উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ
উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ লোগো ২.svg
প্রতিষ্ঠিত১৯৫৫; ৬৩ বছর আগে (১৯৫৫)
(১৯৯২ সালে পুনঃচিহ্নিত)
অঞ্চলইউরোপ (উয়েফা)
দলের সংখ্যা৩২ (গ্রুপ পর্ব)
৭৯, ৮০ অথবা ৮১ (সর্বমোট)
উন্নীতউয়েফা ইউরোপা লীগ
উয়েফা সুপার কাপ
ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ
সম্পর্কিত
প্রতিযোগিতা
উয়েফা ইউরোপা লীগ
বর্তমান চ্যাম্পিয়নরিয়াল মাদ্রিদ (১৩তম শিরোপা)
সর্বাধিক সফল দলরিয়াল মাদ্রিদ (১৩তম শিরোপা)
টেলিভিশন সম্প্রচারকসম্প্রচারকের তালিকা
ওয়েবসাইটuefa.com
২০১৮–১৯ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ

ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্লাবস' কাপের উত্তরসূরী উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ইউরোপের ক্লাব পর্যায়ের শীর্ষ দলগুলোকে অনুষ্ঠিত একটি ফুটবল প্রতিযোগিতা, ১৯৫৫ সাল থেকে যেটির আয়োজন করে আসছে ইউনিয়ন অব ইউরোপীয়ান ফুটবল এসোসিয়েশন (উয়েফা)।[১] এই প্রতিযোগিতার পুরস্কার ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্লাব'স কাপ (ইউরোপীয়ান কাপ নামে সমধিক পরিচিত) ক্লাব ফুটবলে জগতে সবচেয়ে গৌরবজনক হিসেবে বিবেচিত হয়। উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ উয়েফা কাপউয়েফা কাপ উইনার্স কাপ থেকে আলাদা প্রতিযোগিতা।

প্রতিযোগিতাটি কয়েকটি স্তরে বিভক্ত। বর্তমান ফরম্যাট অনুযায়ী মধ্য-জুলাই মাসে তিনটি প্রাথমিক নকআউট বাছাইপর্ব রয়েছে। বাছাই পর্ব থেকে উন্নীত ১৬টি দল আগে থেকে বাছাই করা ১৬টি দলের সাথে গ্রুপ পর্যায়ে প্রবেশ করে। গ্রুপ পর্যায়ের আটটি গ্রুপের বিজয়ী ও রানার্স-আপ নিয়ে ১৬টি দল মূল নকআউট স্তরে প্রবেশ করে। এই রাউন্ড ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে শুরু হয় এবং মে মাসে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। আগে কেবল বিভিন্ন লীগের চ্যাম্পিয়নদেরকেই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে দেয়া হত। ১৯৯৭ সাল থেকে বড় লীগের চ্যাম্পিয়নদের পাশাপাশি রানার্স-আপদেরও অংশ নিতে দেয়া হয়।

বিভিন্ন দল এই শিরোপা জিতেছে এবং অনেক দল একাধিক বার এই শিরোপা লাভ করেছে। এপর্যন্ত অনুষ্ঠিত আসর গুলোর মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদ রেকর্ড ১৩ বার এই শিরোপা জিতেছে। এসি মিলান জিতেছে ৭ বার, বায়ার্ন মিউনিখ, বার্সেলোনা এবং লিভারপুল ৫ বার, আয়াক্স আমস্টারডাম ৪ বার এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জিতেছে ৩ বার।

এই প্রতিযোগিতার বর্তমান শিরোপাধারী রিয়াল মাদ্রিদ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

যোগ্যতা নির্ধারন[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার বিভিন্ন পর্যায়[সম্পাদনা]

চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনাল[সম্পাদনা]

রেকর্ড ও পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা[সম্পাদনা]

বাছাই পর্বের খেলা বাদে

২৬শে মে ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[২][৩]
ক্রম খেলোয়াড় দেশ গোল উপস্থিতি অনুপাত বছর ক্লাব
1 ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো পর্তুগাল ১২০ ১৫৩ ০.৭৯ ২০০৩–বর্তমান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ
লিওনেল মেসি আর্জেন্টিনা ১০৫ ১২৭ ০.৮ ২০০৫–বর্তমান বার্সেলোনা
রাউল স্পেন ৭১ ১৪২ ০.৫ ১৯৯৫–২০১১ রিয়াল মাদ্রিদ, শালকে ০৪
রুড ফন নিস্টেলরয় নেদারল্যান্ডস ৫৬ ৭৩ ০.৭৭ ১৯৯৮–২০০৯ পিএসভি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ
করিম বেনজেমা ফ্রান্স ৫৬ ১০৪ ০.৫৩ ২০০৬–বর্তমান লিয়োঁ, রিয়াল মাদ্রিদ
থিয়েরি অঁরি ফ্রান্স ৫০ ১১২ ০.৪৫ ১৯৯৭–২০১০ মোনাকো, আর্সেনাল, বার্সেলোনা
আলফ্রেদো দি স্তিফানো আর্জেন্টিনাকলম্বিয়াস্পেন ৪৯ ৫৮ ০.৮৪ ১৯৫৫–১৯৬৪ রিয়াল মাদ্রিদ
আন্দ্রেই শেভচেঙ্কো ইউক্রেন ৪৮ ১০০ ০.৪৮ ১৯৯৪–২০১২ ডায়নামো কিয়েভ, মিলান, চেলসি
জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ সুইডেন ৪৮ ১২০ ০.৪ ২০০১-২০১৮ এএফসি আয়াক্স,ইন্টার মিলান,বার্সেলোনা,পারি সাঁ-জেরমাঁ,ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
১০ ইউসেবিও পর্তুগাল ৪৬ ৬৫ ০.৭১ ১৯৬১–১৯৭৪ বেনফিকা

গাঢ় অক্ষরের খেলোয়াড়রা এখনো ইউরোপে সক্রিয়

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Football's premier club competition"Union of European Football Associations। ৩১ জানুয়ারি ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০১০ 
  2. "Champions League"World Football। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৩ 
  3. "UEFA Champions League All time leading scorers"Stat Bunker। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]