ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(জুভেন্টাস থেকে পুনর্নির্দেশিত)
ইয়ুভেন্তুস
পূর্ণ নামইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব এস.পি.এ.
ডাকনামলা ভেক্কিয়া সিনোরা (বৃদ্ধ মহিলা)
লা মাদামা (ম্যাডাম)
লা ফিদানজাতা দ'ইতালিয়া (ইতালির প্রেমিকা)
ই বিয়াঙ্কোনেরি (সাদা এবং কালো)
লে জেব্রে (জেব্রা)
লা সিনোরা অমিসিদি (ঘাতক নারী)
লা গোয়েবা (কুজো)
সংক্ষিপ্ত নামইয়ুভে, জেএফসি, জেইউভি
প্রতিষ্ঠিত১ নভেম্বর ১৮৯৭; ১২৬ বছর আগে (1897-11-01)
স্পোর্ট-ক্লাব ইয়ুভেন্তুস[১]
মাঠইয়ুভেন্তুস ফুটবল স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা৪১,৫০৭[২]
মালিক
সভাপতিইতালি আন্দ্রেয়া আনেল্লি
প্রধান কোচইতালি মাসসিমিলিয়ানো আল্লেগ্রি
লিগসেরিয়ে আ
২০২০–২১৪র্থ
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট

ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব (লাতিন: juventūs, 'তারুণ্য'; ইতালীয় উচ্চারণ: [juˈvɛntus]), সাধারণত ইয়ুভেন্তুস অথবা শুধুমাত্র ইয়ুভে (উচ্চারিত [ˈjuːve])[৩] নামে পরিচিত যেটি তুরিন, পিডমন্ট, ইতালি, ভিত্তিক একটি পেশাদার ফুটবল ক্লাব, যেটা বর্তমানে ইতালির শীর্ষ স্তরের ফুটবল লিগ সেরিয়ে আ-এ খেলে। এই ক্লাবটি ১৮৯৭ সালের ১লা নভেম্বর তুরিনীয় ছাত্রদের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯০৩ সাল থেকে ঘরোয়া মাঠে খেলার জন্য ক্লাবটি সাদা-কালো ডোরাকাটা বিশিষ্ট জার্সি ব্যবহার করে আসছে। ইয়ুভেন্তুস তাদের সকল ঘরোয়া ম্যাচ তুরিনের ইয়ুভেন্তুস ফুটবল স্টেডিয়ামে খেলে থাকে; যার ধারণক্ষমতা হচ্ছে ৪১,৫০৭। বর্তমানে এই ক্লাবের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন আন্দ্রে আল্লেগ্রি এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন মাসসিমিলিয়ানো আল্লেগ্রিইতালীয় রক্ষণভাগের খেলোয়াড় লেওনার্দো বোনুচ্চি এই ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

ঘরোয়া ফুটবলে ইয়ুভেন্তুস এপর্যন্ত ৬০টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে ৩৬টি সেরিয়ে আ, ১টি সেরিয়ে বি, ১৪টি কোপা ইতালিয়া এবং ৯টি সুপারকোপা ইতালিয়ানা শিরোপা রয়েছে। অন্যদিকে ইউরোপীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় এপর্যন্ত ১১টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে ২টি আন্তঃমহাদেশীয় কাপ ২টি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ, ১টি উয়েফা কাপ উইনার্স কাপ, ৩টি উয়েফা ইউরোপা লিগ, ২টি উয়েফা সুপার কাপ এবং একটি উয়েফা ইন্টারটোটা কাপের যৌথ রেকর্ড রয়েছে।[৪][৫] ফলস্বরূপ, আন্তর্জাতিক মঞ্চে ক্লাবটি ইউরোপে ষষ্ঠ এবং বিশ্বের দ্বাদশ স্থান দখল করে সবচেয়ে বেশি কনফেডারেশন শিরোপা (এগারোটি ট্রফি) জিতে,[৬] পাশাপাশি সর্বকালের ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (উয়েফা) প্রতিযোগিতার র‌্যাঙ্কিংয়ে চতুর্থ,[ক] ১৯৭৯ সালে প্রবর্তনের পর থেকে সাতটি মৌসুমে সর্বোচ্চ সহগ স্কোর অর্জন, উভয় ক্ষেত্রেই একটি ইতালীয় দলের জন্য সবচেয়ে বেশি এবং শেষ উদ্ধৃতে যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থান দখল করে ক্লাবটি ঐতিহাসিক ইতালীয় ফুটবল ফেডারেশন (এফআইজিসি) শ্রেণিবিভাগে নেতৃত্ব দেয়।[খ]

প্রাথমিকভাবে একটি অ্যাথলেটিক্স ক্লাব হিসাবে স্পোর্ট-ক্লাব ইয়ুভেন্তুস নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল,[৯] এটি জেনোয়া ফুটবল ক্লাবের (১৮৯৩) পরে দেশে সক্রিয় দ্বিতীয় প্রাচীনতম ক্লাব এবং প্রিমিয়ার ক্লাবের প্রতিটি মৌসুমে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ক্লাব। বিভাগ (১৯২৯ সালে সেরিয়ে আ শুরু হওয়া পর্যন্ত বিভিন্ন ফর্ম্যাটে সংস্কার করা হয়েছে) ১৯০০ সালে আত্মপ্রকাশের পর থেকে ২০০৬-০৭ মৌসুম বাদ দিয়ে ক্লাবটি ১৯২৩ সাল থেকে প্রায় অবিচ্ছিন্নভাবে শিল্পপতি অ্যাগনেলি পরিবার দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।[গ] ক্লাব এবং এর মধ্যে সম্পর্কিত রাজবংশটি জাতীয় ক্রীড়াগুলির মধ্যে প্রাচীন এবং দীর্ঘতম ইয়ুভেন্তুসকে দেশের প্রথম পেশাদার ক্রীড়া ক্লাবগুলির পূর্ব-পত্রীয়দের মধ্যে একটি করে তোলে,[১১] ১৯৩০ সাল থেকে জাতীয় পর্যায়ে এবং ১৯৭০-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে কনফেডারেশন পর্যায়ে নিজেকে একটি প্রধান শক্তি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করে,[১২] এবং প্রায় স্থিতিশীল ভিত্তিতে শীর্ষ-১৯৯০-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে মূল্য, আয় এবং লাভের দিক থেকে বিশ্ব ফুটবলে দশটি ধনী ক্লাবের মধ্যে একটি[১৩] এবং ২০০১ সাল থেকে বোর্সা ইতালিয়ানায় তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।[১৪]

জিওভান্নি ত্রাপাত্তনির পরিচালনায় ক্লাবটি ১৯৮৬ সালের আগে দশ বছরে ছয়টি লিগ শিরোপা এবং পাঁচটি আন্তর্জাতিক শিরোপা সহ ১৩টি শিরোপা জিতেছিল, এবং ইউরোপীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের ইউনিয়ন কর্তৃক আয়োজিত তিনটি মৌসুমী প্রতিযোগিতায় এ ক্লাবই প্রথম যারা তিনটিতেই জয়লাভ করে: ১৯৭৬–৭৭ উয়েফা কাপ (প্রথম দক্ষিণ ইউরোপীয় দল হিসেবে এটি জিতে), ১৯৮৩–৮৪ কাপ উইনার্স কাপ এবং ১৯৮৪–৮৫ ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন্স কাপ।[১৫] এটি প্রথম ক্লাব যারা ১৯৮৪ সালের ইউরোপীয় সুপার কাপ এবং ১৯৮৫ ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে পরপর জয়ের সাথে এখন পর্যন্ত বিশ্বের পাঁচটি ঐতিহাসিক কনফেডারেশন ট্রফির একটি ক্লিন সুইপ (সবকটিই জিতে) সম্পন্ন করে;[১৬] মার্সেলো লিপির নেতৃত্বে আরেকটি সফল যুগের পর ১৯৯৯ সালের উয়েফা ইন্টারটোটো কাপে শিরোপা জয়ের সাথে তারা তাদের সিংহাসন পুনরুদ্ধার করে,[১৭] এছাড়াও ২০২২ সাল পর্যন্ত এটিই একমাত্র পেশাদার ইতালীয় ক্লাব যা জাতীয় বা আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত উপলব্ধ প্রতিটি চলমান সম্মাননা জিতেছে।[ঘ] ২০০০ সালের ডিসেম্বরে ইয়ুভেন্তুস ফিফার ঐতিহাসিক র‌্যাঙ্কিংয়ে বিশ্বের সেরা ক্লাবগুলির মধ্যে সপ্তম স্থানে ছিল,[১৮] এবং নয় বছর পর ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফুটবল হিস্টোরি অ্যান্ড স্ট্যাটিসটিক্স (আইএফএফএইচএস) কর্তৃক পরিসংখ্যানগত অধ্যয়ন সিরিজের ভিত্তিতে বিংশ শতাব্দীতে ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা ক্লাবের স্থান লাভ করে, যা উভয় ক্ষেত্রেই একটি ইতালীয় ক্লাবের জন্য এটি সর্বোচ্চ।[১৯]

ক্লাবটির সমর্থক গোষ্ঠী জাতীয় পর্যায়ে সবচেয়ে বড় এবং বিশ্বব্যাপী অন্যতম।[২০][২১] বেশিরভাগ ইউরোপীয় ক্রীড়া সমর্থক গোষ্ঠীর বিপরীতে (যারা প্রায়শই তাদের নিজস্ব ক্লাবের মূল শহরের চারপাশে কেন্দ্রীভূত হয়) এটি সমগ্র দেশ এবং ইতালীয় প্রবাসী জুড়ে বিস্তৃত,[২২] যা ইয়ুভেন্তুসকে অ্যান্টিক্যাম্পানিলিজম (বা লোকালয়ের) এবং ইতালিয়ানতার ("ইতালীয়তা") প্রতীক করে তোলে।[২৩][২৪] ইয়ুভেন্তুসের খেলোয়াড়রা আটটি ব্যালন ডি’অর পুরস্কার জিতেছেন, এর মধ্যে মিশেল প্লাতিনি এবং সেই সাথে পাঁচজন প্রাপকের মধ্যে তিনজনসহ চারটি পরপর বছরে (১৯৮২–১৯৮৫, একটি সামগ্রিক যৌথ রেকর্ড) জিতেছেন। ইতালীয় জাতীয়তার প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে সেরিয়ে আর প্রতিনিধিত্বকারী ওমর সিভোরি এবং যুব বিভাগের প্রাক্তন সদস্য পাওলো রসি চারটি ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড় পুরস্কারও জিতেছে, রবের্তো বাজ্জো এবং জিনেদিন জিদানের মতো বিজয়ী একটি জাতীয় রেকর্ড এবং উদ্ধৃত পুরস্কারে যথাক্রমে তৃতীয় এবং যৌথভাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অবস্থান পেয়েছে। অবশেষে ক্লাবটি ইতালি জাতীয় দলকে সবচেয়ে বেশি খেলোয়াড় প্রদান করেছে (বেশিরভাগই ১৯২৪ সাল থেকে প্রায় নিরবচ্ছিন্নভাবে অফিসিয়াল প্রতিযোগিতায়) যারা প্রায়শই এমন একটি দল গঠন করে যা আজজুরি স্কোয়াডটিকে আন্তর্জাতিক সাফল্যের দিকে নিয়ে যায়, বিশেষত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণভাবে ১৯৩৪, ১৯৮২ এবং ২০০৬ ফিফা বিশ্বকাপে[২৫]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক বছর (১৮৯৭–১৯১৮)[সম্পাদনা]

প্রথম ইয়ুভেন্তুস ক্লাব ছবি, প্রায় ১৮৯৭ থেকে ১৮৯৮

ইয়ুভেন্তুস ১৮৯৭ সালের শেষের দিকে স্পোর্ট-ক্লাব ইয়ুভেন্তুস হিসাবে তুরিনের ম্যাসিমো ডি'আজেগ্লিও লিসিয়াম স্কুলের ছাত্রদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, তাদের মধ্যে ইউজেনিও ক্যানফারি এবং এনরিকো ক্যানফারি অন্যতম।[২৬] এর দুই বছর পর নতুন নামকরণ করা হয় ফুটবল ক্লাব ইয়ুভেন্তুস নামে।[২৭] ক্লাবটি ১৯০০ সালের ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে যোগ দেয়। ইয়ুভেন্তুস তাদের প্রথম ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচ খেলে ১১ মার্চ ১৯০০ সালে তোরিনেসের বিপক্ষে এবং ১–০ ব্যবধানে পরাজিত হয়।[২৮]

১৯০৫ মৌসুমে ইয়ুভেন্তুস দল, যেখানে তারা তাদের প্রথম লিগ শিরোপা জিতেছিল

১৯০৪ সালে ব্যবসায়ী মার্কো আজমোনে-মারসান ইয়ুভেন্তুসের অর্থনীতি পুনরুজ্জীবিত করেন, যার ফলে প্রশিক্ষণ ক্ষেত্রটি পিয়াজা ডি'আর্মি থেকে আরও উপযুক্ত ভেলোড্রোম উমবার্তো আই-তে স্থানান্তর করা সম্ভব হয়। এই সময়কালে দলটি একটি গোলাপী এবং কালো পোশাক পরেছিল। ইয়ুভেন্তুস তাদের ভেলোড্রোম উমবার্তো আই মাঠে খেলার সময় প্রথম ১৯০৫ ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছিল। এই সময়ের মধ্যে ক্লাবের রঙগুলি ইংলিশ পক্ষ নটস কাউন্টি দ্বারা অনুপ্রাণিত কালো এবং সাদা স্ট্রাইপে পরিবর্তিত হয়েছিল।[২৯]

১৯০৬ সালে কিছু স্টাফ ইয়ুভেকে তুরিন থেকে সরানোর কথা বিবেচনা করার পরে ক্লাবে বিভক্তি দেখা দেয়।[২৭] ক্লাবের সভাপতি অ্যালফ্রেড ডিক[ঙ] এতে অসন্তুষ্ট ছিলেন এবং কিছু বিশিষ্ট খেলোয়াড়ের সাথে তোরিনো ফুটবল ক্লাব খুঁজে পান, যা ডার্বি ডেলা মোলের জন্ম দেয়।[৩০] ইয়ুভেন্তুস এই সময়ের বেশিরভাগ সময় বিভক্ত হওয়ার পরে অবিচ্ছিন্নভাবে পুনর্নির্মাণে ব্যয় করেছিল, এবং এভাবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ থেকে তারা বেঁচে ছিল।[২৯]

লিগে আধিপত্য (১৯২৩–১৯৮০)[সম্পাদনা]

১৯৫৭ সালে ওমর সিভোরি, জন চার্লস এবং জিয়াম্পিয়েরো বোনিপের্তি- এর "ম্যাজিকাল ট্রিও" (ট্রায়ো ম্যাজিকো)

ফিয়াট সহ-সভাপতি এডোয়ার্ডো অ্যাগনেলি ১৯২৩ সালে ক্লাবের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং এর এক বছর আগে একটি নতুন স্টেডিয়াম উদ্বোধন করা হয়।[২৭] এটি ১৯২৫–২৬ প্রিমা ডিভিশনে আলবা রোমাকে দুই-লেগ ফাইনালে ১২–১ এর সমষ্টিগত স্কোরে পরাজিত করার পরে ক্লাবটিকে তার দ্বিতীয় লিগ চ্যাম্পিয়নশিপে সাহায্য করেছিল।[২৯] ক্লাবটি ১৯৩০ সাল থেকে ইতালীয় ফুটবলে একটি প্রধান শক্তি হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে, এটি দেশের প্রথম পেশাদার ক্লাব এবং বিকেন্দ্রীকৃত সমর্থক গোষ্ঠী সহ প্রথম ক্লাব,[৩১] যার ফলে ভিত্তোরিও পোজ্জোর যুগে এটি টানা পাঁচটি ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের রেকর্ড জয় করে এবং ইতালি জাতীয় ফুটবল দলের ১৯৩৪ ফিফা বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন রাইমুন্ডো ওরসি, লুইগি বার্তোলিনি, জিওভানি ফেরারি, এবং লুইস মন্টির মতো তারকা খেলোয়াড়দের সাথে মূল দল গঠন করে।[৩২][৩৩] ২০২২ সালের হিসাবে এটিই সবচেয়ে বেশি ফিফা বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নদের(২৭) ক্লাব।[৩৪]

ইয়ুভেন্তুস স্টেডিও কমুনালে স্থানান্তর হয়ে যায়, কিন্তু ১৯৩০-এর দশকের বাকি অংশে এবং ১৯৪০-এর বেশিরভাগ সময় তারা চ্যাম্পিয়নশিপের আধিপত্য পুনরুদ্ধার করতে পারেনি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর জিয়ান্নি অ্যাগনেলি সভাপতি নিযুক্ত হন।[২৭] ১৯৪০-এর দশকের শেষের দিকে এবং ১৯৫০-এর দশকের শুরুতে ইংরেজ জেসি কার্ভারের পরিচালনায় ১৯৪৯–৫০ সেরিয়ে আ জিতে এবং তারপর ১৯৫১–৫২ সেরিয়ে আ পুনরাবৃত্তি করে ক্লাবটি তার নামে আরও দুটি লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ শিরোপা যোগ করে। ১৯৫৭–৫৮ সেরিয়ে আ এর জন্য দুই নতুন স্ট্রাইকার ওয়েলশম্যান জন চার্লস এবং ইতালীয় আর্জেন্টিনার ওমর সিভোরি দীর্ঘদিনের সদস্য জিয়াম্পিয়েরো বোনিপেরতির সাথে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। ১৯৫৯–৬০ ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব মৌসুমে তারা ফিওরেন্তিনাকে হারিয়ে তাদের প্রথম লিগ এবং ১৯৫৯–৬০ সেরিয়ে আ এবং ১৯৬০ কোপা ইতালিয়া ফাইনাল জিতে কাপ ডাবল সম্পূর্ণ করে। ১৯৬১ সালে ক্লাবের সর্বকালের শীর্ষ স্কোরার হিসাবে বনিপেরতি অবসর গ্রহণ করেন সমস্ত প্রতিযোগিতায় ১৮২ গোল করে (একটি ক্লাব রেকর্ড যা ৪৫ বছর ধরে স্থায়ী হয়েছিল)।[৩৫]

বাকি দশকে ক্লাবটি শুধুমাত্র ১৯৬৬–৬৭ সেরিয়ে আ জিতেছে।[২৯] ১৯৭০-এর দশকে ইয়ুভেন্তুস ইতালীয় ফুটবলে তাদের শক্তিশালী অবস্থানকে আরও মজবুত করতে দেখে এবং প্রাক্তন খেলোয়াড় চেস্তমির ভিসপালেক- এর অধীনে তারা ১৯৭১–৭২ সেরিয়ে আ তে স্কুডেটো জিতেছিল এবং ১৯৭২–৭৩ সেরিয়ে আ শিরোপা তারা রবার্তো বেটেগা, ফ্রাঙ্কো কসিও, এবং হোসে আলতাফিনির মতো খেলোয়াড়দের সাথে জিতেছিল,[২৯] দশকের বাকি সময়ে তারা আরও তিনবার লিগ শিরোপা জিতেছে, যেখানে ডিফেন্ডার গেতানো স্কিরিয়া উল্লেখযোগ্যভাবে অবদান রেখেছিল। সেরিয়ে আ-তে শেষের দুটি সাফল্য ছিল জিওভান্নি ত্রাপাত্তোনির অধীনে, যিনি ক্লাবটিকে তাদের প্রথম বড় ইউরোপীয় শিরোপা ১৯৭৬–৭৭ উয়েফা কাপে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং ১৯৮০-এর দশকের প্রথম দিকে ক্লাবের আধিপত্য বজায় রাখতে সাহায্য করেছিলেন।[৩৬]

ইউরোপীয় পর্যায় (১৯৮০–১৯৯৩)[সম্পাদনা]

১৯৮০-এর দশকে ত্রাপাত্তনি যুগ অত্যন্ত সফল ছিল এবং ক্লাবটি দশকের শুরুটা ভালভাবে করেছিল, ১৯৮৪ সালের মধ্যে আরও তিনবার লিগ শিরোপা জিতেছিল।[২৯] এর অর্থ হল ইয়ুভেন্তুস ২০টি ইতালীয় লিগ শিরোপা জিতেছিল এবং তাদের শার্টে দ্বিতীয় সোনালি তারকা যোগ করার অনুমতি পেয়েছিল, এবং এটি অর্জনকারী একমাত্র ইতালীয় ক্লাব ছিল এটি।[৩৬] এই সময়ে ক্লাবের খেলোয়াড়রা যথেষ্ট মনোযোগ আকর্ষণ করছিল এবং পাওলো রসি ১৯৮২ ফিফা বিশ্বকাপে ইতালির জয়ে অবদানের জন্য ইউরোপীয় বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হন, যেখানে তিনি পুরো প্রতিযোগিতাটির সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।[৩৭]

ফরাসী মিশেল প্লাতিনি ১৯৮৩, ১৯৮৪ এবং ১৯৮৫ সালে টানা তিন বছর ইউরোপীয় বর্ষসেরা ফুটবলারের খেতাব পেয়েছিলেন, যা একটি রেকর্ড।[৩৮] ইয়ুভেন্তুস হল প্রথম এবং একমাত্র দুটি ক্লাবের মধ্যে একটি যাদের খেলোয়াড়রা টানা চার বছরে এই পুরস্কারটি জিতেছে।[৩৯][চ] ১৯৮৫ সালের ইউরোপীয় কাপের ফাইনালে লিভারপুলের বিপক্ষে বিজয়ী গোলটি করেছিলেন প্লাতিনি; এটি হেইসেল স্টেডিয়াম বিপর্যয়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল, যা ইউরোপীয় ফুটবলকে বদলে দিয়েছে।[৪১] সেই বছর ইয়ুভেন্তুস ইউরোপীয় ফুটবলের ইতিহাসে প্রথম ক্লাব হয়ে ওঠে যে তিনটি প্রধান উয়েফা প্রতিযোগিতা জিতেছে;[৪২][৪৩] ১৯৮৫ ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে তাদের জয়ের পর ক্লাবটি প্রথম এবং এ পর্যন্ত ফুটবল ইতিহাসে একমাত্র যে পাঁচটি সম্ভাব্য কনফেডারেশন প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেছে,[৪৪] এটি এমন একটি কৃতিত্ব যা ১৯৯৯ উয়েফা ইন্টারটোটো কাপে ষষ্ঠ শিরোপা জিতে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছে।[৪৫][৪৬]

