প্রাচীন মসজিদ (নয়াবাদ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
প্রাচীন মসজিদ (নয়াবাদ)

নয়াবাদের প্রাচীন মসজিদ

অবস্থান বাংলাদেশ দিনাজপুর জেলা, বাংলাদেশ
মালিকানা প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তর
স্থাপত্য তথ্য
ধরণ ইসলামিক স্থাপত্য

প্রাচীন মসজিদ (নয়াবাদ) বাংলাদেশের রংপুর বিভাগে অবস্থিত একটি প্রাচীন স্থাপনা। এটি মূলত কাহারোল উপজেলার অন্তর্গত একটি প্রাচীন মসজিদ। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা।[১]

অবস্থান[সম্পাদনা]

দিনাজপুর শহর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে কাহারোল উপজেলার নয়াবাদ নামে গ্রামে নয়াবাদ মৌজায় একটি মসজিদ দেখা যাবে। এই স্থপনা নয়াবাদ গ্রামের এক বিচিত্র মসজিদ নামে পরিচিত। চেহেলগাজীর মাযার থেকে ২.৫ কিলোমিটার দূরে নয়াবাদ মসজিদ অবস্থিত। মসজিদটি ঢেপা নদীর পাশে।[২]

বিবরণী[সম্পাদনা]

মসজিদটি ১.১৫ বিঘা জমির উপর তৈরি করা হয়েছে। মসজিদটির তিনটি গম্বুজ, তিনটি মেহরাব এবং সামনের দেয়ালে তিন দরজা আছে। এই মসজিদের একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হচ্ছে মসজিদের সামনের দেয়ালে পোড়ামাটির চিত্রফলকে প্রাণীজগতের বিভিন্ন চিত্রের দেখা মেলে। এই ধরণের দারিয়া মসজিদ নামে আরো একটি মসজিদ নবাবগঞ্জ উপজেলায় দেখা যায়। এই দুটি ছাড়া বাংলাদেশে আর কোনো মসজিদে জীবজন্তুর ছবি দেখা যায় না।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

মসজিদের প্রবেশের করার জন্য যে প্রধান দরজার আছে তার উপর স্থাপিত একটি ফলক থেকে জানা যায় এটি সম্রাট দ্বিতীয় শাহ আলমের রাজত্ব কালে ইংরেজি ১৭৯৩ সালে নির্মাণ করা হয়। সেসময় সেখানকার জমিদার ছিলেন রাজা বৈদ্যনাথ। তিনি ছিলেন দিনাজপুর রাজ পরিবারের সর্বশেষ বংশধর। এলাকার অধিবাসীদের কাছে জানা যায়, ১৮ শতকে কান্তজীউ মন্দির তৈরির কাজে যে মুসলমান স্থপতি ও কর্মীরা আসে তারা এই মসজিদটি তৈরি করেন।তারা পশ্চিমের কোন দেশ থেকে এসে এখানে বসবাস শুরু করেন এবং তাদের নিজেদের ব্যবহারের জন্য এই মসজিদটি নির্মাণ করেন।[৩]

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "রংপুর বিভাগের পুরাকীর্তি"বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরhttp://www.archaeology.gov.bd/। সংগ্রহের তারিখ ৩rd August ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য); |publisher= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  2. আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়া লেখক; প্রশ্নোত্তরে বাঙলাদেশের প্রত্নকীর্তি (প্রথম খন্ড); ঝিনুক প্রকাশনী; তৃতীয় মুদ্রণঃ মার্চ ২০১৩; পৃষ্ঠা- ১১৪, ISBN 984-70112-0112-0
  3. "নয়াবাদ মসজিদ"http://amazingdinajpur.com/। ৭ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৪, ২০১৬  |publisher= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)