ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফ্রান্স
দলের লোগো
ডাকনামলে ব্লু (নীল)
অ্যাসোসিয়েশনফরাসি ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
প্রধান কোচদিদিয়ে দেশঁ
অধিনায়কউগো লরিস
সর্বাধিক ম্যাচলিলিয়ান থুরাম (১৪২)
শীর্ষ গোলদাতাথিয়েরি অঁরি (৫১)
মাঠস্তাদ দ্য ফ্রান্স
ফিফা কোডFRA
ওয়েবসাইটwww.fff.fr
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমানঅপরিবর্তিত (১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ(মে ২০০১ – মে ২০০২, আগস্ট – সেপ্টেম্বর ২০১৮)
সর্বনিম্ন২৬ (সেপ্টেম্বর ২০১০)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমানঅপরিবর্তিত (১ এপ্রিল ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ(১৬ আগস্ট ২০১৮)
সর্বনিম্ন৪০ (মার্চ – জুলাই ১৯৩০)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 বেলজিয়াম ৩–৩ ফ্রান্স 
(ব্রাসেল্‌স, বেলজিয়াম; ১ মে ১৯০৪)
বৃহত্তম জয়
 ফ্রান্স ১০–০ আজারবাইজান 
(ওসের, ফ্রান্স; ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৫)
বৃহত্তম পরাজয়
 ডেনমার্ক ১৭–১ ফ্রান্স 
(লন্ডন, ইংল্যান্ড; ২২ অক্টোবর ১৯০৮)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ১৫ (১৯৩০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৯৮, ২০১৮)
উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ১০ (১৯৬০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৮৪, ২০০০)
কনফেডারেশন্স কাপ
অংশগ্রহণ২ (২০০১-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (২০০১, ২০০৩)

ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল (ফরাসি: Équipe de France de football, ইংরেজি: France national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফ্রান্সের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম ফ্রান্সের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফরাসি ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯১৯ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৫৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফার সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯০৪ সালের ১লা মে তারিখে, ফ্রান্স প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; বেলজিয়াম ব্রাসেল্‌সে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে ফ্রান্স বেলজিয়ামের কাছে ৩–৩ গোলে ড্র করেছিল। ফ্রান্স হচ্ছে ফিফা বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন, যারা ২০১৮ সালে ক্রোয়েশিয়াকে ৪–২ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

৮০,৬৯৮ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট স্তাদ দ্য ফ্রান্সে লে ব্লু নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন দিদিয়ে দেশঁ এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন টটেনহ্যাম হটস্পারের গোলরক্ষক উগো লরিস

ফ্রান্স ফিফা বিশ্বকাপের ইতিহাসের অন্যতম সফল দল, যারা এপর্যন্ত ২ বার (১৯৯৮ এবং ২০১৮) বিশ্বকাপ জয়লাভ করেছে। এছাড়া উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপেও ফ্রান্স অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ২টি (১৯৮৪ এবং ২০০০) শিরোপা জয়লাভ করেছে। ফ্রান্স দ্বিতীয় দল হিসেবে ফিফা আয়োজিত তিনটি সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ ও মর্যাদাপূর্ণ ফুটবল প্রতিযোগীতার শিরোপা জয়লাভ করেছে।

রেমোঁ কোপা, জুস্ত ফোঁতেন, মিশেল প্লাতিনি, জিনেদিন জিদান এবং দিদিয়ে দেশঁর মতো খেলোয়াড়গণ ফ্রান্সের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০০১ সালের মে মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে ফ্রান্স তাদের ইতিহাসে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ অবস্থান (১ম) অর্জন করে এবং ২০১০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২৬তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১ম (যা তারা সর্বশেষ ২০১৮ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৪০। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
অপরিবর্তিত  বেলজিয়াম ১৭৮০
অপরিবর্তিত  ফ্রান্স ১৭৫৫
অপরিবর্তিত  ব্রাজিল ১৭৪৩
অপরিবর্তিত  ইংল্যান্ড ১৬৭০
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
১ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
বৃদ্ধি  ব্রাজিল ২১৩৬
হ্রাস  বেলজিয়াম ২১০৭
অপরিবর্তিত  ফ্রান্স ২০৮৩
অপরিবর্তিত  স্পেন ২০৩৬
বৃদ্ধি  পর্তুগাল ২০৩৪

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ গ্রুপ পর্ব ৭ম আমন্ত্রণের মাধ্যমে উত্তীর্ণ
ইতালি ১৯৩৪ ১৬ দলের পর্ব ৯ম
ফ্রান্স ১৯৩৮ কোয়ার্টার-ফাইনাল ৬ষ্ঠ আয়োজক হিসেবে উত্তীর্ণ
ব্রাজিল ১৯৫০ মূলত উত্তীর্ণ হয়নি, পরবর্তীতে আমন্ত্রণ পাওয়া পর তা প্রত্যাখ্যান করেছে
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪ গ্রুপ পর্ব ১১তম ২০
সুইডেন ১৯৫৮ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৩য় ২৩ ১৫ ১৯
চিলি ১৯৬২ উত্তীর্ণ হয়নি ১০
ইংল্যান্ড ১৯৬৬ গ্রুপ পর্ব ১৩তম
মেক্সিকো ১৯৭০ উত্তীর্ণ হয়নি
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ গ্রুপ পর্ব ১২তম
স্পেন ১৯৮২ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৪র্থ ১৬ ১২ ২০
মেক্সিকো ১৯৮৬ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৩য় ১২ ১৫
ইতালি ১৯৯০ উত্তীর্ণ হয়নি ১০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ ১০ ১৭ ১০
ফ্রান্স ১৯৯৮ ফাইনাল ১ম ১৫ আয়োজক হিসেবে উত্তীর্ণ
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ গ্রুপ পর্ব ২৮তম পূর্ববর্তী আসরের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে উত্তীর্ণ
জার্মানি ২০০৬ ফাইনাল ২য় ১০ ১৪
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ গ্রুপ পর্ব ২৯তম ১২ ২০ ১০
ব্রাজিল ২০১৪ কোয়ার্টার-ফাইনাল ৭ম ১০ ১০ ১৮
রাশিয়া ২০১৮ ফাইনাল ১ম ১৪ ১০ ১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ২টি শিরোপা ১৫/২১ ৬৬ ৩৪ ১৩ ১৯ ১২০ ৭৭ ১১১ ৬৫ ২৩ ২৩ ২১৬ ৮৮

অর্জন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ১ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]