চাঁদপুর পৌরসভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চাঁদপুর
পৌরসভা
চাঁদপুর পৌরসভা
চাঁদপুর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
চাঁদপুর
চাঁদপুর
বাংলাদেশে চাঁদপুর পৌরসভার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১৪′ উত্তর ৯০°৩৯.৫′ পূর্ব / ২৩.২৩৩° উত্তর ৯০.৬৫৮৩° পূর্ব / 23.233; 90.6583স্থানাঙ্ক: ২৩°১৪′ উত্তর ৯০°৩৯.৫′ পূর্ব / ২৩.২৩৩° উত্তর ৯০.৬৫৮৩° পূর্ব / 23.233; 90.6583
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগচট্টগ্রাম জেলা
জেলাচাঁদপুর জেলা
উপজেলাচাঁদপুর সদর উপজেলা
প্রতিষ্ঠাকাল১ অক্টোবর, ১৮৯৬
সরকার
 • পৌর মেয়রনাছির উদ্দিন আহমেদ
আয়তন
 • মোট২২ কিমি (৮ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,৫৯,০২১
 • জনঘনত্ব৭২০০/কিমি (১৯০০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৫৭.১০%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড১১০০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

চাঁদপুর পৌরসভা বাংলাদেশের চাঁদপুর জেলার অন্তর্গত একটি পৌরসভা

আয়তন[সম্পাদনা]

চাঁদপুর পৌরসভার আয়তন ২২ বর্গ কিলোমিটার। এটি চাঁদপুর জেলার বৃহত্তম পৌরসভা।

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী চাঁদপুর পৌরসভার জনসংখ্যা ১,৫৯,০২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৭৯,৭৯৯ জন এবং মহিলা ৭৯,২২২ জন।[১]

অবস্থান ও সীমানা[সম্পাদনা]

চাঁদপুর সদর উপজেলার মধ্যাংশে চাঁদপুর পৌরসভার অবস্থান। চাঁদপুর জেলা শহর এ পৌরসভায় অবস্থিত। এ পৌরসভার উত্তরে ও পূর্বে তরপুরচণ্ডী ইউনিয়ন, দক্ষিণ-পূর্বে বালিয়া ইউনিয়ন, দক্ষিণে লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন এবং পশ্চিমে মেঘনা নদীরাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ শাসনামলে ইংরেজ জরিপকারী মেজর জেমস রেনোল তৎকালীন বাংলাদেশের যে মানচিত্র অংকন করেছিলেন তাতে চাঁদপুর নামে একটি জনপদের সন্ধান পাওয়া যায়। তখন চাঁদপুরের দক্ষিণে বর্তমান নদীগর্ভে বিলীন নরসিংহপুরে ছিল চাঁদপুরের অফিস আদালত। তখন পদ্মা-মেঘনা সংগমস্থল ছিল বর্তমান চাঁদপুর শহরের ষাট মাইল দক্ষিণে। ধীরে ধীরে নদী সমগ্র এলাকাকে গ্রাস করে। ১৭৭৯ সালে রেনোলের মানচিত্রে ত্রিপুরা জেলার সাথে নরসিংহপুরস্থ চাঁদপুরের অবস্থান সঠিকভাবে চিহ্নিত করা হয়।

নামকরণ[সম্পাদনা]

চাঁদপুরের নামকরণ নিয়ে ঐতিহাসিকদের মধ্যে মতভেদ রয়েছে। বার ভূঁইয়াদের আমলে চাঁদপুর অঞ্চল ছিল বিক্রমপুরের জমিদার চাঁদ রায়ের দখলে। এই অঞ্চলে তিনি একটি শাসন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। ঐতিহাসিক জেএম সেনগুপ্তের মতে চাঁদ রায়ের নামানুসারে এই অঞ্চলের নাম হয় চাঁদপুর। অন্যমতে, চাঁদপুর শহর সংলগ্ন কোড়ালিয়া গ্রামের চাঁদ ফকিরের নাম অনুসারে এই অঞ্চলের নাম হয় চাঁদপুর।

প্রতিষ্ঠাকাল[সম্পাদনা]

