বটতলি রেলওয়ে স্টেশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
বটতলি রেলওয়ে স্টেশন
আন্তঃনগর
Railway station (Old) of Chittagong.jpg
বটতলি স্টেশন
অবস্থান বটতলি, চট্টগ্রাম
বাংলাদেশ
পরিচালিত বাংলাদেশ রেলওয়ে
প্ল্যাটফর্ম ২ পাশে প্ল্যাটফর্ম
রেলপথ

বটতলি রেলওয়ে স্টেশন (বটতলি স্টেশন নামেও পরিচিত) বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার বটতলি এলাকায় অবস্থিত একটি প্রাচীন রেলওয়ে স্টেশন।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৯৬ সালের ৭ নভেম্বর, আসাম বেঙ্গল রেলওয়ের এজেন্ট স্টেশনের বানিজ্যিক স্থাপনার সংস্থান এবং স্টেশন মাস্টারের আবাসনের প্রয়োজন মেটাতে প্রধান প্রকৌশলী সহযোগে দুই তলা পুরোনো ভবনের অঙ্কন স্বাক্ষর করেন যা পরবর্তীতে পুন:সংস্কার করা হয়।[১] এটি বাংলাদেশে স্থাপত্য সংরক্ষণের শ্রেষ্ঠ উদাহরণ হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।[২]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

স্টেশন ভবনটি পূর্ব থেকে পশ্চিমে প্রায় ৫৬.২৪ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ১০.৩৭ মিটার প্রস্থের একটি দ্বিতল ভবনের সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে। ভবনের নিচ তলায় ব্যবসায়িক স্থান এবং দ্বিতীয় তলায় রেলওয়ে কর্মকর্তাদের আবাসনের ব্যাবস্থা রয়েছে।[২] শুরুতে স্টেশন প্রাঙ্গনে একটি উন্মুক্ত চত্বর থাকলেও বর্তমানে তা নেই। ভবনেনর পরিপাটি ফ্যাসাদ স্থাপত্যিক অলঙ্করণে সজ্জিত। জাঁকজমকপূর্ণ গাড়ি-বারান্দার মধ্যখানে সংযুক্ত রয়েছে ধাতব শীর্ষভূষণ এবং গম্বুজ শৈাভিত অর্ধ-অষ্টালক মিনার।[১] পূর্বে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন এই স্টেশন থেকে ছেড়ে যতো, তবে ২০১৩ সাল থেকে রেলপথ সংস্কারের কারণে তা বন্ধ রাখা হয়েছে।[৩]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. শামসুল হোসেন (জানুয়ারি ২০০৩)। সিরাজুল ইসলাম, সম্পাদক। বটতলী রেলওয়ে স্টেশন (বাংলা ভাষায়)। ঢাকা: এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশআইএসবিএন 984-32-0576-6। সংগৃহীত মে ১৮, ২০১৪ 
  2. শামসুল হোসেন। "বটতলী রেলওয়ে স্টেশন"www.heritagebangladesh.co। heritagebangladesh। সংগৃহীত এপ্রিল ২৯, ২০১৫ 
  3. শাখাওয়াত হোসাইন (ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৫)। "চবি শাটল ট্রেন বটতলী যায় না দেড় বছর"দৈনিক কালের কণ্ঠ (ঢাকা)। সংগৃহীত এপ্রিল ২৯, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]