২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব (এএফসি)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব (এএফসি)
টুর্নামেন্টের বিবরণ
তারিখসমূহ১২ মার্চ ২০১৫ – ১০ অক্টোবর ২০১৭
দলসমূহ৪৬ (১টি কনফেডারেশন থেকে)
প্রতিযোগিতার পরিসংখ্যান
ম্যাচ খেলেছে২২৬
গোল সংখ্যা৬৬৫ (ম্যাচ প্রতি ২.৯৪টি)
উপস্থিতি৪৩,৭৭,৫৮৫ (ম্যাচ প্রতি ১৯,৩৭০ জন)
শীর্ষ গোলদাতাসৌদি আরব মোহাম্মদ আল-সাহলাউই
সংযুক্ত আরব আমিরাত আহমেদ খলিল
(প্রত্যেকে ১৬ গোল করে)

রাশিয়ায় আয়োজিত ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণ করার জন্য এশিয়া অঞ্চলের ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব আয়োজিত হয়েছে, যেখানে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) অধীনস্থ সকল জাতীয় দল অংশগ্রহণ করেছে। এই অঞ্চল থেকে সর্বমোট ৪.৫ দল (৪টি সরাসরি স্থান এবং ১টি আন্তঃ-কনফেডারেশন প্লে-অফ স্থান) ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করার অধিকার রয়েছে।[১]

২০১৪ সালের ১৬ এপ্রিলে, এএফসি নির্বাহী কমিটি ফিফা বিশ্বকাপ এবং এএফসি এশীয় কাপের প্রাথমিক চূড়ান্ত পর্যায়কে একত্রিত করার প্রস্তাব অনুমোদন করে, যার ফলে ২০১৯ সাল থেকে এএফসি এশিয়ান কাপে ২৪টি দল অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাবে।[২] এই কারণে ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রথম দুইটি পর্ব সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাইপর্ব হিসেবে কাজ করেছে।

পদ্ধতি[সম্পাদনা]

এই বাছাইপর্ব হতে উত্তীর্ণ হওয়ার নিয়মাবলী নিম্নরূপ:[২][৩]

  • প্রথম পর্ব: সর্বমোট ১২টি দল (যে সকল দলের অবস্থান ৩৫–৪৬) দুই লেগের হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। এই পর্বে বিজয়ী ৬টি দল দ্বিতীয় পর্বে খেলার জন্য অগ্রসর হয়েছে।
  • দ্বিতীয় পর্ব: সর্বমোট ৪০টি দল (যে সকল দলের অবস্থান ১–৩৪ এবং প্রথম পর্বে বিজয়ী ৬ দল) ৮টি গ্রুপে বিভক্ত থাকবে যেখানে তারা রাউন্ড-রবিন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। ৮টি গ্রুপের বিজয়ী দল এবং ৪ গ্রুপ সেরা রানার-আপ ফিফা বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্বে এবং ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপে খেলার জন্য অগ্রসর হয়েছে।
  • তৃতীয় পর্ব: সর্বমোট ১২টি দল (পূর্বে ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ১০টি দল ছিল) এই পর্বে দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে রাউন্ড-রবিন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুই দল ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার জন্য অগ্রসর হয়েছে, এবং দুটি দলের ৩য় স্থান অধিকারী দল চতুর্থ পর্বের জন্য অগ্রসর হয়েছে।
  • চতুর্থ পর্ব: তৃতীয় পর্বের দুই গ্রুপের ৩য় স্থান অধিকারী দুই দল দুই লেগের হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। এই পর্বের বিজয়ী দল আন্তঃ-কনফেডারেশন প্লে-অফে খেলার জন্য অগ্রসর হয়েছে, যেখানে উক্ত দল কনকাকাফে ৪র্থ স্থান অধিকারী দলের বিরুদ্ধে খেলেছে।

