মাথেইস দ্য লিখ্‌ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাথেইস দ্য লিখ্‌ট
Deligt-juventus-2019 (cropped).jpg
২০১৯ সালে ইয়ুভেন্তুসের হয়ে ডি লিখ্‌ট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মাথেইস দ্য লিখ্‌ট
জন্ম (1999-08-12) ১২ আগস্ট ১৯৯৯ (বয়স ২২)
জন্ম স্থান লেইডারডোর্প, নেদারল্যান্ডস
উচ্চতা ১.৮৮ মিটার[১]
মাঠে অবস্থান সেন্টারব্যাক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব
জুভেন্টাস
জার্সি নম্বর
যুব পর্যায়
২০০৮–২০১৬ আয়াক্স
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০১৬–২০১৭ ইয়ং আয়াক্স ১৭ (১)
২০১৬–২০১৯ আয়াক্স ৭৭ (৮)
২০১৯- ইয়ুভেন্তুস ৫৬ (৫)
জাতীয় দল
২০১৪ নেদারল্যান্ডস অনূর্ধ্ব-১৫ (০)
২০১৪–২০১৫ নেদারল্যান্ডস অনূর্ধ্ব-১৬ (০)
২০১৫–২০১৬ নেদারল্যান্ডস অনূর্ধ্ব-১৭ ১৪ (১)
২০১৬– নেদারল্যান্ডস অনূর্ধ্ব-১৯ (০)
২০১৭– নেদারল্যান্ডস ২৭ (২)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লীগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ২৩ মে ২০২১ তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ২ জুন ২০২১ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

মাথেইস দ্য লিখ্‌ট (ওলন্দাজ উচ্চারণ: [də ˈlɪxt]; জন্ম ১২ আগস্ট ১৯৯৯) হলেন একজন ওলন্দাজ পেশাদার ফুটবলার যিনি ইতালিয়ান পেশাদার ফুটবল লীগ সেরিয়ে আ ক্লাব জুভেন্টাস-এর হয়ে, একজন সেন্টারব্যাক হিসেবে খেলে থাকেন।[২]

ক্লাব খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

দ্য লিখ্‌ট হলেন জনপ্রিয় ওলন্দাজ ফুটবল ক্লাব এএফসি আয়াক্স-এর একজন তরুন খেলোয়াড়, যখন তার বয়স ছিলো মাত্র ৯ বছর তখন তিনি এই একাডেমিতে যোগ দেন। ২০১৬ সালের ৮ই আগস্ট মাসে, তিনি নেদারল্যান্ডসের দ্বিতীয় সারির লিগ এরস্তে দিভিসি-এ লিগের আরেক দল এফসি এম্মেন-এর বিপক্ষে খেলার মাধ্যমে পেশাদার ফুটবলে অভিষিক্ত হন, উক্ত খেলাটিতে তিনি পুরো সময় জুড়ে মাঠে ছিলেন।[৩] ২১শে সেপ্টেম্বর, আরেক ডাচ্ ফুটবল ক্লাব উইলেম II-এর বিপক্ষে তার ক্লাব আয়াক্স এর হয়ে কাপ চ্যাম্পিয়নশিপ খেলায় অভিষিক্ত হন। দি লিখ্ত ম্যাচটির ২৫তম মিনিটে একটি কর্নার থেকে গোল করেন, যেটি তাকে আরেক ডাচ্ খেলোয়াড় ক্লারেন্স সিডোর্ফ-এর পেছনে সর্বকালের দ্বিতীয় কোন কনিষ্ঠ গোলদাতা বানিয়ে দেয়। আয়াক্স খেলাটিতে ৫-০ গোল ব্যবধানে জয়লাভ করে।[৪] ২০১৬ সালের ২৪শে অক্টোবর, আয়াক্স তাদের টুইটার পেজের মাধ্যমে ঘোষণা করে যে, দি লিখ্ত কে তাদের জেষ্ঠ একাদশে উন্নিত করা হয়েছে।[৫]

আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ২৫শে মার্চ, দ্য লিখ্‌ট তার ক্লাব আয়াক্সের হয়ে মাত্র দুটি লিগ খেলায় অংশগ্রহণ করার পরেও নেদারল্যান্ডস জাতীয় দল-এর হয়ে বুলগেরিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে অভিষেক হয়, যেখানে তারা ২-০ ব্যবধানে হেরে যায়, যেটি তাকে ১৯৩১ সালে তার স্বদেশী খেলোয়াড় "মেওক ওয়েবার" এর পর নবীনতম হল্যান্ডের কোন অভিষিক্ত খেলোয়াড় বানিয়ে দেয়।

খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

ক্লাব[সম্পাদনা]

২৫ এপ্রিল ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[৬]
ক্লাব সিজন লিগ কাপ ইউরোপ1 অন্যান্য সর্বমোট
বিভাগ উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল
ইয়ং আয়াক্স ২০১৬–১৭ এরস্তে দিভিসি ১৭ ১৭
সর্বমোট ১৭ ১৭
আয়াক্স ২০১৬–১৭ এরেদিভিসি ১১ ২৩
২০১৭–১৮ ৩১ ৩৭
সর্বমোট ৪২ ১৩ ৬০
খেলোয়াড়ী জীবনে সর্বমোট ৫৯ ১৩ ৭৭

1 যার মধ্যে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ এবং ইউয়েফা ইউরোপা লিগ-এর ম্যাচ সমূহ অন্তর্ভুক্ত।

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

খেলা হয়েছিলো জুন ৪ ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[৭]
জাতীয় দল সাল উপস্থিতি গোল
নেদারল্যান্ডস ২০১৭
২০১৮
সর্বমোট

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Matthijs de Ligt"। Ajax.nl। ২ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুলাই ২০১৮ 
  2. "Netherlands – M. de Ligt – Profile with news, career statistics and history – Soccerway"। soccerway.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৬ 
  3. "Jong Ajax vs. Emmen – 8 August 2016 – Soccerway"। soccerway.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৬ 
  4. "De Ligt jongste scorende Ajacied na Seedorf"। Ajax.nl। 
  5. "Mooi nieuws voor Matthijs de Ligt: Peter Bosz heeft de verdediger per direct aan de A-selectie toegevoegd."। Ajax.nl। 
  6. "Nederland - M. de Ligt - Profile with news, career statistics and history"Soccerway। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৭ 
  7. https://us.soccerway.com/players/matthijs-de-ligt/399768/

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]