ঘনিষ্ঠভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ১৯৮৫–৮৬ সেরিয়ে আ জেতা বাদে ১৯৮০ এর দশকের বাকি অংশগুলি ক্লাবটির পক্ষে খুব বেশি সফল ছিল না। দিয়েগো মারাদোনার নাপোলির সাথে লড়াই করার পাশাপাশি, মিলানিজ ক্লাব এসি মিলান এবং ইন্টার মিলান -এর বিপক্ষে ইতালীয় চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে; প্রাক্তন ক্লাব কিংবদন্তি ডিনো জফের নির্দেশনায় ইয়ুভেন্তুস ১৯৮৯–৯০ কোপা ইতালিয়া এবং ১৯৯০ উয়েফা কাপ ফাইনাল জিতে একটি ডাবল অর্জন করেছে।[২৯]

নতুন করে আন্তর্জাতিক সাফল্য (১৯৯৪–২০০৪)[সম্পাদনা]

মার্সেলো লিপি ১৯৯৪–৯৫ সেরিয়ে আ এর শুরুতে ইয়ুভেন্তুস ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।[২৭] ক্লাবের নেতৃত্বে তার প্রথম মৌসুমটি ছিল একটি সফল মৌসুম, কারণ ইয়ুভেন্তুস ১৯৮০-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে তাদের প্রথম সেরিয়ে আ চ্যাম্পিয়নশিপ শিরোপা দখল করে রেখেছে, সেইসাথে ১৯৯৫ সালের কোপা ইতালিয়া ফাইনালও।[২৯] এই সময়ের খেলোয়াড়দের ফসল সিরো ফেররা, রবের্তো বাজ্জো, জানলুকা ভিয়াল্লি, এবং একজন যুবক আলেসান্দ্রো দেল পিয়েরোকে দেখান। লিপি ইয়ুভেন্তুসকে ১৯৯৫ সুপারকোপা ইতালিয়ানা এবং ১৯৯৫–৯৬ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নেতৃত্ব দেন, এবং ১–১ ড্রয়ের পর পেনাল্টিতে আয়াক্সকে পরাজিত করেন যেখানে ইয়ুভেন্তুসের হয়ে ফ্যাব্রিজিও রাভানেলি গোল করেন।[৪৭]

জিনেদিন জিদান, ফিলিপ্পো ইনৎসাগি এবং এডগার ডেভিডস- এর আকারে আরও উচ্চ সম্মানিত খেলোয়াড়দের ভাঁজে আনা হয়েছিল বলে ক্লাবটি ইউরোপীয় কাপ জেতার পরে বেশিদিন বিশ্রাম নেয়নি। ঘরের মাঠে ইয়ুভেন্তুস ১৯৯৬–৯৭ সেরিয়ে আ জিতেছে, ১৯৯৭–৯৮ সেরিয়ে আ তে সফলভাবে তাদের শিরোপা রক্ষা করেছে, ১৯৯৬ সালের উয়েফা সুপার কাপ জিতেছে,[৪৮] এবং একই জয়ের পথ অনুসরণ করেছে ১৯৯৬ ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপের মাধ্যমে।[৪৯] এই সময়ের মধ্যে ইয়ুভেন্তুস পরপর দুটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছেছিল কিন্তু যথাক্রমে ১৯৯৭ এবং ১৯৯৮ সালের ফাইনাল দুটিতেই[৫০][৫১] বরুসিয়া ডর্টমুন্ড এবং রিয়াল মাদ্রিদের কাছে পরাজিত হয়েছিল।[৫২][৫৩]

আড়াই মৌসুমের অনুপস্থিতির পর লিপি ২০০১ সালে ক্লাবে ফিরে আসেন তার স্থলাভিষিক্ত কার্লো আনচেলত্তির বরখাস্তের পর, এসেই তিনি জিয়ানলুইজি বুফন, দাভিদ ত্রেজেগে, পাভেল নেদভেদ এবং লিলিয়ান থুরামের মতো বড় নামী খেলোয়াড়দের চুক্তিবদ্ধ করান, যারা ২০০১–০২ সেরিয়ে আ জয়ী হতে ক্লাবটিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন, যা ১৯৯৮ সালের পর তাদের প্রথম শিরোপা ছিল এবং ২০০২–০৩ সেরিয়ে আ নিজেদের জন্য নিশ্চিত করেছিল।[২৯] ইয়ুভেন্তুসও ইতালীয় ২০০৩ সালের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের অংশ ছিল কিন্তু ম্যাচটি ০–০ গোলে ড্র হওয়ার পর পেনাল্টিতে মিলানের কাছে হেরে যায়। পরের মৌসুমের উপসংহারে লিপিকে ইতালি জাতীয় দলের প্রধান কোচ হিসেবে নিযুক্ত করা হয়, যা ইয়ুভেন্তুসের ইতিহাসে সবচেয়ে ফলপ্রসূ পরিচালনাসংক্রান্ত খুঁটিগুলির একটির সমাপ্তি ঘটায়।[৩৬]

ক্যালসিওপলি কেলেঙ্কারি (২০০৪–২০০৭)[সম্পাদনা]

ফ্যাবিও ক্যাপেলো ২০০৪ সালে ইয়ুভেন্তুসের কোচ হিসেবে নিযুক্ত হন এবং ক্লাবটিকে পরপর দুটি সেরিয়ে আ প্রথম স্থানে নিয়ে যান। ২০০৬ সালের মে মাসে ইয়ুভেন্তুস ক্যালসিওপোলি কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত পাঁচটি ক্লাবের একটি হিসাবে আবির্ভূত হয়। জুলাই মাসে ইয়ুভেন্তুসকে লিগ টেবিলের নিছে রাখা হয়েছিল এবং ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সেরিয়ে বি- তে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ক্লাবটি ২০০৪–০৫ সেরিয়ে আ খেতাবও চিনতাই করে নিয়েছিল, যখন ২০০৫–০৬ সেরিয়ে আ বিচারাধীন থাকার পর তৃতীয় স্থানে থাকা ইন্টার মিলানকে বিজয়ী হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল।[৫৪] এটি একটি অনেক বিতর্কিত বিষয় হয়ে রয়ে গেছে,[৫৫][৫৬][৫৭] বিশেষ করে ইন্টার মিলানের পরবর্তীতে প্রকাশিত জড়িত থাকার কারণে ২০০৪ সালের চ্যাম্পিয়নশিপ (একমাত্র তদন্ত করা হচ্ছে) নিয়মিত এবং স্থির নয় বলে মনে করা হয়,[৫৮][৫৯][৬০] ইয়ুভেন্তুসকে সাধারণ বিচার প্রক্রিয়ায় ক্লাব হিসাবে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে,[৬১][৬২] ফিফা ইতালীয় ফুটবল ফেডারেশন (এফআইজিসি) স্থগিত করার হুমকি দেওয়ার পরে ইতালীয় সিভিল কোর্টে আপিলের জন্য তাদের পরিত্যাগ করা হয়, যা ক্লাবের নাম পরিষ্কার করতে এবং নির্বাসন এড়াতে পারে। এবং সমস্ত ইতালীয় ক্লাবকে আন্তর্জাতিক খেলা থেকে বিরত রাখা,[৬৩][৬৪][৬৫] এবং অনুপ্রেরণা,[৬৬] যেমন সেন্টিমেন্টো পপোলারে (জনগণের অনুভূতি),[৬৭] এবং নতুন সৃষ্ট অ্যাড-হক নিয়ম ক্লাবকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়।[৬৮][৬৯][৭০]

তারকা গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন এমন একদল খেলোয়াড়ের মধ্যে ছিলেন যারা ২০০৬ সালে সিরিয়ে বি-তে অবনমনের পরও ক্লাবের সাথেই ছিলেন।

থুরাম তারকা স্ট্রাইকার জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ, মিডফিল্ডার এমারসন এবং পাত্রিক ভিয়েইরা, এবং রক্ষণাত্মক দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ফাবিও কান্নাভারো এবং জিয়ানলুকা জামব্রোটা সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সিরিয়ে বি-তে তাদের নির্বাসনের পরে ক্লাব ছেড়ে চলে যান;[৭১] অন্যান্য বড় নামধারী খেলোয়াড় যেমন দেল পিয়েরো, বুফন, ট্রেজেগুয়েট, এবং নেদভেদ, সেইসাথে ক্লাবের ভবিষ্যত প্রতিরক্ষা কেন্দ্র জর্জো কিয়েল্লিনি ক্লাবকে সেরিয়ে আ-তে ফিরে যেতে সাহায্য করার জন্য রয়ে গেছেন,[৭২] যখন ক্যাম্পিওনাতো নাজিওনালের তরুণরা (যেমন সেবাস্তিয়ান জিওভিনকো এবং ক্লাউদিও মার্সিসিও) প্রাইমাভেরায় (যুব দল) প্রথম দলে একত্রিত হয়েছিল।[৭৩][৭৪] ইয়ুভেন্তুস ক্যাডেটি খেতাব (সিরিয়ে বি চ্যাম্পিয়নশিপ) জিতেছে যদিও পয়েন্ট কম দিয়ে শুরু করে এবং সরাসরি শীর্ষ বিভাগে পদোন্নতি লাভ করে, ২০০৬–০৭ সেরিয়ে বি মৌসুমের পরে লিগ বিজয়ী হিসাবে দেল পিয়েরো ২১ গোলের সাথে শীর্ষ স্কোরার পুরস্কারটি দাবি করে।[৭৫]

২০১০ সালের প্রথম দিকে যখন অন্যান্য অনেক ক্লাব জড়িত ছিল এবং ২০১১ পালাজি রিপোর্টে ইন্টার মিলান, লিভোর্নো এবং মিলান সরাসরি ধারা ৬ লঙ্ঘনের জন্য দায়ী ছিল তখন ইয়ুভেন্তুস ২০০৬ থেকে তাদের স্কুডেটো ছিনিয়ে নেওয়া এবং ২০০৫ খেতাব না দেওয়াকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে বিবেচনা করেছিল। এটি ২০০৬ কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত ক্যালসিওপোলি ট্রায়ালের ফলাফলের উপর নির্ভরশীল।[৭৬] যখন প্রাক্তন মহাব্যবস্থাপক লুসিয়ানো মোগির এই কেলেঙ্কারির জন্য ফৌজদারি আদালতে দোষী সাব্যস্ত হওয়াকে মার্চ ২০১৫ সালে সুপ্রিম কোর্ট আংশিকভাবে বাতিল করে দেয়,[৭৭][৭৮] তখন ক্লাবটি তাদের ২০০৬ সালের নির্বাসনের কারণে ক্ষতির জন্য এফআইজিসি-এর কাছে €৪৪৩ মিলিয়ন এর জন্য মামলা করে। তৎকালীন-এফআইজিসি সভাপতি কার্লো তাভেচিও ইয়ুভেন্তুসের মামলা বাদ দেওয়ার বিনিময়ে হারানো স্কুডেটি পুনঃপ্রতিষ্ঠার বিষয়ে আলোচনা করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।[৭৯]

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে সুপ্রিম কোর্ট একটি ১৫০ পৃষ্ঠার নথি প্রকাশ করেছে যা ২০০৬ সালের বিতর্কিত ক্রীড়া রায়ের উপর ভিত্তি করে মামলার চূড়ান্ত রায় ব্যাখ্যা করে, যা জড়িত অন্যান্য ক্লাবগুলিকে বিবেচনায় নেয়নি কারণ তাদের বিচারের মুখোমুখি করা যায়নি। সীমাবদ্ধতার সংবিধি এবং খেলাধুলার ন্যায়বিচারের ধারা ৩৯ অনুসারে রায় প্রত্যাহার করার অনুরোধ এবং খোলার প্রয়োজন হবে। সীমাবদ্ধতার বিধির কারণে নতুন বিচার ছাড়াই তার অবশিষ্ট অভিযোগ বাতিল হওয়া সত্ত্বেও আদালত নিশ্চিত করেছে যে মোগি সক্রিয়ভাবে ক্রীড়া জালিয়াতির সাথে জড়িত ছিল, যার উদ্দেশ্য ছিল ইয়ুভেন্তুসের পক্ষে এবং লা গাজেটা ডেলো স্পোর্ট অনুসারে তার নিজস্ব ব্যক্তিগত সুবিধা বৃদ্ধি করা।[৮০] ২০১২ সালে নেপলস আদালতের মতো[৮১][৮২] আদালত মন্তব্য করেছে যে অন্যান্য ক্লাব এবং নির্বাহীদের উন্নয়ন এবং আচরণ গভীরভাবে তদন্ত করা হয়নি।[৮৩] একবার তারা ইতালির আদালতে তাদের আপিল শেষ করে[৮৪] মোগি এবং জিরাউডো উভয়েই ২০২০ সালের মার্চ মাসে ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতে আপিল করেন; জিরাউডো ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে গৃহীত হয়েছিল।[৮৫][৮৬] ইয়ুভেন্তুস নতুন আবেদন উপস্থাপন করতে থাকে,[৮৭] যেগুলোকে অগ্রহণযোগ্য ঘোষণা করা হয়।[৮৮]

সেরিয়ে আ ফেরত (২০০৭–২০১১)[সম্পাদনা]

২০০৭–০৮ সেরিয়ে আ- তে তাদের প্রত্যাবর্তনের পর ইয়ুভেন্তুস ক্লাউদিও রানিয়েরিকে ম্যানেজার হিসেবে নিযুক্ত করে।[৮৯] তারা তাদের প্রথম মৌসুমে তৃতীয় স্থান অর্জন করে শীর্ষ ফ্লাইটে এবং ২০০৮–০৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রাথমিক পর্যায়ে তৃতীয় বাছাই পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। ইয়ুভেন্তুস গ্রুপ পর্বে পৌঁছেছে, যেখানে তারা চেলসির কাছে নকআউট পর্বে হেরে যাওয়ার আগে রিয়াল মাদ্রিদকে হোম এবং অ্যাওয়ে উভয় লেগে হারিয়েছে। বেশ কয়েকটি অসফল ফলাফলের কারণে রানিয়েরিকে বরখাস্ত করা হয় এবং সিরো ফেরারকে ২০০৮–০৯ সেরিয়ে আ- এর শেষ দুটি খেলার জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়[৯০] (পরবর্তীতে ২০০৯–১০ সেরিয়ে আ- এর জন্য ম্যানেজার হিসেবে নিযুক্ত হওয়ার আগে[৯১])

ইয়ুভেন্তুস ম্যানেজার হিসেবে ফেরারার কর্মকাল ব্যর্থ প্রমাণিত হয়েছিল, ইয়ুভেন্তুস ২০০৯–১০ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং ২০০৯–১০ কোপা ইতালিয়া থেকে ছিটকে যায়, সেইসাথে ২০১০ সালের জানুয়ারির শেষে লিগ টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে পড়েছিল। যার ফলে ফেরারা বরখাস্ত হয় এবং তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থাপক হিসাবে আলবার্তো জাকেরোনির নামকরণ করা হয়। জ্যাকেরোনি দলের উন্নতিতে সাহায্য করতে পারেননি, কারণ ইয়ুভেন্তুস সেরিয়ে আ-তে সপ্তম স্থানে মৌসুম শেষ করেছিল। ২০১০–১১ সেরিয়ে আ- এর জন্য ক্লাবের সভাপতি হিসাবে আন্দ্রেয়া অ্যাগনেলির স্থলাভিষিক্ত হন জিন-ক্লদ ব্ল্যাঙ্ক। অ্যাগনেলির প্রথম কাজটি ছিল জাকেরোনি এবং স্পোর্টের ডিরেক্টর অ্যালেসিও সেকোকে সাম্পদোরিয়া ম্যানেজার লুইগি ডেলনেরি এবং স্পোর্ট ডিরেক্টর জিউসেপ্পে মারোট্টার সাথে প্রতিস্থাপন করা।[৯২] ডেলনেরি তাদের ভাগ্যের উন্নতি করতে ব্যর্থ হন এবং তাকে বরখাস্ত করা হয়, এবং প্রাক্তন খেলোয়াড় এবং ভক্তদের প্রিয় আন্তোনিও কন্টে সিয়েনার সাথে পদোন্নতিতে জেতার পর নতুন ডেলনেরির স্থলাভিষিক্ত হিসাবে নামকরণ করা হয়।[৯৩] ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে ইয়ুভেন্তুস নতুন ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়ামে স্থানান্তরিত হয়, যা ২০১৭ সাল থেকে আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়াম নামে পরিচিত।[৯৪]

টানা নয়টি স্কুডেটি (২০১১–২০২০)[সম্পাদনা]

প্লেমেকার আন্দ্রেয়া পিরলো ২০১২ সালে ইয়ুভেন্তুসের হয়ে খেলছেন

কন্টের পরিচালনায় ইয়ুভেন্তুস পুরো ২০১১–১২ সেরিয়ে আ মৌসুমে অপরাজিত ছিল। মৌসুমের দ্বিতীয়ার্ধের দিকে দলটি বেশিরভাগ উত্তরের প্রতিদ্বন্দ্বী মিলানের সাথে একটি শক্ত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থানের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিল। ইয়ুভেন্তুস ৩৭ তম ম্যাচের দিনে কাইয়ারিকে ২–০ গোলে হারিয়ে এবং মিলান ইন্টারের কাছে ৪–০ তে হেরে শিরোপা জিতেছে। আতলান্তার বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচের দিনে ৩–১ গোলে জয়ের পর ইয়ুভেন্তুস বর্তমান ৩৮-খেলার বিন্যাসে মৌসুমে অপরাজিত থাকা প্রথম দল হয়ে ওঠে।[৯৫] ২০১৩–১৪ সেরিয়ে আ তে ইয়ুভেন্তুস রেকর্ড ১০২ পয়েন্ট এবং ৩৩ জয়ের সাথে টানা তৃতীয় স্কুডেটো জিতেছে।[৯৬][৯৭] শিরোপাটি ছিল ক্লাবের ইতিহাসে ৩০তম অফিসিয়াল লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ।[৯৮] তারা ২০১৩–১৪ উয়েফা ইউরোপা লিগের সেমিফাইনালও অর্জন করেছিল, যেখানে তারা ১০ সদস্যের বেনফিকার ক্যাটেনাসিওর বিপক্ষে ঘরের মাঠে বাদ পড়েছিল, ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়ামে ২০১৪ উয়েফা ইউরোপা লিগের ফাইনাল মিস করেছিল।[৯৯][১০০]

ইতালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাতারেলার কাছ থেকে ২০১৬-১৭ কোপা ইতালিয়া গ্রহণ করছেন ইয়ুভেন্তুসের অধিনায়ক জর্জো কিয়েল্লিনি

২০১৪–১৫ সেরিয়ে আ ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি ম্যানেজার হিসাবে নিযুক্ত হন, যার সাথে ইয়ুভেন্তুস তাদের ৩১তম অফিসিয়াল শিরোপা জিতেছিল, এটিকে চতুর্থ-সরাসরি সেইসাথে ২০১৫ কোপা ইতালিয়া ফাইনালে লাৎসিয়োকে ঘরোয়া ডাবলের জন্য ২–২ হারানোর পর রেকর্ড দশম কোপা ইতালিয়া অর্জন করেছিল।[১০১] ২০০২–০৩ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পর প্রথমবারের মতো বার্লিনে ২০১৫ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে বার্সেলোনার মুখোমুখি হতে ক্লাবটি ২০১৪–১৫ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদকে মোট ৩–২ গোলে পরাজিত করে।[১০২] কিন্তু ফাইনালে বার্সেলোনার কাছে ৩–১ গোলে হেরেছে ইয়ুভেন্তুস।[১০৩] ২০১৬ সালের কোপা ইতালিয়া ফাইনালে ক্লাবটি ১১ তম বার এবং টানা দ্বিতীয় জয়ের জন্য শিরোপা জিতেছে, ইতালির ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে সেরিয়ে আ এবং কোপা ইতালিয়া দ্বৈত মৌসুমে পরপর জিতেছে।[১০৪][১০৫][১০৬]