১৮৭৮ সালে তৎকালীন ত্রিপুরা জেলার অংশ বিশেষ নিয়ে চাঁদপুর মহকুমা গঠিত হয়। রেলওয়ে বিভাগের সাহেবদের আনাগোনা, ২২টি বিখ্যাত পাট কোম্পানির ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠান স্থাপন ইত্যাদি কারণে মেঘনা-ডাকাতিয়ার মোহনার উভয় প্রান্তে চাঁদপুর লোকালয়ে তারা একটি পৌরসভা স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছিল। তারই ফলশ্রুতিতে মহকুমা স্থাপনের ১৮ বছর পর ও আসাম বেঙ্গল রেলওয়ের শাখা লাইনটি স্থাপনের ১১ বছর পর সরকারি আদেশে ১৮৯৬ সালের ১ অক্টোবর চাঁদপুর প্রথমে শ্রেণীর পৌরসভা হিসেবে যাত্রা শুরু করে। প্রথমে ৯ জন সদস্য নিয়ে (৪ জন ইংরেজ ও ৫ জন স্থানীয় গণ্যমান্য নাগরিক) পৌর পরিষদ গঠিত হয়। তাদের সবাই ইংরেজ ভাইসরয় কর্তৃক নিযুক্ত হতেন। পরবর্তী সময়ে শুধুমাত্র হোল্ডিং ট্যাক্স প্রদানকারীগণের সরাসরি ভোটে পৌর পরিষদ নির্বাচিত হত। তার কিছু সময় পর হোল্ডিংয়ে বসবাসকারী আবাসিকদের মধ্যে যারা ন্যূনতম এন্ট্রান্স পাশ ছিলেন তারা ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হন এবং ভোট প্রদান করতে পারতেন। ১৯২০ সালের আগে কোনো ভোটের ব্যবস্থা ছিল না। পৌর পরিষদ ইংরেজ ভাইসরয় কর্তৃক নিযুক্ত হত। পৌরসভা নির্বাচিত নাগরিক, যাদের ভোটাধিকার ছিল তাদের ভোটে ১৯২০ সনেরমনীমোহন রায় প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চাঁদপুর পৌরসভাকে ১৯৮৪ সালের ১ নভেম্বর শ্রেণীতে এবং ১৯৮৬ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর শ্রেণীতে উন্নীত করা হয়। ২০০৮ সালের ১৪ মে চেয়ারম্যান পদবী পরিবর্তন করে মেয়র নামকরণ করা হয় এবং কমিশনার পদবী পরিবর্তন করে কাউন্সিলর করা হয়। প্রথম মেয়র হিসেবে জনাব নাছির উদ্দিন আহমেদ দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘ ১১৯ বছরের বিশেষ সময়ে কয়েকজন প্রশাসক দায়িত্ব পালন করেন। ১১ জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং ১২তম নির্বাচনে ২০১৫ সালের ২০ এপ্রিল ১ম মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ঐতিহ্য[সম্পাদনা]

ঐতিহ্যগতভাবেই চাঁদপুরকে প্রাচ্যের ড্যান্ডি বলা হত। নদীমাতৃক বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর নদী বন্দর ও প্রসিদ্ধ বাণিজ্য নগরায়ন হিসেবে এই মহকুমার খ্যাতি ছিল পৃথিবী ব্যাপী। রূপালী ইলিশের রাজধানী হিসেবে চাঁদপুরের সুনাম এখনও বহমান।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

চাঁদপুর পৌরসভায় ১৫টি ওয়ার্ড রয়েছে। এ পৌরসভার প্রশাসনিক কার্যক্রম চাঁদপুর সদর থানার আওতাধীন। এটি জাতীয় সংসদের ২৬২নং নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুর-৩ এর অংশ।

শিক্ষা ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

চাঁদপুর পৌরসভার সাক্ষরতার হার ৫৭.১০%। এ পৌরসভায় ৪টি কলেজ, ১৭টি স্কুল এন্ড কলেজ, ১৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ৪৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

কলেজ
মাধ্যমিক বিদ্যালয়

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

মূলত কৃষি, ব্যবসা এবং বৈদেশিক রেমিটেন্স থেকে এ পৌরসভার অর্থনীতি নির্ভরশীল।

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

জনপ্রতিনিধি[সম্পাদনা]

  • পৌর মেয়র: নাছির উদ্দিন আহমেদ
চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচিত চেয়ারম্যান/মেয়রগণের তালিকা
ক্রম নির্বাচিত চেয়ারম্যান/মেয়র সময়কাল
রমনী মোহন রায় ৪ জুন ১৯২০ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯২৬
মধুসূদন রায় ২৪ সেপ্টেম্বর ১৯২৬ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর ১৯৪২
অক্ষয় কুমার দে সরকার ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৪২ থেকে ১২ অক্টোবর ১৯৪৬
ক্ষিরোদ চন্দ্র ঘোষ ১২ অক্টোবর ১৯৪৬ থেকে ১২ অক্টোবর ১৯৫২
মোহাম্মদ আব্দুস সালাম (মোক্তার) ১৫ নভেম্বর ১৯৫২ থেকে ০৯ নভেম্বর ১৯৫৬
মোহাম্মদ আব্দুল করিম পাটওয়ারী ২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৪ থেকে ১৭ অক্টোবর ১৯৮২
মোহাম্মদ সামছুদ্দিন আহম্মেদ বিএ ৮ মার্চ ১৯৮৪ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৮৮
মোহাম্মদ নুরুল হক বাচ্চু মিয়াজী ১৪ মার্চ ১৯৮৯ থেকে ৩০ ডিসেম্বর ১৯৯১
মোহাম্মদ ইউছুফ গাজী ৭ মার্চ ১৯৯৫ থেকে ৭ নভেম্বর ২০০০
১০ মোহাম্মদ শফিকুর রহমান ভূঁইয়া ৭ নভেম্বর ২০০০ থেকে ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৬
১১ নাছির উদ্দিন আহমেদ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৬ থেকে ১৪ মে ২০০৮
১২ নাছির উদ্দিন আহমেদ ১৪ মে ২০০৮ হতে বর্তমান[২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. চাঁদপুর পৌরসভা - পৌর ইনফো তথ্য[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. এক নজরে চাঁদপুর পৌরসভা, পৌর ইনফো, ২৭ নভেম্বর ২০১৫ ইং, সংগ্রহের তারিখ 2017-02-26  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]