হাজীগঞ্জ পৌরসভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হাজীগঞ্জ
পৌরসভা
হাজীগঞ্জ পৌরসভা
হাজীগঞ্জ বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
হাজীগঞ্জ
হাজীগঞ্জ
বাংলাদেশে হাজীগঞ্জ পৌরসভার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১৫′০০″ উত্তর ৯০°৫১′০০″ পূর্ব / ২৩.২৫০০° উত্তর ৯০.৮৫০০° পূর্ব / 23.2500; 90.8500স্থানাঙ্ক: ২৩°১৫′০০″ উত্তর ৯০°৫১′০০″ পূর্ব / ২৩.২৫০০° উত্তর ৯০.৮৫০০° পূর্ব / 23.2500; 90.8500
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগচট্টগ্রাম বিভাগ
জেলাচাঁদপুর জেলা
উপজেলাহাজীগঞ্জ উপজেলা
প্রতিষ্ঠাকাল১৪ মার্চ, ১৯৮৫
সরকার
 • পৌর মেয়রআ স ম মাহবুব-উল আলম
আয়তন
 • মোট১৮.৫০ কিমি (৭.১৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,০১,৫৭০
 • জনঘনত্ব৫৫০০/কিমি (১৪০০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৬৮%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৩৬১০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

হাজীগঞ্জ পৌরসভা বাংলাদেশের চাঁদপুর জেলার অন্তর্গত একটি পৌরসভা[১]

আয়তন[সম্পাদনা]

১৩.৫০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে হাজীগঞ্জ পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হলেও পরবর্তীতে ২০০৩ সালের ১৫ ডিসেম্বর সম্প্রসারিত হয়ে এ পৌরসভার বর্তমান আয়তন ১৮.৫০ বর্গ কিলোমিটার।[১]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী হাজীগঞ্জ পৌরসভার জনসংখ্যা ১,০১,৫৭০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৫১,২৫০ জন এবং মহিলা ৫০,৩২০ জন।[২]

অবস্থান ও সীমানা[সম্পাদনা]

হাজীগঞ্জ উপজেলার মধ্যাংশে হাজীগঞ্জ পৌরসভার অবস্থান। এ পৌরসভার উত্তরে হাটিলা পূর্ব ইউনিয়ন, হাটিলা পশ্চিম ইউনিয়নহাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন; পশ্চিমে হাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন; দক্ষিণে বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নবড়কুল পূর্ব ইউনিয়ন এবং পূর্বে শাহরাস্তি উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়ন অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

নামকরণ[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠাকাল[সম্পাদনা]

১৯৮৫ সালের ১৪ মার্চ হাজীগঞ্জ পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠাকালে শ্রেণীর পৌরসভা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৯৯৮ সালের ১২ মে এ পৌরসভাকে শ্রেণীতে এবং ২০০৪ সালের ১২ জুলাই শ্রেণীতে উন্নীত করা হয়।[১]

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

হাজীগঞ্জ পৌরসভায় ১২টি ওয়ার্ড রয়েছে। এ পৌরসভার প্রশাসনিক কার্যক্রম হাজীগঞ্জ থানার আওতাধীন। এটি জাতীয় সংসদের ২৬৪নং নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুর-৫ এর অংশ।

শিক্ষা ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

হাজীগঞ্জ পৌরসভার সাক্ষরতার হার ৬৮%। এ পৌরসভায় ৪টি কলেজ, ৪টি মাদ্রাসা, ৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ১৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

মূলত কৃষি, ব্যবসা এবং বৈদেশিক রেমিটেন্স থেকে এ পৌরসভার অর্থনীতি নির্ভরশীল।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

আলী আহাম্মেদ মিয়া যিনি ছিলেন প্রথম শিল্পকারখানা কিস্তি বিড়ি কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা। যা ছিলো এক সময় এর বাংলাদেশের অন্যতম বিড়ি কোম্পানি প্রতিষ্ঠান।

মিজানুর রহমান মিরন তিনি ছিলেন কিস্তি কোম্পানির মালিক। তিনি সর্ব প্রথম বানিজ্যিক মার্কেট আহাম্মেদ প্লাজা প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তারপর তার অবদানে দূর দূরান্ত থেকে বিনিয়োগ শুরু করে। মিরন সাহেব সর্ব প্রথম চাঁদপুর টু কুমিল্লা এবং চাঁদপুর টু ঢাকা বাস সার্ভিস চালু করেন। এছাড়া তিনি আল আরাফাহ বাস সার্ভিস প্রতিষ্ঠাতা করে রামগঞ্জ থেকে ঢাকা বাস চেয়ার কোচ সার্ভিস চালু করে।

জনপ্রতিনিধি[সম্পাদনা]

  • পৌর মেয়র: আ স ম মাহবুব-উল আলম

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]