কালিয়া উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
কালিয়া
উপজেলা
কালিয়া বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কালিয়া
কালিয়া
বাংলাদেশে কালিয়া উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°২′১২″ উত্তর ৮৯°৩৭′৮″ পূর্ব / ২৩.০৩৬৬৭° উত্তর ৮৯.৬১৮৮৯° পূর্ব / 23.03667; 89.61889স্থানাঙ্ক: ২৩°২′১২″ উত্তর ৮৯°৩৭′৮″ পূর্ব / ২৩.০৩৬৬৭° উত্তর ৮৯.৬১৮৮৯° পূর্ব / 23.03667; 89.61889 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ খুলনা বিভাগ
জেলা নড়াইল জেলা
আয়তন
 • মোট ৩১৭.৬৪ কিমি (১২২.৬৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট ২,০৮,০২৪
 • ঘনত্ব ৬৫০/কিমি (১৭০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৪১.০৪%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড ৭৫২০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইট অফিসিয়াল ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

কালিয়া উপজেলা বাংলাদেশের খুলনা বিভাগের নড়াইল জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা। কালিয়া থানা ১৮৬৬ খ্রীস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯৮৪ সালে থানা থেকে উপজেলায় রূপান্তরিত করা হয়।

অবস্থান ও আয়তন[সম্পাদনা]

এ উপজেলার উত্তরে নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলা, দক্ষিণে খুলনা জেলার দিঘলিয়া উপজেলাতেরখাদা উপজেলা, পূর্বে গোপালগঞ্জ জেলা ও বাগেরহাট জেলার মোল্লাহাট উপজেলা এবং পশ্চিমে নড়াইল সদর উপজেলা ও যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলা এবং খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

এই উপজেলার ইউনিয়ন সমূহ -

  1. বাবরা হাচলা ইউনিয়ন
  2. পুরুলিয়া ইউনিয়ন
  3. হামিদপুর ইউনিয়ন
  4. মাউলী ইউনিয়ন
  5. সালামাবাদ ইউনিয়ন
  6. খাশিয়াল ইউনিয়ন
  7. জয়নগর ইউনিয়ন
  8. কলাবাড়ীয়া ইউনিয়ন
  9. বাঐসোনা ইউনিয়ন
  10. পহরডাঙ্গা ইউনিয়ন
  11. পেড়লী ইউনিয়ন
  12. চাঁচুড়ী ইউনিয়ন
  13. বড়নাল ইলিয়াছাবাদ ইউনিয়ন এবং
  14. পাঁচগ্রাম ইউনিয়ন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

নদ-নদী[সম্পাদনা]

কালিয়া উপজেলায় অনেকগুলো নদী রয়েছে। নদীগুলো হচ্ছে আঠারোবাঁকি নদী, নবগঙ্গা নদীও মধুমতি নদী, চিত্রা নদী,[২][৩]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

  • শেখ আব্দুস সালাম - বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ শহীদ বুদ্ধীজীবি।

বিবিধ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে কালিয়া উপজেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২৭ জানুয়ারী, ২০১৫ 
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯০, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  3. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি, কথাপ্রকাশ, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি, ২০১৫, পৃষ্ঠা ৬১২, ISBN 984-70120-0436-4.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


]] [[