কেসি অ্যাফ্লেক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেসি অ্যাফ্লেক
Casey Affleck at the Manchester by the Sea premiere (30199719155) (cropped).jpg
বিএফআই লন্ডন চলচ্চিত্র উৎসবে অ্যাফ্লেক, ২০১৬
স্থানীয় নাম
Caleb Casey McGuire Affleck-Boldt
জন্ম
ক্যালেব কেসি ম্যাগুইয়ার অ্যাফ্লেক-বোল্ট

(1975-08-12) ১২ আগস্ট ১৯৭৫ (বয়স ৪৪)
ফ্যালমাউথ, ম্যাসাচুসেট্‌স, যুক্তরাষ্ট্র
বাসস্থানলস ফেলিজ, লস অ্যাঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া
জাতীয়তামার্কিন
যেখানের শিক্ষার্থীজর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়
কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেতা, পরিচালক
কার্যকাল১৯৮৮-বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
পূর্ণ তালিকা
দাম্পত্য সঙ্গীসামার ফিনিক্স (বি. ২০০৬; বিচ্ছেদ. ২০১৭)
সন্তান
পিতা-মাতাটিমথি বায়ার্স অ্যাফ্লেক (পিতা)
ক্রিস্টোফার অ্যানি (মাতা)
আত্মীয়বেন অ্যাফ্লেক (ভাই)
পুরস্কারএকাডেমি পুরস্কার
গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার
বাফটা পুরস্কার

ক্যালেব কেসি ম্যাগুইয়ার অ্যাফ্লেক-বোল্ট (ইংরেজি: Caleb Casey McGuire Affleck-Boldt, যিনি কেসি অ্যাফ্লেক নামে পরিচিত, জন্ম: ১২ আগস্ট, ১৯৭৫) হলেন একজন মার্কিন অভিনেতা ও পরিচালক। তিনি ১৯৮৮ সালে পিবিএস-এর লেমন স্কাই টেলিভিশন চলচ্চিত্রে শিশু শিল্পী হিসেবে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯০ সালে তিনি দ্য কেনেডিজ অব ম্যাসাচুসেট্‌স মিনিসিরিজে অভিনয় করেন। পরবর্তীতে তিনি গুস ভ্যান স্যান্ট পরিচালিত তিনটি চলচ্চিত্র - টু ডাই ফর (১৯৯৫), গুড উইল হান্টিং (১৯৯৭) ও গেরি (২০০২) এবং স্টিভেন সোডারবার্গ পরিচালিত তিনটি হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র - ওশান্‌স ইলেভেন (২০০১), ওশান টুয়েলভ (২০০৪) ও ওশান থার্টিন (২০০৭) এ অভিনয় করেন। তিনি প্রথম কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন স্টিভ বুসেমি পরিচালিত হাস্যরসাত্মক-নাট্য চলচ্চিত্র লোনসাম জিম (২০০৬) চলচ্চিত্রে।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

কেসি অ্যাফ্লেক ১৯৭৫ সালের ১২ আগস্ট ফ্যালমাউথ, ম্যাসাচুসেট্‌স এ জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা টিমথি বায়ার্স অ্যাফ্লেক এবং মাতা ক্রিস্টোফার অ্যানি (বোল্ডট)।[১][২][৩] তার উপনাম "অ্যাফ্লেক" একটি স্কটিশ উপনাম।[৪] তার পূর্বপুরুষদের অনেকে ইংরেজ, আইরিশ, এবং সুইস।[৫][৬][৭][৮] তার মা র‍্যাডক্লিফ কলেজ এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেছেন এবং একজন প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক। তার বাবা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম কাজ করতেন, যেমন অটো মেকানিক,[৯][১০] কাঠমিস্ত্রী,[১১] বুকি,[১২][১৩] ইলেক্ট্রিশিয়ান,[১৪] বারটেন্ডার[১৫] ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বাররক্ষক।[১৬][১৭][১৮][১৯] ১৯৬০ সালের মাঝামাঝিতে তিনি থিয়েটার কোম্পানি অফ বোস্টন এর মঞ্চ ব্যবস্থাপক, পরিচালক, লেখক ও অভিনেতা হিসেবে কাজ করেন।[২০][২১][২২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