সর্বমোট ২৪টি দল এই বারের দ্বিতীয় পর্বের খেলা হতে বাদ পড়েছে, যারা ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্বে (যা এই আসরের বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্ব থেকে সম্পূর্ণ আলাদা) অংশগ্রহণ করবে। সেখানে তারা ৪টি দল করে ৬টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করবে। উক্ত প্রতিযোগিতার তৃতীয় পর্বে অংশগ্রহণকারী ২৪টি দলের মধ্য হতে ১টি দল বাদ পড়বে, এবং শীর্ষ ৮টি দল ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বে অংশগ্রহণ করবে যেখানে বাদ পড়া ১২টি দল দ্বিতীয় পর্বে প্রতিযোগিতা করবে।[৪]

প্রবেশক[সম্পাদনা]

এএফসি থেকে ফিফা-অনুমোদিত ৪৬টি দেশ এই বাছাইপর্বে প্রবেশের যোগ্যতা অর্জন করেছে।[৫] প্রথম পর্বে কোন কোন দেশ প্রতিযোগিতা করবে এবং কোন দেশ দ্বিতীয় পর্বের মধ্য দিয়ে বিদায়ের স্বাদ গ্রহণ করবে তা নির্ধারণ করতে ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসের ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং (যা নিচের টেবিলের প্রথম বন্ধনীর মধ্যে প্রকাশিত) ব্যবহার করা হয়েছিল, উক্ত র‌্যাঙ্কিং প্রথম পর্ব পর প্রকাশিত হয়েছিল। এর পূর্বে, ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে প্রকাশিত ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং প্রথম পর্বের ড্রয়ের জন্যও ব্যবহৃত হয়েছিল; তবে, দ্বিতীয় পর্বে এবং তৃতীয় পর্বের ড্রয়ের জন্য, ড্রয়ের আগে সর্বশেষ ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং ব্যবহার করা হয়েছিল।

জানুয়ারী ২০১৫ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[৬]
সরাসরি দ্বিতীয় পর্বে উত্তীর্ণ দলসমূহ
(১ম থেকে ৩৪তম স্থানে অবস্থান)
প্রথম পর্বে প্রতিযোগিতাকারী দলসমূহ
(৩৫তম থেকে ৪৬তম স্থানে অবস্থান)

সময়তালিকা[সম্পাদনা]

এশিয়া অঞ্চলের বাছাইপর্বের সময়তালিকা নিম্নে উল্লেখ করা হলো:[৭][৮][৯]

পর্ব ম্যাচদিন তারিখ
প্রথম পর্ব প্রথম লেগ ১২ মার্চ ২০১৫
দ্বিতীয় লেগ ১৭ মার্চ ২০১৫
দ্বিতীয় পর্ব ম্যাচদিন ১ ১১ জুন ২০১৫
ম্যাচদিন ২ ১৬ জুন ২০১৫
ম্যাচদিন ৩ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫
ম্যাচদিন ৪ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫
ম্যাচদিন ৫ ৮ অক্টোবর ২০১৫
ম্যাচদিন ৬ ১৩ অক্টোবর ২০১৫
ম্যাচদিন ৭ ১২ নভেম্বর ২০১৫
ম্যাচদিন ৮ ১৭ নভেম্বর ২০১৫
ম্যাচদিন ৯ ২৪ মার্চ ২০১৬
ম্যাচদিন ১০ ২৯ মার্চ ২০১৬
পর্ব ম্যাচদিন তারিখ
তৃতীয় পর্ব ম্যাচদিন ১ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ম্যাচদিন ২ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ম্যাচদিন ৩ ৬ অক্টোবর ২০১৬
ম্যাচদিন ৪ ১১ অক্টোবর ২০১৬
ম্যাচদিন ৫ ১৫ নভেম্বর ২০১৬
ম্যাচদিন ৬ ২৩ মার্চ ২০১৭
ম্যাচদিন ৭ ২৮ মার্চ ২০১৭
ম্যাচদিন ৮ ১৩ জুন ২০১৭
ম্যাচদিন ৯ ৩১ আগস্ট ২০১৭
ম্যাচদিন ১০ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭
চতুর্থ পর্ব প্রথম লেগ ৫ অক্টোবর ২০১৭
দ্বিতীয় লেগ ১০ অক্টোবর ২০১৭

