কয়রা উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

স্থানাঙ্ক: ২২°২০′৩০″উত্তর ৮৯°১৮′০০″পূর্ব / ২২.৩৪১৭° উত্তর ৮৯.৩০০০° পূর্ব / 22.3417; 89.3000

কয়রা উপজেলা
BD Districts LOC bn.svg
Red pog.svg
কয়রা
বিভাগ
 - জেলা
খুলনা বিভাগ
 - খুলনা জেলা
স্থানাঙ্ক ২২°২০′৩০″উত্তর ৮৯°১৮′০০″পূর্ব / ২২.৩৪১৭° উত্তর ৮৯.৩০০০° পূর্ব / 22.3417; 89.3000
আয়তন ১৭৭৫.৪১ বর্গকিমি
সময় স্থান বিএসটি (ইউটিসি+৬)
জনসংখ্যা (১৯৯১)
 - ঘনত্ব
১,৬৫,৪৭৩ জন
 - ৯৩ বর্গকিমি
ওয়েবসাইট: উপজেলা তথ্য বাতায়ন
কয়রা সদরে অবস্থিত স্মৃতি সৌধ এবং শহীদ মিনার

কয়রা উপজেলা (ইংরেজি: Koyra) বাংলাদেশের খুলনা জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা। ২০০৭ সাল‌ের প্রলয়ংকারী স‌িডর এবং ২০০৯ সালে সর্বনাশী আইলায় সব কিছু লন্ডভন্ড করে দেয়।

অবস্থান ও আয়তন[সম্পাদনা]

কয়রার ভৌগলিক অবস্থান ২২°২০′৩০″উত্তর ৮৯°১৮′০০″পূর্ব / ২২.৩৪১৭° উত্তর ৮৯.৩০০০° পূর্ব / 22.3417; 89.3000। এখানে ২৮০৬১ পরিবারের ইউনিট রয়েছে এবং মোট এলাকা ১৭৭৫,৪১ কিমি²। উত্তরে পাইকগাছা উপজেলা, দক্ষিণ ও পূর্বে সুন্দরবনদাকোপ উপজেলা, পশ্চিমে সাতক্ষীরার শ্যামনগরআশাশুনি উপজেলা

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কয়রা উপজেলা খুলনার সবচেয়ে দক্ষিণের একমাত্র উপজেলা।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

কয়রায় রয়েছে ৭টি ইউনিয়ন, ৭২টি মৌজা/মহল্লা এবং ১৩১ টি গ্রাম। ইউনিয়নগুলি হল:

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালের বাংলাদেশের আদমশুমারি এর হিসাব অনুযায়ী, কয়রার ১৬৫.৪৭৩ জনসংখ্যা রয়েছে। পুরুষদের জনসংখ্যার ৪৯.৬৮% এবং নারী ৫০.৩২%। এই উপজেলার আঠার পর্যন্ত জনসংখ্যা ৮০.৮৩০ হয়। কয়রায় গড় শিক্ষিতের হার ৭২.২%(৭+ বছর) রয়েছে এবং জাতীয় গড় শিক্ষিত ৭২.২%।[১]

স্বাস্থ্য[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

কৃষি[সম্পাদনা]

কয়রার অর্থনীতি মূলত কৃষিনির্ভর। এখানকার অধিকাংশ জমি এক ফসলি। শুধু মাত্র বর্ষা মৌসুমে চাষ হয়। তাছাড়া বিস্তীর্ণ এলাকায় মাছের, প্রধানত চিংড়ি, চাষ হয়।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

এলাকার জনগোষ্ঠীর বড় একটা অংশ সুন্দরবনের উপর প্রত্যক্ষভাবে নির্ভরশীল। সুন্দরবন থেকে বছর জুড়ে কাঠ, মাছ, মধু আহরণ অব্যহত থাকে। শিক্ষিত শ্রেনী চাকরি করে।

যোগাযোগ[সম্পাদনা]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান ও স্থাপনা[সম্পাদনা]

বিবিধ[সম্পাদনা]

  • মসজিদের সংখ্যাঃ ১৫৭ টি।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Population Census Wing, BBS."আসল থেকে ২০০৫-০৩-২৭-এ আর্কাইভ করা।  লেখা " ২০১৫" উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]