অ্যাফ্লেক ২০০৭ সালে দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন এবং সফলতা অর্জন করেন।[২৩] প্রথমটি হল পশ্চিমা ধারার দি অ্যাসাসিনেশন অব জেসি জেমস বাই দ্য কাওয়ার্ড রবার্ট ফোর্ড, এতে তিনি ব্র্যাড পিটের করা জেসি জেমসের বিপরীতে রবার্ট ফোর্ড চরিত্রে অভিনয় করেন।[২৪] অ্যাফ্লেক এই চরিত্রের জন্য একাধিকবার অডিশন দেন।[২৫] পরিচালক অ্যান্ড্রু ডমিনিক অ্যাফ্লেককে গেরি ছবিতে দেখার পর[২৬][২৭] তার সুন্দর-কণ্ঠের জন্য তাকে আংশিকভাবে নির্বাচন করেন।[২৮][২৯] দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর ম্যানোহলা ডার্গিস অ্যাফ্লেকের অভিনয়ের সম্পর্কে লিখেন, "তার চরিত্রটিকে নির্বোধ এবং তাকে বুদ্ধিদীপ্ত ও চতুর মনে হয়েছে।"[৩০] একই রকমভাবে, ইউএসএ টুডে'র ক্লাউদিয়া পুইগ তাকে বাস্তবিক অর্থে প্রকাশক হিসেবে বর্ণনা করেছেন, "যিনি উপযুক্তরূপে চরিত্রটিকে নিজের করে নিয়েছেন।"[৩১] অন্যদিকে ভ্যারাইটি'র টড ম্যাকার্থি বলেন অ্যাফ্লেক "শঙ্কাপন্ন ও শারীরিকভাবে অপ্রস্তুত দুর্বল ব্যক্তি হিসেবে অমোচনীয় ছাপ তৈরি করেছেন।"[৩২] স্লেট ম্যাগাজিনের ড্যানা স্টিভেন্স বলেন, "চলচ্চিত্রটি অ্যাফ্লেকের, যিনি খুবই সাহসী ও অদ্ভুত অভিনয় দিয়ে নিজেকে ভেঙ্গে গড়েছেন।" অ্যাফ্লেক তার অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার, গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারস্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম চরিত্র পরিচালক টীকা
১৯৯৫ টু ডাই ফর রাসেল হাইনেস গুস ভ্যান স্যান্ট
১৯৯৬ রেস দ্য সান ড্যানিয়েল ওয়েবস্টার
১৯৯৭ চেজিং অ্যামি বাচ্চা
গুড উইল হান্টিং মরগ্যান ও'মালি গুস ভ্যান স্যান্ট
১৯৯৮ ডেজার্ট ব্লু পিট কেপলার
১৯৯৯ ২০০ সিগারেটস্‌ টম
অ্যামেরিকান পাই টম মেয়ারস ক্রেডিট দেওয়া হয় নি
ফ্লোটিং
২০০০ ড্রাউনিং মোনা ববি ক্যালজোন
কমিটেড জে
হ্যামলেট ফর্টিনব্রাস
অ্যাটেনশন শপার্স জেড
২০০১ ওশান্‌স ইলেভেন ভার্জিল ম্যালয় স্টিভেন সোডারবার্গ
অ্যামেরিকান পাই ২ টম মেয়ারস
সোল সার্ভাইভার্স সীন
২০০২ গেরি গেরি গুস ভ্যান স্যান্ট চিত্রনাট্যকার
২০০৪ ওশান্‌স টুয়েলভ ভার্জিল ম্যালয় স্টিভেন সোডারবার্গ
২০০৫ লোনসাম জিম জিম স্টিভ বুসেমি
২০০৬ দ্য লাস্ট কিস ক্রিস
২০০৭ ওশান্‌স থার্টিন ভার্জিল ম্যালয় স্টিভেন সোডারবার্গ
দি অ্যাসাসিনেশন অব জেসি জেমস বাই দ্য কাওয়ার্ড রবার্ট ফোর্ড রবার্ট ফোর্ড
গন বেবি গন প্যাট্রিক কেঞ্জি
২০১০ দ্য কিলার ইনসাইড মি লু ফোর্ড
আই অ্যাম স্টিল হিয়ার নিজে কেসি অ্যাফ্লেক প্রযোজক, লেখক, চিত্রগ্রাহক ও চিত্রসম্পাদক
২০১১ টাওয়ার হেইস্ট চার্লি গিবস
২০১২ প্যারানরম্যান মিচ ডাউনি কণ্ঠ
২০১৩ এইন্ট দেম বডিজ সেন্ট্‌স বব মুলডুন
আউট অফ দ্য ফার্নেস রোডনি বেজ, জুনিয়র
২০১৪ ইন্টারস্টেলার টম কুপার ক্রিস্টোফার নোলান
২০১৫ ইউনিটি বর্ণনাকারী প্রামাণ্য চিত্র
২০১৬ ম্যানচেস্টার বাই দ্য সী লি চ্যান্ডলার
দ্য ফাইনেস্ট আউয়ার্স রে সিবার্ট
ট্রিপল নাইন ক্রিস অ্যালেন
২০১৭ আ ঘোস্ট স্টোরি সি
২০১৮ দি ওল্ড ম্যান অ্যান্ড দ্য গান জন হান্ট
২০১৯ লাইট অফ মাই লাইফ ড্যাড কেসি অ্যাফ্লেক লেখক ও পরিচালক
দ্য ফ্রেন্ড ম্যাথু টিগ নির্মাণ-উত্তর

