২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ
Чемпионат мира по футболу 2018
নিলামে প্রদর্শিত লোগো
টুর্নামেন্টের বিবরণ
স্বাগতিক দেশ রাশিয়া
তারিখসমূহ ৮ জুন-৮ জুলাই
দলসমূহ ৩২ (নির্ধারিত) (৫ অথবা ৬টি কনফেডারেশন থেকে)
ভেন্যু(সমূহ) ১২ (১১টি আয়োজক শহরে)
নিলামে অংশগ্রহণকারী রুশ কর্মকর্তা ২০১৮ সালের বিশ্বকাপে রাশিয়ার স্বাগতিক দেশের কথা ঘোষণাপূর্বক উৎসব পালন করেন।

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ (ইংরেজি: 2018 FIFA World Cup) হচ্ছে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। এটি একটি আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা, যা ২০১৮ সালে পূর্ব ইউরোপ তথা আয়তনে বিশ্বের সর্ববৃহৎ দেশ রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে। পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ৮ জুন, ২০১৮ তারিখ থেকে ৮ জুলাই, ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতা রাশিয়ার ১৩টি শহরে অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও স্বাগতিক রাশিয়াসহ ৩২টি জাতীয় ফুটবল দল বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। এরফলে এশিয়া-ইউরোপ - এ দুই মহাদেশের সাথে সংশ্লিষ্ট রাশিয়ায় প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ফুটবল প্রতিযোগিতা আয়োজনে গৌরব লাভ করবে।[১][২][৩]

স্বাগতিক নির্বাচন প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

২০১৮ ও ২০২২ সালের ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক শহর নির্ধারণে নিলাম প্রক্রিয়া জানুয়ারি, ২০০৯ সালে শুরু হয়। বিশ্বের বিভিন্ন জাতীয় ফুটবল সংস্থাগুলো এর সাথে নিবন্ধিত হবার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে।[৪] শুরুতে নয়টি দেশের জাতীয় ফুটবল সংস্থা ২০১৮ সালের নিলামে অংশগ্রহণ করে। পরবর্তীতে মেক্সিকো নিলাম প্রক্রিয়া থেকে নাম প্রত্যাহার করে।[৫] এছাড়াও ফেব্রুয়ারি, ২০১০ সালে ইন্দোনেশীয় সরকার কর্তৃক নিলামের জন্য প্রয়োজনীয় পত্র দাখিল করতে ব্যর্থ হওয়ায় ফিফা ইন্দোনেশিয়াকে নিলাম প্রক্রিয়া থেকে দূরে রাখে।[৬] নিলাম প্রক্রিয়ায় উয়েফা বহির্ভূত তিনটি দেশ - অস্ট্রেলিয়া, জাপান এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিলাম থেকে চলে আসে ও উয়েফা দেশগুলো ২০২২ সালের নিলাম থেকে দূরে থাকে। ফলে, চারটি দরপত্র নিলামে সক্রিয় থাকে। সেগুলো হলো - ইংল্যান্ড, রাশিয়া, নেদারল্যান্ডস/বেলজিয়াম এবং স্পেন/পর্তুগাল।

২২ সদস্যবিশিষ্ট ফিফা নির্বাহী পরিষদ ২ ডিসেম্বর, ২০১০ তারিখে উভয় প্রতিযোগিতার জন্য স্বাগতিক দেশ নির্ধারণে জুরিখে ভোটের আয়োজন করে।[৭] রাশিয়া দ্বিতীয় পর্বের ভোটে স্বাগতিক দেশের মর্যাদা পায়। স্পেন/পর্তুগাল দ্বিতীয় এবং বেলজিয়াম/নেদারল্যান্ডস তৃতীয় স্থান লাভ করে। প্রথম-পর্বেই ইংল্যান্ড দ্বিতীয়বারের মতো স্বাগতিক দেশের মর্যাদা লাভ থেকে বঞ্চিত হয়।[৮]

ভোটের ফলাফল নিম্নরূপ ছিল:[৯]

২০১৮ ফিফা নিলাম প্রক্রিয়া (সংখ্যাগরিষ্ঠ ১২ ভোট)
নিলামে অংশগ্রহণকারী দেশ ভোট
প্রথম-পর্ব দ্বিতীয়-পর্ব
 রাশিয়া ১৩
 পর্তুগাল/ স্পেন
 বেলজিয়াম/ নেদারল্যান্ডস
 ইংল্যান্ড বিদায়

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Russia united for 2018 FIFA World Cup Host Cities announcement"। FIFA.com। সংগৃহীত ১৩ নভেম্বর ২০১৩ 
  2. "FIFA Picks Cities for World Cup 2018"। En.rsport.ru। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১২। সংগৃহীত ১৩ নভেম্বর ২০১৩ 
  3. "Russia budget for 2018 Fifa World Cup nearly doubles"। BBC News। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১২। সংগৃহীত ১৩ নভেম্বর ২০১৩ 
  4. Goff, Steve (১৬ জানুয়ারি ২০০৯)। "Future World Cups"The Washington Post। সংগৃহীত ১৬ জানুয়ারি ২০০৯ 
  5. "Mexico withdraws FIFA World Cup bid"। FIFA। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০০৯। সংগৃহীত ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  6. "Indonesia's bid to host the 2022 World Cup bid ends"BBC Sport। ১৯ মার্চ ২০১০। ২০ মার্চ ২০১০-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত ১৯ মার্চ ২০১০ 
  7. "Combined bidding confirmed"FIFA। ২০ ডিসেম্বর ২০০৮। ২২ জানুয়ারি ২০০৯-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত ২০ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  8. "England miss out to Russia in 2018 World Cup Vote"BBC News। ২ ডিসেম্বর ২০১০। ৩ ডিসেম্বর ২০১০-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত ২ ডিসেম্বর ২০১০ 
  9. Doyle, Paul; Busfield, Steve (২ ডিসেম্বর ২০১০)। "World Cup 2018 and 2022 decision day - live!"The Guardian (London)। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]