পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
উয়েফা
পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন.svg
প্রতিষ্ঠিত২০ ডিসেম্বর ১৯১৯; ১০০ বছর আগে (1919-12-20)[১][২]
সদর দপ্তরওয়ারশ, পোল্যান্ড
ফিফা অধিভুক্তি২০ এপ্রিল ১৯২৩; ৯৭ বছর আগে (1923-04-20)[২]
উয়েফা অধিভুক্তি২ মার্চ ১৯৫৫; ৬৫ বছর আগে (1955-03-02)
সভাপতিপোল্যান্ড জবিগনিয়েভ বোনিয়েক
সহ-সভাপতি
  • পোল্যান্ড ইয়ান বেদনারেক
  • পোল্যান্ড মারেক কোজমিনস্কি
  • পোল্যান্ড সেজারি কুলেশা
  • পোল্যান্ড এউগেনিউশ নোভাক
  • পোল্যান্ড আন্দ্রজেই পাদেভস্কি
ওয়েবসাইটwww.pzpn.pl

পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (পোলীয়: Polski Związek Piłki Nożnej, ইংরেজি: Polish Football Association; এছাড়াও সংক্ষেপে পিএফএ নামে পরিচিত) হচ্ছে পোল্যান্ডের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এই সংস্থাটি ১৯১৯ সালের ২০শে ডিসেম্বর তারিখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এটি প্রতিষ্ঠার ৪ বছর পর ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার সদস্যপদ লাভ করে, এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠার ৩৬ বছর পর ১৯৫৫ সালে সংস্থাটি তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফার সদস্যপদ লাভ করে। এই সংস্থার সদর দপ্তর পোল্যান্ডের রাজধানী ওয়ারশে অবস্থিত।

এই সংস্থাটি পোল্যান্ডের পুরুষ, নারী এবং অনূর্ধ্ব-২৩ দলের পাশাপাশি ঘরোয়া ফুটবলে একস্ত্রাকলাসা, আই লিগা, পোলীয় কাপ এবং পোলীয় সুপার কাপের মতো প্রতিযোগিতার সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে। বর্তমানে পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন জবিগনিয়েভ বোনিয়েক এবং সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন মাচি সাভিৎস্কি।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পূর্বে অস্ট্রীয় ফুটবল ইউনিয়নের অংশ ছিল স্বায়ত্তশাসিত পোলিশ ফুটবল ইউনিয়ন (পিএফইউ); এ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ১৯১৯ সালের ২০শে ডিসেম্বর তারিখে সম্পূর্ণ স্বাধীন ফেডারেশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। পিএফইউ লুভুতে ১৯১১ সালের ২৫শে জুন তারিখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।[৩] ১৯১১ এবং ১৯১৯-এর মধ্যে পোল্যান্ডের জাতীয় দল জার্নি লুয়ের স্টেডিয়ামে তিনটি খেলা খেলেছিল। দলটি মূলত লুভু শহরের খেলোয়াড়দের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছিল।

২০০৮ সালের সেপ্টেম্বরে, পিএজেডপিএনের নেতৃত্বকে "ধারাবাহিকভাবে এবং সুস্পষ্টরূপে তার বিধিমালার লঙ্ঘন করার জন্য" পোলীয় অলিম্পিক কমিটি স্থগিত করেছিল।[৪] এক বছর আগে, পোলীয় ক্রীড়া মন্ত্রকও পিজেডপিএনের দুর্নীতির সমাধানের চেষ্টা করেছিল, তবে ফিফার দ্বারা স্থগিতের হুমকি দেওয়া হয়েছিল, যা কোনও প্রকারের সরকারি হস্তক্ষেপকে নিষিদ্ধ করেছে।[৫] ৩০শে অক্টোবর ২০০৮ সালে গ্রজেগোর্স লাটো পিজেপিএন-এর সভাপতি হন। ২৬শে অক্টোবর ২০১২ সালে, ১১৮ জন প্রতিনিধিদের কাছ থেকে ৬১টি ভোট পেয়ে জিবিনউভ বোনিয়েক সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৬] এই ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন ২০১৯ ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের সময় তার শতবর্ষ পূরণ করে।

কর্মকর্তা[সম্পাদনা]

৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[২]
অবস্থান নাম
সভাপতি জবিগনিয়েভ বোনিয়েক
সহ-সভাপতি ইয়ান বেদনারেক
মারেক কোজমিনস্কি
সেজারি কুলেশা
এউগেনিউশ নোভাক
আন্দ্রজেই পাদেভস্কি
সাধারণ সম্পাদক মাচি সাভিৎস্কি
কোষাধ্যক্ষ এভা বাজান
গণমাধ্যম এবং যোগাযোগ পরিচালক ইয়াকুব কভিয়াতকোভস্কি
প্রযুক্তিগত পরিচালক স্তেফান মায়েভস্কি
ফুটসাল সমন্বয়কারী লুকাশ ভাচোভস্কি
জাতীয় দলের কোচ (পুরুষ) ইয়ের্জি ব্রজেচেক
জাতীয় দলের কোচ (নারী) মিলোশ স্তেপিনস্কি
রেফারি সমন্বয়কারী জবিগনিয়েভ প্রজেসমিৎস্কি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "History"Polish Football Association। ২০ জানুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৫ 
  2. "অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য"fifa.com (ইংরেজি ভাষায়)। ফিফা। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  3. Korzachenko, Yuri (২০১০-০১-১২)। Колиска українського футболу [Cradle of Ukrainian football] (Ukrainian ভাষায়)। Football Federation of Ukraine 
  4. "Administrator taking over scandal-hit Polish federation"AFP। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০০৮। ২০ মে ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. Slowikowska, Karolina (২০০৮-০৯-৩০)। "Polish FA suspended over corruption issues"Reuters 
  6. "Boniek becomes new head of Polish FA"Sports IllustratedAssociated Press। ২০১২-১০-২৬। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:পোলীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন