নেপাল জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নেপাল
শার্ট ব্যাজ/অ্যাসোসিয়েশন কুলচিহ্ন
ডাকনাম(সমূহ)গোর্খালিজ
অ্যাসোসিয়েশনঅল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনএএফসি (এশিয়া)
সাব-কনফেডারেশনসাফ (দক্ষিণ এশিয়া)
প্রধান কোচজ্যাক স্টিফানোস্কি
অধিনায়কসাগর থাপা
স্বাগতিক স্টেডিয়ামদশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়াম
ফিফা কোডNEP
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান১৭০ হ্রাস
সর্বোচ্চ১২৪ (ডিসেম্বর, ১৯৯৩)
সর্বনিম্ন১৮৭ (নভেম্বর, ২০০৭)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান১৯১
সর্বোচ্চ১৭১ (২৩ নভেম্বর, ১৯৮৭)
সর্বনিম্ন২১০ (১ মে, ১৯৯৯)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 গণচীন ৩-১ নেপাল নেপাল
(চীন; ৩ অক্টোবর, ১৯৭২)
বৃহত্তম জয়
   নেপাল ৭-০ ভুটান 
(কাঠমান্ডু, নেপাল; ২৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৯)
বৃহত্তম হার
 দক্ষিণ কোরিয়া ১৬-০ নেপাল নেপাল
(ইঞ্চিয়ন, দক্ষিণ কোরিয়া; ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০০৩)

নেপাল জাতীয় ফুটবল দল (নেপালি: नेपाल राष्ट्रीय फुटबल टोली) হিমালয় অধ্যুষিত দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম দেশ নেপালের জাতীয় ফুটবল দলের প্রতিনিধিত্ব করছে। অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃক দলটি পরিচালিত হয়। এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্যভূক্ত দলরূপে কাঠমান্ডুর ত্রিপুরেশ্বরে অবস্থিত দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলাগুলোয় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে থাকে।

নেপালের ফুটবল সম্প্রসারণে সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারক সংস্থা হিসেবে রয়েছে অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। নেপাল জাতীয় ফুটবল দলসহ ক্লাব পর্যায়ের ফুটবল প্রতিযোগিতা নিয়ন্ত্রণ করে এ সংস্থাটি। ১৯৫১ সালে এ সংস্থাটি গঠিত হয় ও ১৯৭০ সালে ফিফা কর্তৃক অনুমোদন পায়। বর্তমান সভাপতি হিসেবে রয়েছেন গণেশ থাপা। এছাড়াও তিনি এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের উপ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

দলের বর্তমান কোচ হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন জ্যাক স্টিফানোস্কি। তিনি ৭ জানুয়ারি, ২০১৩ তারিখ থেকে কোচের দায়িত্ব পালন করছেন।[১]

বিশ্বকাপ রেকর্ড[সম্পাদনা]

এশিয়ান কাপ রেকর্ড[সম্পাদনা]

এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ রেকর্ড[সম্পাদনা]

  • ২০০৬ – সেমি-ফাইনাল
  • ২০০৮ – গ্রুপ পর্ব
  • ২০১০ – যোগ্যতা অর্জন করেনি, যোগ্যতা নির্ধারণী গ্রুপে ২য়
  • ২০১২ – গ্রুপ পর্ব
  • ২০১৪ – যোগ্যতা অর্জন করেনি

দক্ষিণ এশীয় ফুটবল ফেডারেশন কাপ রেকর্ড[সম্পাদনা]

সর্বকালের দলীয় রেকর্ড[সম্পাদনা]

নেপাল জাতীয় ফুটবল দল
পদক রেকর্ড
পুরুষদের ফুটবল
দক্ষিণ এশীয় গেম্‌স
স্বর্ণ পদক - প্রথম স্থান ১৯৮৪ কাঠমান্ডু
ব্রোঞ্জ পদক - তৃতীয় স্থান ১৯৮৫ ঢাকা
ব্রোঞ্জ পদক - তৃতীয় স্থান ১৯৮৭ কলকাতা
স্বর্ণ পদক - প্রথম স্থান ১৯৯৩ ঢাকা
রৌপ্য পদক - দ্বিতীয় স্থান ১৯৯৯ কাঠমান্ডু
ব্রোঞ্জ পদক - তৃতীয় স্থান ২০০৬ কলম্বো

সকল দেশের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক রেকর্ড (৯ মার্চ, ২০১১ পর্যন্ত)

প্রতিপক্ষ খেলা জয় ড্র পরাজয়
 আফগানিস্তান
 বাংলাদেশ ১৭ ১১
 ভুটান
 ব্রুনাই
 কম্বোডিয়া
 গণচীন
 হংকং
 ভারত ১২
 ইরান
 ইরাক
 জাপান
 জর্দান
 কাজাখস্তান
 কুয়েত
 কিরগিজিস্তান
 মাকাও
 মালয়েশিয়া
 মালদ্বীপ ১২
 মিয়ানমার
 উত্তর কোরিয়া
 ওমান ১১ ১১
 পাকিস্তান ১৩
 ফিলিস্তিন
 ফিলিপাইন
 সৌদি আরব
 সিঙ্গাপুর
 দক্ষিণ কোরিয়া
 শ্রীলঙ্কা ১৩
 সিরিয়া
 থাইল্যান্ড
পূর্ব তিমুর Timor-Leste
 তুর্কমেনিস্তান
 সংযুক্ত আরব আমিরাত
 ভিয়েতনাম
 ইয়েমেন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]