রংপুরী ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(রংপুরি ভাষা থেকে পুনর্নির্দেশিত)
কামতাপুরী
কামতাপুরী/রাজবংশী /গোয়ালপাড়ীয়া (ভারত)
রংপুরী (বাংলাদেশ)
রাজবংশী (নেপাল)
Rajbanshi.png
দেশোদ্ভববাংলাদেশ
ভারত
নেপাল
মাতৃভাষী
১৫ মিলিয়ন (২০১১)[২]
পূর্ব নাগরী লিপি (বাংলাদেশ, অসম এবং পশ্চিমবঙ্গ-এ অফিসিয়াল) দেবনাগরী (ব্যবহার বিরল)
সরকারি অবস্থা
সরকারি ভাষা
 ভারত (পশ্চিমবঙ্গ)[৪]
ভাষা কোডসমূহ
আইএসও ৬৩৯-৩বিভিন্ন প্রকার:
rkt – কামতা/রংপুরী
rjs – রাজবংশী
kyv – Kayort[১]
গ্লোটোলগrang1265  (রংপুরী)[৫]
rajb1243  (রাজবংশী)[৬]

রংপুরী (ভারতনেপালকামতাপুরী বা রাজবংশী ) একটি ইন্দো-আর্য পরিবারভুক্ত বাংলার উপভাষা ভাষা। এ ভাষায় বাংলাদেশের রাজবংশী সম্প্রদায়, ভারত এবং নেপাল এর রাজবংশী, তাজপুরিয়া, নস্যশেখ, নাথ-যোগী, খেন সম্প্রদায়ের লোকেরা কথা বলে। বাংলা ভাষার প্রমিত রীতির ভিত্তি নদীয়া তথা পশ্চিমাঞ্চলীয় আঞ্চলিক বাংলা হওয়ায়, বাংলা ভাষার মূল রীতির সাথে এর যথেষ্ট পার্থক্য দেখা যায়। তবে এই ভাষাভাষী জনগণ কার্যত দ্বিভাষী। তারা রাজবংশী ভাষার পাশাপাশি বাংলা ভাষা অথবা অসমীয়া ভাষায় কথা বলে।

নাম[সম্পাদনা]

কামতাপুরী/রংপুরী/রাজবংশী ভাষা বিভিন্ন নামে পরিচিত। ঐতিহাসিকভাবে সারাবিশ্বে ভাষাটি রংপুরী (অম্পুরীয়া), কামতাপুরী, রাজবংশী নামে পরিচিত। ভারতে কামতাপুরী, রাজবংশী,গোয়ালপারীয়া বা কোচ-রাজবংশী, সূর্যাপুরী এবং নেপালে তাজপুরি নামে পরিচিত।

উপভাষা[সম্পাদনা]

রংপুরি ভাষার একাধিক কথ্য রূপ প্রচলিত। একে পূর্ব, মধ্য, পশ্চিম এবং পাহাড়ী (কোচ) এই চার ভাগে ভাগ করা যায়। এই ভাষাভাষী জনগোষ্ঠীর মধ্য রাজবংশী ভাষায় অধিকাংশ লোকে কথা বলে। ভাষা মোটামুটি একই রকম এবং এই ভাষায় কিছু প্রকাশনা আছে। পশ্চিমা কথ্যরূপে এলাকাভেদে পরিবর্তিত হয়। তিন কথ্যরূপের মধ্যে ৭৭-৮৯% মিল পাওয়া যায়। রাজবংশী ভাষা ৪৮-৫৫ ভাগ বাংলা, ৪৩-৪৯ ভাগ মৈথিলি এবং নেপালি শব্দ দ্বারা গঠিত।

অসমীয়া, সিলেটি এবং বাংলার সাথে তুলনা[সম্পাদনা]

রাজবংশী অসমীয়া বাংলা সিলেটি
Muĩ kôrû Môi kôrû Ami kôri Ami/Mui xôri
Muĩ kôrûsû Môi kôri asû Ami kôrchi Ami/Mui xôriar/xôrram
Muĩ kôrsinû Môi kôrisilû Ami kôrêchi Ami/Mui xôrsilam
Muĩ kôrûsinû Môi kôri asilû Ami kôrchilam Ami/Mui xôrat aslam
Muĩ kôrim Môi kôrim Ami kôrbo Ami/Mui xôrmu
Muĩ kôrtê thakim Môi kôri/kôrat thakim Ami kôrtê thakbo Ami/Mui xôrat tha'xmu

পরিসীমা[সম্পাদনা]

আসামের ধুবড়ী, কোকরাঝার, চিরাং, বঙাইগাঁও এবং গোয়ালপাড়া জেলায় এই ভাষাভাষী মানুষের সংখ্যা সৰ্বাধিক; দরং জেলাতে এই ভাষাভাষী কিছু সংখ্যক লোক আছে। উত্তর বঙ্গের কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দার্জিলিংয়ের তরাই অঞ্চল, বিহারের কাটিহার, পূৰ্ণিয়া এবং কিষানগঞ্জ জেলার কিছু অঞ্চল, নেপালের মোরং এবং ঝাপা জেলা, ভূটানের কিছু অঞ্চল, বাংলাদেশের অবিভক্ত রংপুর, দিনাজপুর এবং ঠাকুরগাঁও জেলায় এই ভাষার মানুষ আছে। মেঘালয়, ত্ৰিপুরা এবং সম্বলপুর (ওড়িশা)তে এই ভাষার লোক আছে। অঞ্চলভেদে রাজবংশী, গোয়ালপারীয়া, দেশি ভাষা, রংপুরী ভাষা আদি বিভিন্ন নামে পরিচিত। এই ভাষাভাষী মানুষের সংখ্যা ১৫ মিলিয়নেরও অধিক।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Hammarström (2015) Ethnologue 16/17/18th editions: a comprehensive review: online appendices
  2. এথ্‌নোলগে কামতা/রংপুরী (১৮তম সংস্করণ, ২০১৫)
    এথ্‌নোলগে রাজবংশী (১৮তম সংস্করণ, ২০১৫)
    এথ্‌নোলগে Kayort[১] (১৮তম সংস্করণ, ২০১৫)
  3. Toulmin 2006
  4. PTI (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮)। "Kamtapuri, Rajbanshi ,Rangpuri make it to list of official languages in Bengal"Outlook India। ১৬ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১৯ 
  5. হ্যামারস্ট্রোম, হারাল্ড; ফোরকেল, রবার্ট; হাস্পেলম্যাথ, মার্টিন, সম্পাদকগণ (২০১৭)। "রংপুরী"গ্লোটোলগ ৩.০ (ইংরেজি ভাষায়)। জেনা, জার্মানি: মানব ইতিহাস বিজ্ঞানের জন্য ম্যাক্স প্লাংক ইনস্টিটিউট। 
  6. হ্যামারস্ট্রোম, হারাল্ড; ফোরকেল, রবার্ট; হাস্পেলম্যাথ, মার্টিন, সম্পাদকগণ (২০১৭)। "রাজবংশী"গ্লোটোলগ ৩.০ (ইংরেজি ভাষায়)। জেনা, জার্মানি: মানব ইতিহাস বিজ্ঞানের জন্য ম্যাক্স প্লাংক ইনস্টিটিউট। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]