২০১৭ কোপা ইতালিয়া ফাইনালে ইয়ুভেন্তুস তাদের ১২ তম কোপা ইতালিয়া শিরোপা জিতেছে লাজিওর বিরুদ্ধে ২–০ গোলের জয়ে, টানা তিনটি শিরোপা জিতা এটিই প্রথম দল।[১০৭] চার দিন পর ২১ মে ইয়ুভেন্তুস প্রথম দল হিসেবে টানা ছয়টি সেরিয়ে আ শিরোপা জেতে।[১০৮] ২০১৭ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে তিন বছরের মধ্যে তাদের দ্বিতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ইয়ুভেন্তুস ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ১–৪ গোলে পরাজিত হয়েছিল; ২০১৭ তুরিনে পদদলিত ঘটনা হয় ম্যাচ শেষ হওয়ার দশ মিনিট আগে।[১০৯][১১০] ২০১৮ সালের কোপা ইতালিয়া ফাইনালে ইয়ুভেন্তুস তাদের ১৩তম শিরোপা জিতেছে এবং মিলানের বিরুদ্ধে ৪–০ ব্যবধানে জয়ের মাধ্যমে টানা চতুর্থ খেতাব জিতে পরপর কোপা ইতালিয়া শিরোপা জয়ের সর্বকালের রেকর্ডকে প্রসারিত করেছে।[১১১] এরপর ইয়ুভেন্তুস তাদের টানা সপ্তম সেরিয়ে আ শিরোপা নিশ্চিত করে প্রতিযোগিতায় ধারাবাহিক জয়ের সর্বকালের রেকর্ডকে বাড়িয়ে দেয়।[১১২] ২০১৮ সালের সুপারকোপা ইতালিয়ানায় (যা ২০১৯ সালের জানুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল) ইয়ুভেন্তুস এবং মিলান (যারা সুপারকোপা ইতালিয়ানা শিরোপা সাতটি করে জিতেছিল) একে অপরের বিরুদ্ধে খেলেছিল; মিলানকে ১–০ গোলে হারিয়ে আটটি শিরোপা জিতেছে ইয়ুভেন্তুস।[১১৩] এপ্রিল ২০১৯ সালে ইয়ুভেন্তুস তাদের টানা অষ্টম সেরিয়ে আ শিরোপা নিশ্চিত করে প্রতিযোগিতায় ধারাবাহিক জয়ের সর্বকালের রেকর্ডকে আরও বাড়িয়ে দেয়।[১১৪] অ্যালেগ্রির প্রস্থানের পর[১১৫] ২০১৯–২০ ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব মৌসুমের আগে মাউরিজিও সারিকে ক্লাবের ম্যানেজার নিযুক্ত করা হয়।[১১৬] ইয়ুভেন্তুস ২০১৯–২০ সেরিয়ে আ চ্যাম্পিয়ন নিশ্চিত করে টানা নয়টি লিগ শিরোপা জয়ের একটি অভূতপূর্ব মাইলফলক ছুঁয়েছে।[১১৭]

সাম্প্রতিক ইতিহাস (২০২০–বর্তমান)[সম্পাদনা]

লিয়োনের দ্বারা ২০১৯–২০ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে ইয়ুভেন্তুস বাদ পড়ার একদিন পর অর্থাৎ ৮ আগস্ট ২০২০-এ সারিকে তার ব্যবস্থাপক পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।[১১৮] একই দিনে সাবেক খেলোয়াড় আন্দ্রেয়া পিরলোকে দুই বছরের চুক্তিতে নতুন কোচ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।[১১৯] ২০২০ সালের সুপারকোপা ইতালিয়ানায় (যা ২০২১ সালের জানুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল) ইয়ুভেন্তুস নাপোলির বিরুদ্ধে ২–০ ব্যবধানে জয়ের পর তাদের নবম শিরোপা জিতেছিল।[১২০] ২০২০–২১ সেরিয়ে আ ইন্টার মিলানের জয়ের সাথে ইয়ুভেন্তুসের টানা নয়টি শিরোপা জয়ের দৌড় শেষ হয়েছে;[১২১] ক্লাবটি লিগের শেষ দিনে চতুর্থ স্থান নিশ্চিত করতে সক্ষম হওয়ায় ইয়ুভেন্তুসকে পরের মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা প্রদান করে।[১২২] ২০২১ কোপা ইতালিয়া ফাইনালে ইয়ুভেন্তুস তাদের ১৪ তম শিরোপা জিতেছে।[১২৩] ২৮ মে ইয়ুভেন্তুস পিরলোকে তার ব্যবস্থাপনার পদ থেকে বরখাস্ত করে,[১২৪][১২৫] এবং দুই বছর ব্যবস্থাপনা থেকে দূরে থাকার পর পরিচালক হিসেবে অ্যালেগ্রির ক্লাবে ফিরে আসার ঘোষণা দেয়।[১২৬] ২০২২ কোপা ইতালিয়া ফাইনালে ইন্টার মিলানের কাছে অতিরিক্ত সময়ের পরে ৪–২ ব্যবধানে হারার পর ২০২১–২২ ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব মৌসুমে ২০১০–১১ সালের পর প্রথম বছর হিসাবে চিহ্নিত যেখানে ক্লাবটি একটি শিরোপাও জিততে পারেনি।[১২৭]

২৮ নভেম্বর ২০২২-এ পুরো পরিচালনা পর্ষদ তাদের নিজ নিজ পদ থেকে পদত্যাগ করেন, অর্থাৎ আন্দ্রেয়া অ্যাগনেলি প্রেসিডেন্ট, পাভেল নেদভেদ ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং মৌরিজিও অ্যারিভাবেনে সিইও থেকে পদত্যাগ করেন।[১২৮][১২৯][১৩০] ক্লাবের নিয়ন্ত্রক শেয়ারহোল্ডার এক্সর ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ তারিখে শেয়ারহোল্ডারদের মিটিং এর আগে জিয়ানলুকা ফেরেরোকে তার নতুন চেয়ারম্যান হিসাবে নিযুক্ত করে।[১৩১] দুই দিন পরে এপ্রিল–মে ২০২২-এ এফআইজিসি-এর আপিল আদালত কর্তৃক খালাস পাওয়ার পর[১৩২][১৩৩][১৩৪] ইয়ুভেন্তুসকে মূলধন লাভ লঙ্ঘনের জন্য শাস্তি হিসেবে ১৫ পয়েন্ট কাটা হয়,[১৩৫] সম্পর্কিত তদন্তের অংশ হিসেবে নভেম্বর ২০২১ থেকে শুরু হওয়া কোভিড-১৯ এর বৈশ্বিক মহামারীর সময় ২০১৯–২০২১ বাজেটের অংশ হিসেবে[১৩৬] এটি এফজিসি প্রসিকিউটর দ্বারা সুপারিশকৃত পয়েন্ট কর্তনের চেয়ে কঠোর ছিল, যিনি বলেছিলেন যে স্ট্যান্ডিংয়ে ইয়ুভেন্তুসকে "এখন ইউরোপীয় কাপ এলাকার বাইরে রোমার পিছনে শেষ করতে হবে"; ক্লাবটি আপিল করতে তার অভিপ্রায় ঘোষণা করে।[১৩৭][১৩৮] এই শাস্তি ইয়ুভেন্তুস সমর্থকদের মধ্যে একটি হৈচৈ ও প্রতিবাদের সৃষ্টি করে,[১৩৯] যারা তাদের স্কাই স্পোর্ট এবং ডিএজেডএন সাবস্ক্রিপশন বাতিল বা তা করার হুমকি দিয়েছিল।[১৪০][১৪১][১৪২]

ক্রেস্ট এবং রং[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুস ১৯০৩ সাল থেকে সাদা শর্টস বা কখনও কখনও কালো শর্টস সহ কালো এবং সাদা ডোরাকাটা শার্টে খেলেছে। মূলত তারা একটি কালো টাইর সঙ্গে গোলাপী শার্টে খেলেছে। একজন খেলোয়াড়ের বাবা প্রথম দিকের শার্টগুলি তৈরি করেছিলেন, কিন্তু ক্রমাগত ধোয়ার ফলে রঙ এতটাই বিবর্ণ হয়ে গিয়েছিল যে ১৯০৩ সালে ক্লাবটি ওগুলি প্রতিস্থাপন করতে চেয়েছিল।[১৪৩] ইয়ুভেন্তুস তাদের দলের একজন সদস্য ইংলিশম্যান জন স্যাভেজকে জিজ্ঞাসা করেছিল যে ইংল্যান্ডে তার কোন পরিচিতি আছে কিনা যারা এমন রঙে নতুন শার্ট সরবরাহ করতে পারে যা উপাদানগুলিকে আরও ভালভাবে সহ্য করতে পারে। নটিংহামে তার এক বন্ধু ছিল যিনি নটস কাউন্টির সমর্থক ছিলেন, তিনি কালো এবং সাদা ডোরাকাটা শার্ট তুরিনে পাঠিয়েছিলেন।[১৪৩] ইয়ুভেন্তুস তখন থেকেই রঙগুলিকে আক্রমণাত্মক এবং শক্তিশালী বলে বিবেচনা করে এই শার্ট পরছে।[১৪৩]

ইয়ুভেন্তুসের দাপ্তরিক প্রতীক ১৯২০ সাল থেকে বিভিন্ন এবং ছোট পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে গেছে। ইয়ুভেন্তুস প্রতীকটির আগের পরিবর্তনটি ২০০৪ সালে হয়েছিল, যখন দলের প্রতীকটি ইতালীয় ধর্মপ্রচারকদের দ্বারা ব্যবহৃত একটি কালো-সাদা ওভাল ঢালে পরিবর্তিত হয়েছিল। এটি পাঁচটি উল্লম্ব ফিতে বিভক্ত: দুটি সাদা স্ট্রাইপ এবং তিনটি কালো স্ট্রাইপ যার ভিতরে উক্ত উপাদানগুলি রয়েছে, যখন এর উপরের অংশে সোসাইটির নামটি একটি সাদা উত্তল অংশের উপর চাপানো হয়েছে সোনার বক্রতা (সম্মানের জন্য সোনা)। একটি চার্জিং ষাঁড়ের সাদা সিলুয়েটটি ডিম্বাকৃতির ঢালের নীচের অংশে রয়েছে, এটি একটি কালো পুরানো ফ্রেঞ্চ ঢালের উপর চাপানো হয়েছে এবং চার্জিং ষাঁড়টি তুরিনের কমিউনের প্রতীক। কালো গোলাকার ত্রিভুজের ভিত্তির উপরে মুরাল মুকুটের একটি কালো সিলুয়েটও রয়েছে। এটি রোমান সাম্রাজ্যের পুরানো শহর অগাস্টা টোরিনোরামের একটি স্মৃতিচারণ যা পিডমন্ট অঞ্চলের বর্তমান রাজধানীর সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকারী।

জানুয়ারী ২০১৭-এ সভাপতি আন্দ্রেয়া অ্যাগনেলি একটি লোগোটাইপের জন্য ইয়ুভেন্তুস ব্যাজ পরিবর্তনের ঘোষণা করেছিলেন। আরও বিশেষভাবে এটি একটি শৈলীকৃত কালো ও সাদা " জে " দ্বারা রচিত একটি চিত্রপ্রতীক যা অ্যাগনেলি বলেছেন "ইয়ুভেন্তুসের জীবনযাত্রার উপায়" প্রতিফলিত করে।[১৪৪] ইয়ুভেন্তুস ছিল ক্রীড়া ইতিহাসে প্রথম দল যারা কোনো প্রতিযোগীতার বিজয়ের সাথে যুক্ত একটি তারকাকে প্রতীক হিসেবে গ্রহণ করে, যারা ১৯৫৮ সালে তাদের দশম ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ এবং সেরিয়ে আ শিরোপা প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তাদের ব্যাজের উপরে একটি তারকা যোগ করে এবং তখন থেকে অন্যান্য ক্লাবের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।[১৪৫]

অতীতে প্রতীকটির উত্তল অংশে নীল রঙ ছিল (তুরিনের আরেকটি প্রতীক) এবং এটি আকারে অবতল ছিল। এছাড়াও প্রতীকের নীচের অংশে একটি যথেষ্ট বড় আকারের পুরানো ফরাসি ঢাল এবং মুরাল মুকুট ছিল। দুটি "স্পোর্ট এক্সিলেন্সের জন্য সোনার তারকা" ইয়ুভেন্তুসের প্রতীকের উত্তল এবং অবতল অংশের উপরে অবস্থিত ছিল। ১৯৮০-এর দশকে ক্লাবের প্রতীকটি ছিল একটি জেব্রার অস্পষ্ট সিলুয়েট, যেখানে দুটি সোনালি তারার সাথে ক্লাবের নাম উপরে একটি চাপ তৈরি করে।

ইয়ুভেন্তুস অনানুষ্ঠানিকভাবে ২০১১–১২ সালে তাদের ৩০ তম লিগ শিরোপা জিতেছিল, কিন্তু এফআইজিসি এর সাথে একটি বিরোধ ইয়ুভেন্তুসের ২০০৪–০৫ খেতাব ছিনিয়ে নেয় এবং ক্যালসিওপোলি কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার কারণে তাদের ২০০৫–০৬ শিরোপা বরাদ্দ করেনি এবং তাদের অফিসিয়াল শিরোপা হয় মোট ২৮টি; ক্লাবটি পরের মৌসুমে কোনো তারকা পরার জন্য নির্বাচিত হয়নি।[১৪৬] ইয়ুভেন্তুস ২০১৩–১৪ সালে তাদের ৩০ তম শিরোপা জিতেছিল এবং এইভাবে তাদের তৃতীয় তারকা পরার অধিকার অর্জন করেছিল, কিন্তু অ্যাগনেলি বলেছিলেন যে ক্লাবটি তারাদের ব্যবহার স্থগিত করেছে যতক্ষণ না অন্য দল তাদের ২০তম চ্যাম্পিয়নশিপ জিতছে (দুই তারকা পরার অধিকার রয়েছে "জোড়া করার পার্থক্যের" জন্য)।[১৪৭] ২০১৫–১৬ মৌসুমের জন্য ইয়ুভেন্তুস তারকাদের পুনঃপ্রবর্তন করে এবং আগের মৌসুমে তাদের দশম কোপা ইতালিয়া জয়ের জন্য কোপা ইতালিয়া প্রতীক ছাড়াও নতুন কিট নির্মাতা আডিডাস এর সাথে তাদের জার্সিতে তৃতীয় তারকা যোগ করে।[১৪৮] ২০১৬–১৭ মৌসুমের জন্য ইয়ুভেন্তুস তাদের কিটটি আবার ট্রেডমার্ক কালো এবং সাদা স্ট্রাইপগুলির সাথে একটি ভিন্নভাবে ডিজাইন করেছে।[১৪৯] ২০১৭–১৮ মৌসুমের জন্য ইয়ুভেন্তুস কিটগুলিতে জে আকৃতির লোগো চালু করেছে।[১৫০]

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে ইয়ুভেন্তুস নিজস্ব ওয়েবসাইটে তার জুনিয়র সমর্থকদের জন্য জেকিডস নামে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি নতুন প্রকল্প ঘোষণা করে। এই প্রকল্পের সাথে ইয়ুভেন্তুস তার সমস্ত ভক্তদের কাছে একটি নতুন মাসকটও প্রবর্তন করেছে যাকে বলা হয় জে। জে একটি কার্টুন-শৈলি করা জেব্রা, কালো এবং সাদা ডোরা যার গায়ে সোনালি প্রান্তের পাইপ, সোনালি উজ্জ্বল চোখ এবং এর ঘাড়ের সামনে তিনটি সোনার তারা।[১৫১] ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়ামে জে এর অভিষেক হয়।[১৫২]

ইতিহাস থেকে ক্লাবটি বেশ কয়েকটি ডাকনাম অর্জন করেছে, লা ভেকিয়া সিগনোরা (পুরনো মহিলা) হল সেরা উদাহরণ। ডাকনামের "পুরনো" অংশটি ইয়ুভেন্তুসের একটি শ্লেষ যার অর্থ ল্যাটিন ভাষায় "যুব"। এটি ১৯৩০ এর দশকের মাঝামাঝি ইয়ুভেন্তুস তারকা খেলোয়াড়দের বয়স থেকে উদ্ভূত হয়েছিল। ডাকনামের "মহিলা" অংশটি হল ১৯৩০ এর দশকের আগে ক্লাবের ভক্তরা যেভাবে এটিকে স্নেহের সাথে উল্লেখ করেছিল। ক্লাবটিকে লা ফিডানজাটা ডি'ইতালিয়া (ইতালির গার্লফ্রেন্ড) নামেও ডাকা হয়, কারণ কয়েক বছর ধরে এটি দক্ষিণ ইতালীয় অভিবাসী কর্মীদের (বিশেষ করে নাপোলি এবং পালের্মো থেকে) থেকে উচ্চ স্তরের সমর্থন পেয়েছে, যারা ১৯৩০ সাল থেকে ফিয়াট-এর জন্য কাজ করতে তুরিনে এসেছিলেন। অন্যান্য ডাকনাম অন্তর্ভুক্ত; [লা] মাদামা (ম্যাডামের জন্য পিডমন্টিজ), আই বিয়ানকোনেরি (কালো-সাদা), ইয়ুভেন্তুসের রঙের ক্ষেত্রে লে জেব্রে (জেব্রা) [ছ]আই গোবি (হঞ্চব্যাকস) হল ডাকনাম যা ইয়ুভেন্তুস সমর্থকদের সংজ্ঞায়িত করতে ব্যবহৃত হয়, তবে কখনও কখনও দলের খেলোয়াড়দের জন্যও ব্যবহৃত হয়। পঞ্চাশের দশকে গোবি তারিখের সবচেয়ে ব্যাপকভাবে স্বীকৃত উৎস যখন বিয়ানকোনেরি একটি বড় জার্সি পরতেন। খেলোয়াড়রা যখন মাঠে দৌড়াতেন তখন জার্সি (যার বুকে একটি লেসযুক্ত খোলা ছিল) পিঠের উপর একটি স্ফীতি তৈরি করে (এক ধরণের প্যারাসুট প্রভাব), যাতে খেলোয়াড়দের কুঁজোর মতো দেখায়।[১৫৩]

ইয়ুভেন্তুসের দাপ্তরিক সঙ্গীত হল ইয়ুভে (স্টোরিয়া দি উন গ্রান্দে অ্যামোরে) বা বাংলায় ইয়ুভে (একটি মহান প্রেমের গল্প), ২০০৭ সালে গায়ক ও সঙ্গীতশিল্পী পাওলো বেলির রচিত সংস্করণে আলেসান্দ্রা টোরে এবং ক্লাউডিও গুইডেটি সঙ্গীতটি লিখেছেন।[১৫৪] ২০১৬ সালে ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট স্ট্রাইপস: দ্য ইয়ুভেন্তুস স্টোরি নামে একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ইয়ুভেন্তুস সম্পর্কে লা ভিলা ভাইদের দ্বারা নির্মিত হয়েছিল।[১৫৫] ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮-এ, ফার্স্ট টিম: ইয়ুভেন্তুস নামে একটি প্রামাণ্য-সিরিজের প্রথম তিনটি পর্ব (যেটি পুরো মৌসুম জুড়ে ক্লাবের অনুসরণ করে) মাঠে এবং মাঠের বাইরে পর্দার আড়ালে খেলোয়াড়দের সাথে সময় কাটিয়ে নেটফ্লিক্স এ মুক্তি পায়; অন্য তিনটি পর্ব ৬ জুলাই ২০১৮ এ মুক্তি পায়।[১৫৬] ২৫ নভেম্বর ২০২১-এ অল অর নাথিং: ইয়ুভেন্তুস নামে একটি আট-পর্বের প্রামাণ্য-সিরিজ (যেটি পুরো মৌসুম জুড়ে ক্লাবকে অনুসরণ করে বানানো) মাঠে এবং মাঠের বাইরে পর্দার আড়ালে খেলোয়াড়দের সাথে সময় কাটিয়ে অ্যামাজন প্রাইমে মুক্তি পায়।[১৫৭]

স্টেডিয়াম[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়াম
আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়াম
অবস্থানকর্সো গ্যাতানো সিরেয়া,
১০১৫১ তুরিন, ইতালি
মালিকইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব
পরিচালকইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব
ধারণক্ষমতা৪১,৫০৭ সিট
নির্মাণ
কপর্দকহীন মাঠ১ মার্চ ২০০৯
উদ্বোধন২০১১
নির্মাণ ব্যয়€১৫৫,০০০,০০০[১৫৮]
স্থপতিহের্নান্দো সুয়ারেজ,
জিনো জাভানেলা,
জর্জেত্তো গুইগিয়ারো

প্রথম দুই বছর (১৮৯৭ এবং ১৮৯৮) যে সময়ে ইয়ুভেন্তুস পারকো দেল ভ্যালেন্টিনো এবং পারকো সিত্তাদেল্লাতে খেলেছিল তখন তাদের ম্যাচগুলি পিয়াজা ডি'আর্মি স্টেডিয়ামে ১৯০৮ সাল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছিল, ১৯০৫ (স্কুডেটোর প্রথম বছর) এবং ১৯০৬ সাল ছাড়া, যে বছরগুলিতে তারা করসো রে আম্বার্তোতে খেলেছিল।

১৯০৯ থেকে ১৯২২ সাল পর্যন্ত ইয়ুভেন্তুস তাদের অভ্যন্তরীণ প্রতিযোগিতাগুলি করসো সেবাস্টোপোলি ক্যাম্পে খেলেছিল এবং পরের বছর কর্সো মার্সিগলিয়া ক্যাম্পে চলে যায়, যেখানে তারা ১৯৩৩ সাল পর্যন্ত চারটি লিগ শিরোপা জিতেছিল। ১৯৩৩ সালের শেষের দিকে তারা ১৯৩৪ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য উদ্বোধন করা নতুন স্টেডিও বেনিটো মুসোলিনিতে খেলতে শুরু করে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে স্তাদিও কমিউনালে ভিত্তোরিও পোজ্জোর নামে স্টেডিয়ামটির নামকরণ করা হয়। ইয়ুভেন্তুস ঘরোয়া মাঠে ৫৭ বছরে মোট ৮৯০টি লিগ ম্যাচ খেলেছে।[১৫৯] দলটি জুলাই ২০০৩ পর্যন্ত স্টেডিয়ামে প্রশিক্ষণ সেশনের আয়োজন করে।[১৬০]

১৯৯০ থেকে ২০০৫–০৬ মৌসুম পর্যন্ত তোরিনীয় দলটি ১৯৯০ ফিফা বিশ্বকাপের জন্য নির্মিত স্টেডিও ডেলে আল্পিতে তাদের ঘরোয়া ম্যাচগুলিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল, যদিও খুব বিরল পরিস্থিতিতে ক্লাবটি পালেরমোতে রেনজো বারবেরার সেসেনাতে ডিনো মানুজ্জি এবং মিলানের সান সিরোর মতো অন্যান্য স্টেডিয়ামে কিছু ঘরোয়া ম্যাচ খেলেছিল।[১৬০]

