisure 2014"। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  23. "SpiceJet Schedule"। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৬ 
  24. "Schedule of charter flights for the winter period 2018/2019"flyuia.com 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

উইকিমিডিয়া কমন্সে গোয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন