দোহা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

দোহা যা হল মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী দেশ কাতারের রাজধানী । এটি কাতারের সবচেয়ে জনবহুল শহর । এটির জনসংখ্যা আনুমাণিক ১,৮৫০,০০০ জন যারা শুধু মুল শহরে বসবাস করে । মরুভুমিতে অবস্থিত জনবসতি হিসেব করে মোট জনসংখ্যা প্রায় ২.৪ মিলিওন । এই শহর কাতার দেশটির পূর্বে পারস্য সাগরের উপকূল ঘেঁষে অবস্থিত । এটি কাতারের সবচেয়ে দ্রুতবর্ধনশীল শহর । এর ৮০ শতাংশ লোক শহরের প্রাণকেন্দ্রে অথবা শহরতলিতে বসবাস করে । দোহা কাতারের প্রধান অর্থনৈতিক অঞ্চল ।

দোহা শহরটির প্রতিষ্ঠা হয়েছিল ১৮২০ সালে কাতারের অন্য একটি শহর আলবিদ্দা এর উপশহর হিসেবে । ১৯৭১ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে স্বাধীনতা লাভের পর এটিকে কাতারের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করা হয় । এটি কাতারের বাণিজ্যিক অঞ্চল হওয়ার পাশাপাশি মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম উদীয়মান অর্থনৈতিক অঞ্চল । যার জন্য বিশ্বায়ন ও বিশ্বের শহর গবেষণা নেটওয়ার্ক এটিকে আন্তরজাতিক শহর হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে । দোহা শহরটি শিক্ষাঞ্চল হিসেবেও সুপ্রতিষ্ঠিত । এটিকে ঘিরে অনেক গবেষণা প্রতিষ্ঠাণ গড়ে উঠেছে ।

দোহা অনেক আন্তরজাতিক অনুষ্ঠানের সফল আয়োজক হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত । এটি বিশ্ব লেনদেন সংস্থার অধিনে অনুষ্ঠিত দোহা উন্নয়ন কার্যক্রমের মন্ত্রীপরিষদ সমন্নীত বৈঠকের প্রথম সফল আয়োজক । দোহা অনেক ক্রীড়া অনুষ্ঠানেরও সফল আয়োজক যার মধ্যে রয়েছে ২০০৬ সালের এসিয়ান গেমস্ , ২০১১ সালের প্যান আরব গেমস্ এবং ২০১১ সালের ডিসেম্বর মাসে এ এফ ছি গেমস্ এর অনেক খেলা দোহাতে অনুষ্ঠিত হয় । বিশ্ব তেলজাত পরিষদের ২০ তম আন্তর্জাতিক সভাও দোহাতে অনুষ্ঠিত হয় । এরপর ২০১২ সালের ইউ এন এফ ছি ছি ছি এর জলবায়ু সম্মেলনের ও সফল আয়োজক দোহা । উল্লেখ্য কাতারে অনুষ্ঠিত ২০২২ সালের ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের অনেক খেলার ভেণ্যু হিসেবে দোহাকে তৈরী করা হচ্ছে । সর্বশেষ ২০১৯ সালের এপ্রিলে ১৪০ তম আন্ত-দেশীয় সংসদ সমিতির সমাবেশের সফল আয়োজক ছিল কাতারের দোহা ।

২০১৫ সালের মে মাসে , প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে দোহাকে নতুন সপ্তাশ্চর্যের শহর হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয় যেখানে দোহার সাথে এই গৌরব এর সম্মান পেয়েছিল ভিগান , লা পায ,ডারবান , হাভানা , বৈরুত , কুয়ালালামপুর ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]