ঝিকরগাছা উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ঝিকরগাছা
উপজেলা
ঝিকরগাছা বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
ঝিকরগাছা
ঝিকরগাছা
বাংলাদেশে ঝিকরগাছা উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°৫′৪৯″ উত্তর ৮৯°৮′১০″ পূর্ব / ২৩.০৯৬৯৪° উত্তর ৮৯.১৩৬১১° পূর্ব / 23.09694; 89.13611স্থানাঙ্ক: ২৩°৫′৪৯″ উত্তর ৮৯°৮′১০″ পূর্ব / ২৩.০৯৬৯৪° উত্তর ৮৯.১৩৬১১° পূর্ব / 23.09694; 89.13611 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ খুলনা বিভাগ
জেলা যশোর জেলা
আয়তন
 • মোট ৩০৮.০৮ কিমি (১১৮.৯৫ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০০১)[১]
 • মোট ২,৭১,০১৪
 • ঘনত্ব ৮৮০/কিমি (২৩০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৬৫%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইট অফিসিয়াল ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

ঝিকরগাছা বাংলাদেশের যশোর জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

যশোর জেলা সদর থেকে দূরত্ব ১৮ কিলোমিটার।পূর্বে মনিরামপুর উপজেলা, পশ্চিমে শার্শা উপজেলা, উত্তরে চৌগাছা উপজেলা এবং দক্ষিনে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলা

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

এ উপজেলার আয়তন ৩০৮.০৮ বর্গকিলোমিটার । মোট ইউনিযন ১১ টি , পৌরসভা ১ টি ও গ্রাম ১৭৯ টি । ঝিকরগাছা ম্যাপ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

নামকরণ[সম্পাদনা]

শোনা যায় কপোতাক্ষ নদীর তীরে এ ভূখন্ডে সপ্তোদশ শতাব্দীতে ফরাসী বেনিয়া জুনেট সাহেব গড়ে তুলে ছিল এক ব্যবসা কেন্দ্র। তারই নাম অনুসারে এ অঞ্চল ‘‘জানটিনগর’’ হিসেবে পরিচিত ছিল। অতঃপর বৃটিশ শাসনামলে এ অঞ্চলের কৃষক সমাজকে বাধ্য করা হয় নীল চাষে। সেকালের এ জনপদের কাটা খাল নীল বিদ্রোহের কেন্দ্র ভূমি হিসেবে বিশেষ পরিচিতি লাভ করে। প্রবল পরাক্রমশালী অত্যাচারী নীল কুঠিয়াল ‘‘ঝিনকার সাহেব’’ এর দৌরাত্বে তখন এ অঞ্চল উৎপিড়ীত হতে থাকে। সেই দোর্দন্ত প্রতাপ ইংরেজ বণিক ‘‘ঝিনকার’’ নাম অনুসারে ‘‘ জুনেট নগর’’ নাম বিলুপ্ত হয়ে এ অঞ্চলের নাম ‘‘ঝিকরগাছা’’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। আর সেই ঝিনকারগাছাই আজ কালের বিবর্তনের ঝিকরগাছা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। অন্য জনশ্রুতিও আছে জিনকার সাহেবের নাম ধরে ঝিকরগাছা নাম হয়। গত শতকের চতুর্থ দশকেও ঝিকরগাছা শব্দটি ছাপাকালে পুস্তকে দেখা যায়। জেলা সদরের বাইরে ঝিকরগাছা ব্যবসাকেন্দ্র হিসেবে খ্যাত। স্থাপনকালঃ ১৯৮৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ১৪ তারিখ। ঝিকরগাছা উপজেলার পূর্বে মনিরামপুর উপজেলা, পশ্চিমে শার্শা উপজেলা, উত্তরে চৌগাছা উপজেলা এবং দক্ষিণে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলা। এবং জেলা সদর হতে ১৫ কিলোমিটার দুরত্বে অবস্থিত।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

মোট জনসংখ্যা ২,৭১,০১৪ জন । পুরুষ ও মহিলার সংখ্যা যথাক্রমে ১,৩৮,৫০৭ জন ও ১,৩২,৫০৭ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

  • মোট কলেজ সংখ্যা- ০৮ টি
  • কলেজিয়েট স্কুলঃ ০১টি
  • সরকারী কলেজের সংখ্যা- নাই
  • বে-সরকারী কলেজ সংখ্যা- ০৮ টি
  • মহিলা কলেজের সংখ্যা- ৭ টি
  • মোট মাধ্যমিক বিদ্যালয়- ৪৮ টি
  • সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়- নাই
  • বে-সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়- ৪৮ টি
  • সরকারী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়- নাই
  • মোট মাদ্রাসার সংখ্যা- ৪৪ টি
  • দাখিল মাদ্রাসার সংখ্যা- ৩ টি
  • সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা- ৭২ টি
  • রেজিষ্টার বে-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়- ৩৯ টি
  • কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়- ১১ টি
  • এনজিও পরিচালিত প্রাথমিক বিদ্যালয়- ৭৬ টি

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

অৰ্থনীতিতে সবচেয়ে বেশী ভূমিকা রেখেছে ফুলের রাজধানী গদখালী ।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

ঝিকরগাছা থানার একটা ঐতিহ্যবাহী স্থান হচ্ছে কাটাখাল... কপোতাক্ষ নদীর পাশে এবং এখানকার সৌন্দর্যের পরিপেক্ষিতে কাটাখালের প্রাণকেন্দ্রেই একটা পাবলিক প্লেস আছে যেটা বঙ্গবন্ধু পার্ক নামে পরিচিত...

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে ঝিকরগাছা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২০ জানুয়ারী, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]