হংকং জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
 হংকং
ডাকনাম(সমূহ)ড্রাগন (蛟龍), গুং–হো (勁揪)
অ্যাসোসিয়েশনহংকং ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন (এইচকেএফএ)
কনফেডারেশনএএফসি (এশিয়া)
সাব-কনফেডারেশনইএএফএফ (পূর্ব এশিয়া)
প্রধান কোচকিম পান-গন
অধিনায়কইয়াপ হুং ফাই
সর্বাধিক ম্যাচ খেলা খেলোয়াড়লি চি হো (৭০)
শীর্ষ গোলদাতাচান সিউ কি (৩৭)
স্বাগতিক স্টেডিয়ামহংকং স্টেডিয়াম (৪০,০০০)
মং কক স্টেডিয়াম (৬,৭৬৯)
ফিফা কোডHKG (এইচকেজি)
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি

হংকং জাতীয় ফুটবল দল (চীনা: 香港足球代表隊), হচ্ছেন হংকংয়ের জাতীয় ফুটবল দল, যেটি ফিফা বিশ্বকাপ, এএফসি এশিয়ান কাপ এবং ইস্ট এশিয়ান ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের মতো আন্তর্জাতিক সংস্থা ফুটবল প্রতিযোগিতায় হংকংকে প্রতিনিধিত্ব করে। হংকং ফুটবলের গভর্নিং বডি, হংকং ফুটবল এসোসিয়েশন এই দলটিকে প্রতিনিধিত্ব করে এবং তত্ত্বাবধান করে।

১৯৯৭ সালের আগে হংকংয়ের আন্তর্জাতিক ফুটবল ইভেন্টে দলটি হংকংয়ের প্রতিনিধিত্ব করেছিল যখন হংকং যুক্তরাজ্যের একটি উপনিবেশ ছিল। ১৯৯৭ সালে হংকংয়ের গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের হাতে হস্তান্তর করার পরও হংকংয়ের প্রতিনিধিত্ব অব্যাহত থাকে এবং ১৯৯৭ সালে হংকং গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের একটি বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হয়ে ওঠে। এই দল জাতীয় দলের থেকে একটি আলাদা দল ছিল। চীনের গণপ্রজাতন্ত্রী মূল আইন এবং "এক দেশ, দুই নিয়ম" এই নীতির মাধ্যমে হংকংকে আন্তর্জাতিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নিজেদের প্রতিনিধি দল হিসেবে উপস্থাপন করতে সাহায্য করে। হংকংয়ে হংকং ফুটবল দলটিকে কথ্য ভাষায় "হংকং দল" (চীনা: 香港隊) হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে, যখন চীনের জাতীয় দলকে "জাতীয় দল" (চীনা: 國家隊), বলা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

হংকং ১৯৩৭ সালে "মাকাও-হংকং ইন্টারপোর্ট" খেলতে শুরু করে।[১] সাংহাই-হংকং ইন্টারপোর্টটি ১৯৩৫ সালে প্রথম দিকে অনুষ্ঠিত হয়।[২][৩] সাইগন (এখন হো চি মিন সিটি)-এর বিরুদ্ধে আরেকটি ইন্টারপোর্ট টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছিল।[৪]

হংকং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ১৯৪৯ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে তাদের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে। তাদের প্রথম জয়টি আসে ১৯৫৩ সালে, উক্ত ম্যাচে তারা দক্ষিণ কোরিয়াকে ৪–০ ব্যবধানে পরাজিত করতে সমর্থ হয়।

হংকং ১৯৫৬ সালের এশিয়ান কাপের প্রথম চারটি সংস্করণে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে, যেখানে ১৯৫৬ সালে তারা তৃতীয় স্থান অর্জন করে। সেই সময় হংকংয়ের খেলোয়াড়রা চীনের প্রতিনিধিত্ব করে। অতঃপর তারা ১৯৬০ সালের এশিয়ান কাপে তৃতীয় স্থান অর্জন করে। তবে খেলোয়াড়রা হংকংয়ের জাতীয় ফুটবল দলের খ্যাতি চীনের প্রজাতন্ত্রের মতোই ছিল না।[৫] ১৯৫৪ এবং ১৯৫৮ সালের এশিয়ান গেমসও তারা জয়লাভ করতে সমর্থ হয়।

হংকং ফিফা বিশ্বকাপে খেলার জন্য কখনোই যোগ্যতা অর্জন করতে সমর্থ হয়নি। তবে, ১৯৮৬ বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জনের সময় তাদের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় জয়টি তারা অর্জন করতে পেরেছিল। ১৯৮৫ সালের ১ মে বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত হংকংয়ের প্রথম চূড়ান্ত রাউন্ডের ম্যাচে তারা চীন জাতীয় ফুটবল দলের মুখোমুখি হয়, যেখানে হংকংয়েইয়েরুক্ত প্রতিযোগিতায় অগ্রসর হয়ে যাওয়ার জন্য জয়ের প্রয়োজন ছিল এবং চীনের কেবল একটি ড্রয়ের প্রয়োজন ছিল। কোচ কুওক কাই মিংয়ের নেতৃত্বে হংকং, চেউং চী তাক এবং কু কাম ফাইয়ের করা গোলের মাধ্যমে, ২–১-এ একটি অসাধারণ জয়ের দেখা পায়, যার ফলে হংকং জাতীয় ফুটবল দল উক্ত ম্যাচে জয়লাভ করার সাথে সাথে নকআউট পর্বের দিকে অগ্রসর হয়ে যায়, যেখানে তারা পরবর্তীতে জাপান জাতীয় ফুটবল দলের কাছে হেরে যায়।

হংকংয়ের হ্রাসকৃত ফুটবলের মান ২০০৯ সালে একটি টার্নিং পয়েন্টের মুখ দেখতে পেয়েছিল। একই বছরের ১২ ডিসেম্বর, হংকং জাপান জাতীয় ফুটবল দলকে পরাজিত করে এবং প্রথমবারের মতো কোন প্রধান প্রতিযোগিতায় হংকং ফুটবল দল জয়ের দেখা পায় এবং তারা এর ফলে প্রথমবারের মতো পূর্ব এশিয়ান গেমস ফুটবলে স্বর্ণপদক জয়লাভ করে। এই অপ্রত্যাশিত এবং বিস্ময়কর ফলাফল, হংকং ফুটবল দলের ফুটবল প্রেমীদের জন্য এক অসাধারণ ঘটনা ছিল। হংকং ফুটবল দল ২০১০ সালের লং টেনগান কাপ এবং ২০১১ লং টিং কাপ জয়লাভ করতে সমর্থ হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "漫談港澳埠際賽" (চীনা ভাষায়)। HKFA। ১৫ জুন ২০০৮। ৭ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুন ২০০৮ 
  2. "港滬埠際足球賽"। The Kung Sheung Evening News (Chinese ভাষায়)। Hong Kong: Hong Kong Public Libraries। ২৮ জানুয়ারি ১৯৩৫। 
  3. "Colony soccer team favoured, but Shanghai are dangerous. Fung King Cheong must succeed, will Wilson find form?"। The China Mail। Hong Kong: Hong Kong Public Libraries। ১০ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৭। 
  4. "新春佳節足球大賽香港對抗西貢"। The Kung Sheung Evening News (Chinese ভাষায়)। Hong Kong। ২৯ জানুয়ারি ১৯৪৯ – Hong Kong Public Libraries-এর মাধ্যমে। 
  5. http://www.isu.edu.tw/upload/26/4/HS_journals/Vol1-9/11.pdf

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]