মেহেরপুর সদর উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মেহেরপুর সদর
উপজেলা
মেহেরপুর সদর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
মেহেরপুর সদর
মেহেরপুর সদর
বাংলাদেশে মেহেরপুর সদর উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°৪৬′২৯″ উত্তর ৮৮°৩৮′২৫″ পূর্ব / ২৩.৭৭৪৭২° উত্তর ৮৮.৬৪০২৮° পূর্ব / 23.77472; 88.64028স্থানাঙ্ক: ২৩°৪৬′২৯″ উত্তর ৮৮°৩৮′২৫″ পূর্ব / ২৩.৭৭৪৭২° উত্তর ৮৮.৬৪০২৮° পূর্ব / 23.77472; 88.64028 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগখুলনা বিভাগ
জেলামেহেরপুর জেলা
আয়তন
 • মোট২৭৬.১৫ বর্গকিমি (১০৬.৬২ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,৫৬,৬৪২
 • জনঘনত্ব৯৩০/বর্গকিমি (২,৪০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৪৯.৪%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৪০ ৫৭ ৮৭
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

মেহেরপুর সদর উপজেলা বাংলাদেশের মেহেরপুর জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান ও আয়তন[সম্পাদনা]

মেহেরপুর সদর উপজেলা উত্তরে গাংনী উপজেলাভারত, দক্ষিণে মুজিবনগর উপজেলা, পুর্বে গাংনী উপজেলাচুয়াডাঙ্গা জেলা এবং পশ্চিমে ভারত দ্বারা বেষ্টিত।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

মেহেরপুর সদর উপজেলায় রয়েছে ০৫টি ইউনিয়ন, ৬০টি মৌজা এবং ১০৪টি গ্রাম।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালের আদমশুমারির তথ্য অনুযায়ী এ উপজেলায় মোট জনসংখ্যা ২,৬২,৭৭৯ জন,যার মধ্যে ১,৪০,৩৮৭ জন প্রপ্ত বয়স্ক।মোট জনসংখ্যার ৫১.২% পুরুষ এবং ৪৮.৮ % মহিলা। গড় সাক্ষরতার হার ২৪.৯%(৭বছরের উপরে)

স্বাস্থ্য[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

এই উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেঃ মেহেরপুর সরকারি কলেজ, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজ, মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, মেহেরপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ প্রভৃতি।

কৃষি[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

যোগাযোগ[সম্পাদনা]

নদীসমূহ[সম্পাদনা]

মেহেরপুর সদর উপজেলায় ১টি নদী রয়েছে। নদীটি হচ্ছে ভৈরব নদী[২][৩]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান ও স্থাপনা[সম্পাদনা]

বিবিধ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে মেহেরপুর সদর উপজেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারী ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৮৯, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  3. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক (ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৬১২। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]