২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ
كأس آسيا 2019
২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপের চিত্রলিপি.svg
বিবরণ
স্বাগতিক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত
তারিখ৫ জানুয়ারি - ১ ফেব্রুয়ারি
দল২৪ (১টি কনফেডারেশন থেকে)
মাঠ৮ (৪টি আয়োজক শহরে)
চূড়ান্ত অবস্থান
চ্যাম্পিয়ন কাতার (১ম শিরোপা)
রানার-আপ জাপান
পরিসংখ্যান
ম্যাচ৫১
গোল সংখ্যা১৩০ (ম্যাচ প্রতি ২.৫৫টি)
দর্শক সংখ্যা৬,৪৪,৩০৭ (ম্যাচ প্রতি ১২,৬৩৩ জন)
শীর্ষ গোলদাতা আলমোয়েজ আলি (৯টি গোল)[১]
সেরা খেলোয়াড় আলমোয়েজ আলি[১]
সেরা গোলরক্ষকসাদ আল শীব[২]
ফেয়ার প্লে পুরষ্কার জাপান[৩]

২০১৯ এএফসি এশিয়ান কাপ এএফসি এশিয়ান কাপের ১৭তম আসর যা একটি আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা যার আয়োজন করে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন। আসরটি ৫ জানুয়ারি থেকে ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হয়।[৪]১৯৯৬ এর পর এটি তাদের ২য় আসর।

প্রথমবারের মত নতুন নিয়মানুযায়ী মোট ২৪ টি দেশ এ আসরে অংশগ্রহণ করে, যা আগে ২০০৪ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত ছিলো ১৬ টি।[৫]

স্বাগতিক নির্ধারণ[সম্পাদনা]

ইরানসংযুক্ত আরব আমিরাত দরপত্র দাখিল করে।[৬] ৯ মার্চ ২০১৫ তারিখে এএফসি নির্বাহী পরিষদের একটি সভায় ইউএইকে স্বাগতিক ঘোষণা করা হয়।[৭]

দলসমূহ[সম্পাদনা]

বাছাইপর্ব[সম্পাদনা]

উত্তীর্ণ দলসমূহ[সম্পাদনা]

দল উত্তীর্ণ হওয়ার ধরন উত্তীর্ণ হওয়ার সময় এএফসি এশিয়া কাপে আগে অংশগ্রহণ 1
 সংযুক্ত আরব আমিরাত স্বাগতিক ৯ মার্চ ২০১৫ ৯ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 সৌদি আরব সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ এ বিজয়ী ২৪ মার্চ ২০১৬ ৯ (১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 অস্ট্রেলিয়া সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ বি বিজয়ী ২৯ মার্চ ২০১৬ ৩ (২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 কাতার সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ সি বিজয়ী ১৭ নভেম্বর ২০১৫ ৯ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 ইরান সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ ডি বিজয়ী ২৯ মার্চ ২০১৬ ১৩ (১৯৬৮, ১৯৭২, ১৯৭৬, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 জাপান সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ ই বিজয়ী ২৪ মার্চ ২০১৬ ৮ (১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 থাইল্যান্ড সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ এফ বিজয়ী ২৪ মার্চ ২০১৬ ৮ (১৯৭২, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭)
 দক্ষিণ কোরিয়া সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ জি বিজয়ী ১৩ জানুয়ারি ২০১৬ ১৩ (১৯৫৬, ১৯৬০, ১৯৬৪, ১৯৭২, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 উজবেকিস্তান সেকেন্ড রাউন্ড গ্রুপ এইচ বিজয়ী ২৯ মার্চ ২০১৬ ৬ (১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 ইরাক সেকেন্ড রাউন্ড প্রথম সেরা রানার্স-আপ ২৯ মার্চ ২০১৬ ৮ (১৯৭২, ১৯৭৬, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 সিরিয়া সেকেন্ড রাউন্ড ২য় সেরা রানার্স-আপ ২৯ মার্চ ২০১৬ ৫ (১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯৬, ২০১১)
 চীন সেকেন্ড রাউন্ড ৪র্থ সেরা বানার্স-আপ ২৯ মার্চ ২০১৬ ১১ (১৯৭৬, ১৯৮০, ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৬, ২০০০, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 ভারত তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ এ বিজয়ী ১১ অক্টোবর ২০১৭ ৩ (১৯৬৪, ১৯৮৪, ২০১১)
 কিরগিজস্তান [[তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ এ রানার্স-আপ]] ২২ মার্চ ২০১৮ ০ (অভিষেক)
 লেবানন তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ বি বিজয়ী ১০ নভেম্বর ২০১৭ ১ (২০০০)
 উত্তর কোরিয়া তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ বি রানার্স-আপ ২৭ মার্চ ২০১৮ ৪ (১৯৮০, ১৯৯২, ২০১১, ২০১৫)
 জর্ডান তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ সি বিজয়ী ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ৩ (২০০৪, ২০১১, ২০১৫)
 ভিয়েতনাম তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ সি রানার্স-আপ ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ৩ (১৯৫৬2, ১৯৬০2, ২০০৭)
 ফিলিস্তিন তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ ডি রানার্স-আপ ১০ অক্টোবর ২০১৭ ১ (২০১৫)
 ওমান তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ ডি বিজয়ী ১০ অক্টোবর ২০১৭ ৩ (২০০৪, ২০০৭, ২০১৫)
 বাহরাইন তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ ই বিজয়ী ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ৫ (১৯৮৮, ২০০৪, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫)
 তুর্কমেনিস্তান তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ ই রানার্স-আপ ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ১ (২০০৪)
 ফিলিপাইন তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ এফ বিজয়ী ২৭ মার্চ ২০১৮ ০ (অভিষেক)
 ইয়েমেন তৃতীয় রাউন্ড গ্রুপ এফ রানার্স-আপ ২৭ মার্চ ২০১৮ ০ (অভিষেক)
1 বোল্ড ওই বছরের বিজয়ী নির্দেশ করে। ইটালিক ওই বছরের স্বাগতিক নির্দেশ করে।