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

বছর শিরোনাম চরিত্র টীকা
১৯৮৮ লেমন স্কাই জেরি টেলিভিশন চলচ্চিত্র
১৯৯০ দ্য কেনেডিজ অফ ম্যাসাচুসেট্‌স রবার্ট কেনেডি টিভি মিনি সিরিজ
২০১০ দ্য এয়ার ওয়ার জো আর্মানিনি কণ্ঠ
২০১৬ স্যাটারডে নাইট লাইভ ক্রিস পর্ব:কেসি অ্যাফ্লেক

পুরস্কার[সম্পাদনা]

একাডেমি পুরস্কার
বছর পুরস্কারের বিভাগ চলচ্চিত্র ফলাফল
২০০৮ শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা দ্য অ্যাসাসিনেশন অব জেসি জেমস বাই দ্য কাওয়ার্ড রবার্ট ফোর্ড মনোনীত
২০১৭ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা ম্যানচেস্টার বাই দ্য সী বিজয়ী
গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার
বছর পুরস্কারের বিভাগ চলচ্চিত্র ফলাফল
২০০৮ সেরা পার্শ্ব অভিনেতা - চলচ্চিত্র দি অ্যাসাসিনেশন অব জেসি জেমস বাই দ্য কাওয়ার্ড রবার্ট ফোর্ড মনোনীত
২০১৭ সেরা অভিনেতা - নাট্য চলচ্চিত্র ম্যানচেস্টার বাই দ্য সী বিজয়ী
বাফটা পুরস্কার
বছর পুরস্কারের বিভাগ চলচ্চিত্র ফলাফল
২০১৭ সেরা প্রধান চরিত্রে অভিনেতা ম্যানচেস্টার বাই দ্য সী বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Casey Affleck"TV Guide। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৬, ২০১৬ 
  2. Stated on Finding Your Roots, PBS, October 14, 2014.
  3. A reunion report, and a ringtail cat | Harvard Magazine Mar–Apr 2010. Harvardmagazine.com (September 25, 2013). Retrieved June 5, 2014.
  4. "CNN.com – Transcripts"। Transcripts.cnn.com। মার্চ ১৬, ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২৭, ২০১৪ 
  5. "Ben Affleck Interview for THE TOWN – Interviews"। Movies.ie। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২৭, ২০১৪ 
  6. O'Connor, Liz; Lubin, Gus; Spector, Dina (আগস্ট ১৩, ২০১৩)। "The Largest Ancestry Groups in the United States"। Business Insider। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২৭, ২০১৫ 
  7. Stated on Inside the Actors Studio, 2001
  8. "Film Interview – Ben Affleck / 'Hollywoodland'"। Event Guide। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২২, ২০০৭ 
  9. Cinezine – Frank Discussions With Ben Affleck. Viewaskew.com. Retrieved June 5, 2014.
  10. Morris, Wesley (সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০)। "With new film, Affleck ties Boston knot tighter"Boston.com। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ১৪, ২০১৪ 
  11. "December '99-Playboy: Interview with Ben Affleck"www.oocities.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০১-০১ 
  12. Fleming, Michael (জানুয়ারি ২৭, ২০১৪)। "Ben Affleck on Argo, His Distaste For Politics and the Batman Backlash"Playboy। সংগ্রহের তারিখ জুন ৫, ২০১৪ 
  13. Reality Check – Rehab, Substance Abuse, Coping and Overcoming Illness, Ben Affleck. People.com (August 20, 2001). Retrieved June 5, 2014.
  14. Schneider, Karen S. (ফেব্রুয়ারি ২১, ২০০০)। "Good Time Hunting – Personal Success, Ben Affleck"People। সংগ্রহের তারিখ জুন ৫, ২০১৪ 
  15. Atkinson, Kim. (May 15, 2006) The Other Affleck. Boston Magazine. Retrieved June 5, 2014.