২০০৬ সালের শীতকালীন অলিম্পিকের জন্য স্টেডিয়ামের পুনর্গঠনের পর ২০০৬ সালের আগস্টে ইয়ুভেন্তুস স্টেডিও কমুনালে খেলার জন্য ফিরে আসে, যা তখন স্টেডিও অলিম্পিকো নামে পরিচিত ছিল। ২০০৭ সালের নভেম্বরে ইয়ুভেন্তুস ঘোষণা করে যে তারা প্রায় €১২০ মিলিয়ন বিনিয়োগ করবে একটি নতুন মাঠ তৈরি করতে, এবং এটি ছিল ডেলে আল্পির জায়গায় ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়াম।[১৬১] পুরানো মাঠের বিপরীতে একটি চলতি ট্র্যাক নেই এবং এর পরিবর্তে পিচটি দাঁড় থেকে মাত্র ৭.৫ মিটার দূরে।[২] এর ধারণক্ষমতা ৪১,৫০৭।[২] ২০০৯ সালের বসন্তে কাজ শুরু হয় এবং ২০১১–১২ মৌসুম শুরু হওয়ার আগে ৮ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে স্টেডিয়ামটি খোলা হয়।[১৬২] ১ জুলাই ২০১৭ সাল থেকে ইয়ুভেন্তুস স্টেডিয়ামটি ৩০ জুন ২০৩০ পর্যন্ত তুরিনের অ্যালিয়ানজ স্টেডিয়াম হিসাবে বাণিজ্যিকভাবে পরিচিত।[১৬৩][১৬৪]

সমর্থক[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুস হল ইতালির সবচেয়ে বেশি সমর্থিত ফুটবল ক্লাব, যেখানে ১২ মিলিয়নেরও বেশি ভক্ত বা টিফোসি, যা ইতালীয় গবেষণা সংস্থা ডেমোস অ্যান্ড পাই কর্তৃক সেপ্টেম্বর ২০১৬ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণা অনুসারে মোট ইতালীয় ফুটবল ভক্তের প্রায় ৩৪% প্রতিনিধিত্ব করে,[২০] সেইসাথে বিশ্বের অন্যতম সমর্থিত ফুটবল ক্লাব, যার সাথে ৩০০ মিলিয়নেরও বেশি সমর্থক (৪১ মিলিয়ন শুধুমাত্র ইউরোপেই) রয়েছে,[২১] বিশেষ করে ভূমধ্যসাগরীয় দেশগুলোতে যেখানে বিপুল সংখ্যক ইতালীয় প্রবাসী দেশত্যাগ করে বসবাস করছে।[১৬৫] তোরিনীয় অংশে বিশ্বজুড়ে ভক্ত ক্লাবের শাখা রয়েছে।[১৬৬]

তুরিন থেকে দূরে অনুষ্ঠিত মাঝে মাঝে ঘরোয়া খেলাগুলিতে ইয়ুভেন্তুসের টিকিটের চাহিদা বেশি থাকে, এটি পরামর্শ দেয় যে ইয়ুভেন্তুসের দেশের অন্যান্য অংশেও শক্তিশালী সমর্থন রয়েছে। ইয়ুভেন্তুস ব্যাপকভাবে এবং বিশেষ করে মূল ভূখণ্ডের দক্ষিণ ইতালি, সিসিলি এবং মাল্টা জুড়ে জনপ্রিয়, যা দলটিকে তার বাইরের ম্যাচগুলিতে সবচেয়ে বেশি অনুসরণকারীর একটিতে নেতৃত্ব দেয়,[১৬৭] এর সংখ্যা তুরিনের চেয়েও বেশি।

ক্লাব প্রতিদ্বন্দ্বিতা[সম্পাদনা]

১৯৩০ সালে ডার্বি ডি'ইতালিয়ার দৃশ্য

দুটি প্রধান ক্লাবের সাথে ইয়ুভেন্তুসের উল্লেখযোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা রয়েছে।

তাদের ঐতিহ্যবাহী প্রতিদ্বন্দ্বী তুরিন ক্লাব টোরিনো; দুই দলের মধ্যে ম্যাচগুলি ডার্বি ডেলা মোল (তুরিন ডার্বি) নামে পরিচিত। প্রতিদ্বন্দ্বিতাটি ১৯০৬ সাল থেকে শুরু হয়েছিল কারণ টোরিনো ইয়ুভেন্তুসের খেলোয়াড় এবং কর্মীদের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

তাদের সবচেয়ে হাই-প্রোফাইল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হল ইন্টারের সাথে, এটি প্রতিবেশী অঞ্চল লোম্বারদিয়ার রাজধানী মিলানে অবস্থিত একটি বড় সেরিয়ে আ ক্লাব। এই দুটি ক্লাবের মধ্যে ম্যাচগুলিকে ডার্বি ডি'ইতালিয়া (ইতালির ডার্বি) হিসাবে উল্লেখ করা হয় এবং লিগ টেবিলের শীর্ষে দুজন নিয়মিত একে অপরকে চ্যালেঞ্জ করে, তাই এতো তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা।[১৬৮] ক্যালসিওপোলি কেলেঙ্কারির আগ পর্যন্ত (যা ইয়ুভেন্তুসকে জোরপূর্বক নির্বাসিত হতে দেখায়) দুটিই একমাত্র ইতালীয় ক্লাব যারা কখনোই সেরিয়ে আ-এর নিচে খেলেনি। উল্লেখযোগ্যভাবে দুটি দলই ইতালির প্রথম এবং তৃতীয়[১৬৯] সর্বাধিক সমর্থিত ক্লাব এবং এরপর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তীব্রতর হয়েছে। ১৯৯০ এর পরবর্তী অংশ ইয়ুভেন্তুসের সেরিয়ে আ-তে ফিরে আসার সাথে ক্যালসিওপোলির পরের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে।[১৬৮]

এসি মিলানের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হল ইতালিতে সবচেয়ে বেশি শিরোপাধারী এবং সমর্থিত[১৬৯] দুটি দলের মধ্যে একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতা।[১৭০] আরও বেশি সমর্থক এবং সেইসাথে দেশের সবচেয়ে বেশি টার্নওভার এবং শেয়ার বাজারের মূল্য দুটি ক্লাবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে।[১৭১][অ-প্রাথমিক উৎস প্রয়োজন] মিলান এবং ইয়ুভেন্তুসের মধ্যকার ম্যাচগুলিকে সেরিয়ে আ-এর চ্যাম্পিয়নশিপ হিসাবে বিবেচনা করা হয় এবং উভয় দলই প্রায়শই স্ট্যান্ডিংয়ের শীর্ষস্থানের জন্য লড়াই করত, কখনও কখনও এমনকি শিরোপা পুরস্কারের জন্যও লড়াই করত।[১৭২] রোমা,[১৭৩] ফিওরেন্তিনা[১৭৪] এবং নাপোলির[১৭৫] সাথেও তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা রয়েছে।

যুব কর্মসূচী[সম্পাদনা]

যুব প্রতিভা তৈরির জন্য ইয়ুভেন্তুস যুব সেট আপ ইতালির সেরাদের মধ্যে একটি হিসাবে স্বীকৃত হয়েছে।[১৭৬] যদিও সমস্ত স্নাতকরা প্রথম দলে জায়গা করেনি, অনেকেই ইতালীয় শীর্ষ ফ্লাইটে সফল ক্যারিয়ার উপভোগ করেছেন। দীর্ঘদিনের কোচ ভিনসেনজো চিয়ারেনজার অধীনে প্রিমাভেরা (অনূর্ধ্ব-১৯) দলটি ২০০৪ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত সমস্ত বয়স-গ্রুপ প্রতিযোগিতায় জয়ী হয়ে সফল সময়ের একটি উপভোগ করেছে। ডাচ ক্লাব আয়াক্স এবং অনেক প্রিমিয়ার লিগ ক্লাবের মতো ইয়ুভেন্তুস দেশের বাইরে বেশ কয়েকটি স্যাটেলাইট ক্লাব এবং ফুটবল স্কুল পরিচালনা করে (যেমন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, গ্রিস, সৌদি আরব, অস্ট্রেলিয়া এবং সুইজারল্যান্ডে) এবং স্থানীয় অঞ্চলে অসংখ্য ক্যাম্পে প্রতিভা স্কাউটিং সম্প্রসারণ করেছে।[১৭৭] ৩ আগস্ট ২০১৮ সালে ইয়ুভেন্তুস তাদের পেশাদার রিজার্ভ দল প্রতিষ্ঠা করে, যার নাম ইয়ুভেন্তুস অ-২৩ (আগস্ট ২০২২ সালে ইয়ুভেন্তুস নেক্সট জেন নাম রাখা হয়[১৭৮]), এটি সেরিয়ে সি তে খেলে,[১৭৯] যারা ২০২০ সালে কোপা ইতালিয়া সেরিয়ে সি জিতেছিল।[১৮০] ২০২১–২২ উয়েফা ইয়ুথ লিগে অ-১৯ স্কোয়াড সেমিফাইনালে পৌঁছেছে, একটি সিরিয়ে আ দলের হয়ে প্রতিযোগিতায় সর্বকালের সেরা স্থানে খেলার সমান।[১৮১]

ইতালীয় জাতীয় সিনিয়র এবং যুব দলগুলিতে তার অবদানের জন্য যুব ব্যবস্থাও উল্লেখযোগ্য। ১৯৩৪ সালের বিশ্বকাপ বিজয়ী জিয়ানপিয়েরো কম্বি, ১৯৩৬ সালের স্বর্ণপদক এবং ১৯৩৮ ফিফা বিশ্বকাপ বিজয়ী পিয়েত্রো রাভা, জিয়াম্পিয়েরো বোনিপের্টি, রবার্তো বেটেগা, ১৯৮২ বিশ্বকাপের নায়ক পাওলো রসি এবং অতি সম্প্রতি ক্লাউডিও মার্চিসিও এবং সেবাস্তিয়ান জিওভিনকো হলেন অনেক প্রাক্তন স্নাতক যারা খেলে গেছেন প্রথম দল এবং পূর্ণ ইতালি স্কোয়াডের হয়ে।[১৮২]

খেলোয়াড়[সম্পাদনা]

বর্তমান দল[সম্পাদনা]

৩১ জানুয়ারি ২০২৩ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।

টীকা: পতাকা জাতীয় দল নির্দেশ করে যা ফিফার যোগ্যতার নিয়মের অধীনে নির্ধারিত হয়েছে। খেলোয়াড়দের একাধিক জাতীয়তা থাকতে পারে যা ফিফা ভুক্ত নয়।

নং অবস্থান খেলোয়াড়
গো পোল্যান্ড অয়েচিখ শ্চেজনি
ইতালি মাত্তিয়া দে শিল্যিও
ব্রাজিল ব্রেমার
ইতালি মানুয়েল লোকাতেল্লি
ব্রাজিল দানিলো
ইতালি ফেদেরিকো কিয়েজা
সার্বিয়া ডুসান ভ্লাহোভিচ
১০ ফ্রান্স পল পগবা
১১ কলম্বিয়া হুয়ান কুয়াদ্রাদো
১২ ব্রাজিল আলেক্স সান্দ্রো
১৪ পোল্যান্ড আর্কাদিউশ মিলিক
১৫ ইতালি ফেদেরিকো গাত্তি
নং অবস্থান খেলোয়াড়
১৭ সার্বিয়া ফিলিপ কস্টিক
১৮ ইতালি মইস কিন (এভারটন থেকে ধারে)
১৯ ইতালি লেওনার্দো বোনুচ্চি (অধিনায়ক)
২০ ইতালি ফেবিও মিরেত্তি
২১ ব্রাজিল কাইয়ো জর্গে
২২ আর্জেন্টিনা আনহেল দি মারিয়া
২৩ গো ইতালি কার্লো পিন্সোগ্লিও
২৪ ইতালি ড্যানিয়েলে রুগানি
২৫ ফ্রান্স আদ্রিয়েঁ রাবিও
৩০ আর্জেন্টিনা মাতিয়াস সোল
৩২ আর্জেন্টিনা লেয়ান্দ্রো পারেদেস
৩৬ গো ইতালি মাত্যিয়া পেরিন
৪৩ ইংল্যান্ড সামুয়েল ইলিং জুনিও
৪৪ ইতালি নিকোলো ফাগিওলি

যুব একাডেমি[সম্পাদনা]

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।

টীকা: পতাকা জাতীয় দল নির্দেশ করে যা ফিফার যোগ্যতার নিয়মের অধীনে নির্ধারিত হয়েছে। খেলোয়াড়দের একাধিক জাতীয়তা থাকতে পারে যা ফিফা ভুক্ত নয়।

নং অবস্থান খেলোয়াড়
৪০ ইতালি মার্কো দা গ্রাসা
৪১ গো ইতালি জিওভানি গ্যাব্রিয়েল গারোফানি
৪২ ইতালি তোমাসো বারবিয়েরি
৪৫ আর্জেন্টিনা এনজো বারেনেছি
৪৬ ইতালি মাতিয়া কম্পাগনন

অন্য দলে ধারে[সম্পাদনা]

টীকা: পতাকা জাতীয় দল নির্দেশ করে যা ফিফার যোগ্যতার নিয়মের অধীনে নির্ধারিত হয়েছে। খেলোয়াড়দের একাধিক জাতীয়তা থাকতে পারে যা ফিফা ভুক্ত নয়।

নং অবস্থান খেলোয়াড়
নেদারল্যান্ডস মোহাম্মদ ইহাত্তারেন

কোচিং কর্মী[সম্পাদনা]

ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি ২০২১ সালে ক্লাবের প্রধান কোচ হিসাবে ফিরে আসেন।
অবস্থান কর্মী
প্রধান কোচ ইতালি ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি
সহকারী কোচ ইতালি মার্কো ল্যান্ডুচি
প্রযুক্তিগত সহযোগী ইতালি আলডো ডলসেটি
ইতালি মরিস ট্রম্বেটা
ইতালি সিমোন প্যাডোইন [১৮৩]
ইতালি পাওলো বিয়ানকো [১৮৪]
অ্যাথলেটিক প্রস্তুতির প্রধান ইতালি সিমোন ফোলেটি
অ্যাথলেটিক কোচ ইতালি আন্দ্রেয়া পারটুসিও
ইতালি এনরিকো মাফি
ইতালি লুসি ফ্রান্সিস
কন্ডিশনিং এবং ক্রীড়া বিজ্ঞানের প্রধান ইতালি ডুসিও ফেরারি ব্র্যাভো
ক্রীড়া বিজ্ঞান সহযোগী ইতালি আন্তোনিও গুয়ালতেরি
গোলরক্ষক কোচ ইতালি ক্লডিয়াস ফিলিপি
গোলরক্ষক কোচের সহযোগী ইতালি টমাস ওরসিনি
ম্যাচ বিশ্লেষণের প্রধান ইতালি রিচার্ড সাইরিয়া
ম্যাচ বিশ্লেষণ সহযোগী ইতালি ডমিনিক ভার্নামন্টে
ইতালি জোসেফ মাইউরি

সর্বশেষ হালনাগাদ: ৪ জুলাই ২০২২
সূত্র: Juventus.com

চেয়ারম্যানদের ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুসের সামগ্রিকভাবে ২৪ জন সভাপতি(ইতালীয়: প্রেসিডেন্টি, অনুবাদ'সভাপতি' বা ইতালীয়: প্রেসিডেন্টি ডেল কনসিগলিও ডি আমিনিস্ট্রাজিওন, অনুবাদ'chairmen of the board of directors') এবং দুটি প্রশাসনিক কমিটি ছিল, যার মধ্যে কিছু ক্লাবের প্রধান স্টেকহোল্ডার গোষ্ঠীর সদস্য এবং ক্লাবের প্রতিষ্ঠার পর থেকে একটি বার্ষিক সভার মাধ্যমে নির্বাচিত হয়। ১৯৪৯ সাল থেকে তারা প্রায়শই কর্পোরেট ম্যানেজার ছিলেন যারা অ্যাসেম্বলা ডেগলি অ্যাজিওনিস্টি (স্টেকহোল্ডার সমাবেশ) কর্তৃক দায়িত্বে মনোনীত হয়েছিল। চেয়ারম্যানদের শীর্ষে বেশ কয়েকজন জীবিত প্রাক্তন সভাপতি ছিলেন, যারা সম্মানসূচক চেয়ারম্যান হিসাবে মনোনীত হয়েছিল (ইতালীয়: প্রেসিডেন্টি ওনোরারি, অনুবাদ'honorary presidents')।[১৮৫]

নাম বছর
ইউজেনিও ক্যানফারি ১৮৯৭–১৮৯৮
এনরিকো ক্যানফারি ১৮৯৮–১৯০১
কার্লো ফাভালে ১৯০১–১৯০২
গিয়াকোমো পারভোপাসু ১৯০৩–১৯০৪
আলফ্রেড ডিক ১৯০৫–১৯০৬
কার্লো ভিত্তোরিও ভারেত্তি ১৯০৭–১৯১০
অ্যাটিলিও উবারতালি ১৯১১–১৯১২
জিউসেপ হেস ১৯১৩–১৯১৫
জিওনিনো আরমানো, ফেরনান্দো নিজা, সান্দ্রো জাম্বেলি[জ] ১৯১৫–১৯১৮
কোরাডো কোরাডিনি ১৯১৯–১৯২০
জিনো অলিভেটি ১৯২০–১৯২৩
এডোয়ার্দো আগ্নেলি ১৯২৩–১৯৩৫
জিওভানি মাজোনিস ১৯৩৫–১৯৩৬
নাম বছর
এমিলিও দে লা ফরেস্ট ডি ডিভোন ১৯৩৬–১৯৪১
পিয়েত্রো দুসিও ১৯৪১–১৯৪৭
জিয়ান্নি অ্যাগনেল্লি[ঝ] ১৯৪৭–১৯৫৪
এনরিকো ক্রাভেরি, নিনো ক্রাভেতো, মারসেলো গুইস্তিনিয়ানব[ঞ] ১৯৫৪–১৯৫৫
আম্বার্তো আগ্নেলি ১৯৫৫–১৯৬২
ভিট্টোর ক্যাটেলা ১৯৬২–১৯৭১
জিয়াম্পিয়ারো বোনিপেরতি[ট] ১৯৭১–১৯৯০
ভিত্তোরিও ক্যাসোত্তি ডি চিউসানো ১৯৯০–২০০৩
ফ্রান্জো গ্রান্দো স্টেভেনস[ঝ] ২০০৩–২০০৬
জিওভান্নি কোবলি গিগলি ২০০৬–২০০৯
জিন-ক্লদ ব্ল্যাঙ্ক ২০০৯–২০১০
আন্দ্রেয়া আগ্নেলি ২০১০–২০২৩
জিয়ানলুকা ফেরেরো ২০২৩–

পরিচালনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুসের ইতিহাসে ১৪টি শিরোপা সহ সবচেয়ে বেশিদিন দায়িত্ব পালনকারী এবং সবচেয়ে সফল ম্যানেজার জিওভানি ট্রাপাট্টোনি

নিচে ১৯২৩ সাল থেকে ইয়ুভেন্তুস ম্যানেজারদের একটি তালিকা দেওয়া হল, যখন অ্যাগনেলি পরিবার দায়িত্ব গ্রহণ করে এবং ক্লাবটি আরও সুগঠিত ও সংগঠিত হয়ে ওঠে,[২৭] তখন থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত।[১৮৬]

 
নাম জাতীয়তা বছর
জেনো করোলি হাঙ্গেরি ১৯২৩–১৯২৬
জোসেফ ভায়োলা হাঙ্গেরি ১৯২৬[ঠ]
জোসেফ ভায়োলা হাঙ্গেরি ১৯২৬–১৯২৮
উইলিয়াম আইটকেন স্কটল্যান্ড ১৯২৮–১৯৩০
কার্লো কারকানো ইতালি ১৯৩০–১৯৩৪
কার্লো বিগাট্টো আইº



বেনেদেত্তো গোলা
ইতালি
ইতালি
১৯৩৪–১৯৩৫[ঠ]
ভার্জিনিও রোসেটা ইতালি ১৯৩৫–১৯৩৯
আম্বার্তো ক্যালিগারিস ইতালি ১৯৩৯–১৯৪১
ফেদেরিকো মুনেরাতি ইতালি ১৯৪১[ঠ]
জিওভানি ফেরারি ইতালি ১৯৪১–১৯৪১
লুইস মন্টি আর্জেন্টিনা ইতালি ১৯৪১[ঠ]
ফেলিস প্লাসিডো বোরেল IIº ইতালি ১৯৪২–১৯৪৬
রেনাতো সিসারিনি ইতালি ১৯৪৬–১৯৪৮
উইলিয়াম চালমারস স্কটল্যান্ড ১৯৪৮–১৯৪৯
জেসি কার্ভার ইংল্যান্ড ১৯৪৯–১৯৫১
লুইগি বার্তোলিনি ইতালি ১৯৫১[ঠ]
জিওর্গি সারোসি হাঙ্গেরি ১৯৫১–১৯৫৩
আলডো অলিভিয়েরি ইতালি ১৯৫৩–১৯৫৫
স্যান্ড্রো পুপ্পো ইতালি ১৯৫৫–১৯৫৭
তেওবাল্ডো ডিপেট্রিনি ইতালি ১৯৫৭
লুবিসা ব্রোসিচ যুগোস্লাভিয়া সমাজতান্ত্রিক যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র ১৯৫৭–১৯৫৮
তেওবাল্ডো ডিপেট্রিনি ইতালি ১৯৫৮–১৯৫৯[ঠ]
রেনাতো সিসারিনি ইতালি ১৯৫৯–১৯৬১
কার্লো পারোলা ইতালি ১৯৬১[ঠ]
গুনার গ্রেন
জুলিয়াস কোরোস্তেলেভ
সুইডেন
চেকোস্লোভাকিয়া
১৯৬১[ঠ]
কার্লো পারোলা ইতালি ১৯৬১–১৯৬২
পাওলো লিমা আমারাল ব্রাজিল ১৯৬২–
 
