সংযুক্ত আরব আমিরাত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
সংযুক্ত আরব আমিরাত
دولة الإمارات العربية المتحدة
দাওলাত্ আল্-ঈমারাত্ আল্-আরবিয়াহ্ আল্-মুত্তাহিদাহ্
পতাকা কোট অফ আর্মস
নীতিবাক্য---
জাতীয় সঙ্গীত: "ইশ্যি বিলাদি"
রাজধানী আবুধাবি
২২°৪৭′ উত্তর ৫৪°৩৭′ পূর্ব / ২২.৭৮৩° উত্তর ৫৪.৬১৭° পূর্ব / 22.783; 54.617
বৃহত্তম শহর দুবাই
রাষ্ট্রীয় ভাষাসমূহ আরবি
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ আমিরাতি
সরকার যুক্তরাষ্ট্রীয়, পরম ও বংশগত রাজতন্ত্র
 •  রাষ্ট্রপতি খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান
 •  প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম
সংস্থাপন ১৯৭১ ডিসেম্বর ২
 •  মোট  কিমি (১১৬)
 বর্গ মাইল
 •  পানি (%) নগণ্য
জনসংখ্যা
 •  ২০১৩ আনুমানিক ৯,২০৫,৬৫১ [১] (৯৩)
 •  ২০০৫ আদমশুমারি ৪,১০৬,৪২৭
 •  ঘনত্ব ৯৯/কিমি (১১০)
/বর্গ মাইল
মোট দেশজ উৎপাদন
(ক্রয়ক্ষমতা সমতা)
২০০৭ আনুমানিক
 •  মোট $১৫৯.৩ বিলিয়ন (৫৪)
 •  মাথা পিছু $৩৫,৫১৬ (১৬)
মোট দেশজ উৎপাদন (নামমাত্র) ২০০৬ আনুমানিক
 •  মোট $১৬৪ বিলিয়ন (৩৮)
 •  মাথা পিছু $৪২,১৭৫ (১৬)
মানব উন্নয়ন সূচক (২০০৪) হ্রাস ০.৮৩৯
ত্রুটি: মানব উন্নয়ন সূচক-এর মান অকার্যকর · ৪৯
মুদ্রা আমিরাতি দিরহাম (AED)
সময় অঞ্চল GMT+4 (ইউটিসি+৪)
 •  গ্রীষ্মকালীন (ডিএসটি) না (ইউটিসি+৪)
কলিং কোড +৯৭১
ইন্টারনেট টিএলডি .ae, امارات.

সংযুক্ত আরব আমিরাত (আরবি ভাষায়: دولة الإمارات العربية المتحدة‎দাওলাত্ আল্-ঈমারাত্ আল্-আরবিয়াহ্ আল্-মুত্তাহিদাহ্) মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে আরব উপদ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব কোনায় অবস্থিত সাতটি স্বাধীন রাষ্ট্রের একটি ফেডারেশন। এগুলি একসময় ট্রুসিয়াল স্টেটস নামে পরিচিত ছিল। ১৯৭১ সালে দেশগুলি স্বাধীনতা লাভ করে। প্রতিটি আমিরাত একটি উপকূলীয় জনবসতিকে কেন্দ্র করে আবর্তিত এবং ঐ লোকালয়ের নামেই এর নাম। আমিরাতের শাসনকর্তার পদবী আমির। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি আমিরাতের নাম হল আবু ধাবি, আজমান, দুবাই, আল ফুজাইরাহ, রাআস আল খাইমাহ, আশ শারিকাহ এবং উম্ম আল ক্বাইওয়াইন। আবু ধাবি শহর ফেডারেশনের রাজধানী এবং দুবাই দেশের বৃহত্তম শহর।

সংযুক্ত আরব আমিরাত মরুময় দেশ। এর উত্তরে পারস্য উপসাগর, দক্ষিণ ও পশ্চিমে সৌদি আরব, এবং পূর্বে ওমান ও ওমান উপসাগর। ১৯৫০-এর দশকে পেট্রোলিয়াম আবিষ্কারের আগ পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাত মূলত ব্রিটিশ সরকারের অধীন কতগুলি অনুন্নত এলাকার সমষ্টি ছিল। খনিজ তেল শিল্পের বিকাশের সাথে সাথে এগুলির দ্রুত উন্নতি ও আধুনিকায়ন ঘটে, ফলে ১৯৭০-এর দশকের শুরুতে আমিরাতগুলি ব্রিটিশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে আসতে সক্ষম হয়। দেশের খনিজ তেলের বেশির ভাগ আবু ধাবিতে পাওয়া যায়, ফলে এটি সাতটি আমিরাতের মধ্যে সবচেয়ে ধনী ও শক্তিশালী। তেল শিল্পের কারণে এখানকার অর্থনীতি স্থিতিশীল এবং জীবনযাত্রার মান বিশ্বের সর্বোচ্চগুলির একটি।

ইতিহাস[উৎস সম্পাদনা]

সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রথম মানব বসতির সন্ধান পাওয়া যায় খৃষ্ট পূর্ব ৫৫০০ শতাব্দী থেকে। তৎকালে বহির্বিশ্বের সাথে যোগাযোগ বলতে উত্তর- পশ্চিমের মেসোপটেমিয়ার সভ্যতার সাথে যোগাযোগের প্রমাণ পাওয়া যায়। হাজর পর্বতে প্রাপ্ত তামা দিয়ে ব্যবসার মাধ্যমে ৩০০০খৃষ্ট পূর্ব থেকে মেসোপটেমিয়ার সাথে এই যোগাযোগ দীর্ঘস্থায়ী ও বিস্তৃত হয়। ১ম শতাব্দী থেকে ভূমি পথে সিরিয়া ও ইরানের দক্ষিণাংশের সাথে যোগাযোগ শুরু হয়। পরবর্তীতে ওমানা বন্দর(বর্তমান ওম্ম-আল-কোয়াইন) এর মাধ্যমে সমুদ্র পথে ভারতের সাথে যোগাযোগ শুরু হয়।

রাজনীতি[উৎস সম্পাদনা]

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ[উৎস সম্পাদনা]

ভূগোল[উৎস সম্পাদনা]

অর্থনীতি[উৎস সম্পাদনা]

এই দেশের প্রধান অর্থনীতি হচেছ খনিজ তেল

জনসংখ্যা[উৎস সম্পাদনা]

২০১৫ ইংরেজ সাল অনুযায়ী জনসংখ্যা প্রায় ৫,৭৭৯,৭৬০ থেকে ৮,০০০,০০০ কাছাকাছি

সংস্কৃতি[উৎস সম্পাদনা]

আরও দেখুন[উৎস সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[উৎস সম্পাদনা]

  1. "Population (Total)"। World Bank।