ড্র[সম্পাদনা]

৪ মে ২০১৮ তারিখে চূড়ান্ত আসরের ড্র দুবাই এর বুর্জ খলিফার একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়।[৮] সেকেন্ড রাউন্ড থেকে উত্তীর্ণ ১২টি দলকে প্রথম ও দ্বিতীয় পটে রাখা হয় এবং বাকি দলগুলোকে তৃতীয় ও চতুর্থ পটে রাখা হয়।সেখান থেকে ২০১৮ এপ্রিল ফিফা র‍্যাংকিং ব্যবহার করে পট নির্বাচন করা হয়।[৯]

পট ১ পট ২ পট ৩ পট ৪

 সংযুক্ত আরব আমিরাত (৮১) (আয়োজক)
 ইরান (৩৬)
 অস্ট্রেলিয়া (৪০)
 জাপান (৬০)
 দক্ষিণ কোরিয়া (৬১)
 সৌদি আরব (৭০)

 চীন (৭৩)
 সিরিয়া (৭৬)
 উজবেকিস্তান (৮৮)
 ইরাক (৮৮)
 কাতার (১০১)
 থাইল্যান্ড (১২২)

 কিরগিজস্তান (৭৫)
 লেবানন (৭৯)
 ফিলিস্তিন (৮৩)
 ওমান (৮৭)
 ভারত (৯৭)
 ভিয়েতনাম (১০৩)

 উত্তর কোরিয়া (১১২)
 ফিলিপাইন (১১৩)
 বাহরাইন (১১৬)
 জর্ডান (১১৭)
 ইয়েমেন (১২৫)
 তুর্কমেনিস্তান (১২৯)

চূড়ান্ত ড্র[সম্পাদনা]

স্বাগতিক দেশকে প্রথমেই গ্রুপ এ১ এ রেখে ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ড্র এর পর গ্রুপ পর্বের অবস্থা:

গ্রুপ এ
Pos দল
এ১  সংযুক্ত আরব আমিরাত
এ২  থাইল্যান্ড
এ৩  ভারত
এ৪  বাহরাইন
গ্রুপ বি
Pos দল
বি১  অস্ট্রেলিয়া
বি২  সিরিয়া
বি৩  ফিলিস্তিন
বি৪  জর্ডান
গ্রুপ সি
Pos দল
সি১  দক্ষিণ কোরিয়া
সি২  চীন
সি৩  কিরগিজস্তান
সি৪  ফিলিপাইন
গ্রুপ ডি
Pos দল
ডি১  ইরান
ডি২  ইরাক
ডি৩  ভিয়েতনাম
ডি৪  ইয়েমেন
গ্রুপ ই
Pos দল
ই১  সৌদি আরব
ই২  কাতার
ই৩  লেবানন
ই৪  উত্তর কোরিয়া
গ্রুপ এফ
Pos দল
এফ১  জাপান
এফ২  উজবেকিস্তান
এফ৩  ওমান
এফ৪  তুর্কমেনিস্তান

মাঠসমূহ[সম্পাদনা]

