শৈলকুপা উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শৈলকুপা
উপজেলা
শৈলকুপা বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
শৈলকুপা
শৈলকুপা
বাংলাদেশে শৈলকুপা উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°৪১′২৭″ উত্তর ৮৯°১৫′৩″ পূর্ব / ২৩.৬৯০৮৩° উত্তর ৮৯.২৫০৮৩° পূর্ব / 23.69083; 89.25083স্থানাঙ্ক: ২৩°৪১′২৭″ উত্তর ৮৯°১৫′৩″ পূর্ব / ২৩.৬৯০৮৩° উত্তর ৮৯.২৫০৮৩° পূর্ব / 23.69083; 89.25083 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগখুলনা বিভাগ
জেলাঝিনাইদহ জেলা
আয়তন
 • মোট৩৭২.৬৬ কিমি (১৪৩.৮৮ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট৩,৩১,৮০৯
 • ঘনত্ব৮৯০/কিমি (২৩০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট৪৩.৭৩%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

শৈলকুপা উপজেলা বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান ও আয়তন[সম্পাদনা]

৩৭৩.৪২ বর্গ কি: মি: আয়তন বিশিষ্ট শৈলকুপা উপজেলা উত্তরে খোকসাকুমারখালী উপজেলা, দক্ষিণে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা, মাগুরা সদর উপজেলা এবং হরিণাকুন্ডু উপজেলা, পূর্বে পাংশা উপজেলা এবং শ্রীপুর উপজেলা এবং পশ্চিমে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা এবং হরিণাকুন্ডু উপজেলা দ্বারা বেষ্টিত।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

এখানে হাই স্কুল, বালিকা বি্দ্যালয়, কলেজ, এছাড়াও বাচ্চাদের জন্য রয়েছে কিন্ডারগার্ডেন, প্রিক্যাডেট স্কুল। কলেজ ৫টি, হাইস্কুল ৩৯টি, ১টি বেসরকারী হাইস্কুল যার নাম ‘শৈলকুপা সিটি পাবলিক স্কুল’ হাসপাতাল গেট শৈলকুপা, ঝিনাইদহ। জুনিয়র হাইস্কুল ১০টি, মাদ্রাসা ৩৬টি, সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯০টি, বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৬৭টি, স্যাটেলাইট স্কুল ৩টি এবং স্বল্প খরচের প্রাথমিক বিদ্যালয় ১১টি।নতুন বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ‘‘আব্দুল আজিজ আইডিয়াল স্কুল” কবিররপুর চার রাস্তার মোড়, কবিরপুর বাইপাস সড়ক (কবিরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পূর্বপাশে), কবিরপুর, শৈলকুপা, বিনাইদহ।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

শৈলকুপা উপজেলা প্রধানত কৃষি নির্ভর অর্থনীতিতে দন্ডায়মান। এখানে ধান, পিঁয়াজ, গম উৎপাদন হয়। এছাড়াও কিছু এলাকা দিয়ে প্রচুর সবজি চাষ করা হয়। পান এবং পাট চাষ হয়।

নদ-নদী[সম্পাদনা]

শৈলকুপা উপজেলায় অনেকগুলো নদী রয়েছে। নদীগুলো হচ্ছে গড়াই নদী, কুমার নদ ও ডাকুয়া নদী।[২][৩]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে শৈলকুপা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারী ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৮৯, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  3. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি, কথাপ্রকাশ, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি, ২০১৫, পৃষ্ঠা ৬১২, ISBN 984-70120-0436-4.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]