নাম জাতীয়তা বছর
ইরাল্ডো মনজেগ্লিও ইতালি ১৯৬৪[ঠ]
হেরিবার্তো হেরেরা প্যারাগুয়ে ১৯৬৪–১৯৭০
লুইস কার্নিগ্লিয়া আর্জেন্টিনা ১৯৬৯–১৯৭০
এরকোল রাবিত্তি ইতালি ১৯৭০[ঠ]
আরমান্দো পিচি ইতালি ১৯৭০–৭১
চেস্তমির ভিসপালেক চেকোস্লোভাকিয়া ১৯৭১–১৯৭৪
কার্লো পারোলা ইতালি ১৯৭৪–১৯৭৬
জিওভানি ট্রাপাট্টোনি ইতালি ১৯৭৬–১৯৮৬
রিনো মার্চেসি ইতালি ১৯৮৬–১৯৮৮
ডিনো জফ ইতালি ১৯৮৮–১৯৯০
লুইগি মাইফ্রেদি ইতালি ১৯৯০–১৯৯১
জিওভানি ট্রাপাট্টোনি ইতালি ১৯৯১–১৯৯৪
মার্সেলো লিপি ইতালি ১৯৯৪–১৯৯৯
কার্লো আনচেলত্তি ইতালি ১৯৯৯–২০০১
মার্সেলো লিপি ইতালি ২০০১–২০০৪
ফ্যাবিও ক্যাপেলো ইতালি ২০০৪–২০০৬
দিদিয়ের দেশচ্যাম্পস ফ্রান্স ২০০৬–২০০৭
জিয়ানকার্লো কোরাদিনি ইতালি 2007[ঠ]
ক্লাউদিও রানিয়েরি ইতালি ২০০৭–২০০৯
সিরো ফেরার ইতালি ২০০৯–২০১০
আলবার্তো জাকেরনি ইতালি ২০১০
লুইগি ডেলনেরি ইতালি ২০১০–২০১১
আন্তোনিও কন্তে ইতালি ২০১১–২০১৪
ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি ইতালি ২০১৪–২০১৯
মাউরিজিও সাররি ইতালি ২০১৯–২০২০
আন্দ্রেয়া পিরলো ইতালি ২০২০–২০২১
ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি ইতালি ২০২১–

অর্জন[সম্পাদনা]

জে-জাদুঘরে ১৯০৫ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে জিতে নেওয়া শিরোপা সহ ক্লাবের ট্রফিঘরের আংশিক দৃশ্য

বিংশ শতাব্দীর ইতালির সবচেয়ে সফল ক্লাব[১৯] এবং ইতালীয় ফুটবলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বিজয়ী[১৮৭] ইয়ুভেন্তুস দেশের প্রধান ফুটবল ক্লাব প্রতিযোগিতা এবং লেগা নাজিওনালে প্রফেশনানিস্টি সেরিয়ে আ (এলএনপিএ) দ্বারা আয়োজিত ইতালীয় লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে। এটি একটি ৩৬ রেকর্ড বার জিতেছে এবং সেই টুর্নামেন্টে টানা জয়ের রেকর্ড রয়েছে (নয়বার, ২০১১–১২ এবং ২০১৯–২০ এর মধ্যে)।[৩৬][১৮৮] তারা কোপা ইতালিয়াও জিতেছে, যা দেশের প্রাথমিক একক-বিদায় প্রতিযোগিতা, এটি তারা রেকর্ড ১৪ বার জিতেছে, ১৯৫৯–৬০ মৌসুমে তাদের জয়ের সাথে শিরোপাটি সফলভাবে ধরে রাখার প্রথম দল হয়ে উঠেছে এবং ২০১৪–১৫ মৌসুম থেকে ২০১৬–১৭ মৌসুম পর্যন্ত টানা তিন মৌসুমে এটি জয়ী তারাই প্রথম দল, এরপর ২০১৭–১৮ মৌসুমে টানা চতুর্থ শিরোপা জিতেছে (এটিও একটি রেকর্ড)।[১৮৯] এছাড়াও ক্লাবটির ২০২০ সালে সবচেয়ে সাম্প্রতিক সময়ে নয়টি সুপারকোপা ইতালিয়ানা জয়ের রেকর্ড করেছে।

সামগ্রিকভাবে ইয়ুভেন্তুস ৭০টি অফিসিয়াল প্রতিযোগিতা জিতেছে,[ড] যা দেশের অন্য যেকোনো ক্লাবের চেয়ে বেশি: জাতীয় পর্যায়ে ৫৯টি (যা একটি রেকর্ডও) এবং ১১টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে,[১৯০] যা পরবর্তী ক্ষেত্রে তাদের দ্বিতীয় সফল ইতালীয় দল হিসেবে তৈরি করেছে।[১৯১] ক্লাবটি তাদের নিজ নিজ সংস্থা ফুটবল কনফেডারেশন এবং ফেডারেশন ইন্টারন্যাশনাল ডি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (ফিফা) দ্বারা আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃত সর্বাধিক আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতে নিয়ে ইউরোপে ষষ্ঠ এবং বিশ্বের দ্বাদশ স্থানে রয়েছে।[ঢ] ১৯৭৭ সালে টোরিনিজ দলটি দক্ষিণ ইউরোপে প্রথম হয়ে উয়েফা কাপ জিতেছে এবং ইতালীয় ফুটবল ইতিহাসে প্রথম-এবং একমাত্র-ইতালীয় ফুটবলারদের দ্বারা গঠিত একটি স্কোয়াড নিয়ে আন্তর্জাতিক শিরোপা অর্জন করেছে।[১৯৩] ১৯৯৩ সালে ক্লাবটি তার তৃতীয় প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতেছিল, মহাদেশে তখন পর্যন্ত এটি একটি অভূতপূর্ব কীর্তি, পরবর্তী ২২ বছরের জন্য একটি কনফেডারেশন রেকর্ড এবং একটি ইতালীয় দলের জন্য সবচেয়ে বেশি। এছাড়াও ইউরোপীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন ইউনিয়ন (উয়েফা) এবং কনফেডারেশন সুদামেরিকানা দে ফুটবল (কনমেবল) এর আয়োজক কমিটি দ্বারা ইয়ুভেন্তুস পুনর্গঠিত হওয়ার পাঁচ বছর পর থেকে এটি ছিল দেশের প্রথম ক্লাব যারা ইউরোপীয় সুপার কাপে শিরোপা অর্জন করে, যেটা ১৯৮৪ সালের প্রতিযোগিতায় জিতেছিল এবং ১৯৮৫ সালে আন্তঃমহাদেশীয় কাপ জেতা এটিই প্রথম ইউরোপীয় দল।[১৬]

ক্লাবটি লিগ জয়ের প্রতিনিধিত্ব করে তার শার্টে তিনটি সোনার তারকা (ইতালীয়: stelle d'oro) পরার অনুমতি পাওয়ার গৌরব অর্জন করেছে, যার দশমটি ১৯৫৭–৫৮ মৌসুমে, ১৯৮১–৮২ মৌসুমে ২০তম এবং ২০১৩–১৪ মৌসুমে ৩০তমটি অর্জিত হয়েছিল। ইয়ুভেন্তুস প্রথম ইতালীয় দল যারা চারবার (১৯৫৯–৬০, ১৯৯৪–৯৫, ২০১৪–১৫ এবং ২০১৫–১৬ মৌসুমে) জাতীয় ডাবল অর্জন করেছে (ইতালীয় শীর্ষ স্তরের বিভাগ এবং একই মৌসুমে জাতীয় কাপ প্রতিযোগিতা জিতেছে)। ২০১৫–১৬ মৌসুমে ইয়ুভেন্তুস ১১ তম বারের জন্য কোপা ইতালিয়া জিতেছে এবং তাদের দ্বিতীয়-সরাসরি শিরোপা জিতেছে, ইতালির ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে সেরিয়ে আ এবং কোপা ইতালিয়া দ্বৈত মৌসুমে পরপর জিততে পেরেছে; ইয়ুভেন্তুস ২০১৬–১৭ এবং ২০১৭–১৮ মৌসুমে টানা আরও দুটি ডাবল জিতে।[১০৪]

২০২৩ সালে প্রথম ইউরোপা কনফারেন্স লিগের ফাইনাল পর্যন্ত ক্লাবটি সমস্ত অফিসিয়াল কনফেডারেশন প্রতিযোগিতায় জয়ী হওয়ার ক্ষেত্রে বিশ্বে অনন্য ছিল[১৯৪][১৯৫] এবং তিনটি বড় উয়েফা প্রতিযোগিতা জয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ তারা[৪২] (প্রথম ঘটনা ইউরোপীয় ফুটবলের ইতিহাসে এবং একই কোচের খুঁটি দিয়ে পৌঁছানো[১৫]) ১২ জুলাই ১৯৮৮ সালে ইউনিয়ন অফ ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (উয়েফা) দ্বারা উয়েফা ফলক পেয়েছে।[১৯৬][১৯৭]

২৩ ডিসেম্বর ২০০০ সালে ফিফার শতাব্দীর র‌্যাঙ্কিংয়ে টোরিনিজ দলটি বিশ্বের সেরা ক্লাবগুলির মধ্যে সপ্তম স্থানে ছিল[১৮] এবং নয় বছর পর বিংশ শতাব্দীতে ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফুটবল হিস্টোরি অ্যান্ড স্ট্যাটিসটিক্সের পরিসংখ্যানগত সমীক্ষা সিরিজের ভিত্তিতে ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা ক্লাবে স্থান পায়, যা উভয় ক্ষেত্রেই একটি ইতালীয় ক্লাবের জন্য সর্বোচ্চ।[১৯]

ইয়ুভেন্তুসকে দুবার (১৯৯৩ এবং ১৯৯৬) বছরের সেরা ক্লাব টিম ঘোষণা করা হয়েছে[১৯৮] এবং আইএফএফএইচএস[ণ] দ্বারা সর্বকালের ক্লাব বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে (১৯৯১–২০০৯ সময়কাল) ৩য় স্থানে রয়েছে, যা যেকোনও ইতালীয় ক্লাবের সর্বোচ্চ র‌্যাঙ্কিং।

ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাবের অর্জনসমূহ
ধরণ প্রতিযোগিতা শিরোপা মৌসুম
ঘরোয়া ইতালীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ /
সেরিয়ে আ
৩৬ ১৯০৫, ১৯২৫–২৬, [ত] ১৯৩০–৩১, ১৯৩১–৩২, ১৯৩২–৩৩, ১৯৩৩–৩৪, ১৯৩৪–৩৫, ১৯৪৯–৫০, ১৯৫১–৯৬–৫২, ৯৫১–৯৫১, ৯৫১–৯৫০, ৯৫১–৯৫৭, ৬১, ১৯৬৬–৬৭, ১৯৭১–৭২, ১৯৭২–৭৩, ১৯৭৪–৭৫, ১৯৭৬–৭৭, ১৯৭৭–৭৮, ১৯৮০–৮১, ১৯৮১–৮২, ১৯৮৩–৮৪, ৯৪–৯৫, ৮১–৯৫, ৮১–৯৫, ১৯৯৭–৯৮, ২০০১–০২, ২০০২–০৩, ২০১১–১২, ২০১৯–২০, ২০১২–১৩, ২০১৩–১৪, ২০১৪–১৫, ২০১৫–১৬, ২০১৬–১৭, ২০১৮–১৯, ২০১৯–২০, ২০১৮–
সেরিয়ে বি ২০০৬–০৭
কোপা ইতালিয়া ১৪ ১৯৩৭–৩৮, ১৯৪১–৪২ , ১৯৫৮–৫৯, ১৯৫৯–৬০, ১৯৬৪–৬৫ , ১৯৭৮–৭৯, ১৯৮২–৮৩, ১৯৮৯–৯০, ১৯৯৪–৯৫, ২০১৪–১৬–২০,২০১৬–১৭, ২০১৭–১৮, ২০২০–২১
সুপারকোপা ইতালিয়ানা ১৯৯৫, ১৯৯৭, ২০০২, ২০০৩, ২০১২, ২০১৩, ২০১৫, ২০১৮, ২০২০
মহাদেশীয় ইউরোপীয় কাপ / উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ১৯৮৪–৮৫, ১৯৯৫–৯৬
উয়েফা কাপ উইনার্স কাপ ১৯৮৩–৮৪
উয়েফা কাপ / উয়েফা ইউরোপা লিগ ১৯৭৬–৭৭, ১৯৮৯–৯০, ১৯৯২–৯৩
ইউরোপীয় সুপার কাপ / উয়েফা সুপার কাপ ১৯৮৪, ১৯৯৬
উয়েফা ইন্টারটোটো কাপ ১৯৯৯
বিশ্বব্যাপী ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ ১৯৮৫, ১৯৯৬
  রেকর্ড

ক্লাব পরিসংখ্যান এবং রেকর্ড[সম্পাদনা]

আলেসান্দ্রো দেল পিয়েরো ইয়ুভেন্তুসের হয়ে রেকর্ড ৭০৫টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে সেরিয়ে আ-তে ৪৭৮টি এবং ২৯০টি গোল সহ তিনি ক্লাবের সর্বকালের শীর্ষ গোলদাতা।

আলেসান্দ্রো দেল পিয়েরোর ইয়ুভেন্তুসের অফিসিয়াল উপস্থিতির রেকর্ড রয়েছে ৭০৫টি উপস্থিতির। অর্থাৎ তিনি ইয়ুভেন্তুসের হয়ে ৭০৫ টি ম্যাচ খেলেছেন। তিনি ৬ এপ্রিল ২০০৮ সালে পালেরমোর বিরুদ্ধে গ্যাতানো সিরেয়া থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।[২০০] তিনি ৪৭৮টি সেরিয়ে আ উপস্থিতির রেকর্ডও রাখেন। সমস্ত অফিসিয়াল প্রতিযোগিতা সহ ১৯৯৩ সালে ক্লাবে যোগদানের পর থেকে ২৯০-এর সাথে ইয়ুভেন্তুসের সর্বকালের শীর্ষ গোলদাতা হলেন দেল পিয়েরো। জিয়াম্পিয়েরো বোনিপের্তি ১৯৬১ সাল থেকে সর্বকালের সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন, তিনি ১৮২ গোলের সাথে সমস্ত প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। ১৯৩৩–৩৪ মৌসুমে ফেলিস বোরেল ৩৪ ম্যাচে ৩১ গোল করেছিলেন, যা এক মৌসুমে সেরিয়ে আ গোলের ক্লাব রেকর্ড গড়ে। ফেরেঙ্ক হির্জার এক মৌসুমে ক্লাবের সর্বোচ্চ স্কোরার, যিনি ১৯২৫–২৬ মৌসুমে ২৪ ম্যাচ খেলে ৩৫ গোল করেছেন। এক ম্যাচে একজন খেলোয়াড়ের সর্বোচ্চ গোল ৬, যা একটি ইতালীয় রেকর্ডও বটে, ১৯৬০–৬১ মৌসুমে ইন্টারের বিপক্ষে একটি খেলায় ওমর সিভোরি এটি অর্জন করেছিলেন।[২৯]

ইয়ুভেন্তুসের অংশগ্রহণে প্রথম অফিসিয়াল খেলাটি ছিল সেরি এ-এর পূর্বসূরি তৃতীয় ফেডারেল ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে, টোরিনেসের বিপক্ষে ইয়ুভেন্তুস ০–১ গোলে হারে। ১৯২৬–২৭ কোপা ইতালিয়ার দ্বিতীয় রাউন্ডে সেন্টোর বিপক্ষে ইয়ুভেন্তুসের সবচেয়ে বড় জয়টি ছিল ১৫–০ গোলে। লিগে ফিওরেন্তিনা এবং ফিউমানা ইয়ুভেন্তুসের সবচেয়ে বড় চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের শেষের জন্য বিখ্যাত ছিল, উভয়েই ১৯২৮–২৯ মৌসুমে ১১–০ ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল। ইয়ুভেন্তুসের সবচেয়ে ভারী চ্যাম্পিয়নশিপ পরাজয় ১৯১১–১২ এবং ১৯১২–১৩ মৌসুমে হয়েছিল: তারা ১৯১২ (১–৮) সালে মিলান এবং ১৯১৩ সালে (০–৮) টরিনোর বিপক্ষে হেরেছিল।[২৯]

২০০১ সালে পারমা থেকে জিয়ানলুইজি বুফনকে সই করার জন্য ইয়ুভেন্তুস €৫২ মিলিয়ন খরচ করেছিল (১০০ বিলিয়ন লিরে), এটিকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সর্বকালের একজন গোলরক্ষকের জন্য তৎকালীন সবচেয়ে ব্যয়বহুল স্থানান্তর করে তোলে।[২০১][২০২][২০৩][২০৪][২০৫] ২০ মার্চ ২০১৬ সালে বুফন ২০১৫–১৬ মৌসুমে ডার্বি ডেলা মোলে একটি গোল (৯৭৪ মিনিট) না করে দীর্ঘতম সময়ের জন্য একটি নতুন সেরিয়ে আ রেকর্ড স্থাপন করেন।[২০৬] ২৬ জুলাই ২০১৬ সালে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গনসালো ইগুয়াইন সর্বকালের তৃতীয় সর্বোচ্চ ফুটবল স্থানান্তর এবং ইতালীয় ক্লাবের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ স্থানান্তর হন,[২০৭] যখন তিনি ইয়ুভেন্তুস দ্বারা €৯০ মিলিয়ন এর বিনিময়ে নাপোলি থেকে চুক্তিবদ্ধ হন।[২০৮] ৮ আগস্ট ২০১৬ সালে পল পগবা সর্বকালের সর্বোচ্চ ফুটবল ট্রান্সফার ফি €১০৫ মিলিয়ন এর জন্য তার প্রথম ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এ ফিরে আসেন। যেটা সাবেক রেকর্ডধারী গ্যারেথ বেলকে ছাড়িয়ে গেছে।[২০৯] ২০০১ সালে ইয়ুভেন্তুস থেকে স্পেনের রিয়াল মাদ্রিদে জিনেদিন জিদানের বিক্রি সেই সময়ে বিশ্ব ফুটবল ট্রান্সফার রেকর্ড ছিল, স্পেনীয় ক্লাবটির খরচ হয়েছিল প্রায় €৭৭.৫ মিলিয়ন (১৫০ বিলিয়ন লিরে)।[২১০][২১১] ১০ জুলাই ২০১৮ সালে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো তার €১০০ মিলিয়নে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে স্থানান্তর দিয়ে ইতালীয় ক্লাবের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ স্থানান্তর হন।[২১২]

উয়েফা ক্লাব সহগ র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

২২ এপ্রিল ২০২১ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
র‌্যাঙ্ক দল পয়েন্ট
জার্মানি বায়ার্ন মিউনিখ ১৩৪.০০০
স্পেন রিয়াল মাদ্রিদ ১২৬.০০০
স্পেন বার্সেলোনা ১২২.০০০
ইতালি ইয়ুভেন্তুস ১২০.০০০
ইংল্যান্ড ম্যানচেস্টার সিটি ১২০.০০০
স্পেন আতলেতিকো মাদ্রিদ ১১৫.০০০
ফ্রান্স পারি সাঁ-জেরমাঁ ১১৩.০০০

ইতালি জাতীয় দলে অবদান[সম্পাদনা]

সামগ্রিকভাবে ইয়ুভেন্তুস হল সেই ক্লাব যেটি ইতিহাসে ইতালি জাতীয় দলে সবচেয়ে বেশি খেলোয়াড়দের অবদান রেখেছে,[২১৩] একমাত্র ইতালীয় ক্লাব যেটি ২য় ফিফা বিশ্বকাপের পর থেকে প্রতিটি ইতালি জাতীয় দলে খেলোয়াড়দের অবদান রেখেছে।[২১৪] ইয়ুভেন্তুস ইতালির বিশ্বকাপ অভিযানে অসংখ্য খেলোয়াড়ের অবদান রেখেছে, এই সফল সময়গুলো মূলত তুরিন ক্লাবের ইতিহাসের দুটি স্বর্ণযুগের সাথে মিলে গেছে, যেগুলোকে ১৯৩১ থেকে ১৯৩৫ সাল পর্যন্ত কুইনকুয়েনিও ডি'ওরো এবং ১৯৭২ থেকে ১৯৮৬ পর্যন্ত সিক্লো লেজেন্ডারিও বলা হয়।

১৯৭৮ ফিফা বিশ্বকাপে ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আট ইয়ুভেন্তুস খেলোয়াড় নিয়ে ইতালির দল গঠন

নিচে ইয়ুভেন্তুস খেলোয়াড়দের তালিকা দেওয়া হল যারা বিশ্বকাপ জয়ী প্রতিযোগিতায় ইতালি জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করেছিল।[২১৫]

ইয়ুভেন্তুসের দুই খেলোয়াড় ইতালির সাথে বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুটের পুরস্কার জিতেছেন, পাওলো রসি ১৯৮২ সালে এবং সালভাতোরে শিলাচি ১৯৯০ সালে। পাশাপাশি ইতালির বিশ্বকাপ জয়ী দলে অবদান রাখার জন্য দুই ইয়ুভেন্তুস খেলোয়াড় আলফ্রেডো ফনি এবং পিয়েত্রো রাভা ১৯৩৬ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে স্বর্ণপদক বিজয়ী দলে ইতালির প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।

ইতালির হয়ে ১৯৬৮ সালের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের সময় ইয়ুভেন্তুসের সাতজন খেলোয়াড় তাদের দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন: স্যান্ড্রো সালভাডোর, আর্নেস্টো কাস্তানো এবং জিয়ানকার্লো বারসেলিনো।[২১৬] এবং উয়েফা ইউরো ২০২০ এ চারটি: জর্জো কিয়েল্লিনি, লেওনার্দো বোনুচ্চি, ফেদেরিকো বের্নারদেস্কি এবং ফেদেরিকো কিয়েজা ; যা একটি জাতীয় রেকর্ড।

