গয়ঘর খোজার মসজিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গয়ঘর খোজার মসজিদ
ꠉꠄꠊꠞ ꠝꠌ꠆ꠌꠤꠖ
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিইসলাম
শাখা/ঐতিহ্যসুন্নি
পবিত্রীকৃত বছর১৪৭৬
অবস্থাসক্রিয়
অবস্থান
অবস্থানবাংলাদেশ মৌলভীবাজার সদর উপজেলা, বাংলাদেশ
স্থাপত্য
স্থপতিমূছা ইবনে হ্বাজী আমীর ও মজলিস আলম
ধরনমসজিদ
স্থাপত্য শৈলীইসলামি স্থাপত্য
প্রতিষ্ঠার তারিখ১৪৭৬
সম্পূর্ণ হয়১৪৭৬
নির্দিষ্টকরণ
ধারণ ক্ষমতা১০০
গম্বুজের উচ্চতা (বাহিরে)১৮ ফুট
উপাদানসমূহইট

গয়ঘর মসজিদ, (সিলটি : ꠉꠄꠊꠞ ꠝꠌ꠆ꠌꠤꠖ) এছাড়া গয়ঘর ঐতিহাসিক খোজার মসজিদ নামেও পরিচিত, একটি প্রাচীন মসজিদ যা মৌলভীবাজার সদর উপজেলার মোস্তফাপুর ইউনিয়নের গয়ঘর গ্রামে অবস্থিত। এটি বাংলার সুলতান শামসুদ্দীন ইউসুফ শাহের শাসনামলে ১৪৭৬ সালে একটি ছোট পাহাড়ের উপরে নির্মিত হয়েছিল এবং আফগান প্রধান ও মুগল প্রতিপক্ষ খাজা উসমানের নামে নামকরণ করা হয়। [১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্থানীয় গ্রামবাসীদের মতে, যখন মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছিল, তখন এলাকাটি ঘন বনভূমিতে আবদ্ধ ছিল এবং বাঘের আনাগোনা ছিল। আজ পর্যন্ত, মসজিদের ভিতর পূর্ব স্তম্ভে বাঘের পায়ের তিনটি চিহ্ন বিদ্যমান। শামসুদ্দীন ইউসুফ শাহের শাসনামলে মুসা ইবনে হাজী আমীর ও স্থানীয় মন্ত্রী (সম্ভবত ফৌজদার ) মজলিস আলম ১৪৭৬ সালে মসজিদটি নির্মাণ করেন। [২] ১৫৯৩ সালে মুঘল বাংলার সুবাহদার, মানসিংহের বিরুদ্ধে আফগান বিদ্রোহের পরে খাজা উসমান নামে একটি আফগান গাজি এই মসজিদে আশ্রয় নেয়। [৩]

১৯৩০ দশকের শেষের দিকে আজম শাহ নামের একজন পণ্ডিত মসজিদের কাছে বাস করেছিলেন। ১৯৪০ সালে মূল গম্বুজটি পৃথক্ হয়ে পড়ে এবং আজম শাহ নতুন গম্বুজ নির্মাণের জন্য অর্থোপার্জন করেন, এবং তিনি বানিয়াচং এর ইসমাইল মিস্ত্রির সাথে সফলভাবে নির্মাণকাজ সম্পন্ন করেন। ১৯৬০ সালে মসজিদটি আবার নতুন করে সংস্কার করা হয়। আজম শাহের প্রস্থান করার পর, এটি আবার ভেঙ্গে পড়ে এবং গাছ-লতাপাতায় ছেয়ে যায়। [৪]

স্থাপত্য[সম্পাদনা]

মসজিদের গম্বুজটি সাদা টাইলের এবং ১৮ ফুট লম্বা। ৩টি বড় দরজা পাশাপাশি ৬টি ছোট দরজা আছে। ভবনের অভ্যন্তরের পূর্ব স্তম্ভে বাঘের পায়ের চিহ্ন রয়েছে। ছাদের কাছাকাছি, একটি ফুলের নকশাসহ একটি আরবি শিলালিপি আছে। [৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "মৌলভীবাজারের ঐতিহাসিক গয়ঘর খোজার মসজিদ"। মৌলভীবাজার: দ্য ঢাকা টাইমস। ১৫ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "বাংলাদেশের কয়েকটি প্রাচীন মসজিদ"। দৈনিক ইনকিলাব। ২৫ আগস্ট ২০১৫। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "খাজা উসমান"। বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  4. "মৌলভীবাজারের ঐতিহাসিক গয়ঘর খোজার মসজিদ"। মৌলভীবাজার: বিয়ানীবাজার বার্তা ২৪। ৩ ডিসেম্বর ২০১৮। ২৩ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  5. আকমল হোসেন (১৬ ডিসেম্বর ২০১৪)। "গয়ঘর খোজার মসজিদ"প্রথম আলো। মৌলভীবাজার। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