সিঙ্গাপুর জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিঙ্গাপুর
ডাকনামসিংহ
অ্যাসোসিয়েশনসিঙ্গাপুর ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনএএফসি (এশিয়া)
প্রধান কোচতাতসুমা ইয়োশিদা
অধিনায়কহারিস হারুন
সর্বাধিক ম্যাচড্যানিয়েল বেনেট (১৪৫)[১]
শীর্ষ গোলদাতাফান্দি আহমদ (৫৫)[২]
মাঠসিঙ্গাপুর জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডSIN
ওয়েবসাইটwww.fas.org.sg
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৬০ অপরিবর্তিত (১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১)[৩]
সর্বোচ্চ৭২ (আগস্ট ১৯৯৩)
সর্বনিম্ন১৭৩ (অক্টোবর ২০১৭)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৭৫ হ্রাস ৬ (১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১)[৪]
সর্বোচ্চ১০৩ (নভেম্বর ২০০৯)
সর্বনিম্ন১৯৬ (নভেম্বর ২০১৬)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 সিঙ্গাপুর ১–০ প্রজাতন্ত্রী চীন 
(সিঙ্গাপুর; ২২ মে ১৯৪৮)[৫]
বৃহত্তম জয়
 সিঙ্গাপুর ১১–০ লাওস 
(সিঙ্গাপুর; ১৫ জানুয়ারি ২০০৭)
বৃহত্তম পরাজয়
 মিয়ানমার ৯–০ সিঙ্গাপুর 
(কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া; ৯ নভেম্বর ১৯৬৯)
এএফসি এশিয়ান কাপ
অংশগ্রহণ১ (১৯৮৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (১৯৮৪)
এএফএফ চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ১২ (১৯৯৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৯৮, ২০০৪, ২০০৭, ২০১২)

সিঙ্গাপুর জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Singapore national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সিঙ্গাপুরের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম সিঙ্গাপুরের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিঙ্গাপুর ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৫২ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৫৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৪৮ সালের ২২শে মে তারিখে, সিঙ্গাপুর প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে সিঙ্গাপুর চাইনিজ তাইপেইকে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

৫৫,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট সিঙ্গাপুর জাতীয় স্টেডিয়ামে সিংহ নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় সিঙ্গাপুরের কালাংয়ে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন তাতসুমা ইয়োশিদা এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন জোহর দারুল তা'জিমের মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হারিস হারুন

সিঙ্গাপুর এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, এএফসি এশিয়ান কাপে সিঙ্গাপুর এপর্যন্ত মাত্র ১ বার অংশগ্রহণ করেছে, যেখানে তারা শুধুমাত্র গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করেছে। এছাড়াও, এএফএফ চ্যাম্পিয়নশিপে সিঙ্গাপুর অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ৪টি (১৯৯৮, ২০০৪, ২০০৭ এবং ২০১২) শিরোপা জয়লাভ করেছে।

শাহরিল ইসহাক, বাইহাক্কি খাইজান, খাইরুল আমরি, ড্যানিয়েল বেনেট এবং ফান্দি আহমদের মতো খেলোয়াড়গণ সিঙ্গাপুরের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ১৯৯৩ সালের আগস্ট মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে সিঙ্গাপুর তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৭২তম) অর্জন করে এবং ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৭৩তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে সিঙ্গাপুরের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১০৩তম (যা তারা ২০০৯ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৯৬। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৫৮ অপরিবর্তিত  মালদ্বীপ ১০২৮.৩
১৫৯ অপরিবর্তিত  তাহিতি ১০১৪.২৭
১৬০ অপরিবর্তিত  সিঙ্গাপুর ১০০০.৩৫
১৬১ অপরিবর্তিত  ফিজি ৯৯৬.২৭
১৬২ অপরিবর্তিত  বার্বাডোস ৯৯৫.৯৪
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৪]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৭৩ হ্রাস  ফিলিপাইন ১১৩৮
১৭৪ হ্রাস ২১  গ্রেনাডা ১১৩৬
১৭৫ হ্রাস  সিঙ্গাপুর ১১৩৪
১৭৬ বৃদ্ধি  আফগানিস্তান ১১৩১
১৭৭ হ্রাস  বেলিজ ১১২৭

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ উত্তীর্ণ হয়নি
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬ ১১
ইতালি ১৯৯০ ১২
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ ১২ ১২
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২
জার্মানি ২০০৬ ১৩
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১০ ১৭ ১৭
ব্রাজিল ২০১৪ ২৪
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২০ ৬৭ ১৯ ১০ ৩৮ ৭৪ ১২০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "FIFA Century Club" (PDF)। Fédération Internationale de Football Association। ১৩ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০১৫ 
  2. Morrison, Neil। "Fandi Ahmad – Century of International Appearances"RSSSF। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১০ 
  3. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  4. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  5. "Singapore matches, ratings and points exchanged"। World Football Elo Ratings: Singapore। সংগ্রহের তারিখ ২৪ নভেম্বর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]