বোসম্যান শাসনের (১৯৯৫) পূর্বের সীমাবদ্ধতার কারণে টরিনিজ ক্লাবটি অন্যান্য দেশের জাতীয় পক্ষের জন্যও কম অবদান হলেও রেখেছে।জিনেদিন জিদান এবং অধিনায়ক দিদিয়ে দেশঁ ইয়ুভেন্তুসের খেলোয়াড় ছিলেন যখন তারা ফ্রান্সের সাথে ১৯৯৮ ফিফা বিশ্বকাপ জিতেছিলেন, সেইসাথে ২০১৮ বিশ্বকাপে ব্লেজ মাতুইদি এবং ২০২২ সালে আর্জেন্টাইন আনহেল দি মারিয়া এবং লেয়ান্দ্রো পারেদেস এটিকে এমন একটি ফুটবল ক্লাব হিসাবে গড়ে তোলে যা বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে বেশি ফিফা বিশ্বকাপ বিজয়ী সরবরাহ করেছে (২৭)।[২১৭] ইয়ুভেন্তুসের তিনজন খেলোয়াড় ইতালি ছাড়া অন্য দেশের সাথে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছেন, লুইস দেল সোল ১৯৬৪ সালে স্পেনের সাথে এটি জিতেছিলেন, যখন ফরাসি মিশেল প্লাতিনি এবং জিদান যথাক্রমে ১৯৮৪ এবং ২০০০ সালে প্রতিযোগিতা জিতেছিলেন।[২১৮]

অর্থনৈতিক তথ্য[সম্পাদনা]

ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব স্পা
ধরনপাবলিক (সোসিয়েতা পার আজিওনি)
পূর্বসূরী
  • স্পোর্ট ক্লাব ইয়ুভেন্তুস (১৮৯৭)
  • ফুট-বল ক্লাব ইয়ুভেন্তুস (১৯০০)
  • ইয়ুভেন্তুস (১৯৩৬)
  • ইয়ুভেন্তুস সিসিতালিয়া (১৯৪৩)
  • ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব (১৯৪৫)
প্রতিষ্ঠাকালতুরিন, ইতালি (আগস্ট ১৯৪৯; ৭৪ বছর আগে (1949-08), as সোসিয়েতা আ রেসপনসাবিলিতিয়া লিমিতাতা)
প্রধান ব্যক্তি
জিয়ানলুকা ফেরেরো(সভাপতি)
মৌরিজিও স্কানাভিও(সিইও)
আয়
হ্রাস €৪৮০,৭১১,৭৫৪(২০২০–২১)
€৫৭৩,৪২৪,০৯২(২০১৯–২০)
হ্রাস €-১৯৭,১৯৪,২৬১(২০২০–২১)
−৬৭,০৬০,৭১৬(২০১৯–২০)
হ্রাস €-২০৯.৮৮৫.৪৩২(২০২০–২১)
−৮৯,৬৮২,১০৬(২০১৯–২০)
মোট সম্পদ
হ্রাস €৯০৭,৮১১,১০৯(২০২০–২১)
€১,১৭৬,৮৭৬,২২৪(২০১৯–২০)
মোট ইকুইটি
হ্রাস €২৮,৪৩৮,৮২২(২০২০–২১)
€২৩৯.২০৪.৫৮৭(২০১৯–২০)
মালিক
অ্যাগনেলি পরিবার
(এক্সর এন.ভি.র মাধ্যমে)
৬৩.৮%
লিন্ডসেল ট্রেইন ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড১১.৯%
পাব্লিক ফ্লোট২৪.৩%
কর্মীসংখ্যা
  • হ্রাস ৮৭০ (২০২০–২১)
  • ৯১৫ (২০১৯–২০)
ওয়েবসাইটjuventus.com
পাদটীকা / তথ্যসূত্র
[২১৯]

১৯২৩ সালে এডোয়ার্ডো অ্যাগনেলি প্রেসিডেন্সির সময় একটি অ্যাসোসিয়েশন হিসাবে প্রতিষ্ঠিত ক্লাবটি সেই সময়ে একটি অ্যাসেম্বেলা ডি সোসাই (সদস্য সমাবেশ) দ্বারা শাসিত পেশাদার মর্যাদা অর্জনের জন্য দেশের প্রথম একটি হয়ে ওঠে, যা দীর্ঘতম এবং একটি ক্লাব ও একটি ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারীর মধ্যে ইতালিয়ান ক্রীড়া ইতিহাসে সবচেয়ে নিরবচ্ছিন্ন সমাজ হতে শুরু করে৷ ১৯৪৩ সালের সংবিধানের পর থেকে ইয়ুভেন্তুসকে মাল্টিস্পোর্টস প্যারেন্ট কোম্পানি ইয়ুভেন্তুস (অর্গানিজ্যাজিওন স্পোর্টিভা এসএ) এর ফুটবল বিভাগ হিসাবে পুনর্গঠন করা হয়েছিল, যখন এটি কম্পাগনিয়া ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্পোর্টিভা ইতালিয়া (সিসিতালিয়া) প্রতিষ্ঠার জন্য আরও তিনটি টোরিনিজ এন্টারপ্রাইজের সাথে একীভূত হয়েছিল। সেই বিশ বছরে ইয়ুভেন্তুস প্রগতিশীল বিভিন্ন শাখায় যেমন টেনিস, সাঁতার, আইস হকি এবং বোসে প্রতিযোগিতা করেছিল, যেখানে প্রথম উদ্ধৃতিতে সাফল্য অর্জন করেছিল। ইতালীয় গৃহযুদ্ধের (১৯৪৫) পরে স্বয়ংচালিত কর্পোরেশনের একটি দীর্ঘ লিকুইডেশন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পরে ফুটবল এবং টেনিস বাদে সমস্ত ইয়ুভেন্তুস ওএসএ বিভাগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল, যেগুলি ডিমার হয়ে গিয়েছিল। ফুটবল বিভাগ তখন স্পনসরশিপের কারণে ইয়ুভেন্তুস সিসিটালিয়া নামে পরিচিত, এর নাম পরিবর্তন করে ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব এবং অ্যাগনেলি পরিবার রাখা হয়, যেটির কিছু সদস্য গত ছয় বছর ধরে ক্লাবের অভ্যন্তরে বিভিন্ন নির্বাহী অভিযোগে অধিষ্ঠিত ছিল,[১০] যারা শিল্পপতি পিয়েরোর পরে ক্লাবের বেশিরভাগ শেয়ার পেয়েছিলেন। দুসিও সিসিটালিয়ার মালিক দশকের শেষের দিকে তার মূলধনের শেয়ার হস্তান্তর করেন।[২২০] ১৯৪৯ সালের আগস্ট মাসে ইয়ুভেন্তুস একটি স্বাধীন সোসাইটি হিসেবে একটি দায়িত্বশীল লিমিটেটা (এসআরএল) (এক ধরনের প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি) হিসেবে গঠিত হয় এবং তখন থেকে একটি কনসিগ্লিও ডি'অ্যামিনিস্ট্রাজিওন (পরিচালনা পর্ষদ) দ্বারা তত্ত্বাবধান করা হয়।[২২১]

২৭ জুন ১৯৬৭ সালে টোরিনিজ ক্লাব তার আইনী কর্পোরেট স্ট্যাটাসকে সোসাইটা পার অ্যাজিওনি (এসপিএ.)[২২২] এবং ৩ ডিসেম্বর ২০০১ সালে এটি লাৎসিয়ো এবং রোমার পরে বোর্সা ইতালিয়ানায় তালিকাভুক্ত দেশের তৃতীয় হয়ে ওঠে;[২২৩] সেই তারিখ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১১ পর্যন্ত ইয়ুভেন্তুসের মুলধন সেগমেন্টো টিটোলি কন আল্টি রিকুইসিটি (স্টার) এর অংশ নেয়, যা বিশ্বের অন্যতম প্রধান বাজার অংশ।[২২৪] অক্টোবর ২০১৬ থেকে ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত[২২৫] এবং আবার মার্চ ২০২০ থেকে[২২৬] ক্লাবের মুলধন এফটিএসই ইতালিয়া মিড ক্যাপ মুলধন মার্কেট ইনডেক্সে মার্কাটো টেলিমেটিকো আজিওনারিও (এমটিএ) পূর্বে ডিসেম্বর ২০১৮ এবং মার্চ ২০২০ এর মধ্যে এটি এফটিএসই এমআইবি সূচকে তালিকাভুক্ত ছিল।[২২৭] লন্ডনে অবস্থিত বোর্সার বোন স্টক এক্সচেঞ্জে ক্লাবটির একটি মাধ্যমিক তালিকাও রয়েছে।

২৯ অক্টোবর ২০২১ পর্যন্ত ইয়ুভেন্তুসের শেয়ার এক্সর এনভি- এর মাধ্যমে অ্যাগনেলি পরিবারের মধ্যে ৬৩.৮% বিতরণ করা হয়েছে, জিওভানি অ্যাগনেলি এবং সিসাপা গ্রুপের একটি হোল্ডিং অংশ ১১.৮% লিন্ডসেল ট্রেন ইনভেস্টমেন্ট ট্রাস্ট লিমিটেড এবং ২৪.৩% অন্যান্য অংশীদারদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে (প্রতিটি <৩%)[২২৮][২২৯] যদিও অ্যাসোসিয়াজিওন পিকোলি আজিওনিস্তি দেলা ইয়ুভেন্তুস ফুটবল ক্লাব ২০১০ সালে তৈরি এবং ৪০,০০০ এরও বেশি অধিভুক্ত,[২৩০] ক্যালিফোর্নিয়া পাবলিক এমপ্লয়িজ রিটায়ারমেন্ট সিস্টেম (ক্যালিপার্স) এবং বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা কর্পোরেশন ব্লাকরক বিনিয়োগকারী সহ[২৩১] রয়্যাল ব্যাংক অফ স্কটল্যান্ড, নরওয়ে সরকারী পেনশন ফান্ড গ্লোবাল হিসাবে একটি সার্বভৌম সম্পদ তহবিল।[২৩২]

১ জুলাই ২০০৮ থেকে ক্লাব আন্তর্জাতিক ওহসাস ১৮০০১:২০০৭ রেগুলেশন[২৩৩] এবং আন্তর্জাতিক ISO 9001:2000 রেজোলিউশন অনুযায়ী চিকিৎসা খাতে একটি নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা সিস্টেমের প্রয়োজনীয়তা মেনে কর্মচারী এবং ক্রীড়াবিদদের জন্য একটি নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করেছে।[২৩৪]

ক্লাবটি ইউরোপীয় ক্লাব অ্যাসোসিয়েশনের (ইসিএ) অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, যা জি-১৪ এর একীভূত হওয়ার পরে গঠিত হয়েছিল, যা ইউরোপীয় ক্লাব ফোরাম (ইসিএফ) এর সাথে আন্তর্জাতিক টিভি অধিকারের উদ্দেশ্যে নির্বাচিত ইউরোপীয় ক্লাবগুলির একটি স্বাধীন গ্রুপ। ১০২ জন সদস্য দ্বারা গঠিত উয়েফা দ্বারা শাসিত একটি ক্লাবের টাস্ক ফোর্স,[২৩৫] যেটিতে ইয়ুভেন্তুস ক্রীড়াগত যোগ্যতার দ্বারা যথাক্রমে প্রতিষ্ঠাতা এবং স্থায়ী সদস্য ছিল।[২৩৬]

ব্র্যান্ড ক্ষমতার পরিপ্রেক্ষিতে ব্রিটিশ পরামর্শদাতা সংস্থা ব্র্যান্ড ফাইন্যান্স দ্বারা তৈরি করা বিশ্বব্যাপী র‌্যাঙ্কিংয়ে পুরনো মহিলা সপ্তম স্থানে ছিল, যেখানে এটি ১০০-এর মধ্যে ৮৬.১ স্কোর সহ ক্রেডিট রেটিং এএএ ("অত্যন্ত শক্তিশালী") সহ রেট করা হয়েছিল,[২৩৭] পাশাপাশি ব্র্যান্ড মূল্যের দিক থেকে একাদশ (€৭০৫ বিলিয়ন)[২৩৮] এবং এন্টারপ্রাইজ মান অনুসারে নবম (€২২৯৪ বিলিয়ন, ২৪ মে ২০২২ পর্যন্ত)।[২৩৯] এই সবই ২০১৫ সালে দেশের দ্বিতীয় ক্রীড়া ক্লাব (ফুটবলে প্রথম) স্কুদেরিয়া ফেরারি এর পরে ব্র্যান্ড ইকুইটি দ্বারা আই বিয়ানকোনেরি-কে তৈরি করে।[২৪০]

দালোয়েত ফুটবল মানি লিগ অনুসারে পরামর্শদাতা দালোয়েত দ্বারা ২০২২ সালের মার্চ মাসে প্রকাশিত একটি গবেষণায় ইয়ুভেন্তুস হল বিশ্বের নবম-সর্বোচ্চ উপার্জনকারী ফুটবল ক্লাব যার আনুমানিক আয় ৩০ জুন ২০২১ পর্যন্ত €৪৩৩.৫ মিলিয়ন[২৪১] এবং ২০০২-এ ক্লাবটি সামগ্রিকভাবে দ্বিতীয় অবস্থানে পৌঁছেছে, যা একটি সেরিয়ে আ দলের জন্য সর্বোচ্চ অর্জন, এটি এমন একটি র‌্যাঙ্কিং যা তারা পরবর্তী দুই বছর ধরে ধরে রেখেছে।[২৪২] এটি ফোর্বসের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সবচেয়ে মূল্যবান ফুটবল ক্লাবের তালিকায় নবম স্থানে রয়েছে যার আনুমানিক মূল্য $২৪৫০ মিলিয়ন (৩১ মে ২০২১ পর্যন্ত €২২৭৯ মিলিয়ন), এবং মে ২০২১ সালে এটি দেশের প্রথম ফুটবল ক্লাব হয়ে ওঠে যে বিলিয়ন ইউরো চিহ্ন অতিক্রম করে।[২৪৩] অবশেষে উভয় র‌্যাঙ্কিংয়ে এটি প্রথম ইতালীয় ক্লাব হিসাবে স্থান পেয়েছে।[২৪৪]

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ সালে ইয়ুভেন্তুস আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছে যে রাফেলস ফ্যামিলি অফিস (হংকং-ভিত্তিক একটি বহু-পরিবার অফিস) আগামী তিন বছরের জন্য এশিয়াতে ক্লাবের আঞ্চলিক অংশীদার হবে।[২৪৫]

কিট সরবরাহকারী এবং শার্ট স্পনসর[সম্পাদনা]

সময়কাল কিট প্রস্তুতকারক শার্ট স্পন্সর (বুকে) শার্ট স্পন্সর (হাতা)
১৯৭৯–১৯৮৯ কাপ্পা অ্যারিস্টন -
১৯৮৯–১৯৯২ ইউপিআইএম
১৯৯২–১৯৯৫ ড্যানোন
১৯৯৫–১৯৯৮ সনি
১৯৯৮–১৯৯৯ ডি+লিবার্টা ডিজিটাল/টেলি+
১৯৯৯–২০০০ ক্যানাল স্যাটেলাইট/ডি+লিবার্টা ডিজিটাল /সনি
২০০০–২০০১ লোটো Sportal.com/Tele+
২০০১–২০০২ ফাস্টওয়েব /টু মোবাইল
২০০২–২০০৩ ফাস্টওয়েব/ তামোয়েল
২০০৩–২০০৪ নাইকি
২০০৪–২০০৫ স্কাই স্পোর্ট /তামোয়েল
২০০৫–২০০৭ তামোয়েল
২০০৭–২০১০ ফিয়াট (নিউ হল্যান্ড)
২০১০–২০১২ বেটক্লিক/ বালোকো
২০১২–২০১৫ এফসিএ (জিপ)
২০১৫–২০২১ আডিডাস
২০২১– বিটগেট

কিট ডিল[সম্পাদনা]

কিট সরবরাহকারী সময়কাল চুক্তি
ঘোষণা
চুক্তি
সময়কাল
মান টীকা
২০১৫–বর্তমান
২৪ অক্টোবর ২০১৩
২০১৫–২০১৯ (৪ বছর) €২৩.২৫ মিলিয়ন প্রতি বছর[২৪৬] মূল চুক্তির শর্তাবলী: মোট €১৩৯.৫ মিলিয়ন / ২০১৫–২০২১ (৬ বছর)[২৪৭]
চুক্তিটি উন্নত শর্তাবলীর অধীনে সময়ের আগেই বাড়ানো হয়েছিল
২০১৮–২০১৯ মৌসুমের শেষে
২১ ডিসেম্বর ২০১৮
২০১৯–২০২৭ (৮ বছর) মোট €৪০৮ মিলিয়ন[২৪৮][২৪৯]

