পল স্কোফিল্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পল স্কোফিল্ড

Paul Scofield
Paul Scofield Allan Warren.jpg
১৯৭৪ সালে স্কোফিল্ড
জন্ম
ডেভিড পল স্কোফিল্ড

(১৯২২-০১-২১)২১ জানুয়ারি ১৯২২
মৃত্যু১৯ মার্চ ২০০৮(2008-03-19) (বয়স ৮৬)
সাসেক্স, ইংল্যান্ড
মৃত্যুর কারণলুকেমিয়া
সমাধিসেন্ট ম্যারিস চার্চইয়ার্ড, ব্যালকোম্ব
পেশাঅভিনেতা
কর্মজীবন১৯৪০–২০০৬[ক]
দাম্পত্য সঙ্গীজয় পার্কার (বি. ১৯৪৩)
সন্তান

ডেভিড পল স্কোফিল্ড সিএইচ সিবিই (ইংরেজি: David Paul Scofield; ২১শে জানুয়ারি ১৯২২ - ১৯শে মার্চ ২০০৮) ছিলেন একজন ইংরেজ অভিনেতা। তিনি মঞ্চ ও পর্দায় অভিনয় করেছেন। তিনি তার ব্যতিক্রমী কণ্ঠস্বর এবং সংলাপ প্রদানে স্পষ্টতা ও দৃঢ়তার জন্য প্রসিদ্ধ ছিলেন। সর্বকালের অন্যতম সেরা শেকসপিয়ারীয় অভিনেতা বলে বিবেচিত স্কোফিল্ড চলচ্চিত্রের চেয়ে মঞ্চে অভিনয় করা পছন্দ করতেন। এই কারণে এবং পরিবারকে প্রাধান্য দিতে গিয়ে তিনি যুক্তরাজ্যের বাইরে তেমন পরিচিতি লাভ করেননি।

তার মাতৃভূমির বাইরে তিনি ১৯৬৬ সালের আ ম্যান ফর অল সিজনস্‌ চলচ্চিত্রের স্যার টমাস মোর চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে অস্কার, গোল্ডেন গ্লোব, ও বাফটা পুরস্কার লাভের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। স্কোফিল্ড পূর্বে ওয়েস্ট এন্ড মঞ্চে এই চরিত্রে অভিনয় করেন এবং ব্রডওয়েতে অভিনয় করে টনি পুরস্কার লাভ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পল স্কোফিল্ড ১৯২২ সালের ২১শে জানুয়ারি ইংল্যান্ডের ওয়ারউইকশায়ারের বার্মিংহামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা এডওয়ার্ড হ্যারি স্কোফিল্ড ও মাতা ম্যারি স্কোফিল্ড।[৩] পলের যখন মাত্র কয়েক মাস বয়স, তারা স্বপরিবারে সাসেক্সের হার্স্টপিয়ারপয়েন্টে চলে যান। সেখানে তার পিতা হার্স্টপিয়ারপয়েন্ট চার্চ অব ইংল্যান্ড স্কুলের প্রধান শিক্ষক পদে দায়িত্ব পালন করেন।[৪] স্কোফিল্ড তার জীবনীকার গ্যারি ওকনরকে বলেন দুই ধর্ম অনুসারে বেড়ে ওঠেন। তার পিতা ছিলেন অ্যাঞ্জেলিকান এবং মাতা ছিলেন রোমান ক্যাথলিক। তার মায়ের ক্যাথলিক বিশ্বাস অনুযায়ীই তার অভিসিঞ্চন হয়।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

স্কোফিল্ড ১৯৪০ সালে মঞ্চে অভিনয় শুরু করেন এবং তার অভিনীত প্রথম মঞ্চনাটক ছিল ওয়েস্টমিন্‌স্টারে মার্কিন নাট্যকার ইউজিন ওনিলের ডিজায়ার আন্ডার দ্য এল্মস। অল্প কিছুদিনের মধ্যে তাকে লরন্স অলিভিয়ের সাথে তুলনা শুরু করা হয়।

১৯৬০ ও ১৯৭০-এর দশকে তিনি মঞ্চে রবার্ট বোল্টের আ ম্যান ফর অল সিজনস্‌ (১৯৬০)-এ স্যার টমাস মোর চরিত্রে; রয়্যাল শেকসপিয়ার কোম্পানিতে মঞ্চস্থ চার্লস ডায়ারের স্টেয়ারকেস (১৯৬৬)-এ ডায়ার চরিত্রে; জন অসবর্নের আ হোটেল ইন আমস্টারডাম (১৯৬৮)-এ লরি চরিত্রে; এবং পিটার শ্যাফারের মূল আমাডেয়ুস (১৯৭৯)-এ আন্তোনিও সালিয়েরি চরিত্রে অভিনয় করেন। আ ম্যান ফর অল সিজনস্‌ মঞ্চনাটকে অভিনয়ের জন্য তিনি ১৯৬২ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে টনি পুরস্কার অর্জন করেন।