আবুধাবি
জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়াম মোহাম্মদ বিন জায়েদ স্টেডিয়াম আল নাহিয়ান স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা : ৪৩,৬২০ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে) ধারণক্ষমতা: ৪২,০৫৬ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে) ধারণক্ষমতা: ১২,০০০ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে)
Gulf Cup (36).jpg Mohammed Bin Zayed Stadium.JPG Al-Nahyan Stadium.jpg
দুবাই
মাকতুম বিন রশিদ আল মাকতুম স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা: ১২,০০০ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে)
Dubai Maktoum Bin Rashid Al Maktoum Stadium 2.jpg
দুবাই
আল-মাকতু স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা: ১২,০০০ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে)
আল আইন শারজাহ
হাজ্জ বিন জায়েদ স্টেডিয়াম শেখ খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম শারজাহ স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা: ২৫,৯৬৫ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে) ধারণক্ষমতা:১৬,০০০ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে) ধারণক্ষমতা: ১,০৭৩ (বৃদ্ধি করা হচ্ছে)
Hazza Bin Zayed Stadium night.jpg Sheikh Khalifa International Stadium.jpg

খেলার পদ্ধতি[সম্পাদনা]

এবারের আসরটি ২৪ দলের হওয়ার পদ্ধতিতে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে।২৪ টি দলকে ৪ দলের মোট ছয়টি গ্রুপে ভাগ করা হয়।প্রতি গ্রুপের সেরা ২ দল ও সবগুলো গ্রুপ থেকে সেরা ৪ টি ৩য় দল রাউন্ড অফ ১৬ এ খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।এবার কোনো ৩য় স্থান নির্ধারণী খেলা থাকবে না।

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা
 সংযুক্ত আরব আমিরাত (H) +২ কোয়ার্টার-ফাইনাল
 থাইল্যান্ড -২
 বাহরাইন
 ভারত বাতিল

নক-আউট পর্ব[সম্পাদনা]

ব্র্যাকেট[সম্পাদনা]

 
Round of 16Quarter-finalsSemi-finalsFinal
 
              
 
20 January – Hazza bin Zayed
 
 
 থাইল্যান্ড1
 
24 January – Mohammed bin Zayed
 
 চীন2
 
 চীন0
 
20 January – Mohammed bin Zayed
 
 ইরান3
 
 ইরান2
 
28 January – Hazza bin Zayed
 
 ওমান0
 
 ইরান0
 
20 January – Al Maktoum
 
 জাপান3
 
 জর্ডান1 (2)
 
24 January – Al Maktoum
 
 ভিয়েতনাম (পেনাল্টি)1 (4)
 
 ভিয়েতনাম0
 
21 January – Sharjah
 
 জাপান1
 
 জাপান1
 
1 February – Zayed Sports City
 
 সৌদি আরব0
 
 জাপান1
 
22 January – Rashid
 
 কাতার3
 
 দক্ষিণ কোরিয়া (অ.স.প.)2
 
25 January – Zayed Sports City
 
 বাহরাইন1
 
 দক্ষিণ কোরিয়া0
 
22 January – Al Nahyan
 
 কাতার1
 
 কাতার1
 
29 January – Mohammed bin Zayed
 
 ইরাক0
 
 কাতার4
 
21 January – Zayed Sports City
 
 সংযুক্ত আরব আমিরাত0
 
 সংযুক্ত আরব আমিরাত (অ.স.প.)3
 
25 January – Hazza bin Zayed
 
 কিরগিজস্তান2
 
 সংযুক্ত আরব আমিরাত1
 
21 January – Khalifa bin Zayed
 
 অস্ট্রেলিয়া0
 
 অস্ট্রেলিয়া (পেনাল্টি)0 (4)
 
 
 উজবেকিস্তান0 (2)
 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Record-breaker Almoez Ali named MVP"। the-afc.com। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "Qatar's Saad Al Sheeb crowned Best Goalkeeper"। the-afc.com। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  3. "Qatar clinch historic title"। the-afc.com। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  4. "Asian Qualifiers 2023 – the-AFC.com"the-AFC। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০২১ 
  5. http://www.the-afc.com/executive-committee/exco-approves-expanded-afc-asian-cup-finals
  6. "Asian boss backs Australia for World Cup"www.abc.net.au। ২৩ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০২১ 
  7. http://www.the-afc.com/media-releases-asian-cup-2015/united-arab-emirates-to-host-2019-afc-asian-cup
  8. http://www.the-afc.com/competitions/afc-asian-cup/draw/
  9. "Seedings confirmed for UAE 2019 draw – Football – News – Asian Qualifiers 2022"the-AFC। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০২১