(€৫১ মিলিয়ন প্রতি বছর)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. ১৯৯৪–৯৫ মৌসুমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে জিতে একটি ম্যাচের জন্য তিনটি পয়েন্ট প্রবর্তনের কথা বিবেচনা না করে, ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (উয়েফা) তার নিজস্ব সহগের মান গণনা পদ্ধতির ভিত্তিতে প্রতিটি ম্যাচে জয়ের জন্য দুটি পয়েন্ট এবং ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন্স কাপ এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, উয়েফা কাপ এবং ইউরোপা, লিগ, উয়েফা সুপার কাপ, কাপ উইনার্স কাপ, উয়েফা ইন্টারটোটো কাপ এবং ঐতিহাসিক-পরিসংখ্যানগত উদ্দেশ্যে ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ ড্র করা প্রতিটি পয়েন্টের জন্য একটি পয়েন্ট প্রয়োগ করে।[৭]
  2. "স্পোর্টিং ট্রাডিশন" বলা হয় (ইতালীয়: Tradizione sportiva), এটি ১৮৯৮ সাল থেকে মৌসুমী প্রতিযোগিতায় ক্লাবগুলি দ্বারা জিতে যাওয়া অফিসিয়াল ট্রফির স্কোরের উপর ভিত্তি করে ইতালীয় ফুটবল ফেডারেশন (এফআইজিসি) দ্বারা তৈরি করা ঐতিহাসিক র‌্যাঙ্কিং এবং সৃষ্টির পর থেকে প্রথম তিনটি পেশাদার স্তরে অংশগ্রহণ করেছে এমন সামগ্রিক ঋতুগুলির উপর ভিত্তি করে তৈরি। রাউন্ড-রবিন টুর্নামেন্টের (১৯২৯) [[ইতালীয় ফুটবল ফেডারেশন|ইতালীয় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা]] প্রায়শই এটিকে উন্নয়ন ও অবনমন এবং সম্প্রচারের ক্ষেত্রে ব্যবহার করে।[৮]
  3. নাৎসি-ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে ইতালীয় প্রতিরোধের সময় (১৯৪৩-১৯৪৫) ক্লাবটি সেই সময়ে একটি মাল্টিস্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন টোরিনিজ শিল্পপতি এবং প্রাক্তন ইয়ুভেন্তুস খেলোয়াড় পিয়েরো দুসিও গাড়ী হাউস সিসিটালিয়ার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত ছিল; যাইহোক, আন্নেল্লি পরিবারের বিভিন্ন সদস্য ১৯৩৯ সাল থেকে ক্লাবের নির্বাহী পর্যায়ে বিভিন্ন পদে অধিষ্ঠিত হয়েছেন।[১০]
  4. আন্তঃনগর মেলা কাপ বা মিট্রোপা কাপের মতো গভর্নিং বডির সাথে সম্পর্কিত নয় এমন প্রাইভেট কমিটি দ্বারা আয়োজিত প্রতিযোগিতাসমূহ বাদে।
  5. Frédéric Dick, a son of Alfred Dick, was a Swiss footballer and joined the team of the Juventus that won the tournament of the Second Category in 1905.
  6. অন্য ক্লাবটি ছিল বার্সেলোনা, এর অধিনায়ক লিওনেল মেসির জন্য। মেসি ব্যালন ডি'অর পুরস্কার ২০০৯–২০১৩ পর্যন্ত টানা চারবার পেয়েছিলেন।[৪০]
  7. The zebra is Juventus' official mascot because the black and white vertical stripes in its present home jersey and emblem remembered the zebra's stripes.
  8. Presidential Committee of War.
  9. Honorary chairman.
  10. Chairmen on interim charge.
  11. Also current honorary chairmen.
  12. On interim charge.
  13. Including exclusively the official titles won during its participation in the top flight of Italian football.
  14. Sixth most successful European club for confederation and FIFA competitions won with 11 titles. Sixth most successful club in Europe for confederation club competition titles won (11).[১৯২]
  15. Additionally, since the 1990–91 season to the 2008–09 season, Juventus have won 15 official trophies: five Serie A titles, one Coppa Italia title, four Supercoppa Italiana titles, one Intercontinental Cup, one European Champions' Cup-UEFA Champions League, one UEFA Cup, one UEFA Intertoto Cup and one UEFA Super Cup.[১৯৯]
  16. Up until 1921, the top division of Italian football was the Federal Football Championship. Since then, it has been the First Division, the National Division and the Serie A.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Juventus Football Club: The History"Juventus Football Club S.p.A. official website। ২৯ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০০৮ 
  2. "Buon compleanno, Juventus Stadium!" (Italian ভাষায়)। juventus.com। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  3. Fabio Rossi; ও অন্যান্য (২০০৩)। "Sport e comunicazione nella società moderna"Enciclopedia dello sport (ইতালীয় ভাষায়)। Istituto dell'Enciclopedia Italiana। ১৩ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "Old Lady sits pretty"। Union des Associations Européennes de Football। ২১ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০০৩ 
  5. "Juventus building bridges in Serie B"। Fédération Internationale de Football Association। ২০ নভেম্বর ২০০৬। ৭ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  6. "Al Ahly é o clube com mais títulos internacionais; São Paulo é o 7º"Placar (পর্তুগিজ ভাষায়)। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। ১১ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৪ 
  7. "Which teams have played the most UEFA games?"। Union des Associations Européennes de Football। ২ জুন ২০২০। 
  8. Consiglio Federale FIGC, সম্পাদক (২৭ মে ২০১৪)। Comunicato ufficiale n. 171/A (পিডিএফ) (ইতালীয় ভাষায়)। Federazione Italiana Giuoco Calcio। পৃষ্ঠা 11–13। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ নভেম্বর ২০১৪ 
  9. Manzo & Peirone (2006, p. 86)
  10. Tranfaglia & Zunino (1998, p. 193) উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "Tranfaglia 1998 193" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  11. Hazard ও Gould 2001, পৃ. 209, 215।
  12. "Breathing in football and Alpine air in Turin"। Union des Associations Européennes de Football। ৮ জানুয়ারি ২০১৫। ৯ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০১৭ 
  13. Deloitte Sports Business Group (জানুয়ারি ২০১৭)। Planet Football (পিডিএফ)Deloitte Football Money League 2017। Deloitte Touche Tohmatsu Ltd.। পৃষ্ঠা 5। ১৯ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  14. "Juventus Football Club" (ইতালীয় ভাষায়)। Borsa Italiana S.p.A। ১৪ এপ্রিল ২০১৫। ১২ জানুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  15. "Giovanni Trapattoni"। Union des Associations Européennes de Football। ৩১ মে ২০১০। ৩ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১০ 
  16. "1985: Juventus end European drought"। Union des Associations Européennes de Football। ৮ ডিসেম্বর ১৯৮৫। ৮ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  17. Paul Saffer (১০ এপ্রিল ২০১৬)। "Paris aim to join multiple trophy winners"। Union des Associations Européennes de Football। ৩ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  18. "The FIFA Club of the Century" (পিডিএফ)। Fédération Internationale de Football Association। ২৩ এপ্রিল ২০০৭ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৪ 
  19. "Europe's Club of the Century"। International Federation of Football History & Statistics। ১০ সেপ্টেম্বর ২০০৯। ২৪ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  20. Demos & Pi (2016, pp. 3; 10) উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "research" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  21. AA.VV. (২০১৬)। Sports DNA। Repucom S.A.।  অজানা প্যারামিটার |orig-date= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য), cf. also Bilancio di sostenibilità (2016, p. 7)
  22. Hazard ও Gould 2001, পৃ. 209।
  23. Giovanni De Luna। 100 secondi: Nasce la JuventusRAI Storia (ইতালীয় ভাষায়)। event occurs at 0:01:13। ১০ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  24. Sappino 2000, পৃ. 712–713, 1491–1492।
  25. Peter Staunton (১০ জুলাই ২০১০)। "Ten World Cup teams influenced by one club"NBC Sports। ১৩ জুলাই ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ অক্টোবর ২০১০ 
  26. "Storia della Juventus Football Club"magicajuventus.com (ইতালীয় ভাষায়)। ২১ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০০৭ 
  27. "Juventus Football Club: The History"Juventus Football Club S.p.A. official website। ২৯ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০০৮ 
  28. "11/03/1900 Juventus-Torinese F.C. 0–1, Campionato Federale 1899–1900"www.juworld.net। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২১ 
  29. Modena, Panini Edizioni (২০০৫)। Almanacco Illustrato del Calcio – La Storia 1898–2004 
  30. "FIFA Classic Rivalries: Torino vs Juventus"Fédération Internationale de Football Association। ১৪ ডিসেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০০৭ 
  31. Papa ও Panico 1993
  32. "Italy – International matches 1930–1939"The Record Sport Soccer Statistics Foundation। ১৬ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০০৯ 
  33. "Campioni del mondo in bianconero"Juventus.com (ইতালীয় ভাষায়)। ৮ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  34. "La Juventus, grazie all'Argentina, è il club con più campioni del mondo in squadra"La Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। ১৯ ডিসেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  35. "Tanti auguri, Presidente!" (ইতালীয় ভাষায়)। Juventus Football Club S.p.A. official website। ৬ জুলাই ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০০৯ 
  36. "Albo d'oro Serie A TIM"Lega Nazionale Professionisti Serie A (ইতালীয় ভাষায়)। ১৮ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১২ 
  37. Glanville 2005
  38. "European Footballer of the Year ('Ballon d'Or')"The Record Sport Soccer Statistics Foundation। ১৬ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০০৭ 
  39. "List of the Ballon d'Or Winners"Topend Sports। ১০ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০১৫ 
  40. "List of the Ballon d'Or Winners"www.topendsports.com। ২৭ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৯ 
  41. "Olsson urges anti-racism action"। Union des Associations Européennes de Football। ১৩ মে ২০০৫। ১৪ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১১ 
  42. "Un dilema histórico"El Mundo Deportivo (স্পেনীয় ভাষায়)। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৩। ২০ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৮ 
  43. "Giovanni Trapattoni"। Union des Associations Européennes de Football। ৩১ মে ২০১০। ৩ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১০ 
  44. "1985: Juventus end European drought"। Union des Associations Européennes de Football। ৮ ডিসেম্বর ১৯৮৫। ৮ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  45. The Technician (UEFA) 2010
  46. Saffer, Paul (১০ এপ্রিল ২০১৬)। "Paris aim to join multiple trophy winners"। Union des Associations Européennes de Football। ৩ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  47. "1995/96: Juve hold their nerve"। Union des Associations Européennes de Football। ২২ মে ১৯৯৬। ৩ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  48. "1996: Dazzling Juve shine in Paris"। Union des Associations Européennes de Football। ১ মার্চ ১৯৯৭। ৩১ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  49. "Toyota Cup 1996"Fédération Internationale de Football Association। ২৬ নভেম্বর ১৯৯৬। ২১ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  50. "UEFA Champions League 1996–97: Final"Union des Associations Européennes de Football। ২৮ মে ১৯৯৭। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  51. "UEFA Champions League 1997–98: Final"Union des Associations Européennes de Football। ২০ মে ১৯৯৭। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  52. Agresti, Romeo (৩১ মে ২০১৭)। "Champions League Exclusive: Real Madrid hero Mijatovic tells Juventus fans his famous goal was onside"Goal.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  53. "Lippi: Mijatovic's goal in 1998 Champions League final was definitely offside"Marca। ২০ মে ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  54. "Italian trio relegated to Serie B"। BBC। ১৪ জুলাই ২০০৬। ১৪ জুলাই ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০০৬ 
  55. Boffi, Emanuele (২৯ জুলাই ২০০৬)। "Calciopoli. E se lo scandalo fosse il modo con cui ce l'hanno raccontato?"Tempi (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  56. Di Santo, Giampiero (২৭ এপ্রিল ২০০৭)। "Calciopoli, la Cupola era una bufala"Italia Oggi (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২The suspicion, in short, is that the path of summary justice was chosen, to eliminate from the scene characters like Moggi, ultimately expelled from Juve and then condemned by sports justice based on wiretapping which, are the words of the sentences, did not prove none of the allegations. Based on the first interceptions ordered by the Turin's public prosecutor and prosecutor Raffaele Guariniello, who had ordered the dismissal of the investigation opened for alleged sports fraud already in July 2005 on the grounds that, for the crime in question, 'are not allowed.' The prosecutor had underlined the 'weakness of the accusatory hypothesis.' Yet, according to the authors, the investigation that led to the commissioner of the FIGC, the landing in via Allegri of Guido Rossi, and the new head of the investigation office, Francesco Saverio Borrelli, started from that weak accusatory hypothesis, to the involvement of referees and designators, of six first and second row clubs (in addition to Juve, Milan, Fiorentina, Lazio, Reggina and Arezzo) and, finally, to the real sentence for a few. Indeed, only for Moggi and Juve, kicked out and relegated to B. 
  57. Cambiaghi, Emilio; Dent, Arthur (২০০৭)। Il processo illecito (পিডিএফ) (1st সংস্করণ)। Stampa Indipendente। পৃষ্ঠা 5–6, 47–57। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ – Ju29ro, 15 April 2010-এর মাধ্যমে। 
  58. Zunnino, Corrado (২৭ জুলাই ২০০৬)। "Salvati perché la gente voleva così"La Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২'We recognized everything about the CAF ruling, apart from two episodes: the falsified championship, the repeated offences of Juventus, [and] the existence of a system.' 
  59. Cambiaghi, Emilio; Dent, Arthur (২০০৭)। Il processo illecito (পিডিএফ) (1st সংস্করণ)। Stampa Indipendente। পৃষ্ঠা 52। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ – Ju29ro, 15 April 2010-এর মাধ্যমে। 
  60. Vaciago, Guido (২৮ জুলাই ২০১৫)। "Cassazione: 'Sistema inquinato'. Ma non spiega i misteri di Calciopoli"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২Justice decided that Moggi and Giraudo actually 'polluted' the system, it decided so in 2006 and did not want to know or understand other truths. Indeed, it had already decided it during the investigations, when all the phone calls that could exonerate or alleviate the position of Juventus' executives had not been taken into consideration, to the point of dismantling the very concept of the Cupola. Moggi and Giraudo, therefore, 'polluted' the system: a term that serves to dodge the fact that no judge has ever returned enough evidence to affirm that championship (the subject of investigation was only 2004–05) has actually been altered. Indeed, in the first instance sentence we basically read the opposite. 
  61. Castellani, Massimiliano (৮ নভেম্বর ২০১১)। "Gazzoni Frascara: 'Fiorentina e Juve mi devono 70 milioni. Calciopoli...'"Avvenire (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০২২ – Fiorentina.it-এর মাধ্যমে। '... [Juventus] was acquitted in the ordinary [justice] proceedings as Moggi himself also acted out of personal interest [to favour Lazio and Fiorentina].' 
  62. Rossini, Claudio (৫ মার্চ ২০১৪)। "Calciopoli e la verità di comodo"Blasting News (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২৩Juventus has been acquitted, the offending championships (2004/2005 and 2005/2006) have been declared regular, and the reasons for the conviction of Luciano Moggi are vague; mostly, they condemn his position, that he was in a position to commit a crime. In short, be careful to enter a shop without surveillance because even if you don't steal, you would have had the opportunity. And go on to explain to your friends that you're honest people after the morbid and pro-sales campaign of the newspapers. ... a club has been acquitted, and no one has heard of it, and whoever has heard of it, they don't accept it. The verdict of 2006, made in a hurry, was acceptable, that of Naples was not. The problem then lies not so much in vulgar journalism as in readers who accept the truths that are convenient. Juventus was, rightly or wrongly, the best justification for the failures of others, and it was in popular sentiment, as evidenced by the new controversies concerning 'The System.' But how? Wasn't the rotten erased? The referees since 2006 make mistakes in good faith, the word of Massimo Moratti (the only 'honest'). ... it isn't a question of tifo, but of a critical spirit, of the desire to deepen and not be satisfied with the headlines (as did Oliviero Beha, a well-known Viola [Fiorentina] fan, who, however, drew conclusions outside the chorus because, despite enjoying it as a tifoso, he suffered as a journalist. He wasn't satisfied and went into depth. He was one of the few). 
  63. "Juventus to appeal sentence despite FIFA threats"ESPN FC। ২৪ আগস্ট ২০০৬। ২৯ অক্টোবর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০০৬ 
  64. Casula, Andrea (৯ মে ২০০৭)। "Looking 'Inter' Calciopoli – A Juve Fan Wants Justice"Goal.com। ১২ মে ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০২২ 
  65. Gregorace, Francesco (২ এপ্রিল ২০১৪)। "Calciopoli – Tifosi juventini contro Cobolli Gigli: se solo non avesse ritirato il ricorso..."CalcioWeb (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  66. Cambiaghi, Emilio; Dent, Arthur (২০০৭)। Il processo illecito (পিডিএফ) (1st সংস্করণ)। Stampa Indipendente। পৃষ্ঠা 9–10। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২৩ – Ju29ro, 15 April 2010-এর মাধ্যমে। 
  67. Sarica, Federico (১০ জুলাই ২০১১)। "Calciopoli, il sentimento popolare"Rivista Studio (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  68. Garganese, Carlo (১৭ জুন ২০১১)। "Revealed: The Calciopoli evidence that shows Luciano Moggi is the victim of a witch-hunt"Goal.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  69. Capuano, Giovanni (২৪ মার্চ ২০১৫)। Panorama (ইতালীয় ভাষায়) https://www.panorama.it/sport/calciopoli-prescrizione-sentenza-cassazione-moggi-giraudo-juventus-scudetti-inter-cosa-succede। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  70. Ingram, Sam (২০ ডিসেম্বর ২০২১)। "Calciopoli Scandal: Referee Designators As Desired Pawns"ZicoBall। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০২২FIGC's actions in relegating Juventus and handing the title to Inter Milan were somewhat peculiar. Of course, Moggi and Juventus deserved punishment; that is not up for dispute. However, the severity of the ruling and the new location for the Scudetto was unprecedented and arguably should never have happened. The final ruling in the Calciopoli years later judged that Juventus had never breached article 6. As a result, the Serie A champions should never have encountered a shock 1–1 draw away to Rimini in the season's curtain-raiser. Nor should they have trounced Piacenza 4–0 in Turin or handed a 5–1 thrashing away to Arezzo in Tuscany. The findings stated that some club officials had violated article 6, but none had originated from Juventus. FIGC created a structured article violation with their decision-making. This means that instead of finding an article 6 breach, several article 1 violations were pieced together to create evidence damning to warrant relegation from Italy's top flight. Article 1 violations in Italian football usually command fines, bans, or points deductions, but certainly not relegation. 
  71. Hafez, Shamoon (৫ অক্টোবর ২০১৯)। "Calciopoli: The scandal that rocked Italy"। BBC। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  72. West, Aaron (১৫ জুলাই ২০১৬)। "10 years on: Juventus' relegation from Serie A, the Calciopoli scandal, and the redemption"Fox Sports। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  73. Voakes, Kris (৭ মে ২০১২)। "The end of a long, dark road: A timeline of Juventus' recovery from Calciopoli relegation to Serie A champions"Goal.com। ৯ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  74. "What happened next? The Juventus stars who left after relegation to Serie B in 2006"Squawka। ৭ জানুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২ 
  75. "Juventus promoted back to Serie A in style"ESPN FC। ESPN। ১৯ মে ২০০৭। ৪ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১৬ 
  76. "Juventus may ask for Serie A titles to be reinstated"The Independent। Reuters। ২৭ অক্টোবর ২০১০। ১৫ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২৩ 
  77. "Penale Sent. Sez. 3 Num. 36350 Anno 2015" (পিডিএফ) (ইতালীয় ভাষায়)। Federazione Italiana Giuoco Calcio। ২৪ মার্চ ২০১৫। পৃষ্ঠা 138। ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  78. Bufi, Fulvio (২৪ মার্চ ২০১৫)। "Supreme Court Acquits Moggi, Giraudo and Referees"Corriere della Sera (ইতালীয় ভাষায়)। ২৭ মার্চ ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২৩ 
  79. Mahoney, Tony (৩১ মার্চ ২০১৫)। "Tavecchio tells Juventus: Drop €443m lawsuit and we'll talk about your two Scudetti"Goal.com। ২ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  80. "Calciopoli, Cassazione: 'Moggi? Strapotere su Figc e tv'"La Gazzetta dello Sport। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  81. Capasso, Stefano (৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Motivazioni sentenza Calciopoli: 'Il campionato 2004/2005 è stato regolare'"Calcio Blog (ইতালীয় ভাষায়)। ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২৩'Neither can we overlook the data of the resizing of the scope of the accusation which derives from the partiality with which the events of the 2004/2005 championship were examined, to run after only Moggi's misdeeds, of which modalities have been ascertained, as regards the sports fraud, to the limit of the existence of the crime of attempt, with the consequent further difficulty of hooking up to the responsibility of the employer, supplier of the occasion for the criminal action.' 
  82. Beha, Oliviero (৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Il 'caso Moggi' e le colpe della stampa: non fa inchieste, (di)pende dai verbali, non sa leggere le sentenze"Tiscali (ইতালীয় ভাষায়)। ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০২১... the motivations in 558 pages are summarized as follows. 1) Championships not altered (therefore championships unjustly taken away from Juve...), matches not fixed, referees not corrupted, investigations conducted incorrectly by the investigators of the Public Prosecutor's Office (interceptions of the Carabinieri which were even manipulated in the confrontation in the Chamber). 2) The SIM cards, the foreign telephone cards that Moggi has distributed to some referees and designators, would be proof of the attempt to alter and condition the system, even without the effective demonstration of the rigged result. 3) Moggi's attitude, like a real 'telephone' boss, is invasive even when he tries to influence the [Italian Football Federation] and the national team, see the phone calls with Carraro and Lippi. 4) That these phone calls and this 'mafia' or 'sub-mafia' promiscuity aimed at 'creating criminal associations' turned out to be common practice in the environment as is evident, does not acquit Moggi and C.: and therefore here is the sentence. ... Finally point 1), the so-called positive part of the motivations, that is, in fact everything is regular. And then the scandal of 'Scommettopoli' [the Italian football scandal of 2011] in which it's coming out that the 2010–2011 championship [won by Milan] as a whole with tricks is to be considered really and decidedly irregular? The Chief Prosecutor of Cremona, Di Martino, says so for now, while sports justice takes its time as always, but I fear that many will soon repeat it, unless everything is silenced. With all due respect to those who want the truth and think that Moggi has objectively become the 'scapegoat'. Does the framework of information that does not investigate, analyze, compare, and take sides out of ignorance or bias seem slightly clearer to you? 
  83. Vaciago, Guido (২৮ জুলাই ২০১৫)। "Cassazione: 'Sistema inquinato'. Ma non spiega i misteri di Calciopoli"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২২However, the accusatory castle exists, built with interceptions expertly selected by the 170,000. That is, there are the famous 'barbecues', or the telephone calls between Moggi and the Bergamo designator, during which the two established the referees to be included in the drawing scheme. Phone calls that have particularly affected the Cassation which cites them as an example of pollution. In short, the fact that other managers (Meani from Milan, Facchetti from Inter, just to give an example, but the list could be long) also called Bergamo to plead their case and explicitly ask this or that referee isn’t taken into consideration (Collina, for example...). But then, how many domes were there? The Cassation does not tell us, even if it admits between the lines that 'the system of preparing the grids was quite widespread' and admits that the developments of the behaviors of Meani and Facchetti (explicitly mentioned) 'were not investigated in depth'. 
  84. "Moggi ban confirmed"Football Italia। ১৬ মার্চ ২০১৭। ২৭ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মার্চ ২০২০ 
  85. "Calciopoli, clamorosa svolta per Giraudo: la Corte Europea accetta il ricorso, ecco cosa può succedere"Calciomercato.com (ইতালীয় ভাষায়)। ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২২ 
  86. "Calciopoli, Moggi: 'Se la Corte Europea ha accettato il ricorso significa che ci sono elementi di cui parlare'"L'Arena del Calcio (ইতালীয় ভাষায়)। ১ অক্টোবর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২২ 
  87. "Calciopoli, il Tar boccia il ricorso: niente risarcimento alla Juve"la Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  88. "Calciopoli, il TAR dichiara inammissibile il ricorso della Juventus"Sportmediaset (ইতালীয় ভাষায়)। ২৮ অক্টোবর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ডিসেম্বর ২০২২ 
  89. "Ranieri appointed Juventus coach"BBC News। ৪ জুন ২০০৭। ২৩ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০০৭ 
  90. "Via Ranieri, ecco Ferrara" (ইতালীয় ভাষায়)। Union des Associations Européennes de Football। ২১ মে ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০০৯ 
  91. "Ferrara handed Juventus reins"। Union des Associations Européennes de Football। ১৭ জুলাই ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০০৯ 
  92. "Zaccheroni nuovo allenatore della Juventus" (ইতালীয় ভাষায়)। Juventus Football Club S.p.A. official website। ২৯ জানুয়ারি ২০১০। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১০ 
  93. "Conte replaces Del Neri at Juventus"ESPN Soccernet। ৩১ মে ২০১১। ২৬ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১৬ 
  94. "Juventus Stadium to be renamed the Allianz Stadium"ESSMA। ২ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  95. "Champions Juventus finish season unbeaten"। UEFA। ১৩ মে ২০১২। ৮ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৬ 
  96. "Juventus 3–0 Cagliari"। BBC। ১৮ মে ২০১৪। ১৯ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৪ 
  97. "2013–14 Serie A review"Football Italia। ২২ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৬ 
