গুয়াম জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গুয়াম
দলের লোগো
ডাকনামমাতাও[১]
অ্যাসোসিয়েশনগুয়াম ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনএএফসি (এশিয়া)
প্রধান কোচকার্ল ডড
অধিনায়কজেসন কানলিফ
সর্বাধিক ম্যাচজেসন কানলিফ (৫৯)
শীর্ষ গোলদাতাজেসন কানলিফ (২২)
মাঠগুয়াম জাতীয় ফুটবল স্টেডিয়াম
ফিফা কোডGUM
ওয়েবসাইটguamfa.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৯৮ অপরিবর্তিত (২৭ মে ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১৪৬ (আগস্ট – সেপ্টেম্বর ২০১৫)
সর্বনিম্ন২০৫ (নভেম্বর ২০০৪ – ফেব্রুয়ারি ২০০৫)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২১৪ অপরিবর্তিত (২ জুন ২০২১)[৩]
সর্বোচ্চ১৯৭ (জুন ২০১৫)
সর্বনিম্ন২২৮ (মার্চ ২০০৭)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 ফিজি ১২–০ গুয়াম 
(গুয়াম; ২৪ আগস্ট ১৯৭৫)
বৃহত্তম জয়
 পালাউ ২–১৫ গুয়াম 
(করর, পালাউ; ১ আগস্ট ১৯৯৮)
বৃহত্তম পরাজয়
 উত্তর কোরিয়া ২১–০ গুয়াম 
(তাইপে, তাইওয়ান; ১১ মার্চ ২০০৫)
এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ
অংশগ্রহণ১ (২০০৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (২০০৬)

গুয়াম জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Guam national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে গুয়ামের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম গুয়ামের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা গুয়াম ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৯৬ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং একই বছর হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৭৫ সালের ২৪শে আগস্ট তারিখে, গুয়াম প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; গুয়ামে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে গুয়াম ফিজির কাছে ১২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

১,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট গুয়াম জাতীয় ফুটবল স্টেডিয়ামে মাতাও নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় গুয়ামের বারিগাডায় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন কার্ল ডড এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন ব্যাংক অব গুয়াম স্ট্রাইকার্সের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় জেসন কানলিফ

গুয়াম এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, এএফসি এশিয়ান কাপেও গুয়াম এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি। এছাড়াও, এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপে গুয়াম এপর্যন্ত মাত্র ১ বার অংশগ্রহণ করেছে, যেখানে তাদের সাফল্য হচ্ছে শুধুমাত্র গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করা।

জেসন কানলিফ, মিকাহ পাউলিনিয়ো, ইয়ান মারিয়ানো, মার্কাস লোপেজ এবং শেন ম্যালকমের মতো খেলোয়াড়গণ গুয়ামের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ১৯৯৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে গুয়াম তাদের ইতিহাসে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ অবস্থান (১ম) অর্জন করে এবং ২০১৩ সালের জুন মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২২তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে গুয়ামের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১ম (যা তারা সর্বপ্রথম ১৯৫৮ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ২০। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
২৭ মে ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৯৬ অপরিবর্তিত  পূর্ব তিমুর ৮৭৯.৪৩
১৯৭ অপরিবর্তিত  সোমালিয়া ৮৭৯.১৩
১৯৮ অপরিবর্তিত  গুয়াম ৮৭২.৮৩
১৯৯ অপরিবর্তিত  পাকিস্তান ৮৬৬.৮১
২০০ অপরিবর্তিত  সেশেলস ৮৬৫.৬৯
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২ জুন ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২১২ অপরিবর্তিত  সিন্ট মার্টেন ৭৬৭
২১৩ অপরিবর্তিত  টুভালু ৭৩৯
২১৪ অপরিবর্তিত  গুয়াম ৭৩৩
২১৫ অপরিবর্তিত  মঙ্গোলিয়া ৭২৮
২১৬ অপরিবর্তিত  সেঁ বার্তেলেমি ৭১৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি ৩৫
জার্মানি ২০০৬ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১৬
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ১০ ৫১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mike Nauta Jr. (১ জুন ২০১২)। "Guam men's national soccer team now known as 'Matao'"Marianas Variety। Guam। ১৭ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০১২ 
  2. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ২৭ মে ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০২১ 
  3. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]