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের আন্তঃ-কনফেডারেশন প্লে-অফ ২০১৭ সালের ৬–১৪ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১০]

প্রথম পর্ব[সম্পাদনা]

সর্বমোট ১২টি দল (এএফসি প্রবেশক তালিকায় যে সকল দলের অবস্থান ৩৫–৪৬) দুই লেগের হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। এই পর্ব হতে ৬ বিজয়ী দল দ্বিতীয় পর্বে অগ্রসর হয়েছে।

ড্র[সম্পাদনা]

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রথম পর্বের ড্র ২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি, ১৫:৩০ এমএসকে (ইউটিসি+৮) সময়ে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে অবস্থিত এএফসি হাউসে অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১১]

২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে প্রকাশিত ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী (যা নিচের টেবিলের প্রথম বন্ধনীর মধ্যে প্রকাশিত) প্রথম পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[১২][১৩] এই পর্বের ১২টি দলকে দুটি পাত্রে বিভক্ত করা হয়েছে:

প্রতি ড্রয়ের জন্য পাত্র এ থেকে একটি এবং পাত্র বি হতে একটি করে দল নেওয়া হয়েছে। প্রতি খেলার প্রথম লেগ পাত্র এ-এর দল নিজের মাঠে খেলবে।

নোট: গাঢ় চিহ্নিত দলগুলো দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।

পাত্র এ পাত্র বি
  1.    নেপাল (১৮৬)
  2.  মাকাও (১৮৬)
  3.  পাকিস্তান (১৮৮)
  4.  মঙ্গোলিয়া (১৯৪)
  5.  ব্রুনাই (১৯৮)
  6.  ভুটান (২০৯)

ম্যাচসমূহ[সম্পাদনা]

দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
ভারত  ২–০    নেপাল ২–০ ০–০
ইয়েমেন  ৩–১  পাকিস্তান ৩–১ ০–০
পূর্ব তিমুর  ৫–১  মঙ্গোলিয়া ৪–১ ১–০
কম্বোডিয়া  ৪–১  মাকাও ৩–০ ১–১
চীনা তাইপেই  ২–১  ব্রুনাই ০–১ ২–০
শ্রীলঙ্কা  ১–৩  ভুটান ০–১ ১–২

ভারত সামগ্রিকভাবে ২–০ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।


ইয়েমেন সামগ্রিকভাবে ৩–১ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।


পূর্ব তিমুর ৪–১
স্বেচ্ছায় ত্যাগ[২১]
 মঙ্গোলিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (এএফসি)
মঙ্গোলিয়া ০–১
স্বেচ্ছায় ত্যাগ[২১]
 পূর্ব তিমুর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (এএফসি)
দর্শক সংখ্যা: ৫,০০০
রেফারি: ওয়াং ডি (চীন)

পূর্ব তিমুর সামগ্রিকভাবে ৫–১ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।


কম্বোডিয়া সামগ্রিকভাবে ৪–১ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।


চাইনিজ তাইপেই সামগ্রিকভাবে ২–১ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।


ভুটান সামগ্রিকভাবে ৩–১ গোলে জয়লাভ করেছে এবং দ্বিতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।

নোট[সম্পাদনা]

  1. ২০১৪–১৫ সালের ইয়েমেনি অভ্যুত্থানের জন্য ইয়েমেন কাতারের দোহায় তাদের হোম ম্যাচ খেলেছে।[১৪]
  2. পাকিস্তান মূলত ২০১৫ সালের ১৭ মার্চ (১৫:০০ ইউটিসি+৫) তারিখে পাঞ্জাব স্টেডিয়াম, লাহোরে[১৫] তাদের হোম ম্যাচ খেলার জন্য নির্ধারিত ছিল, তবে লাহোর চার্চ বোমা হামলা ও বেসামরিক অস্থিতিশীলতার কারণে এই খেলা স্থগিত করা হয়েছিল।[১৬][১৭] পরবর্তীতে এই খেলাটি বাহরাইনে আয়োজন করার জন্য পুনঃনির্ধারিত করা হয়েছিল।[১৮][১৯][২০]

