পারমা কালচো ১৯১৩

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পারমা
পারমা কালচো ১৯১৩ লোগো.svg
পূর্ণ নামপারমা কালচো ১৯১৩ এস.আর.এ.
ডাকনামই ক্রোচিয়াতি[১] (ধর্মযোদ্ধা)
ই জাল্লোব্লু[১] (হলুদ এবং নীল)
ই দুকালি[১] (ওলন্দাজ)
গ্লি এমিলিয়ানি[১] (এমিলীয়)
প্রতিষ্ঠিত
তালিকা
  • ১৬ ডিসেম্বর ১৯১৩; ১০৮ বছর আগে (16 December 1913)
    পারমা ফুট বল ক্লাব হিসেবে
    ১৯৩০; ৯২ বছর আগে (1930)
    পারমা আসোচাজিনে স্পোর্তিভা হিসেবে
    ১৯৬৭; ৫৫ বছর আগে (1967)
    পারমা ফুটবল ক্লাব হিসেবে
    ১৯৭০; ৫২ বছর আগে (1970)
    পারমা আসোচাজিনে কালচো হিসেবে
    ২৯ জুন ২০০৪; ১৮ বছর আগে (29 June 2004)
    পারমা ফুটবল ক্লাব এস.পি.এ. হিসেবে
    ২৭ জুলাই ২০১৫; ৬ বছর আগে (27 July 2015)
    এস.এস.ডি. পারমা কালচো ১৯১৩ হিসেবে
    ২২ জুলাই ২০১৬; ৫ বছর আগে (22 July 2016)
    পারমা কালচো ১৯১৩ হিসেবে
মাঠস্তাদিও এন্নিও তারদিনি
ধারণক্ষমতা২২,৩৫৯
মালিক          ক্রাউস গ্রুপ
সভাপতিইতালি কাইল ক্রাউস
প্রধান কোচইতালি ফাবিও লিভেরানি
লীগসেরিয়ে আ
২০১৯–২০১১তম
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

পারমা কালচো ১৯১৩ (সাধারণত পারমা কালচো অথবা শুধুমাত্র পারমা নামে পরিচিত) হচ্ছে পারমা ভিত্তিক একটি ইতালীয় পেশাদার ফুটবল ক্লাব। এই ক্লাবটি বর্তমানে ইতালির শীর্ষ স্তরের ফুটবল লীগ সেরিয়ে আ-এ খেলে। এই ক্লাবটি ১৯১৩ সালের ১৬ই ডিসেম্বর তারিখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। পারমা কালচো তাদের সকল হোম ম্যাচ পারমার স্তাদিও এন্নিও তারদিনিতে খেলে থাকে; যার ধারণক্ষমতা হচ্ছে ২২,৩৫৯। বর্তমানে এই ক্লাবের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন ফাবিও লিভেরানি এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন কাইল ক্রাউস। পর্তুগিজ মধ্যমাঠের খেলোয়াড় ব্রুনো আলভেস এই ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

ঘরোয়া ফুটবলে, পারমা কালচো এপর্যন্ত ৪টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে ৩টি কোপ্পা ইতালিয়া এবং ১টি সুপারকোপ্পা ইতালিয়ানা শিরোপা রয়েছে। এছাড়াও ক্লাবটি ১টি সেকোন্দা দিভিজিওনে, ৪টি সেরিয়ে চি, ২টি সেরিয়ে দি এবং ১টি কোপ্পা দেল্লে আল্পি শিরোপা জয়লাভ করেছে। অন্যদিকে ইউরোপীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়, এপর্যন্ত ৪টি শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার মধ্যে ২টি উয়েফা কাপ, ১টি উয়েফা কাপ উইনার্স কাপ এবং ১টি উয়েফা সুপার কাপ শিরোপা রয়েছে।[২][৩][৪]

অর্জন[সম্পাদনা]

ঘরোয়া[সম্পাদনা]

ইউরোপীয়[সম্পাদনা]

গৌণ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Informacje" [Information]। FCParma.com.pl (Polish ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. "Storia" [History]। ParmaCalcio1913.com (Italian ভাষায়)। S.S.D. Parma Calcio 1913। সংগ্রহের তারিখ ২৪ অক্টোবর ২০১৫ 
  3. Mynk, K.C. (১৭ এপ্রিল ২০০৯)। "How the Mighty Have Fallen: The Decline of 10 Untouchable Football Clubs"BleacherReport.com। Bleacher Report। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১০ 
  4. Dunford (2011), p. 793

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]