  98. "Juventus complete Serie A title hat-trick as Roma slump at Catania"The Guardian। ৫ মে ২০১৪। ১৯ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৪ 
  99. Sports Illustrated। ১ মে ২০১৪ https://web.archive.org/web/20140528011336/http://sportsillustrated.cnn.com/soccer/news/20140501/europa-league-benfica-juventus-final.ap/। ২৮ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৪  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  100. Pasquaretta, Luca (১ মে ২০১৪)। "Juventus-Benfica 0–0: batosta europea Portoghesi in finale, bianconeri eliminati. Battaglia anche nel dopopartita"Il Messaggero (ইতালীয় ভাষায়)। ৪ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৪ 
  101. Campo, Carlo (২০ মে ২০১৫)। "Juventus win record 10th Coppa Italia title"TheScore। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬ 
  102. Lowe, Sid (১৩ মে ২০১৫)। "Real Madrid 1–1 Juventus (Juventus win 3–2 on agg)"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  103. "Official: Juventus retain Scudetto!"Football Italia। ২৫ এপ্রিল ২০১৬। ২৭ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  104. "Juventus claim back-to-back doubles after 11th Coppa Italia success"Eurosport। ২১ মে ২০১৬। ৭ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৬ 
  105. "Milan 0–1 Juventus (AET): Morata grabs extra-time winner to seal another double"Goal.com। ২১ মে ২০১৬। ২৪ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৬ 
  106. "Coppa Italia: Morata in extra time"Football Italia। ২১ মে ২০১৬। ২৫ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৬ 
  107. "Juventus wins historic third straight Coppa Italia"। beinsports.com। ১৭ মে ২০১৭। ২২ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০১৭ 
  108. "Juventus Clinch Sixth Consecutive Serie A Title Against Crotone"। espnfc.us। ২১ মে ২০১৭। ২৩ মে ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৭ 
  109. "Real Madrid and Cristiano Ronaldo see off Juventus to win Champions League"The Guardian। ৩ জুন ২০১৭। ৩ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৭ 
  110. "Panic erupts during Champions League viewing in Italy, injuring 1,000"BNO News। ৪ জুন ২০১৭। ৩ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৭ 
  111. "Coppa: Force Four Juve flatten Milan"Football Italia। ৯ মে ২০১৮। ১০ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৮ 
  112. "Juventus Seven-Up"Football Italia। ১৩ মে ২০১৮। ১৪ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৮ 
  113. "Decide CR7, alla Juve la Supercoppa: Milan ko 1–0"Sky Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ১৬ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০২১ 
  114. "Juventus fightback to secure Scudetto"Football Italia। ২০ এপ্রিল ২০১৯। ২০ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১৯ 
  115. Simpson, Christopher। "Juventus Confirm Massimiliano Allegri Will Step Down as Manager"Bleacher Report (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০২০ 
  116. Penza, Danny (১৬ জুন ২০১৯)। "OFFICIALLY OFFICIAL: Juventus hire Maurizio Sarri as its new manager"Black & White & Read All Over (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০২০ 
  117. "JUVENTUS CHAMPIONS OF ITALY"Football Italia। ২৬ জুলাই ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০২০ 
  118. "Maurizio Sarri relieved of his duties"Juventus.com। ৮ আগস্ট ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০২০ 
  119. "Andrea Pirlo is the new coach of the First Team"Juventus.com। ৮ আগস্ট ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০২০ 
  120. "Supercoppa, Juventus-Napoli 2–0: Ronaldo e Morata gol. Insigne, rigore fatale"la Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। ২০ জানুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০২১ 
  121. "Inter Milan: Italian giants win first Serie A for 11 years"। BBC Sport। ২ মে ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২ মে ২০২১ 
  122. "Juventus qualify for Champions League with 4–1 win at Bologna"। theathletic.com। ২৪ মে ২০২১। 
  123. "Atalanta-Juventus 1–2, gol e highlights: decide Chiesa, Coppa bianconera"Sky Sport (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০২১ 
  124. "Andrea Pirlo: Juventus sack head coach with Massimiliano Allegri set to replace him"Sky Sports। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০২১ 
  125. Juventus.com। "¡Buena suerte, Andrea Pirlo! – Juventus"Juventus.com (স্পেনীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০২১ 
  126. "Welcome back home, Max!"। Juventus F.C.। ২৮ মে ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০২১ 
  127. "La Juve di Allegri chiude la stagione con 'zero tituli': l'ultima volta fu con Delneri"Sport Fanpage (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২২ 
  128. "Plusvalenze Juve, il pm aveva chiesto l'arresto per Agnelli (respinto dal gip)"Corriere della Sera (ইতালীয় ভাষায়)। ২৪ অক্টোবর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০২২ 
  129. "Terremoto Juve, Agnelli lascia: con lui si dimette tutto il CdA"Gazzetta dello Sport। ২৮ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০২২ 
  130. "Ecco il comunicato ufficiale della Juventus sulle dimissioni del CdA"Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ২৮ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০২২ 
  131. "Gianluca Ferrero, chi è il nuovo presidente della Juventus"Il Sole 24 Ore (ইতালীয় ভাষায়)। ২৯ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০২২ 
  132. Ringegni, Antonio (২০ জানুয়ারি ২০২৩)। "Juventus, il legale Apa ha un asso nella manica: ricorso inammissibile"TuttoJuve24 (ইতালীয় ভাষায়)। ২২ জানুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩ 
  133. Doyle, Mark (২২ জানুয়ারি ২০২৩)। "The entire Juventus financial scandal explained: Why the Bianconeri have been docked 15 points"Goal.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ 
  134. Corsa, Antonio (২৯ জানুয়ারি ২০২৩)। "What's the deal with... the capital gains? 🇬🇧"AntonioCorsa.it। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩[Quote from Sergio Santoro, former president of the FIGC's Federal court and member of Italy's Council of State] 'I find it unusual that the president of the court that handed down the sentence in January 2023 is the same one who, in May 2022, issued the sentence of acquittal in the same trial. ... We don't know if the court has decided to sanction Juventus and its directors for the capital gains affair. If this were the case, it would be a decision in contrast with the precedents of intra-federal justice in matters of capital gains. We need to understand the reasons for this sudden change in jurisprudence. Furthermore, if the penalty imposed is a consequence of capital gains violations, it is unclear how this violation could have been committed by a single company. The capital gain is realized by at least two subjects, while in the case in question no other companies appear to have been punished for this offence.' 
  135. "Inchiesta Plusvalenze: accolto il ricorso della Procura, 15 punti di penalizzazione alla Juventus" (ইতালীয় ভাষায়)। Italian Football Federation। ২০ জানুয়ারি ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২৩ 
  136. Vaciago, Guido (২৬ নভেম্বর ২০২১)। "Juve, inchiesta plusvalenze. Milan e Inter assolte nel 2008"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ২৮ জানুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২৩Of course there is a precedent that is also quite close in time: Milan and Inter ended up on trial in 2008 for the 2004 budgets, which ended up in the sights of the Judiciary for the usual capital gains. But they were acquitted because 'the fact does not constitute a crime'. The problem is the scientific definition of the value of a player in the transfer market. In short, there are no exact parameters for deciding that an evaluation is 'false', given that the number of factors and conditions that can influence it. Thirteen years after the acquittal of the Milanese [clubs], the investigation brings back the age-old question of capital gains in the offices of a prosecutor, just as [FIFA president] Infantino, only a couple of weeks ago, hypothesised the introduction of a mathematical algorithm to decide the player rating. 
  137. Porzio, Francesco (২২ জানুয়ারি ২০২৩)। "Juventus penalized 15 points from Serie A standings; 11 execs banned for mishandling transfer finances"CBS Sports। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২৩Juventus have formally submitted an appeal to the penalty. The 15-point penalty is harsher than the nine-point deduction recommended by an FIGC prosecutor earlier in the day. This all comes after the club's recent financial statements were under scrutiny by prosecutors and Italian market regulator CONSOB in the past months for alleged false accounting and market manipulation. ... The investigation led to the board stepping down in November, which also marked the end of an era for Agnelli and Nedved. The club acknowledged the so-called 'salary maneuvers' from the 2019–20 and 2020–21 fiscal years, adding that 'the complexity of such profiles on valuation elements may be subject to different interpretations.' 
  138. Pavan, Massimo (২১ জানুয়ারি ২০২৩)। "Tastiera Velenosa – Una nuova Calciopoli, ma forse pure peggio nei modi"TuttoMercatoWeb (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩During the exposition of his defensive line, the Juventus lawyer Nicola Apa asked that the revocation procedure be rejected for a formal question. The public prosecutor's office allegedly exceeded the time limit for presenting the request. As emerged from press articles, the public prosecutor's office had contacted the Turin prosecutors on 26 October and on 27 October the news of a visit to Turin by a prosecutor's envoy had spread. So the first new facts would have come into the possession of the prosecution at the end of October. And the sporting justice code prescribes a 30-day deadline for submitting the revocation request, which arrived, however, only on December 22, i.e. 56 days later. 
  139. "Il 'boicottaggio' dei tifosi juventini a Sky e Dazn è solo la punta dell'iceberg: ecco perchè la pioggia di disdette può andare oltre la protesta..."TuttoMercatoWeb (ইতালীয় ভাষায়)। ২২ জানুয়ারি ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩ 
  140. Biondi, Andrea (২১ জানুয়ারি ২০২৩)। "Juventus penalizzata, scatta la protesta fra gli abbonati al calcio in Tv"Il Sole 24 Ore (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩ 
  141. "Juventus, la raffica di disdette a Sky e Dazn dei tifosi bianconeri: 'Guardatevela voi questa buffonata'"Open (ইতালীয় ভাষায়)। ২১ জানুয়ারি ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩ 
  142. "Juve, stasera la protesta dei tifosi allo Stadium. E c'è chi vuole disdire Dazn e Sky"La Stampa (ইতালীয় ভাষায়)। ২২ জানুয়ারি ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২৩ 
  143. "Black & White"। Notts County F.C. official website। ৫ জুন ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০০৮ 
  144. "Black and White and More: Juventus' future, now"। juventus.com। ১৬ জানুয়ারি ২০১৭। ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  145. "FIFA awards special 'Club World Champion' badge to AC Milan"। Fédération Internationale de Football Association। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। ২১ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৬ 
  146. "Juventus reveal star-less shirts"Football Italia। ১১ জুলাই ২০১২। ১১ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৬ 
  147. Gladwell, Ben (৬ মে ২০১৪)। "Juventus won't add 3rd star to badge"ESPN FC। ১৮ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১৪ 
  148. Penza, Danny (১ জুলাই ২০১৫)। "Juventus' new 2015–16 adidas jerseys have officially arrived"SB Nation। ২৫ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৬ 
  149. "Juventus unveil 2016–17 kit"Football Italia। ১৪ মে ২০১৬। ১৭ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৬ 
  150. "Presenting the new adidas home kit for 2017/18"। juventus.com। ৭ জুন ২০১৭। ৯ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০১৭ 
  151. "Juventus launches JKids"। juventus.com। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  152. "Venite ad incontrare J allo Stadium!" (ইতালীয় ভাষায়)। juventus.com/it। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫। ১৬ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  153. Granzotto, Paolo (১৬ জুন ২০০৬)। "Juve, la Signora "gobba" che ci prova"Il Giornale (ইতালীয় ভাষায়)। ১৫ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০১২ 
  154. "Paolo Belli: biografia e discografia" (ইতালীয় ভাষায়)। ২০১৭। ১৫ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুন ২০১৭ 
  155. Daniele Solavaggione (৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬)। "Arriva "Bianconeri – Juventus Story""La Stampa (ইতালীয় ভাষায়)। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  156. "First Team: Juventus FC coming to Netflix on February 16!"। juventus.com। ২২ জানুয়ারি ২০১৮। ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১৮ 
  157. "'All or Nothing: Juventus' faithfully captures a unique moment of turbulence in the Italian giant's history"। cbssports.com। ২৫ নভেম্বর ২০২১। 
  158. "L'immobiliare Juve: dopo lo stadio ecco la Continassa"Gazzetta dello Sport। ৭ আগস্ট ২০১৫। ৯ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৬ 
  159. "Juventus places: Olympic Stadium"Juventus Football Club S.p.A. official website। ৮ মার্চ ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০০৮ 
  160. "Juventus places: Delle Alpi Stadium"Juventus Football Club S.p.A. official website। ২১ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০০৮ 
  161. "Second agreement with the ICS for the financing of further works in the framework of the stadium area" (পিডিএফ)Juventus Football Club S.p.A. official website। ১৪ মে ২০১০। ১২ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৬ 
  162. "Juventus open doors to new home with Notts County as starstruck guests"The Guardian। ১ জানুয়ারি ২০১৬। ৫ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  163. "Call it Allianz Stadium"। juventus.com। ১ জুন ২০১৭। ৪ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৭ 
  164. "With Allianz until 2030!"। juventus.com। ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ১২ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  165. "Napoli: Back where they belong"। Fédération Internationale de Football Association। ২৬ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০০৭ 
  166. "I club esteri"Centro Coordinamento Juventus Club DOC (ইতালীয় ভাষায়)। ২১ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ নভেম্বর ২০০৮ 
  167. "Supporters by region"calcioinborsa.com (ইতালীয় ভাষায়)। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ 
  168. "Juve-Inter, storia di una rivalità"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ২২ সেপ্টেম্বর ২০০৮। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  169. "Top 10 Serie a Football Clubs with Most Fans in the World in 2022"। ২ জানুয়ারি ২০২২। 
  170. "Juve e Milan, la sfida infinita storia di rivalità e di campioni"La Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। ১৫ মে ২০০৩। ৬ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০০৯ 
  171. "The History of Clasico"। Serie A TIM on Facebook.com। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৫ 
  172. "Milan-Juve in Field History"। acmilan.com। ২৮ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১২ 
  173. "Juve-Roma, rivalità antica"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ৩১ অক্টোবর ২০০৮। ২৯ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  174. "Quell'antica ruggine tra Juve e Fiorentina"La Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ২২ জানুয়ারি ২০০৯। ১ জুলাই ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  175. Alfonso Formato। "Napoli – Juventus, le tappe di una rivalità più sociale che sportiva"International Business Times। ২৬ মে ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  176. "Juve, la strategia di Bettega: tornano i giovani"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ৯ জানুয়ারি ২০১০। ২ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  177. "Juventus Soccer Schools International" (ইতালীয় ভাষায়)। Juventus Soccer School। ১৬ মে ২০১০। ২৩ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  178. Juventus.com। "From Under 23 to Next Gen - a new identity at Juventus - Juventus"Juventus.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-০৩ 
  179. Juventus.com। "La seconda squadra bianconera è realtà! - Juventus"Juventus.com (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২২ 
  180. "Serie C, Coppa Italia: trionfa la Juventus Under 23, Ternana battuta 2-1"Calcio - La Repubblica (ইতালীয় ভাষায়)। ২৭ জুন ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০২২ 
  181. "Il Benfica in finale grazie ai calci di rigore. Non basta la gran rimonta della Juve"La Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২২ 
  182. "La signora Juventus è ringiovanita bene"La Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ২১ জানুয়ারি ২০০৯। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  183. Juventus.com (২২ জুলাই ২০২১)। "Simone Padoin entra nello staff di Mister Allegri – Juventus"Juventus F.C. (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুলাই ২০২১ 
  184. "UFFICIALE - Paolo Bianco entra nello staff di Allegri"Tutto Juve (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-০৪ 
  185. "List of Juventus F.C. Presidents"Juworld.net (ইতালীয় ভাষায়)। ১৭ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৭ 
  186. "List of Juventus F.C. managers"MyJuve.it (ইতালীয় ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০০৭ 
  187. "Juventus building bridges in Serie B"। Fédération Internationale de Football Association। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০০৬ 
  188. "Juventus win two Serie A titles in one day as men and women triumph"The Guardian। ২০ এপ্রিল ২০১৯। ২২ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১৯ 
  189. "Albo d'oro TIM Cup"Lega Nazionale Professionisti Serie A (ইতালীয় ভাষায়)। ২৭ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১২ 
  190. "Football Europe: Juventus F.C."Union des Associations Européennes de Football। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০০৬ 
  191. "Italian Football Federation: Profile"Union des Associations Européennes de Football। ২০ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ অক্টোবর ২০১০ 
  192. "Confermato: I più titolati al mondo!" (ইতালীয় ভাষায়)। A.C. Milan S.p.A. official website। ৩০ মে ২০১৩। ৮ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৩ 
  193. "UEFA Europa League: Facts & Figures"। Union des Associations Européennes de Football। ৬ মে ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০০৭ 
  194. "Legend: UEFA club competitions"। Union des Associations Européennes de Football। ২১ আগস্ট ২০০৬। ৩১ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  195. "La primera final italiana"La Vanguardia (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৫ মে ২০০৩। পৃষ্ঠা 55। ২৮ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০০৯ 
  196. "Sorteo de las competiciones europeas de fútbol: el Fram de Reykjavic, primer adversario del F.C. Barcelona en la Recopa"La Vanguardia (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৩ জুলাই ১৯৮৮। পৃষ্ঠা 53। ১৭ নভেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০০৯ 
  197. "Tutto inizio' con un po' di poesia"La Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ২৪ মে ১৯৯৭। ৩০ এপ্রিল ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১৫ 
  198. "The 'Top 25' of each year (since 1991)"। International Federation of Football History & Statistics। ২ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০০৮ 
  199. "All-Time Club World Ranking (since 1 January 1991)"। International Federation of Football History & Statistics। ১৪ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  200. "US Palermo 2:3 Juventus"World Football। ৬ এপ্রিল ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০২০ 
  201. "Manchester United confirm signing of David de Gea"BBC Sport। BBC। ২৯ জুন ২০১১। ২৯ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  202. "Acquistato Buffon"Juventus FC (ইতালীয় ভাষায়)। ৩ জুলাই ২০০১। ৮ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১০ 
  203. "Reports and Financial Statements at 30 June 2002" (পিডিএফ)। Juventus FC। ২৮ অক্টোবর ২০০২। ৭ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০১২ 
  204. "Juve land £23m Buffon"BBC Sport। BBC। ৪ জুলাই ২০০১। ১৮ জুন ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১০ 
  205. Parma AC SpA bilancio (financial report and accounts) on 30 June 2002 (in Italian), PDF purchased in Italian CCIAA ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে
  206. "Buffon sets new Serie A record"Football Italia। ২০ মার্চ ২০১৬। ১ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০১৬ 
  207. "Gonzalo Higuain's £75m Juventus move – its place in history and what it means for football"Eurosport। ২৬ জুলাই ২০১৬। ৩০ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১৬ 
  208. "Higuain joins Juventus"। juventus.com। ২৬ জুলাই ২০১৬। ২৬ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১৬ 
  209. "Official: Pogba signs for Man Utd for €105m"Football Italia। ৮ আগস্ট ২০১৬। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৬ 
  210. "Zidane al Real"Juventus FC (ইতালীয় ভাষায়)। ৯ জুলাই ২০০১। ৬ আগস্ট ২০০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৩ 
  211. "Reports and Financial Statement at 30 June 2002" (পিডিএফ)Juventus FC। ২০ সেপ্টেম্বর ২০০২। ৭ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৩ 
  212. "Cristiano Ronaldo signs for Juventus!" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। ১০ জুলাই ২০১৮। ৩১ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৮ 
  213. "Italian national team: J-L Italian club profiles"Italian national team records & statistics। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ নভেম্বর ২০০৬ 
  214. "Juve players at the World Cup"। Juventus Football Club S.p.A. official website। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০০৯ 
  215. "Italian National Team Honours – Club Contributions"Forza Azzurri। ৯ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০০৭ 
  216. "European Championship 1968 – Details Final Tournament"The Record Sport Soccer Statistics Foundation। ১১ জুন ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০০৭ 
  217. Norman Hubbard (১৪ মার্চ ২০১২)। "Clubs' World Cup"ESPN। ১৭ মার্চ ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১২ 
  218. "European Championship"The Record Sport Soccer Statistics Foundation। ১৭ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০০৭ 
  219. "Relazione finanziaria annuale al 30 giugno 2020" [Yearly financial report at 30 June 2020] (পিডিএফ) (ইতালীয় ভাষায়)। Juventus Football Club S.p.A.। ৩০ জুন ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০২০ 
  220. Dietschy & Mourat (2005)
  221. Subscribed with code nº 214687, cf. Cronache economiche (ইতালীয় ভাষায়)। Camera di Commercio, Industria e Agricoltura di Torino। ৫ আগস্ট ১৯৪৯।  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  222. CONSOB (2007)
  223. "IPO: Juventus Football Club" (ইতালীয় ভাষায়)। Borsa Italiana S.p.A.। জুন ২০০৬। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০০৭ 
  224. "Juventus Football Club"। Borsa Italiana S.p.A.। ২২ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১১ 
  225. "Indice FTSE Italia Mid Cap: Titoli che appartengono all'Indice"Borsa Italiana S.p.A. (ইতালীয় ভাষায়)। ২০১৬। পৃষ্ঠা 3। ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  226. "Borsa: azioni Juventus fuori dal FTSE MIB, andranno sul Mid Cap"La Gazzetta dello Sport (ইতালীয় ভাষায়)। ৫ মার্চ ২০২০। ১৭ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  227. "Borsa, Amplifon e Juventus entrano nel FTSE MIB. Fuori Mediaset e Mediolanum"La Stampa (ইতালীয় ভাষায়)। ৬ ডিসেম্বর ২০১৮। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  228. "SHARE CAPITAL AND OWNERSHIP"। Juventus Football Club S.p.A.। ১৩ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৬ 
  229. "Juventus Football Club Azionisti"। Borsa Italiana S.p.A.। ১৪ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৬ 
  230. "Nasce l'associazione "Piccoli azionisti della Juventus""Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১০। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০২১ 
  231. Bonetto, Marco (২৮ ডিসেম্বর ২০১৩)। "Juve, in Norvegia si punta sul marchio della Signora"Tuttosport (ইতালীয় ভাষায়)। ৭ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  232. নরওয়েজীয়: Statens pensjonsfond Utland (SPU), cf. "JVTSF – Juventus FC SpA Shareholders"CNNMoney.com। CNN Business। ২০ মে ২০২২। 
  233. "Juventus Football Club S.p.A: Objectives and Strategies"। Juventus Football Club S.p.A.। ১৮ আগস্ট ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০০৯ 
  234. "Coaching and Medical Staff"। Juventus Football Club S.p.A.। ১৮ আগস্ট ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০০৯ 
  235. "Agreement heralds new era in football"। Union des Associations Européennes de Football। ২১ জানুয়ারি ২০০৮। ১৪ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১১ 
  236. Vieli (2014)
  237. Brand Finance Football 50 (2022, pp. 11; 19; 25–26)
  238. Brand Finance Football 50 (2022, pp. 16; 26)
  239. Brand Finance Football 50 (2022, pp. 10; 20)
  240. "The World's Most Valuable Sports Teams 2015: Ferrari"Forbes। ১৫ জুলাই ২০১৫। পৃষ্ঠা 32। ২৩ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  241. "The Deloitte Football Money League 2022" (পিডিএফ)। Deloitte Touche Tohmatsu Ltd.। মার্চ ২০২২। পৃষ্ঠা 7; 26–27; 30। 
  242. "The Deloitte Football Money League 2022" (পিডিএফ)। Deloitte Touche Tohmatsu Ltd.। মার্চ ২০২২। পৃষ্ঠা 8। 
  243. US$1,299 billion equivalent to €1,150 billion as of May 2016, cf. "The Business of Soccer: Juventus"Forbes। এপ্রিল ২০২১। 
  244. "The Business of Soccer: Juventus"Forbes। এপ্রিল ২০২১। 
  245. "Juve and Raffles Together!"Juventus.com। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০২১ 
  246. Penza, Danny (২৪ অক্টোবর ২০১৩)। "Juventus announce six-year deal with Adidas"Black & White & Read All Over। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  247. "Juventus announce Adidas deal | Football Italia"www.football-italia.net। ২৪ অক্টোবর ২০১৩। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  248. "Juventus Extends Adidas Kit Deal"। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  249. "Juventus sign €408m partnership extension with Adidas | Goal.com"www.goal.com। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট
ফ্যানদের সাইট