দ্বিতীয় পর্ব[সম্পাদনা]

সর্বমোট ৪০টি দল (যে সকল দলের অবস্থান ১–৩৪ এবং প্রথম পর্বে বিজয়ী ৬ দল) ৮টি গ্রুপে বিভক্ত থাকবে যেখানে তারা রাউন্ড-রবিন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে হোম-এন্ড-অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলায় অংশগ্রহণ করেছে। ৮টি গ্রুপের বিজয়ী দল এবং ৪ গ্রুপ সেরা রানার-আপ ফিফা বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্বে এবং ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপে খেলার জন্য অগ্রসর হয়েছে।

সর্বমোট ২৪টি দল এই বারের দ্বিতীয় পর্বের খেলা হতে বাদ পড়েছে, যারা ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্বে (যা এই আসরের বাছাইপর্বের তৃতীয় পর্ব থেকে সম্পূর্ণ আলাদা) অংশগ্রহণ করবে। সেখানে তারা ৪টি দল করে ৬টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করবে। উক্ত প্রতিযোগিতার তৃতীয় পর্বে অংশগ্রহণকারী ২৪টি দলের মধ্য হতে ১টি দল বাদ পড়বে, এবং শীর্ষ ৮টি দল ২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বে অংশগ্রহণ করবে যেখানে বাদ পড়া ১২টি দল দ্বিতীয় পর্বে প্রতিযোগিতা করবে।[৪]

ড্র[সম্পাদনা]

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দ্বিতীয় পর্বের ড্র ২০১৫ সালের ১৭ এপ্রিল, ১৭:০০ এমএসকে (ইউটিসি+৮) সময়ে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে অবস্থিত জেডাব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।[২২][২৩]

২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে প্রকাশিত ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী (যা নিচের টেবিলের প্রথম বন্ধনীর মধ্যে প্রকাশিত) দ্বিতীয় পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে।[২৪] এই পর্বের ৪০টি দলকে ৫টি পাত্রে বিভক্ত করা হয়েছে:[২৫]

  • পাত্র ১-এ যে সকল দলের অবস্থান ১–৮ তারা স্থান করে নিয়েছে।
  • পাত্র ২-এ যে সকল দলের অবস্থান ৯–১৬ তারা স্থান করে নিয়েছে।
  • পাত্র ৩-এ যে সকল দলের অবস্থান ১৭–২৪ তারা স্থান করে নিয়েছে।
  • পাত্র ৪-এ যে সকল দলের অবস্থান ২৫–৩২ তারা স্থান করে নিয়েছে।
  • পাত্র ৫-এ যে সকল দলের অবস্থান ৩৩–৪০ তারা স্থান করে নিয়েছে।

প্রতি পাত্র থেকে প্রতি গ্রুপে একটি করে দল অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। প্রতি গ্রুপের সময়তালিকা তাদের পাত্রের ওপর নির্ভর করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরি করা হয়েছে।

যেহেতু এই পর্বের ড্র আয়োজিত হওয়ার পূর্বে ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে প্রকাশিত ফিফা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং অনুসারে এই পর্বের ড্র করা হয়েছে, তাই এএফসি প্রবেশক তালিকা হতে এর অবস্থানে পার্থক্য বিদ্যমান। প্রথম পর্বে বিজয়ী ৬ দলের মধ্যে সর্বোচ্চ সাফল্য অধিকারী ৩ দলকে পাত্র ৫-এর ওপরে (ভারত পাত্র ৩-এ, পূর্ব-তিমুর এবং ভূটান পাত্র ৪-এ) স্থান দেওয়া হয়েছে, অন্যদিকে বাকি ৩ দলকে পাত্র ৫-এ (ইয়েমেন, কম্বোডিয়া এবং চাইনিজ তাইপেই) স্থান দেওয়া হয়েছে।

নোট: গাঢ় চিহ্নিত দলগুলো তৃতীয় পর্বের জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে।