  16. "Ben Affleck Biography (1972–)"। Film reference। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৬, ২০০৮ 
  17. THESE VIOLENT DELIGHTS: Malick gave Good Will Hunting its ending. Tomshone.blogspot.ie (January 5, 2011). Retrieved June 5, 2014.
  18. "Casey Affleck Biography (1975–)"। Film Reference। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৬, ২০০৮ 
  19. Stickgold, Emma (ফেব্রুয়ারি ১০, ২০০৩)। "Mrs. Shaw was also the grandmother of Hollywood actors Ben and Casey Affleck."। Pqasb.pqarchiver.com। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৭, ২০১৩ 
  20. DAVID WHEELER, Father Of The Boston Theatre Scene | Actors' Equity Association ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৭ মে ২০১৪ তারিখে. Actorsequity.org (January 27, 2012). Retrieved June 5, 2014.
  21. PERFORMANCES | Off-Broadway ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে. Larrybryggman.com. Retrieved June 5, 2014.
  22. The Cocktail Party | News | The Harvard Crimson. Thecrimson.com. Retrieved June 5, 2014.
  23. Buckley, Cara (নভেম্বর ৪, ২০১৬)। "Casey Affleck Is Making Another Splash, Reluctantly"The New York Times (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  24. "'The Assassination of Jesse James' Interview: Brad Pitt and Casey Affleck Repeat the Lore" (ইংরেজি ভাষায়)। Hollywood.com। সেপ্টেম্বর ২১, ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  25. "The Other Affleck" (ইংরেজি ভাষায়)। mysinchew.com। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  26. "Interview: Assassination of Jesse James's Director Andrew Dominik" (ইংরেজি ভাষায়)। FirstShowing.net। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  27. "Living in the Shadow of 'Jesse James': An Appreciation of Casey Affleck's Best Performance"The Film Stage (ইংরেজি ভাষায়)। ডিসেম্বর ২, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  28. "Exclusive: 'Jesse James' director remembers embattled production as revival screening looms"UPROXX (ইংরেজি ভাষায়)। নভেম্বর ৭, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  29. হফম্যান, জর্ডান। "Terrence Malick Thought It Was Too Slow: 10 Things Learned From The Revival Screening Of 'The Assassination Of Jesse James By The Coward Robert Ford'"ইন্ডিওয়্যার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  30. Dargis, Manohla (সেপ্টেম্বর ২১, ২০০৭)। "The Assassination of Jesse James by the Coward Robert Ford – Movies – Review"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  31. Puig, Claudia (সেপ্টেম্বর ২০, ২০০৭)। "'Jesse James' is just a great, gorgeous Western"USA Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 
  32. McCarthy, Todd (আগস্ট ৩১, ২০০৭)। "The Assassination of Jesse James by the Coward Robert Ford"Variety (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]