ব্র্যাড পিট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ব্র্যাড পিট
A Caucasian male in his mid-40s with brown hair. He is wearing a black suit and white shirt with a black bow-tie.
জন্ম উইলিয়াম ব্রাডলি পিট
(১৯৬৩-১২-১৮) ডিসেম্বর ১৮, ১৯৬৩ (বয়স ৫২)
শাওনি, ওকলাহোমা, যুক্তরাষ্ট্র
জাতীয়তা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আমেরিকান
পেশা অভিনেতা, চলচ্চিত্র প্রযোজক
কার্যকাল ১৯৮৭–বর্তমান
দম্পতি জেনিফার অ্যানিস্টন (বি. ২০০০০৫)
অ্যাঞ্জেলিনা জোলি (বি. ২০১৪)
সঙ্গী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি (২০০৫–২০১৪)
সন্তান
আত্মীয় ডগলাস পিট (ভাই)

উইলিয়াম ব্রাডলি "ব্রাড" পিট[১] (ইংরেজি: William Bradley "Brad" Pitt) (জন্ম: ১৮ ডিসেম্বর, ১৯৬৩) একজন মার্কিন অভিনেতা ও চলচ্চিত্র প্রযোজক। তাঁকে পৃথিবীর অন্যতম আকর্ষণীয় একজন ব্যক্তি হিসেবে ধরা হয়, আর এর পেছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে তাঁর পর্দার বাইরের জীবন সম্পর্কিত গণমাধ্যমের সংবাদগুলো।[২][৩] পিট দুইবার একাডেমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন, এবং চারবার গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়ে একবার তা জিতেছেন।

টেলিভিশনে অতিথি উপস্থিতির মাধ্যমে পিট তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন। এরকম একটি টেলিভিশন ধারাবাহিক হচ্ছে ১৯৮৭ সালে সিবিএস থেকে প্রচারিত ধারাবাহিক নাটক ডালাস-এ। ১৯৯১ সালে পথচলচ্চিত্র থেলমা এন্ড লুইস-এ জিনা ডেভিসের বিপরীতে একজন হিচ হাইকারের বিপরীতে অভিনয় করে তিনি ভালো পরিচিত লাভ করেন। আ রিভার রান্‌স থ্রু ইট (১৯৯২) ও ইন্টারভিউ উইথ দ্য ভ্যাম্পায়ার (১৯৯৪) চলচ্চিত্রে মূল ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে তাঁর বড় বাজেটের চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু।

অভিনেত্রী গিনেথ প্যালট্রোর সাথে খুব ভালো একটি সম্পর্কে জড়িয়ে থেকে. তিনি পরর্তীতে বিয়ে করেন অভিনেত্রী জেনিফার অ্যানিস্টনকে। পাঁচ বছর বিবাহতি থাকার পর তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে। ২০০৯ পর্যন্ত তিনি অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সাথে একসাথে বাস করছেন, যা বিশ্বব্যাপী মিডিয়ার নজর কেড়েছে।[৪] তাঁর এবং জোলির ম্যাডক্স, জাহারা, প্যাক্স নামে তিনটি দত্তক নেওয়া সন্তান আছে, সেই সাথে রয়েছে নিজের জন্ম দেওয়া তিন সন্তান শিলোহ, নক্স, ও ভিভিয়ান। প্ল্যান বি এন্টারটেইনমেন্ট নামে পিটের একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রয়েছে, যা ২০০৭ সালে সেরা চলচ্চিত্র বিভাগে একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত ছবি দ্য ডিপার্টেড প্রযোজনা করে। জোলির সাথে সম্পর্কে শুরু হবার পর তিনি যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িত আছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Dinh, Mai; Janet Murphy. "Brad Pitt Biography" People. p. 2. Retrieved May 16, 2008.
  2. "Brad Pitt 'sexiest man alive'". BBC News Online. November 2, 2000. Retrieved November 15, 2008.
  3. Bryner, Jeanna (আগস্ট ২৩, ২০০৭)। "Study: Men With 'Cavemen' Faces Most Attractive to Women"Fox News। সংগৃহীত জানুয়ারি ১, ২০০৮ 
  4. "The Brangelina fever"The Age। Reuters। ফেব্রুয়ারি ৬, ২০০৬। সংগৃহীত সেপ্টেম্বর ৮, ২০০৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]