পাত্র ১ পাত্র ২ পাত্র ৩
  1.  সৌদি আরব (৯৫)
  2.  ওমান (৯৭)
  3.  কাতার (৯৯)
  4.  জর্দান (১০৩)
  5.  বাহরাইন (১০৮)
  6.  ভিয়েতনাম (১২৫)
  7.  সিরিয়া (১২৬)
  8.  কুয়েত (১২৭)
পাত্র ৪ পাত্র ৫

গ্রুপ[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 সৌদি আরব ২৮ +২৪ ২০ Third round and Asian Cup 2–1 3–2 2–0 7–0
 সংযুক্ত আরব আমিরাত ২৫ +২১ ১৭ 1–1 2–0 10–0 8–0
 ফিলিস্তিন ২২ +১৬ ১২ Asian Cup qualifying third round 0–0 0–0 6–0 7–0
 মালয়েশিয়া ৩০ −২৭ Asian Cup qualifying play-off round 0–3[ক] 1–2 0–6 1–1
 পূর্ব তিমুর ৩৬ −৩৪ 0–10 0–1 1–1 0–1
উৎস: ফিফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: বাছাইপর্বের টাইব্রেকার
টীকা:
  1. The Malaysia v Saudi Arabia match, on 8 September 2015, was abandoned during the 87th minute after a group of supporters threw objects onto the pitch. At the time of the abandonment the score was 2–1 to Saudi Arabia. On 5 October 2015, FIFA decided that this match was forfeited by Malaysia and the result to be declared as a 3–0 win awarded for Saudi Arabia.[২৭][২৮]
মালয়েশিয়া 1–1
Forfeited[২১]
 পূর্ব তিমুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 5,000
রেফারি: Jarred Gillett (Australia)
সৌদি আরব 3–2 ফিলিস্তিন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,820
রেফারি: Abdulrahman Al-Jassim (Qatar)

পূর্ব তিমুর 0–1
Forfeited[২১]
 সংযুক্ত আরব আমিরাত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 200
রেফারি: Ma Ning (China)
মালয়েশিয়া 0–6 ফিলিস্তিন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 3,000
রেফারি: Kim Sang-woo (South Korea)

সংযুক্ত আরব আমিরাত 10–0 মালয়েশিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,822
রেফারি: Abdulrahman Al-Jassim (Qatar)
সৌদি আরব 7–0
Forfeited[২১]
 পূর্ব তিমুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 11,000
রেফারি: Timur Faizullin (Kyrgyzstan)

মালয়েশিয়া 0–3
Awarded[note ৩]
 সৌদি আরব
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,000
রেফারি: Liu Kwok Man (Hong Kong)
ফিলিস্তিন 0–0 সংযুক্ত আরব আমিরাত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 15,000
রেফারি: Ali Sabah Adday Al-Qaysi (Iraq)

পূর্ব তিমুর 1–1
Forfeited[২১]
 ফিলিস্তিন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,000
রেফারি: Kim Dong-jin (South Korea)
সৌদি আরব 2–1 সংযুক্ত আরব আমিরাত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 32,482

পূর্ব তিমুর 0–1
Forfeited[২১]
 মালয়েশিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,500
রেফারি: Kim Hee-gon (South Korea)

ফিলিস্তিন 0–0 সৌদি আরব
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,000
রেফারি: Adham Makhadmeh (Jordan)

ফিলিস্তিন 6–0 মালয়েশিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 9,772
রেফারি: Ahmed Al-Kaf (Oman)
সংযুক্ত আরব আমিরাত 8–0 পূর্ব তিমুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,870
রেফারি: Mohsen Torky (Iran)

পূর্ব তিমুর 0–10 সৌদি আরব
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,000
রেফারি: Alan Milliner (Australia)
মালয়েশিয়া 1–2 সংযুক্ত আরব আমিরাত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 100[note ৩]
রেফারি: Masaaki Toma (Japan)

সংযুক্ত আরব আমিরাত 2–0 ফিলিস্তিন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 15,822
রেফারি: Ben Williams (Australia)
সৌদি আরব 2–0 মালয়েশিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 34,839
রেফারি: Kim Dong-jin (South Korea)