তিনি ১৯৬৬ সালে আ ম্যান ফর অল সিজনস্‌ নাটকের চলচ্চিত্ররূপে (১৯৬৬) স্যার টমাস মোর চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার,[৬] গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, ও বাফটা পুরস্কার লাভের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। স্কোফিল্ড পূর্বে ওয়েস্ট এন্ড মঞ্চে এই চরিত্রে অভিনয় করেন এবং ব্রডওয়েতে অভিনয় করে টনি পুরস্কার লাভ করেন।

তিনি দ্য ট্রেন (১৯৬৪) চলচ্চিত্রে ভেরমাখট কর্নেল ফন ভাল্ডহাইম, হেনরি জেমসের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ১৯৭৭ সালে টিভি চলচ্চিত্র দি অ্যাম্বাসেডরস-এ স্ট্রেদার; এডওয়ার্ড অ্যালবির আ ডেলিকেট ব্যালেন্স (১৯৭৩)-এ টোবিয়াস; বিবিসি টেলিভিশনের ইয়ানোস নিইরির ইফ উইন্টার কামস (১৯৮০) চলচ্চিত্রে প্রফেসর মরয়; রবার্ট রেডফোর্ডের কুইজ শো (১৯৯৪) চলচ্চিত্রে মার্ক ভ্যান ডরেন; এবং আর্থার মিলারের দ্য ক্রুসিবল অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্রে (১৯৯৬)-এ টমাস ড্যানফোর্থ চরিত্রে অভিনয় করেন। কুইজ শো চলচ্চিত্রে তার অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৭]

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা টীকা সূত্র
১৯৫৫ দ্যাট লেডি রাজা দ্বিতীয় ফিলিপ বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নবাগত বিভাগে বাফটা পুরস্কার
১৯৫৮ কার্ভ হার নেম উইথ প্রাইড টনি ফ্রেজার
১৯৬৪ দ্য ট্রেন কর্নেল ফন ওয়াল্ডহাইম
১৯৬৬ আ ম্যান ফর অল সিজনস্‌ স্যার টমাস মোর বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে অস্কার, গোল্ডেন গ্লোব, বাফটামস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব পুরস্কার[৮]
১৯৬৮ টেল মি লাইজ
১৯৭০ বার্টলবাই হিসাবরক্ষক
নিজিন্‌স্কি: আনফিনিশ্‌ড প্রজেক্ট সের্গেই দিয়াগহিলেভ
১৯৭১ কিং লিয়ার কিং লিয়ার বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে বদিল পুরস্কার
১৯৭৩ স্করপিও ঝারকভ
আ ডেলিকেট ব্যালেন্স টোবিয়াস
১৯৮৩ ইল ফেয়ারস দ্য ল্যান্ড কণ্ঠ
১৯৮৪ সামার লাইটনিং রবার্ট ক্লার্ক
১৯৮৫ ১৯১৯ আলেকসান্দর শের্বাটভ
আন্না কারেনিনা কারেনিন টেলিভিশন চলচ্চিত্র
১৯৮৯ হোয়েন দ্য হোয়েল্‌স কাম বার্ডম্যান
ফিফথ হেনরি ষষ্ঠ চার্লস
১৯৯০ হ্যামলেট ভূত
১৯৯২ উৎজ ডক্টর ভাকলাক অর্লিক
লন্ডন বর্ণনাকারী
১৯৯৪ জেনেসিস: দ্য ক্রিয়েশন অ্যান্ড দ্য ফ্লাড কণ্ঠ
কুইজ শো মার্ক ফান ডরেন
১৯৯৬ দ্য ক্রুসিবল জজ থমাস ড্যানফোর্থ বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা বিভাগে বাফটা পুরস্কার
১৯৯৭ রবিনসন ইন স্পেস বর্ণনাকারী
১৯৯৯ অ্যানিমেল ফার্ম বক্সার কণ্ঠ
রাশি: আ লাইট আফটার দ্য ডার্ক এজেস কণ্ঠ

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. ইয়ান ম্যাকেলেনের ভাষ্যমতে জনসম্মুখে স্কোফিল্ডের সর্বশেষ কাজ ছিল ২০০৪ সালের ১৯শে এপ্রিল,[১] কিন্তু স্কোফিল্ডের সর্বশেষ বেতার নাটক "সোয়ান সং" ২০০৬ সালে রেকর্ড করা হয়। He is credited with an appearance on BBC's "Poetry Please" program on 27 January 2008, but it is not clear if the recording was made from a live performance or whether material from the BBC archives was used.[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Paul Scofield, CH CBE (1922-2008)"Ian McKellen writings (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৮ 
  2. "Broken Music: The Recorded Performances of Paul Scofield"Paul Scofield performances (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৮ 
  3. "Full text of "The Player A Profile Of An Art""। Archive.org। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. রস, লিলিয়ান ও হেলেন (১৯৬৬)। The Player: A Profile of An Art। নিউ ইয়র্ক। আইএসবিএন ৯৭৮-০-৮৭৯১০-০২০-৯
  5. ওকনর (২০০২), পৃ. ১৯–২০।
  6. "Oscar-winning actor Paul Scofield dies"দ্য হলিউড রিপোর্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২১ মার্চ ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০২০ 
  7. "The 66th Academy Awards | 1994"অস্কার (ইংরেজি ভাষায়)। একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০২০ 
  8. "5th Moscow International Film Festival (1967)"MIFF। ১৬ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]