ফিলিস্তিন 7–0 পূর্ব তিমুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,000
রেফারি: Hettikamkanamge Perera (Sri Lanka)
সংযুক্ত আরব আমিরাত 1–1 সৌদি আরব
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 32,325
রেফারি: Nawaf Shukralla (Bahrain)

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group B table

বাংলাদেশ 1–3 কিরগিজিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,000
রেফারি: Sukhbir Singh (Singapore)
তাজিকিস্তান 1–3 জর্দান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,000
রেফারি: Mohsen Torky (Iran)

বাংলাদেশ 1–1 তাজিকিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 12,000
রেফারি: Lee Min-hu (South Korea)
কিরগিজিস্তান 1–2 অস্ট্রেলিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 18,000
রেফারি: Khamis Al-Marri (Qatar)

অস্ট্রেলিয়া 5–0 বাংলাদেশ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,495
রেফারি: Võ Minh Trí (Vietnam)
জর্দান 0–0 কিরগিজিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 5,012
রেফারি: Mohd Amirul Izwan Yaacob (Malaysia)

বাংলাদেশ 0–4 জর্দান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 12,000
রেফারি: Yu Ming-hsun (Chinese Taipei)
তাজিকিস্তান 0–3 অস্ট্রেলিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,000
রেফারি: Jameel Abdulhusin (Bahrain)

জর্দান 2–0 অস্ট্রেলিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 11,462
রেফারি: Masaaki Toma (Japan)
কিরগিজিস্তান 2–2 তাজিকিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 17,600
রেফারি: Mooud Bonyadifard (Iran)

কিরগিজিস্তান 2–0 বাংলাদেশ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 12,001
রেফারি: Jameel Abdulhusin (Bahrain)
জর্দান 3–0 তাজিকিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 15,000
রেফারি: Abdullah Al Hilali (Oman)

অস্ট্রেলিয়া 3–0 কিরগিজিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,412
রেফারি: Kim Sang-woo (South Korea)
তাজিকিস্তান 5–0 বাংলাদেশ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 5,500
রেফারি: Ali Sabah Adday Al-Qaysi (Iraq)

বাংলাদেশ 0–4 অস্ট্রেলিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,730
রেফারি: Wang Di (China)
কিরগিজিস্তান 1–0 জর্দান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 14,000
রেফারি: Çarymyrat Kurbanow (Turkmenistan)

অস্ট্রেলিয়া 7–0 তাজিকিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 35,439
রেফারি: Fahad Al-Marri (Qatar)
জর্দান 8–0 বাংলাদেশ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,000

অস্ট্রেলিয়া 5–1 জর্দান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 24,975
রেফারি: Kim Jong-hyeok (South Korea)
তাজিকিস্তান 0–1 কিরগিজিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,500
রেফারি: Aziz Asimov (Uzbekistan)

গ্রুপ সি[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group C table

হংকং 7–0 ভুটান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,326
রেফারি: Çarymyrat Kurbanow (Turkmenistan)
মালদ্বীপ 0–1 কাতার
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 9,000
রেফারি: Yudai Yamamoto (Japan)

ভুটান 0–6 গণচীন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,000
রেফারি: Rowan Arumughan (India)
হংকং 2–0 মালদ্বীপ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,370
রেফারি: Adham Makhadmeh (Jordan)

গণচীন 0–0 হংকং
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 26,173
রেফারি: Strebre Delovski (Australia)
কাতার 15–0 ভুটান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,022
রেফারি: Mohammad Abu Loum (Jordan)

মালদ্বীপ 0–3 গণচীন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 28,036
রেফারি: Sukhbir Singh (Singapore)
হংকং 2–3 কাতার
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,396
রেফারি: Kim Sang-woo (South Korea)

ভুটান 3–4 মালদ্বীপ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,000
রেফারি: Tayeb Shamsuzzaman (Bangladesh)
কাতার 1–0 গণচীন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,730
রেফারি: Ko Hyung-jin (South Korea)

ভুটান 0–1 হংকং
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,280
রেফারি: Aziz Asimov (Uzbekistan)
কাতার 4–0 মালদ্বীপ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,006
রেফারি: Ahmed Al-Kaf (Oman)

মালদ্বীপ 0–1 হংকং
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,000
গণচীন 12–0 ভুটান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 27,358
রেফারি: Marai Al-Awaji (Saudi Arabia)

ভুটান 0–3 কাতার
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,128
রেফারি: Ilgiz Tantashev (Uzbekistan)
হংকং 0–0 গণচীন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,071
রেফারি: Nawaf Shukralla (Bahrain)

গণচীন 4–0 মালদ্বীপ
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 32,618
রেফারি: Ali Sabah Adday Al-Qaysi (Iraq)
কাতার 2–0 হংকং
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,170
রেফারি: Dmitriy Mashentsev (Kyrgyzstan)

গণচীন 2–0 কাতার
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 46,718
রেফারি: Mohd Amirul Izwan Yaacob (Malaysia)
মালদ্বীপ 4–2 ভুটান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,102
রেফারি: Kim Sang-woo (South Korea)

গ্রুপ ডি[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group D table

গুয়াম 1–0 তুর্কমেনিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 3,000
রেফারি: Wang Di (China)
ভারত 1–2 ওমান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 19,312
রেফারি: Ko Hyung-jin (South Korea)

গুয়াম 2–1 ভারত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 3,277
রেফারি: Võ Minh Trí (Vietnam)
তুর্কমেনিস্তান 1–1 ইরান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,000
রেফারি: Jameel Abdulhusin (Bahrain)

ইরান 6–0 গুয়াম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 11,232
রেফারি: Khamis Al-Marri (Qatar)
ওমান 3–1 তুর্কমেনিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,500

গুয়াম 0–0 ওমান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,239
রেফারি: Hiroyuki Kimura (Japan)
ভারত 0–3
Awarded[note ৬]
 ইরান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 14,500

তুর্কমেনিস্তান 2–1 ভারত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 20,100
রেফারি: Masoud Tufayelieh (Syria)
ওমান 1–1 ইরান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 12,400
রেফারি: Valentin Kovalenko (Uzbekistan)

তুর্কমেনিস্তান 1–0 গুয়াম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 20,200
রেফারি: Turki Al-Khudhayr (Saudi Arabia)
ওমান 3–0 ভারত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 11,000
রেফারি: Fahad Al-Marri (Qatar)

ইরান 3–1 তুর্কমেনিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 35,800
রেফারি: Kim Dong-jin (South Korea)
ভারত 1–0 গুয়াম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,277
রেফারি: Jarred Gillett (Australia)

গুয়াম 0–6 ইরান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,087
রেফারি: Ho Wai Sing (Hong Kong)
তুর্কমেনিস্তান 2–1 ওমান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 23,100
রেফারি: Ma Ning (China)

ইরান 4–0 ভারত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 29,160
রেফারি: Võ Minh Trí (Vietnam)
ওমান 1–0 গুয়াম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 8,000
রেফারি: Jameel Abdulhusin (Bahrain)

ভারত 1–2 তুর্কমেনিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 3,111
রেফারি: Khamis Al-Marri (Qatar)
ইরান 2–0 ওমান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 33,850
রেফারি: Minoru Tōjō (Japan)

গ্রুপ ই[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group E table

কম্বোডিয়া 0–4 সিঙ্গাপুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 63,000
রেফারি: Liu Kwok Man (Hong Kong)
আফগানিস্তান 0–6 সিরিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,647
রেফারি: Ilgiz Tantashev (Uzbekistan)

জাপান 0–0 সিঙ্গাপুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 57,533
রেফারি: Mohanad Qasim Eesee Sarray (Iraq)
কম্বোডিয়া 0–1 আফগানিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 55,000
রেফারি: Marai Al-Awaji (Saudi Arabia)

জাপান 3–0 কম্বোডিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 54,716
রেফারি: Kim Hee-gon (South Korea)
সিরিয়া 1–0 সিঙ্গাপুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 100
রেফারি: Yousef Al-Marzouq (Kuwait)

কম্বোডিয়া 0–6 সিরিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 35,000
রেফারি: Wang Di (China)
আফগানিস্তান 0–6 জাপান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 8,650
রেফারি: Khamis Al-Kuwari (Qatar)

সিঙ্গাপুর 1–0 আফগানিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 5,400
রেফারি: Ng Chiu Kok (Hong Kong)
সিরিয়া 0–3 জাপান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 680
রেফারি: Ravshan Irmatov (Uzbekistan)

সিঙ্গাপুর 2–1 কম্বোডিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 6,650
রেফারি: Kim Dae-yong (South Korea)
সিরিয়া 5–2 আফগানিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 200
রেফারি: Dmitriy Mashentsev (Kyrgyzstan)

সিঙ্গাপুর 0–3 জাপান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 33,868
রেফারি: Fahad Al-Mirdasi (Saudi Arabia)
আফগানিস্তান 3–0 কম্বোডিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,585
রেফারি: Adham Makhadmeh (Jordan)

সিঙ্গাপুর 1–2 সিরিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 7,468
রেফারি: Kim Jong-hyeok (South Korea)
কম্বোডিয়া 0–2 জাপান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 29,871
রেফারি: Fu Ming (China)

জাপান 5–0 আফগানিস্তান
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 48,967
রেফারি: Mohanad Qasim Eesee Sarray (Iraq)
সিরিয়া 6–0 কম্বোডিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 100
রেফারি: Chris Beath (Australia)

আফগানিস্তান 2–1 সিঙ্গাপুর
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 24,500
রেফারি: Fu Ming (China)
জাপান 5–0 সিরিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 57,475
রেফারি: Alireza Faghani (Iran)

গ্রুপ এফ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group F table

থাইল্যান্ড 1–0 ভিয়েতনাম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 40,500
রেফারি: Ben Williams (Australia)

চীনা তাইপেই 0–2 থাইল্যান্ড
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 18,168
রেফারি: Ali Shaban (Kuwait)

ইরাক 5–1 চীনা তাইপেই
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,200
রেফারি: Yaqoob Abdul Baki (Oman)

চীনা তাইপেই 1–2 ভিয়েতনাম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 20,239
রেফারি: Kim Dae-yong (South Korea)
থাইল্যান্ড 2–2 ইরাক
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 43,572
রেফারি: Masaaki Toma (Japan)

ভিয়েতনাম 1–1 ইরাক
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 10,000
রেফারি: Chris Beath (Australia)

ভিয়েতনাম 0–3 থাইল্যান্ড
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 35,000
রেফারি: Nawaf Shukralla (Bahrain)

থাইল্যান্ড 4–2 চীনা তাইপেই
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 50,000
রেফারি: Dmitriy Mashentsev (Kyrgyzstan)

চীনা তাইপেই 0–2 ইরাক
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 11,960
রেফারি: Jumpei Iida (Japan)

ভিয়েতনাম 4–1 চীনা তাইপেই
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 18,350
রেফারি: Adham Makhadmeh (Jordan)
ইরাক 2–2 থাইল্যান্ড
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 4,000
রেফারি: Abdulrahman Al-Jassim (Qatar)

ইরাক 1–0 ভিয়েতনাম
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,160
রেফারি: Peter Green (Australia)

গ্রুপ জি[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2018 FIFA World Cup qualification – AFC Second Round Group G table

লাওস 2–2 মিয়ানমার
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 1,500
রেফারি: Tan Hai (China)
লেবানন 0–1 কুয়েত
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 15,215
রেফারি: Valentin Kovalenko (Uzbekistan)

মিয়ানমার 0–2 দক্ষিণ কোরিয়া
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 1,090
রেফারি: Ahmed Al-Kaf (Oman)
লাওস 0–2 লেবানন
Report (FIFA)
Report (AFC)
দর্শক সংখ্যা: 2,500
রেফারি: Yu Ming-hsun (Chinese Taipei)

দক্ষিণ কোরিয়া 8–0 লাওস